মিয়ানমারে রোহিঙ্গারা গণহত্যা ও ধর্ষণসহ বর্বরোচিত নির্যাতনের শিকার


কক্সবাজার প্রতিনিধি:

অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কোঅপারেশন ‘ওআইসি’র ১৩ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল দুইদিন ধরে কক্সবাজারে উখিয়ার কুতুপালং ও বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেছেন। পরিদর্শন শেষে শুক্রবার(৫জানুয়ারি) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্প -২ এলাকায় সাংবাদিকদের ব্রিফিং করেন।

এসময় ‘ওআইসি’র ইন্ডিপেন্ডেন্ট পার্মানেন্ট হিউম্যান রাইটস কমিটি ‘আইপিএইচআরসি’ চেয়ারপার্সন ড. রশিদ আল বালুসি সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা দুইদিন ধরে উখিয়ার কুতুপালং ও বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকা পরিদর্শন করেছি এবং নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের সাথে কথা বলেছি। এতে আমরা যতটুকু জেনেছি মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গা মুসলিমদের উপর গণহত্যা ও ধর্ষণসহ বর্বরোচিত নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। তাই আমরা ওআইসি’র কাছে প্রতিবেদন পেস করবো।

প্রতিনিধিদলের সাথে ছিলেন, ওআইসি’র  ভাইস চেয়ারম্যান মেড এসকে ক্যাগওয়া, ভাইস চেয়ারম্যান ড. রাইহানাহ বিতে আবদুল্লাহ, সাবেক রাষ্ট্রদূত কমিটির সদস্য মোহাম্মদ জমির, আবদুল ওহাব, মাহমুদ মোস্তফা আফিফি, এডামা নানা, নির্বাহী পরিচালক মার্গোব সেলিম বাট, হাফিদ এল হাসমি, আকমেদ আল গামদি, হাসান আবেদিন, মাহা আকিল, আব্দুল্লাহ কাবি ও মোহাম্মদ গালাবা সহ বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

এর আগে গতকাল বৃহস্পতিবার বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের নাগরিক ইস্যুতে কক্সবাজার পৌঁছেন ১৩ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল। ওইদিন দুপুরে জেলা প্রশাসনের সাথে এক মতবিনিময় সভায় যোগ দেন প্রতিনিধি দল। সভায় কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. আলী হোসেন উখিয়া ও টেকনাফে অবস্থানরত রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সার্বিক পরিস্থিতি তুলে ধরেন। এ সময় ওআইসি’র প্রতিনিধিদল রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে বাংলাদেশের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দেন।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *