মহেশখালী চ্যানেলে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান ২২ হাজার কারেন্ট জালসহ ৫০ কেজি পোনা মাছ জব্দ


মহেশখালী প্রতিনিধি:

সাগরের মহেশখালী চ্যানেলে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালিয়ে ২২ হাজার মিটার নিষিদ্ধ জাল ও ৫০ কেজি মাছের পোনা জব্দ করা হয়েছে।

বুধবার সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ৫ঘন্টাব্যাপী মহেশখালী চ্যানেলের পূর্ব পাশে সদর উপজেলার আওতাধীন চৌফলদন্ডি, পোকখালী ও গোমাতলীর উপকূল এ অভিযান চলে। এতে জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফারজানা প্রিয়াংকা।

জানা গেছে, সকালে গোমাতলী এলাকায় সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সাতজন জেলে মাছ ধরার প্রাক্কালে দূর থেকে মোবাইল কোর্টের উপস্থিতি টের পেয়ে জাল ফেলে পালিয়ে যায়। এ সময় ফেলে যাওয়া প্রায় ২ হাজার মিটার নিষিদ্ধ চর জাল ও প্রায় ৫০ কেজি পোনামাছ এবং পরে অন্যান্য এলাকা থেকে প্রায় ২০ হাজার মিটার নিষিদ্ধ চরঘেরা জাল জব্দ করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফারজানা প্রিয়াংকা বলেন, জেলা প্রশাসক মো. আলী হোসেনের নির্দেশনানুযায়ী নিয়মিতভাবে পরিচালিত হচ্ছে এ অভিযান। ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশসহ অন্যান্য মাছ ধরায় যারা লিপ্ত রয়েছে বা মাছ ধরতে নিষিদ্ধ জাল ব্যবহার করছে তাদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা অব্যাহত থাকবে।

অভিযানে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের সাথে ছিলেন জেলা মৎস্য কর্মকর্তা ড. মো. আব্দুল অলীম, সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা ড. মঈনউদ্দিন আহমেদ, কোস্টগার্ড এবং আনসার ব্যাটালিয়নের সদস্য, পেশকার মিজানুর রহমানসহ সংশ্লিষ্টরা।

পরে জব্দকৃত ২২ হাজার মিটার জাল সংশ্লিষ্টদের উপস্থিতিতে পুড়িয়ে ফেলা হয় এবং মাছগুলো ২টি এতিমখানায় দিয়ে দেয়া হয়। জব্দকৃত জাল ও মাছের আনুমানিক মূল্য প্রায় ছয় লক্ষ ছাপ্পান্ন হাজার টাকা বলে মৎস্য অফিস সূত্রে জানা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *