শচীন-সনাথ-সৌরভদের কাতারে টাইগার তামিম!


পার্বত্যনিউজ ডেস্ক:

একদিনের ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী ব্যাটসম্যানদের তালিকায় শীর্ষে আছেন ভারতের শচীন টেন্ডুলকার। শুধু তাই নয়, বরং উপমহাদেশের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সবোর্চ্চ রান সংগ্রহকারী ওপেনার হিসেবেও সবার উপরে রয়েছেন শচীন।

ভারতের হয়ে ওপেনার হিসেবে ১৫,৩১০ রান করেছেন শচীন। আর এই ১৫,৩১০ রান করতে ৩৩৪ ম্যাচ খেলতে হয়েছে শচীনকে। শচীনের পরেই রয়েছেন লঙ্কান কিংবদন্তি সনাথ জয়সুরিয়া। শচীনের চেয়ে ৫৪ (৩৮৮) ম্যাচ বেশি খেলে ১২,৭৪০ রান করে উপমহাদেশের ওপেনারদের মধ্যে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন তিনি।

এদিকে, ওপেনার হিসেবে এ তালিকায় বর্তমানে ৭ নম্বরে রয়েছেন টাইগার ওপেনার তামিম ইকবাল। এখন পর্যন্ত ১৭৯ ম্যাচ খেলে ৬০১৮ রান করেছেন তামিম। এ তালিকায় থাকা অন্য ব্যাটসম্যানরা ওপেনিংয়ের পাশাপাশি অন্য পজিশনেও ওয়ানডেতে খেলেছেন। কিন্তু তামিম একমাত্র ব্যাটসম্যান যিনি ওপেন ছাড়া অন্য কোনো পজিশনে ব্যাটিং করেননি।

আর তাই এ তালিকায় উপরে উঠে আসার ক্ষমতা রয়েছে তামিমের। বর্তমানে তামিমের অবস্থান সাতে। আরও অন্তত পাঁচ বছর জাতীয় দলের হয়ে ওয়ানডে খেলার ক্ষমতা আছে তামিমের। আর এমনটি হলে টাইগার ড্যাশিং ওপেনার পিছনে ফেলতে পারবেন বিশ্ব ক্রিকেটের বেশ কয়েকজন তারকা ক্রিকেটারকে।

এ তালিকায় তামিমের উপরে আছেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলি, শ্রীলংকার তিলকরত্নে দিলশান, পাকিস্তানের সাইদ আনোয়ার এবং ভারতের বিরেন্দ্র শেহবাগ।

এক নজরে দেখে নিন উপমহাদেশের সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী ওপেনারদের তালিকাটি-

১। শচীন টেন্ডুলকার (ভারত)- ৩৩৪ ম্যাচ, ১৫৩১০ রান।

২। সনাথ জয়সুরিয়া (শ্রীলংকা)- ৩৮৮ ম্যাচ, ১২৭৪০ রান।

৩। সৌরভ গাঙ্গুলি (ভারত)- ২৪২ ম্যাচ, ৯১৪৬ রান।

৪। তিলকরত্নে দিলশান (শ্রীলংকা)- ১৭৯ ম্যাচ, ৭৩৬৭ রান।

৫। সাইদ আনোয়ার (পাকিস্তান)- ২২০ ম্যাচ, ৮১৫০ রান।

৬। ভিরেন্দ্র শেহবাগ (ভারত)- ২১৪ ম্যাচ, ৭৪১৮ রান।

৭। তামিম ইকবাল (বাংলাদেশ)- ১৭৯ ম্যাচ, ৬০১৮ রান।

৮। উপুল থারাঙ্গা (শ্রীলংকা)- ১৮৩ ম্যাচ, ৫৯০৬ রান।

৯। রোহিত শর্মা (ভারত)- ৯৬ ম্যাচ, ৪৬২৭ রান।

১০। রমিজ রাজা (পাকিস্তান)- ১২৫ ম্যাচ, ৩৯৩৪ রান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *