লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ভলান্টিয়ার খুন


টেকনাফ  প্রতিনিধি:

টেকনাফে প্রকাশ্য-দিবালোকে দুর্বৃত্তের গুলিতে মো. আবু ইয়াসের (২২) নামের এক রোহিঙ্গা যুবক নিহত হয়েছেন।

শুক্রবার (৩১ আগস্ট) বিকাল ৩টার দিকে টেকনাফের লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আবদুল করিমের দোকানের সামনে এঘটনা ঘটে। ঘটনার পরপরই খবর পেয়ে টেকনাফ মডেল থানা পুলিশ ও সেনাবাহিনী ঘটনাস্থলে যান।

গুলিতে নিহত রোহিঙ্গা যুবক ‘এফ’ ব্লক ১৫৬ নম্বর বাসার বাসিন্দা মো. ইসলামের পুত্র মো. আবু ইয়াসের (২২)। এ হত্যাকাণ্ডের জন্য উত্তর আলীখালী গ্রামের কালা চাঁনের পুত্র রিদুয়ান ও ছৈয়দ আলমকে দায়ী করেছেন নিহত রোহিঙ্গা যুবক মো. ইয়াসেরের পারিবার। প্রকাশ্যে-দিবালোকে দুর্বৃত্তের গুলিতে রোহিঙ্গা যুবক খুনের ঘটনায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পজুড়ে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

নিহত রোহিঙ্গা যুবক মো. আবু ইয়াসেরের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মো. আবু ইয়াসের (২২) ক্যাম্প কমিটির নিযুক্ত ভলান্টিয়ার ছিলেন। দায়িত্ব পালনকালে অভিযুক্ত বখাটে দুর্বৃত্তরা ক্যাম্পে ঢুকে অবাদে বিচরণ করে অশালীন আচরন করলে মো. আবু ইয়াসের বাধা প্রদান করত। এনিয়ে তাদের মধ্যে মতবিরোধ দেখা দেয়। এতে ক্ষীপ্ত হয়ে অবৈধ অস্ত্র নিয়ে প্রকাশ্যে-দিবালোকে ক্যাম্পে ঢুকে আবদুল করিমের দোকানের সামনে ভলান্টিয়ার মো. আবু ইয়াসেরের বুকে গুলি করে। ঘটনাস্থলেই মো. ইয়াসের মারা যান। গুলি করার পর দুর্বৃত্তরা বীরদর্পে পালিয়ে যায়।

এব্যপারে টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রনজিত কুমার বড়ুয়া দুর্বৃত্তের গুলিতে লেদা অনিবন্ধিত ক্যাম্পের এক  রোহিঙ্গা যুবক নিহত হওয়ার ঘটনা নিশ্চিত করে বলেন ‘খবর পাওয়ার সাথে সাথেই পুলিশ দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। দুর্বৃত্তদের ধরতে অভিযান চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *