রোয়াংছড়িতে কমিউনিটি ক্লিনিকের জাতীয়করণের দাবিতে কর্মসূচি


রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি:

বান্দরবানে রোয়াংছড়ি উপজেলা চাকরি জাতীয়করণের দাবিতে কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডার (সিএইচসিপি) কমিউনিটি ক্লিনিকে কর্মরতদের অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে।

কেন্দ্রীয় কর্মসূচি ঘোষণার অংশ হিসেবে শনিবার (২০ জানুয়ারি) থেকে শুরু করে স্ব স্ব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত এ অবস্থান কর্মসূচি পালন ও চাকরি জাতীয়করণের জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য ও প. প. কর্মকর্তার ডা. মংহ্লাপ্রু মারমা মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদানের মধ্যে দিয়ে রোববার (২২ জানুয়ারি) ৩দিনব্যাপী এ কর্মসূচি পালন শেষ করে।

এ অবস্থান কর্মসূচির সময়ে উপজেলার সকল কমিউনিটি ক্লিনিক সেবা বন্ধ ছিল। অবস্থান কর্মসূচি ২০ জানুয়ারি থেকে ২২ জানুয়ারি প্রত্যেক দিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত চলে। অবিলম্বে তাদের চাকরি জাতীয়করণ না করা হলে ২৪ থেকে ২৬ জানুয়ারি কর্মবিরতি পালন করে কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারিও দেয়া হয়।

এদিকে কর্মসূচি পালনের ফলে কমিউনিটি ক্লিনিকগুলো বন্ধ থাকায় দুর্ভোগে পড়েছে চিকিৎসা সেবা নিতে আসা রোগীরা।

জানা যায়, আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি প্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান কমিউনিটি ক্লিনিক হতে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের গ্রামীণ সেবা বঞ্চিত জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করণে কাজ করেছে। এতে গর্ভবতী মায়ের সেবা, শিশু স্বাস্থ্য, স্বাভাবিক প্রসব করানো, সাধারণ রোগের চিকিৎসা সেবাসহ রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তুলতে স্বাস্থ্য শিক্ষাও প্রদান করা হয়।

এছাড়া দুর্গম এলাকায় মেডিকেল টিম হিসেবে বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় কাজ করে কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডার (সিএইচসিপি)। এর পাশাপাশি গর্ভবতী মহিলা ও শিশুদের অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন, ই-হেলথ সেবাসহ নানাধিক সেবা দিচ্ছে। কিন্তু এখনো চাকরি জাতীয়করণ না হওয়ায় তারা হতাশায় ভুগছেন।

কচ্ছপতলী কমিউনিটি ক্লিনিকের হেলথ কেয়ার প্রোভাইডার ও বান্দরবান কর্মচারী এসোসিয়েশনে সাধারণ সম্পাদক আনন্ত তঞ্চঙ্গ্যা বলেন, আমরা কোন কাজের হেলা না করে মনোযোগ দিয়ে জনগণকে সেবা দিয়ে যাচ্ছি। তবুও চাকরি জাতীয়করণ করা হচ্ছে না। তাই আমাদের দাবি দ্রুত বাস্তবায়নের জন্য সরকারের নিকট জোর দাবি জানাচ্ছি। কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষিত কর্মসূচি অনুসারে ২৪, ২৫ জানুয়ারি কর্মবিরতি পালিত হবে। এরপরও দাবি আদায় না হলে কেন্দ্রীয় কমিটির ঘোষণা অনুযায়ী যে কোন কর্মসূচি পালনে আমরা প্রস্তুত আছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *