বিলাইছড়িতে পূজারীদের উপর সন্ত্রাসীদের গুলি, শিশু গুলিবিদ্ধ, আটক ৭


নিজস্ব প্রতিনিধি:
রাঙামাটির দূর্গম বিলাইছড়ি উপজেলায় একদল পূজারীদের উপর গুলি বর্ষণ করেছে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা। বুধবার (২১মার্চ) দুপুর আড়াইটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা ৭ জনকে আটক করে নিরাপত্তা বাহিনীর কাছে হস্তান্তর করেছে। এ ঘটনায় দু’জন আহত হয়েছে। আহতরা হলেন- সুনীল তঞ্চাঙ্গ্যা (০৯), এবং সুন্দর বাবু চাকমা (২১)।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, ভিক্ষুক ও শ্রবণসহ ১০জনের একটি পূজারী দল নৌকাযোগে উপজেলার ফারুয়া ইউনিয়নে বৌদ্ধ ভিক্ষু ডা. দীপংকর মাহাথির ভান্তের সাথে দেখা করার যাত্রা করে।

এসময় পূজারীদের বহনকারী নৌকাটি ওই ইউনিয়নের উলুছড়িস্থ মাসকুমড়া নামক এলাকায় পৌঁছলে পাহাড়ে ওঁত পেতে থাকা সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা পূজারীদের লক্ষ করে ১০-১২ রাউন্ড গুলি ছুঁড়লে নৌকায় অবস্থান করা একটি নয় বছরের শিশু মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়েছে। সফরকারী দলে থাকা দীপঙ্কর ভন্তের শিষ্য প্রজ্ঞামিত্র ভান্তের সূত্রে এ খবর নিশ্চিত হওয়া গেছে।

গুলিবিদ্ধ শিশুটির নাম সুনীল তঞ্চাঙ্গ্যা (০৯), পিতা স্বপন কুমার তঞ্চঙ্গা। ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ শিশুটিকে উদ্ধার করে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে পাঠানোর জন্য রওনা করেছে বলে তারা জানান।

ঘটনার সূত্রপাত হিসাবে জানা যায়, ড. এফ দীপঙ্কর ভান্তে নামের এক ধর্মগুরু গুয়াইনছড়িতে একটি কিয়াংঘর নির্মাণ করেছে। স্থানীয় একটি আঞ্চলিক সন্ত্রাসী সংগঠন এই কিয়াংঘর নির্মাণের বিরোধিতা করে। এই নিয়ে তাদের ১০/১২ জনের একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ মঙ্গলবার ঐ কিয়াংঘরে হামলা করে ভাংচুর চালায়। পরে স্থানীয়রা হামলার অভিযোগে মঙ্গা রাম তঞ্চঙ্গা(১৬), পিতা- উচাই চন্দ্র রাম, গ্রাম উড়াইছড়িকে আটক করে পুলিশকে খরব দেয়। পুলিশ আজ উক্ত সন্ত্রাসীকে আটক করতে ঘটনাস্থলে রওনা দেয়। গতকালের ঘটনার প্রতিশোধ হিসাবে সন্ত্রাসীরা আজ উক্ত ভান্তের ভক্তদের উপর হামলা করেছে বলে জানা গেছে।

স্থানীয় নিরাপত্তা বাহিনীর একটি সূত্র এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে পার্বত্যনিউজকে জানিয়েছেন, ঘটনাস্থল অত্যন্ত দূর্গম হওয়ায় তথ্য পেতে দেরি হচ্ছে। তবে তাদের দুইটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে।

সূত্রটি আরো জানায়, তাদের টহল দল ঘটনাস্থলে পৌঁছালে স্থানীয় জন প্রতিনিধি ও ভান্তের শিষ্যরা ৬ জন সন্ত্রাসীকে আটক করে নিরাপত্তা বাহিনীর কাছে হস্তান্তর করেছে। তাদের মধ্যে তিনজন গুলি করার কথা স্বীকার করেছে। তবে আটক সন্ত্রাসীদের নাম এখনো জানা যায় নি।

সূত্র মতে, সন্ত্রাসীদের কাছে ৪টি আগ্নেয়াস্ত্র ছিলো এবং তারা আগেই তা সরিয়ে ফেলেছে। আটক সন্ত্রাসীদের টহল পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বিলাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাছির উদ্দীন জানান, আমাদের পুলিশ বাহিনীর একটি দল ঘটনাস্থলে রওনা করেছে। তারা ফিরে আসলে বিস্তারিত জানা যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *