রোহিঙ্গা বহনকারী ৮ নৌকা ফেরত পাঠিয়েছে বিজিবি


রোহিঙ্গা

টেকনাফ প্রতিনিধি:

টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা ৮টি রোহিঙ্গাবাহী নৌকা বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের সময় প্রায় ৯০ জন এবং উখিয়া সীমান্ত দিয়ে আসা প্রায় ৩০জন রোহিঙ্গা মুসলমানকে মিয়ানমারে ফেরত পাঠিয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার ভোর পর্যন্ত নাফ নদীর তিনটি পয়েন্ট দিয়ে রোহিঙ্গাবাহী ওই সব নৌকা বাংলাদেশ সীমান্তে অনুপ্রবেশের চেষ্টা চালায়। এসময় তাদের মিয়ানমারের দিকে ফেরত পাঠানো হয়।

টেকনাফ বিজিবি-২ ব্যাটালিয়নের উপ অধিনায়ক মেজর আবু রাসেল সিদ্দিকী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে দেশটির সেনাবাহিনীর হাতে নির্যাতিত হয়ে আসা এসব রোহিঙ্গা মুসলমান ৮টি নৌকায় করে তিনটি পয়েন্ট দিয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করে।

এসময় নাফ নদীর জিমংখালী, ল্যাদা ও ডমমিয়া পয়েন্টের সীমান্তের শূন্যরেখা থেকে ওইসব নৌকা মিয়ানমারের দিকে ফেরত পাঠায় টহলরত বিজিবি সদস্যরা।

মেজর আবু রাসেল সিদ্দিকী বলেন, সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার ভোর পর্যন্ত এসব নৌকায় প্রায় ৯০ জনের মতো রোহিঙ্গা ছিল। প্রতিটি নৌকায় নারী, পুরুষ ও শিশুসহ ১০-১২ জনের মতো ছিল।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের অনুপ্রবেশ ঠেকাতে টেকনাফের নাফ নদীসহ সীমান্তের প্রতিটি পয়েন্টে টহল জোরদার রয়েছে।

এদিকে উখিয়া সীমান্তের দুটি পয়েন্ট দিয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের সময় প্রায় ২৫-৩০ জন রোহিঙ্গা নারী, পুরুষ ও শিশুকে মিয়ানমারে ফেরত পাঠিয়েছে বিজিবি। উখিয়া বিজিবি-৩৪ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল ইমরান উল্লাহ সরকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

৯ অক্টোবর রাখাইন রাজ্যের সীমান্ত এলাকায় দুর্বৃত্তদের হামলায় মিয়ানমার পুলিশ বাহিনীর ৯ সদস্য নিহত হন। এরপর থেকে ওই রাজ্যে মুসলমান বিরোধী অভিযানে নামে দেশটি সেনাবাহিনী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *