যুবলীগ নেতার উপর হামলায় ইউপিডিএফ-কে দায়ী করে খাগড়াছড়িতে বিক্ষোভ


নিজস্ব প্রতিবেদক, খাগড়াছড়ি:

খাগড়াছড়ির পানছড়ি সদর ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নাজির মাহমুদের উপর হামলার ঘটনায় ইউপিডিএফকে(প্রসীত) দায়ী করে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে খাগড়াছড়ি জেলা যুবলীগ।

সমাবেশ থেকে ইউপিডিএফ-কে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে চিহিৃত করে নিষিদ্ধের দাবি জানানো হয়।

প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তরা বলেন, চিহিৃত দেশদ্রোহী ইউপিডিএফের সন্ত্রাসীদের দ্রুত সময়ের মধ্যে আটকসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে আওয়ামী লীগ ঘরে বসে থাকবে না। নির্বাচন পরবর্তী সময়ে ইউপিডিএফ বিভিন্ন উপজেলায় আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সম্প্রদায়ের নেতাকর্মীদের উপর হামলা চালাচ্ছে বলেও অভিযোগ করা হয়। তাই নাজির মাহমুদকে হত্যার চেষ্টাকারীদের অভিলম্বে গ্রেফতারের দাবি জানান।

বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় আওয়ামী লীগের কদমতলীস্থ অস্থায়ী কার্যালয় থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে শহরের মুক্ত মঞ্চে এসে প্রতিবাদ সমাবেশ করে।

খাগড়াছড়ি জেলা যুবলীগের সভাপতি যতন কুমার ত্রিপুরার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক কে এম ঈসমাইল হোসেনের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও পাজেপ সদস্য নির্মলেন্দু চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক মংশেইপ্রু চৌধুরী অপু, খাগড়াছড়ি জেলার সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার রইস উদ্দিন প্রমুখ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক কামাল উদ্দিন পাটোয়ারী, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সাংবাদিক নুরুল আজম, সাধারণ সম্পাদক চন্দন কুমার দে, পাজেপ সদস্য পার্থ ত্রিপুরা জুয়েল প্রমুখ।

মঙ্গলবার(৮ জানুয়ারি) সন্ধ্যা ৭টার দিকে পানছড়ি বাজারের দুর্বৃত্তদের  গুলিতে ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. নাজির হোসেন গুরুতর আহত হয়। তাকে প্রথমে খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে ও পরে চট্টগ্রাম সিএমএইচ-এ প্রেরণ করা হয়।

পানছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত  কর্মকর্তা (ওসি) মো. নুরুল আলম জানান,ইউপি চেয়ারম্যান মো. নাজির মাহমুদকে গুলির ঘটনায় এখনো মামলা হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *