পার্বত্য চট্টগ্রামে রোহিঙ্গারা প্রশিক্ষণ নিচ্ছে: বাংলাদেশকে সতর্ক করলো ভারত


পার্বত্য নিউজ রিপোর্ট:

পার্বত্য চট্টগ্রামে মিয়ানমারের রোহিঙ্গারা সশস্ত্র প্রশিক্ষণ নিচ্ছে বলে বাংলাদেশকে সতর্ক করে দিয়েছে ভারত। সম্প্রতি নয়াদিল্লীতে শেষ হওয়া দুদেশের স্বরাষ্ট্র সচিব পর্যাযের এক বৈঠকে ভারত বাংলাদেশকে এ সতর্কবার্তা দেয় বলে ভারতীয় বার্তা সংস্থা টাইমস অব ইন্ডিয়া দাবি করেছে।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়; বৈঠকে গোয়েন্দা সূত্রের বরাত দিয়ে বাংলাদেশকে জানানো হয়, পার্বত্য চট্টগ্রামে মিয়ানমারের রোহিঙ্গারা অস্ত্র প্রশিক্ষণ নিচ্ছে। পাকিস্তানের জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-তৈয়বার সদস্যরা তাদেরকে এ প্রশিক্ষণ দিচ্ছে।

বৈঠকে বলা হয়, রোহিঙ্গারা মিয়ানমার থেকে বিতাড়িত হয়ে বাংলাদেশের পার্বত্য চট্টগ্রাম এলাকায় ঢুকে এ প্রশিক্ষণ নিচ্ছে। তারা আবার মিয়ানমারে ফিরে প্রতিশোধ নেয়ার জন্য এভাবে নিজেদের প্রস্তুত করছে। মিয়ানমার সীমান্তবর্তী পার্বত্য চট্টগ্রাম এলাকায় এখনই যদি বহিরাগত জঙ্গিদের বাংলাদেশ নিয়ন্ত্রণ করতে না পারে তাহলে ভবিষ্যতে ঢাকার জন্য তা মারাত্বক ঝুঁকি সৃষ্টি করতে পারে বলে বৈঠকে সতর্ক করে দেয়া হয়।    

image_pdfimage_print

13 thoughts on “পার্বত্য চট্টগ্রামে রোহিঙ্গারা প্রশিক্ষণ নিচ্ছে: বাংলাদেশকে সতর্ক করলো ভারত

  1. Why India is concerned about Rohinga? India need to keep her nose where it belongs to. Rohingas are Bangladesh’s headache. They came from Burma and wants to go back fighting Burma. I think that is good for Bangladesh. Bangladesh don’t have land and food to sustain them.

  2. bharoter matha ghamanur karon nei. eta Bangladesher abhontorin bepar. ei dehse hindu´r hostokhep muthei thik noi.

  3. ami akta beshiy bojta parche na . sobay upojati dar ka upojati na bole adibasi bole keno . tader mathay ke gelo nai ??

    tara ke adibashi ar shonga ta jane na ?

  4. Bangladesh government given settlement to the Rohinga, Actuality they are reality not nEW a Rohinga nation but Bangali, therefore Bangladesh security force do not care to them whatever Rohinga want to do anything rather support them lot.

  5. আমরা পার্বত্য চট্টগ্রামে থাকি তাই আমরাই ভাল জানি যে পার্বত্যাঞ্চলে কারা অস্ত্রের প্রশিক্ষন নিচ্ছে।

    এমনকি শুধু সাধারণ পাবলিক না, এখানে দায়িত্বরত সরকারী কর্মকর্তা, পুলিশ, সেনাবাহিনী, বিজিবিও জানে।

    কিন্তু বড়ই আশ্চার্যের বিষয় হল ভারত সরকার নাকি বলেছে পার্বত্য চট্টগ্রামে রোহিঙ্গারা প্রশিক্ষণ নিচ্ছে ।

    হায় রে ভারত !
    হায় রে উপজাতী !

    তোদের এ মারপ্যাঁচকে ষড়যন্ত্র বললেও কম বলা হবে….

    • আপনারা এত গলা না ফাটিয়ে,উপজাতি এর সশস্ত্র প্রশিক্ষণ নেওয়ার উপযুক্ত যুক্তি প্রদর্শন করুন।

  6. ভারতের মাথা নষ্ট হইছে। ভারতের সহায়তায় যে উপজাতি সন্ত্রাসীরা অস্ত্রের প্রশিক্ষন নিচ্ছে তা বলতে ভূলে গেছে। পার্বত্যাঞ্চলে আমরা থাকি, আমরা জানি, দুইদিন পরপর কারা অস্ত্রের মহরা করে।

  7. Good news!! They should have right and opportunity to make their safety by themselves and we also should help them to survive as human being!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *