মাতৃভাষায় প্রাথমিক শিক্ষা চালুসহ ৫ দফা দাবিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় অভিমুখে পিসিপি’র বিক্ষোভ


PCP protes dhaka, 18.02.2016

প্রেস বিজ্ঞপ্তি : সকল জাতিসত্তার মাতৃভাষায় প্রাথমিক শিক্ষা চালুসহ শিক্ষা সংক্রান্ত ৫ দফা বাস্তবায়ন এবং পার্বত্য চট্টগ্রামে বন্ধ ‘সরকারি স্কুল ছাত্রাবাস’ চালুর দাবিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় অভিমুখে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে শিক্ষামন্ত্রীর বরাবরে স্মারকলিপি পেশ করেছে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি)।

পিসিপির কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক সুনয়ন চাকমার পাঠানো বিবৃতি থেকে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্য সম্মুখে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। পিসিপির কেন্দ্রীয় সভাপতি সিমন চাকমার সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সভাপতি মাইকেল চাকমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশেনের কেন্দ্রীয় সভাপতি নিরূপা চাকমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সাবেক সভাপতি থুইক্যসিং মারমা। এতে সংহতি জানিয়ে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল মাহমুদ ও ছাত্র গণমঞ্চের সাংগঠনিক সম্পাদক বাবুল বিশ্বাস। সমাবেশে স্বাগত বক্তব্য রাখেন পিসিপি’র কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অনিল চাকমা।

বক্তারা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামসহ সারাদেশে প্রায় অর্ধ শত জাতিসত্তা রয়েছে। এসব জাতিসত্তার স্বতন্ত্র ভাষা-সংস্কৃতি রয়েছে। কিন্তু এসব ভাষা-সংস্কৃতি চরমভাবে অবহেলিত করে রাখা হয়েছে। রাষ্ট্রীয়ভাবে এসব ভাষা-সংস্কৃতি সংরক্ষণের কোন প্রচেষ্টা নেই। বরং কিভাবে এসব ভাষা সংস্কৃতি বিনষ্ট করা যায় রাষ্ট্রীয়ভাবে সে প্রক্রিয়া জারি রয়েছে।

সিমন চাকমা বলেন, পিসিপি ২০০০ সাল থেকে মাতৃভাষা শিক্ষা লাভসহ ৫দফা দাবিতে আন্দোলন করে আসছে। ২০০৩ সালে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রীর বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। প্রধানমন্ত্রী কার্যলয় থেকে দাবি বাস্তবায়নের আশ্বাস দেয়া হয়েছে। কিন্তু এ যাবৎ কোন সরকার সেই দাবি পূরণ করেনি। আন্দোলনের মুখে আওয়ামী সরকারের শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ মাতৃভাষার মাধ্যমে প্রাথমিক শিক্ষা পাঠদান ২০১৪ সাল থেকে চালু করা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছিলেন। কিন্তু আজ অবধি তার প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না।

সমাবেশের পর বিভিন্ন দাবি সম্বলিত প্ল্যাকার্ড নিয়ে মিছিল সহকারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিন, কলাভবন ঘুরে টিএসসি দোয়েল চত্বর ঘুরে শিক্ষা মন্ত্রানালয় অভিমুখে স্মারকলিপি দিতে গেলে শিক্ষা অধিকার চত্বরে পুলিশ বাধার মুখে পড়ে। এরপর পিসিপি’র সভাপতি সিমন চাকমা ও সাধারণ সম্পাদক বিপুল চাকমার নেতৃত্বে ৮সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল শিক্ষামন্ত্রীর বরাবরে স্মারকলিলিপি পেশ করে। শিক্ষামন্ত্রী উপস্থিত না থাকায় তার পক্ষে স্মারকলিপি গ্রহণ করেন তাঁর ব্যক্তিগত কর্মকর্তা মোতালেব হোসেন।

উল্লেখ্য, পিসিপি’র শিক্ষা সংক্রান্ত ৫দফা দাবি হচ্ছে- পার্বত্য চট্টগ্রামে সকল জাতিসত্তার মাতৃভাষার মাধ্যমে প্রাথমিক শিক্ষার অধিকার নিশ্চিত করা; স্কুল-কলেজের পাঠ্যপুস্তকে জাতিসত্তার প্রতি অবমাননাকর বক্তব্য বাদ দেয়া; পাহাড়ি জাতিসত্তার বীরত্বব্যঞ্জক কাহিনী এবং সঠিক সংগ্রামী ইতিহাস স্কুল- কলেজের পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত করা; বাংলাদেশে সকল জাতিসত্তার সংক্ষিপ্ত সঠিক তথ্য সম্বলিত পরিচিতিমূলক রচনা জাতীয় শিক্ষাক্রমে অন্তর্ভুক্ত করা এবং পার্বত্য কোটা বাতিল করে পাহাড়িদের জন্য বিশেষ কোটা চালু করা।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *