‘পাহাড়ে আর কত খুন, অপহরণ, মুক্তিপণ ও চাঁদাবাজি চলবে’ প্রশ্ন ওয়াদুদ ভুইয়ার


01.06.2017_Noyon Murder NEWS Pic-02

নিজস্ব প্রতিবেদক, মাটিরাঙ্গা :

খাগড়াছড়িতে এক অজ্ঞাত যুবকের লাশ উদ্ধারের কয়েক ঘন্টা পর তার পরিচয় মিলেছে। জানা গেছে, নৃশংস হত্যাকান্ডের শিকার যুবক লংগদুর ভাড়ায় চালিত মোটর সাইকেল চালক। এবং লংগদু থেকে দুই উপজাতিয় যুবককে নিয়ে খাগড়াছড়ি আসছিল। আর খাগড়াছড়ি শহরে পৌছার আগেই মহালছড়ির মোটর সাইকেল চালক মো. ছাদিকুল ইসলামের ভাগ্যবরণ করতে হয়েছে লংগদুর ভাড়ায় চালিত মোটর সাইকেল চালক মো. নুরুল ইসলাম নয়নকে।

এদিকে লাশ উদ্ধারের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এ নিয়ে নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। প্রতিবাদের অংশ হিসেবে খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য ওয়াদুদ ভুইয়া প্রশ্ন তুলে বলেছেন, পাহাড়ে আর কত খুন, অপহরণ, মুক্তিপণ ও চাঁদাবাজি চলবে!

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে নিজের টাইমলাইনে দেয়া স্টাটাসে তিনি বলেছেন, আর কত মুক্তিপণের বিনিময়ে জিম্মি মুক্ত হবে, আর কত আপনজন হারিয়ে পাহাডের মানুষকে হাহাকার করে বিলাপ করতে হবে। প্রশাসন কোথায়?

তিনি বলেন, এই সরকারের আমলেই পাহাড় বসবাসের অযোগ্য হয়ে গেছে। আমারা পাহাড়কে মানুষের বসবাসযোগ্য করে দেওয়ার জন্য সরকার ও প্রশাসকে আহবান করছি। তেমনি আজকেও আমাদের আরেকজন ভাইকে জীবন দিতে হল উল্লেখ করে তিনি বলেন, খাগড়াছড়ি দীঘিনালা সড়কে ভাড়ায় চালিত মোটর সাইকেল চালক নুরুল ইসলাম নয়নকে আজ নৃশংসভাবে হত্যা করে পাহাড়ের কোলে ফেলে যায় সশস্ত্র গ্রুপগুলোর কোন একটি গ্রুপ। এ যেন মৃত্যুর মিছিল। এই লাশের মিছিল আর মেনে নেওয়া যায়না। এর প্রতিকার চাই, চাই প্রতিরোধ।

এই সরকার ও তার প্রশাসনকে পরিস্কার করে জানিয়ে দিতে চাই অস্ত্র উদ্ধার ও এই হত্যাজজ্ঞ বন্ধ না করলে আমরা অতিদ্রুত প্রতিরোধ গড়ে তুলতে বাধ্য হবো বলেও স্টাটাসে হুশিয়ারি উচ্ছারণ করেন বিএনপি নেতা ওয়াদুদ ভুইয়া।

এদিকে ওয়াদুদ ভুইয়ার স্টাটাসকে প্রতিবাদ হিসেবে লুফে নিয়েছে ফেসবুক ইউজাররা। শফিক ইসলাম নামে এক ফেসবুক ইউজার তার মন্তব্যে বলেছেন, ‘শান্তিচুক্তির নামে বাঙালী হত্যার লাইসেন্স তুলে দিয়েছে এই অবৈধ সরকার তারই প্রতিচ্ছবি এসব সন্ত্রাসী কর্মকান্ড’। Jakir Hossain লিখেছেন, আর কত বাঙ্গালীর প্রাণ দিলে প্রশাসন সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবে।

এহসান আলমগীর লিখেছেন, এই লোকটা আমার এলাকার এবং লংগদু এলাকার প্রায় মেক্সিমাম মানুষ তাকে চিনেন এবং আমার জানা মতে লোকটা খুব ভাল ছিল। আজ এই দৃশ্য দেখে সত্যিই খুব খুব খারাপ লাগতেছে বুকের ভেতর কেমন যেনো দুমরে মোচড়ে এক অশান্তি অসহায় লাগছে।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার বেলা ১২টার দিকে খাগড়াছড়ি-দীঘিনালা সড়কের চার মাইল যৌথ খামার এলাকা থেকে অজ্ঞাত পরিচয় এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে খাগড়াছড়ি সদর থানা পুলিশ।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *