লামায় মার্মা কলেজ ছাত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু


লামা প্রতিনিধি:

উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের অংহ্লারী উক্যাচিং কারবারী পাড়ায় ম্যাহ্লাউ মার্মা (১৯) নামক এক মার্মা কিশোরীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। নিহতের পরিবারের দাবি তাকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। লামা থানার অফিসার ইনচার্জ অপ্পেলা রাজু নাহা জানিয়েছেন পুলিশ নিহত কিশোরীর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে। তবে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরিকালে কিশোরীর শরীরে হত্যা বা ধর্ষণের কোনো আলামত প্রাথমিকভাবে মিলেনি।

থানার অফিসার ইনচার্জ জানায়, নিহত কিশোরীর বাবা ক্রা হ্লা অং মার্মা সকালে পুলিশকে খবর দিয়ে জানান তার  কলেজ পড়ুয়া কন্যা ম্যাহ্লাউ মার্মা শনিবার দিনগত রাতের কোনো এক সময় হত্যার শিকার হয়েছে। ঘটনার সপ্তাহ খানেকপূর্বে নিহতের মা মামুই মার্মানী ছোট ছেলে জেন বাবু মার্মা (১১) কে নিয়ে খাগড়াছড়িতে বড় মেয়ের শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে যান। ঘরে অবস্থান করছিলেন কিশোরী ম্যাহ্লাউ মার্মা ও তার বাবা  ক্রা হ্লা অং মার্মা। রাতের কোন সময় এই ঘটনা ঘটেছে নিহতের পিতা পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে তা জানাতে পারেনি। তাছাড়া বাহির থেকে কেহ এসেছিলোকিনা তাও জানতে পারেননি।

নিহতের ফুফু মাধকে মার্মানী বলেন, মেয়ের গায়ের কাপড় খোলা ছিল এবং তার শরীরে ধর্ষণের আলামত রয়েছে। আমরা ধারনা করছি ধর্ষণের পরে তাকে বালিশ চাপা দিয়ে মারা হয়েছে। তার গলায় ছোপ ছোপ কালো দাগ আছে বলে তিনি দাবি করেন।

কিশোরীর মৃত্যুর বিষয়ে অফিসার ইনচার্জ অপ্পেলা রাজু নাহা বলেন, মৃত্যুর বিষয়টি নিয়ে আমাকে ভাবিয়ে তুলেছে। মেয়ের বাবা কোনোভাবেই মুখ খুলছেন না। আমরা লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নিব। কিশোরী ম্যাহ্লাউ মার্মা এবছর লামা মাতামুহুরী কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষা দিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *