সিএইচটি কমিশন ফিরে যাওয়ায় অবরোধ প্রত্যাহার


khagrachari pbcp pic 2 04-07-14

সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার :

পার্বত্য চট্টগ্রামের বাঙ্গালী সংগঠনগুলোর অবরোধের মুখে ফিরে গেছে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক আন্তর্জাতিক কমিশন (সিএইচটি কমিশন)। ফলে অবরোধ প্রত্যাহার করে নিয়েছে আহুত সংগঠনগুলো।

কমিশনের কর্মসুচী প্রতিহতের ঘোষনা দিয়ে রাঙ্গামাটি ও বান্দরবানে বাঙ্গালী সংগঠনগুলো সড়ক অবরোধসহ নানা কর্মসুচী নিয়ে মাঠে নামার ফলে কমিশনের পূর্বনির্ধারিত রাঙ্গামাটি ও বান্দরবান সফর বাতিল করে চট্টগ্রামে ফিরে যেতে বাধ্য হয়।

এদিকে কমিশন তাদের কর্মসুচী বাতিল করায় রাঙ্গামাটিতে শুক্রবার সকাল থেকে শুরু হওয়া দুই দিনের সড়ক ও নৌপথ অবরোধ কর্মসূচী প্রত্যাহার করে নিয়েছে বাঙ্গালী সংগঠনগুলো। শুক্রবার ছয় বাঙ্গালী সংগঠনের নেতারা দুপুর ১ টায় শহরের ভেদভেদী শুল্কফাঁড়ি এলাকায় তাৎক্ষনিক এক সংবাদ সম্মেলন করে অবরোধ কর্মসূচী প্রত্যাহারের ঘোষনা দেয়।

ছয় বাঙ্গালী সংগঠনের পক্ষে সমঅধিকার আন্দোলনের নেতা পেয়ার আহম্মেদ খান অবরোধ প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন। এসময় জালাল উদ্দিন চৌধুরী আলমগীর, এডভোকেট আবছার আলী, নূরজাহান বেগম, মোহাম্মদ ইব্রাহীম, আল আমিন ইমরানসহ বিভিন্ন সংগঠনের সিনিয়র নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে পার্বত্য চট্টগ্রাম কমিশনকে ‘বিতর্কিত’ ও ‘পক্ষপাতদুষ্ট’ আখ্যা দিয়ে তাদেরকে পার্বত্য এলাকায় অবাঞ্চিত ঘোষণা করে পার্বত্য চট্টগ্রাম সমঅধিকার আন্দোলন, পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদ, পার্বত্য নাগরিক পরিষদ, সমঅধিকার ছাত্র আন্দোলন, বাঙ্গলী ছাত্র ঐক্য পরিষদ এবং পার্বত্য গণ পরিষদ বৃহস্পতিবার বিকেলে এক সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে রাঙ্গামাটিতে ৪ ও ৫ জুলাই দুইদিনের সড়ক ও নৌপথ অবরোধের ডাক দেয়।

টানা দুইদিনের অবরোধের শুরুতেই রাঙ্গামাটি শহরে আভ্যন্তরীণ যান চলাচল অবরোধের আওতামুক্ত রাখা হলেও জেলা শহরের সাথে অন্যান্য জেলার সড়ক ও নৌ যোগাযোগ বন্ধ ছিলো। সকাল থেকে রাঙ্গামাটি-চট্টগ্রাম সড়কের মানিকছড়ি এবং রাঙ্গামাটি-খাগড়াছড়ি সড়কের বগাছড়ি এলাকায় বাঙ্গালী সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা পিকেটিং করেছে। শহরের প্রবেশমুখ ভেদভেদী এলাকাতে বেশকিছু গাড়ী আটক করে পিকেটাররা। পিকেটিংয়ের ফলে শহরের প্রবেশমুখে বিপুল সংখ্যক গাড়ী আটকে পড়ে। শহর থেকে কোন যানবাহনকেই বাইরে যেতে দেয়নি অবরোধকারিরা।

সমঅধিকার আন্দোলনের নেতা পেয়ার আহম্মেদ খান জানিয়েছেন, পক্ষপাততুষ্ট সিএইচটি কমিশন খাগড়াছড়ি থেকে ফিরে যাওয়ায় আমরা আমাদের অবরোধ প্রত্যাহার করে নিয়েছি। তারা যখনই পার্বত্য চট্টগ্রামে আসবে তখনই তাদেরকে প্রতিহত করা হবে। একই সময় নতুন কর্মসুচীও ঘোষণা করা হবে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক আন্তর্জাতিক কমিশনের (সিএইচটি) মুখপাত্র হানা শামস জানিয়েছেন,আমরা খাগড়াছড়ি থেকে বর্তমানে চট্টগ্রামে আছি। এখানেই আমরা আমাদের পরবর্তী করণীয় ঠিক করবো।

প্রসঙ্গত, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক আন্তর্জাতিক কমিশনের (সিএইচটি) একটি প্রতিনিধি দল গত ৩ জুলাই থেকে ৬ দিনের সফরে পার্বত্য চট্টগ্রাম আসে। দীঘিনালা ও খাগড়াছড়িতে বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদ বিক্ষোভের মুখেই তারা খাগড়াছড়ির বাবুছড়া ও দুইটিলার বিরোধপূর্ণ এলাকা পরিদর্শন করেন। ৪ থেকে ৬ জুলাই তাদের রাঙ্গামাটি ও বান্দরবান সফরের কথা ছিলো। বান্দরবানে টানা ৪ দিন এবং রাঙ্গামাটিতে টানা ২ দিন অবরোধের ডাক দিয়েছে স্থানীয় বাঙ্গালী সংগঠনগুলো। এবং অবশেষে বাঙ্গালীদের প্রবল অবরোধের মুখে প্রতিনিধি দলটি ফিরে যেতে বাধ্য হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *