মাটিরাঙ্গায় নদীর পেটে চরপাড়া সড়ক


 

নিজস্ব প্রতিবেদক, মাটিরাঙ্গা:

টানা বর্ষণ আর পাহাড়ি ঢলে নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে মাটিরাঙ্গার পৌর শহরের বুকে অবস্থিত জনবসতিপুর্ণ চরপাড়া যাতায়াতের একমাত্র সড়কটি। সড়কটি ধলিয়া খালের পেটে তলিয়ে যাওয়ায় চরপাড়ার অধিবাসীদের যাতায়াতে চরম ভোগান্তি তৈরী হয়েছে। নদী ভাঙনরোধে আগাম ব্যবস্থা না নেয়ায় এমন অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে বলে দাবী স্থানীয় অধিবাসীদের।

সরেজমিনে চরপাড়া ঘুরে দেখা গেছে, শনিবার সকালের দিকে স্থানীয় অধিবাসীসহ রাস্তা ধরে চলাচলারী মানুষের চোখের সামনেই পাকা সড়কটি নদীর বুকে হারিয়ে যায়। নিজেদের চলাচলের একমাত্র সড়কটি নদীর পেটে চলে যাচ্ছে এমন দৃশ্য দেখেও কারোরই যেন কিছু করার ছিলনা। সকলের অসহায়ের মতো তাকিয়ে ছিল। শুধুমাত্র পাকা সড়ক নয়, সড়কের সাথে সাথে নদীর পেটে চলে গেছে ফলজ গাছও।

স্থানীয় অধিবাসী ও সড়ক ভাঙনের প্রত্যক্ষদর্শী সুনী ত্রিপুরা জানান, পাহাড়ী ঢলে নেমে আসা পানির তোড়ে চোখের পলকেই নদীগর্বে বিলীন হয়ে যাচ্ছে চরপাড়া সড়কটি ধরে বসবাসকারী হাজারো মানুষের যোগাযোগের একমাত্র সড়কটি। টানা ভারী বর্ষণ অব্যাহত থাকলে ধলিয়া খালের পাড়ে বসবাসকারী অনেকেরই ঘরবাড়ি নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন তিনি।

ভাঙনের বিষয়টি জানার পরপরই ভাঙন কবলিত চরপাড়া এলাকা পরিদর্শন করেছেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিএম মশিউর রহমান। এসময় তিনি ভাঙনের ভয়াবহতা দেখে হতাশ হয়ে পড়েন। বিষয়টি তিনি দ্রুত জেলা প্রশাসকসহ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানাবেন বলেও এ প্রতিনিধিকে জানান। এসময় মাটিরাঙ্গা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রাজকুমার শীল ও মাটিরাঙ্গা পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আলী মিয়া তার সাথে ছিলেন।

এদিকে ধলিয়া খালের ভাঙন রোধে সরকারের দ্রুত পদক্ষেপ কামনা করেছেন মাটিরাঙ্গা পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আলী মিয়া। ভাঙন রোধ করা না গেলে চরপাড়ার বিশাল অংশজুড়ে থাকা জনবসতি আর ফসলী জমি নদীর পেটে তলিয়ে যাবে এমন আশঙ্কা তার।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *