প্রিয়জন রেগে? জেনে নিন ‘সরি’ বলার সেরা কায়দা


পার্বত্যনিউজ ডেস্ক:

‘সরি’। ছোট্ট শব্দ, অনেক বড় সমস্যার সমাধান। বিশেষ করে প্রেম বা সংসার জীবনে। টুকটাক ঝগড়া বা বড়সড় অশান্তি অনেকটাই এক টানে নামিয়ে আনতে পারে প্রোটো-জার্মানিক ‘সাইরিগা’ থেকে উদ্ভূত এই শব্দ। এই অস্ত্রেই ঘায়েল সঙ্গীর বেজার মুখ, গলে জল গিন্নির অভিমান। তবে জানতে হবে ‘সরি’ বলার ঠিক কায়দা। নইলে সমস্যা বাড়বে বই কমবে না কিন্তু।

সরি নেগেটিভ শব্দ নয়: আগে এটা বুঝুন। ‘ভালবাসায় আবার সরি কিসের?’— আগে এই বোকা ধারণা থেকে বেরোন। রাস্তাঘাটে কারও পা মাড়ানোর পর ফর্মাল সরি-র চেয়ে এ ‘সরি’ অনেক আলাদা। তাই ভালবাসায় এটা প্রয়োজন। এই দু’টিকে মিলিয়ে ফেলবেন না।

মন থকে বলুন: দায়সারা গোছের ‘সরি’ শোনালে কিন্তু ধরা পড়ে যাবেন। এ এমন এক শব্দ যা আপনার গলার স্বর, বডি ল্যাঙ্গুয়েজ— সবেতেই প্রতিফলিত হয়। তাই মন থেকে ‘সরি’ বলছেন কিনা, তা বুঝতে পারেন কাছের জন। তাই ‘সরি’ বলুন ইগো ঝেড়ে, দ্বিধা সরিয়ে। আন্তরিকতার ‘ফেদার টাচ’ যেন মিশে থাকে আপনার ‘সরি’-তে।

দেরি করবেন না: সমস্যা বাসি করবেন না। এটাই সুখী সম্পর্কের অন্যতম চাবিকাঠি। খুচখাচ ঝগড়া জীবনের সঙ্গেই স্বাভাবিক হয়ে যায় ঠিকই। কিন্তু কিছু মুশকিল বেয়াড়া। তা সরাতে খাটতে হয়। আর এই খাটনিতে দেরি করলে তার আর দাম থাকে না। তাই আপনার তরফেও কিছু ভুল হয়েছে বুঝলে সঙ্গীর এগোনোর অপেক্ষা না করে আগে সরি বলুন।

ইগো ঝাড়ুন: ইগো— এই মারাত্মক বোধ অকারণে স্থান-কাল-পাত্র ভুলে আমাদের পথ আগলে দাঁড়ায়। তাই সরি বলতে যাওয়ার আগে রাস্তা আটকে দিন ইগো-র। ভালবাসলে কখনও নত হতেই হয়। তাতে লজ্জা থাকে না, বরং কাছের মানুষের হৃদয় ছুঁয়ে হয়ে ওঠা যায় আরও প্রিয়। না বুঝলে বুঝবেন, ভালবাসায় গলদ আছে।

মেসেজে নয়: না। একেবারেই মেসেজ বা হোয়াটস অ্যাপে ‘সরি’ বলা উচিত নয়। তবে ডিসট্যান্স রিলেশনশিপ বা ব্যস্ত জীবনে এ ছাড়া উপায়ও অনেক সময় থাকে না। তবে চেষ্টা করুন, দেখা করে ‘সরি’ বলতে। দেখা করা যে ভাবে সম্পর্ককে প্রভাবিত করে, সে ভাবে আর কেউ নয়।

ও-ও তো দোষী: আপনিও দোষী তো? ব্যস, এটাই ‘সরি’ বলার জন্য যথেষ্ট। অন্য কে দোষী, কার দোষ সিকি ভাগ আর কার পর্বতপ্রমাণ সে ভাবনা ছেড়ে আঘাত করে ফেলেছেন বুঝলেই, ‘সরি’ বলুন। আঘাত যদি আপনার তরফেই কড়া হয়, তা হলে ‘সরি’-র দায়ও কিন্তু আপনার।

শর্ত বাদ: বলবেন ‘সরি’, তার আবার শর্ত কীসের অ্যাঁ? যদি তুমি এমন বলো… বা যদি আমি এমন করি… এ সব মূর্খামি বাদ দিন। শর্ত চাপিয়ে যেমন ভালবাসা যায় না, তেমন সে সবের শিকল পরিয়ে ‘সরি’ জানানোর মানে নেই কোনও।

ভালবাসুন: সব সময় কেবল ‘সরি’-তে মন না উঠলে, ঝগড়া মেটাতে গিয়ে দেখা হলেই সরি-র বদলে চওড়া হাসুন। এতে আপনার আন্তরিকতা সামনে আসবে। ভাসবাসার প্রকাশ থাকুক আপনার আচরণে। চাইলে নিরালায় একান্তে সময় কাটান। দু’-একটা কাছের ছোঁয়াচ থাকুক না, ক্ষতি কী! দেখবেন, ‘সরি’ না বলেও কেমন কাজ হয়েছে।

 

সূত্র: আনন্দবাজার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *