নাইক্ষ্যংছড়িতে বৌদ্ধ জাদি মন্দিরে নব্য খ্রিস্টানদের হামলা: মূর্তি ভাংচুর


01

বাইশারী (বান্দরবান) প্রতিনিধি:

পার্বত্য বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড মধ্যম চাকপাড়া সংলগ্ন শিয়া পাড়া বৌদ্ধ জাদি মন্দিরে একদল নব্য খ্রিস্টান হামলা চালিয়ে একটি মূর্তি ভাংচুরসহ অনেক গুলো মূর্তি বেদী থেকে সরিয়ে ফেলার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে ঘটনাটি ঘটেছে বলে প্রত্যক্ষদর্শী চাক পাড়ার লোকজন জানান।

জানা যায়, সম্প্রতি বাইশারী ইউনিয়নের মিশনারী তৎপরতার ফলে উপজাতীয় পল্লী চাক পাড়ায় কিছু উঠতি বয়সী চাক যুবক বৌদ্ধ ধর্ম থেকে খ্রিস্টান ধর্মে ধর্মান্তরিত হয়েছে। এ নিয়ে বিগত ২০১৫ সালে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দায়ের করেছিল স্থানীয়রা। বিষয়টি নিয়ে আঞ্চলিক পরিষদ থেকে তদন্তপূর্বক গণশুনানীও হয়েছিল।

এ সংক্রান্ত আরো খবর পড়ুন


  1. ♦এবার মিশনারীদের বিরুদ্ধে ধর্মান্তরকরণের অভিযোগ আনলেন বান্দরবানের চাক সম্প্রদায়ের বৌদ্ধরা

  2.  চাক সম্প্রদায়কে ধর্মান্তরকরণ: আঞ্চলিক পরিষদের তদন্ত টিম নাইক্ষ্যংছড়িতে

  3. আলীকদমে আর্থিক লোভ দেখিয়ে বৌদ্ধ থেকে ৩৩ জনকে খৃস্টান বানানোর অভিযোগে সেভেন্থ ডে এ্যাডভেন্টিস্ট মিশনারীর ৫ জন আটক

  4.  ধর্মান্তরকরণের অভিযোগে বান্দরবানে এনজিও কমপেশন-এর কার্যক্রম বন্ধ

  5.  খাগড়াছড়িতে পর্যটকের ছদ্মাবরণে চলছে ধর্মান্তরকরণ মিশন

  6.  পার্বত্য তিন জেলায় খৃষ্টীয়করণে বেপরোয়া মিশনারী চার্চগুলো

  7.  পার্বত্য এলাকায় এনজিওর নামে ধর্মান্তরকরণ

  8.  স্বার্থের প্ররোচনায় হারিয়ে যাচ্ছে পাহাড়ের ঐতিহ্যবাহী ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর জীবন ও সংস্কৃতি

  9.  পার্বত্য এলাকায় এনজিওর নামে ধর্মান্তরকরণ

  10.  পার্বত্য চট্টগ্রামে অপ্রতিরুদ্ধ খ্রিস্টান মিশনারিরা

  11.  পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে সেনা-বাঙ্গালী প্রত্যাহার ও খ্রিস্টান অঞ্চল প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন


 

শুক্রবার নব্য খ্রিস্টান ও এলাকার বৌদ্ধ ধর্মীয় লোকজনের সাথে মন্দিরে উপাসনা নিয়ে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে জাদি মন্দিরে অবস্থিত মূর্তিগুলো বেদী থেকে সরিয়ে ফেলার চেষ্টা করে এবং একটি মূর্তি ভাংচুর করে তারা।

খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছান উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক তসলিম ইকবাল চৌধুরী, ছাত্রলীগ সভাপতি চুচুমং মার্মা, বাইশারী ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুল হক, আওয়ামী লীগ সভাপতি মো. আলম কোম্পানী, বাইশারী তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ আনিসুর রহমান, বাইশারী বাজার সভাপতি ও যুবলীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম বাহাদুর, ছাত্রলীগ সভাপতি মো. শাহীনসহ অন্যান্যরা।

মন্দির পরিচালনা কমিটির সভাপতি সাবেক ইউপি সদস্য থোয়াইচাহ্লা চাক বলেন, বিষয়টি স্থানীয় ভাবে মিমাংসার চেষ্টা চলছে তাই কোন ধরনের অভিযোগ করা হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *