রক্তের পিপাসা মিটেনি ইউপিডিএফ সন্ত্রাসী চক্রের


পার্বত্যনিউজ রিপোর্ট:

লংগদু উপজেলা হতে ৫ কিমি পশ্চিমে পাহাড়ি জনবসতিতে অবস্থিত দোসর /স্টিলব্রীজ বাজার। শুক্রবার বাজারের দিন। ভোরের আলো ফুটে উঠার পর মানুষ যখন নিত্য প্রযোজনীয় জিনিসপত্র কেনা বেচার জন্য বাজারে জড়ো হওয়া শুরু করে, ঠিক তখনই বেরিয়ে আসে লুকিয়ে থাকা ইউপিডিএফ (মূল)এর সশস্ত্র সন্ত্রাসী দল। শুরু করে অস্ত্রের তাণ্ডব। নিজেদের আধিপত্ত বিস্তারের জন্য বাজারের মধ্যে গুলি করে হত্যা করে রঞ্জন  চাকমাকে (জংলী চাকমা)।

জংলী চাকমা গত ৪/৫ বছর আগে জেএসএস সংস্কার এর সদস্য থাকলেও বর্তমানে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসে পরিবার নিয়ে কৃষি কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতে ছিল। ইউপিডিএফ’র সশস্ত্র দল মুহূর্তেই তার জীবন স্তব্ধ করে দিল। আধিপত্ত বিস্তারের নামে ভয়ঙ্কর হত্যাকাণ্ড চালিয়ে ইউপিডিএফ’র সশস্ত্র দল রক্তের বন্যা বইয়ে দিয়েছে।

এছাড়া এস এস (সং) এর সুমতি চাকমাকে (৩০)চড় থাপ্পর মারলেও তাকে প্রাণে মারেনি। ঘটনার পর পরই লংগদু সেনা জোন থেকে টহল আসে কিন্তু তার আগেই সরে পরে ইউপিডিএফ এর সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা। সামরিক বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে লংগদু থানা পুলিশ রঞ্জন চাকমার লাশ থানায় নিয়ে যায়। পুলিশের কাছ থেকে জানা যায়  পোস্টমর্টেম এবং মামলার কাজ প্রক্রিয়াধীন আছে। তারা আরও বলেন, অপরাধীদের সনাক্ত করা হবে এবং আইনের আওতায় এনে শাস্তিদানের ব্যবসস্থা করা হবে।

জনসাধারণ ইউপিডিএফ’র এ বর্বরতা থেকে মুক্তি চাইলেও এই সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের তাণ্ডবের মুখে তারা নিরুপায়। হয়তো আর এক রঞ্জন চাকমার প্রান হননে প্রস্তুতি নিচ্ছে হায়েনার দল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *