রোহিঙ্গাদের ত্রাণ দিয়ে মানবিক দায়িত্ব পালন করতে হবে



রামু প্রতিনিধি:
কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ সাইমুম সরওয়ার কমল বলেছেন, রোহিঙ্গা নির্যাতনের প্রতিবাদে বিশ্ববাসী স্বোচ্চার হলেও মায়ানমারে রোহিঙ্গা নির্যাতন এখনো বন্ধ হয়নি। এখনো রাখাইন রাজ্যে মুসলিমদের উপর বর্বর নির্যাতন, হত্যা, ধর্ষণ, বসত ঘরে অগ্নিসংযোগ করা হচ্ছে। রোহিঙ্গাদের রক্তে আরাকানের সবুজ জমিন এখনো রক্তে লাল হয়ে যাচ্ছে, লাল হয়ে যাচ্ছে নাফ নদীর পানি। ভেসে উঠছে রোহিঙ্গাদের মৃতদেহ। নিরীহ মানুষকে হত্যা ও নারী-শিশুকে ধর্ষন-নির্যাতন চালিয়ে বিশ্বে কোন শাসক সফল হয়নি। মায়ানমারের রাক্ষুসে অং সান সুচিকে এ বর্বরতার জন্য কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হবে। তিনি জাতি সংঘ সহ বিশ^ নেতৃবৃন্দকে রোহিঙ্গা নির্যাতন অবিলম্বে বন্ধ করা এবং মায়ানমারের সামরিক জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানান।

এমপি কমল বলেন, ইতিপূর্বে রামুসহ দেশ বিদেশে বন্যা, ঘূর্ণিঝড়, ভূমিকম্পসহ প্রাকৃতিক দূর্যোগে ত্রাণ দিয়েছি। কিন্তু এবার রোহিঙ্গাদের জন্য আমি নিজেই জনতার কাছে ত্রাণ চাইতে এসেছি। সরকার, এনজিও এবং আর্ন্তজাতিক সংস্থা ও দেশ সমূহের ত্রাণ তৎপরতা শুরু হলেও সব ত্রাণ এখন আসছে না। তাই বিশাল রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠিকে বাঁচাতে হলে আমাদের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। রোহিঙ্গারা অসহায়। তাদের সহায়তা করা মানবিক দায়িত্ব।

সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল রামু উপজেলার রাজারকুল ইউনিয়নবাসীর উদ্যোগে রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ উপহার সংগ্রহ উপলক্ষ্যে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন। রবিবার (১৫ অক্টোবর) সন্ধ্যায় রাজারকুল পাঞ্জেখানা স্টেশনে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন, রাজারকুল ইউনিয়ন পরিষদের মুফিজুর রহমান মুফিজ।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা জাফর আলম চৌধুরী। তিনি বলেন, অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে কক্সবাজারের শ্রেষ্ট সমাজসেবক হিসেবে ভূষিত হয়েছিলেন, সাবেক সাংসদ  ও রাষ্ট্রদূত মরহুম আলহাজ ওসমান সরওয়ার আলম চৌধুরী। তাঁর উত্তরসুরি হিসেবে সংসদ সদস্য আলহাজ সাইমুম সরওয়ার কমল মানুষের কল্যাণ ও সমাজসেবামূলক কাজে নিজেকে উৎসর্গ করছেন।অসহায়-নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের জন্য রামুবাসীর সম্মিলিত ত্রাণ সংগ্রহ কার্যক্রম সাংসদ কমলের একটি অনন্য মানবিক দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।

সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রামু উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগ সভাপতি রিয়াজ উল আলম বলেন, রোহিঙ্গাদের জন্য রামুবাসীর ত্রান সংগ্রহ ও প্রদানের উদ্যোগ একটি সময়োপযোগি পদক্ষেপ। কক্সবাজারের মাটি ও মানুষের প্রিয় নেতা এমপি কমল অতীতের মতো এবারও মানবিক বিপর্যয়ে এ ধরনের উদ্যোগ নিয়েছেন। ত্রান সংগ্রহ কার্যক্রমে রামুবাসীর স্বতঃস্ফূর্ত সাড়া মিলেছে। এভাবে ত্রাণ সংগ্রহ অব্যাহত থাকলে কদিন পরেই রামু থেকে রোহিঙ্গাদের জন্য রেকর্ড পরিমান ত্রাণের বহর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নেয়া সম্ভব হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *