মহেশখালীর কালারমারছড়াতে গৃহবধুকে গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যার অভিযোগে মামলা দায়ের


মহেশখালী প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের মহেশখালীতে পারভীন আক্তার (২৬) নামের এক গৃহবধুকে যৌতুকের দাবিতে পিটিয়ে ও গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যার অভিযোগে মামলা দায়ের করেছে নিহতের পরিবার। ঘটনাটি ঘটেছে ২৯ অক্টোবর উপজেলার কালারমার ছড়া ইউনিয়নের ছামিরা ঘোনা গ্রামে।

নিহত গৃহবধু পারভিন আক্তার ওই গ্রামের মৃত ফজল করিমের পুত্র ওবায়দুল হক প্রকাশ সোনাইয়ার স্ত্রী এবং হোয়ানক ইউনিয়নের হরিয়ার ছড়া গ্রামের বদিউল আলমের মেয়ে। সোমবার লাশ ময়না তদন্ত পর রাত ৮টার দিকে মরহুমের জানাযার নামাজ শেষে নিজ জন্মভূমি হরিয়ারছড়া কবর স্থানে চির নিদ্রায় শায়িত করা হয়। তার অকাল মৃত্যুতে পরিবারের চলছে শোকের মাতম।

এ ব্যাপারে নিহতের বড় ভাই আক্তার হোসেন বাদী হয়ে নিহত গৃহবধু পারভিন আক্তারের স্বামী ওবায়দুল হক প্রকাশ সোনাইয়াকে প্রধান আসামি করে মহেশখালী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার অন্যন্যা আসামিরা হল তার মা শাকেরা খাতুন, সহোদর বেলাল হোসাইন। তিন জনই পলাতক রয়েছে।

নিহতের ভাই আক্তার হোসেন জানান, নিহত পারভিন আক্তারকে শনিবার দিবাগত রাতে যৌতুকের দাবিতে মারপিট করে পরে গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যা করা হয়েছে। পুলিশ খবর পেয়ে  রবিবার(২৯ অক্টোবর) সকাল ১১টার দিকে লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।  তিনি বাদী হয়ে গতকাল মামলাটি দায়ের করে বলে জানান। এলাকার অপর একটি সূত্র জানান, পারিবারিক কলহের জের ধরে পারভিন গলায় ফাঁস দিয়ে আত্ম হত্যা করেছে।

কালারমারছড়া পুলিশ ফাঁড়ির আইসি এস আই রাজু আহমেদ গাজী মামলা দায়েরে’র সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। হত্যাকারীদের আটক করতে পুলিশের অভিযান জোরদার রয়েছে বলেও জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *