পার্বত্যনিউজের পর্যটন সংখ্যা এখন বাজারে


পার্বত্যনিউজ প্রতিবেদন:

পাক্ষিক পার্বত্যনিউজের পর্যটন সংখ্যা এখন বাজারে। রাঙ্গামাটি, বান্দরবান, খাগড়াছড়ি এবং কক্সবাজার জেলা সদরসহ বিভিন্ন উপজেলার সংবাদপত্র বিক্রির স্টলে পাওয়া যাচ্ছে পার্বত্যনিউজের কপি। এখন চলছে পর্যটন মৌসুম। দেশের পর্যটকদের বেড়ানোর প্রথম পছন্দের স্থান হচ্ছে কক্সবাজার এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম, আর পাক্ষিক পার্বত্যনিউজের সংবাদ সংগ্রহের প্রধান ক্ষেত্রও এটি। সে কারণেই বাংলাদেশের পর্যটনবান্ধব এ বিশেষ অঞ্চলটির পর্যটকদের দেখার মতো কোথায় কী আছে, সেসব স্থানে যাওয়া যাবে কীভাবে এবং থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থাইবা কেমন তার বিস্তারিত পাবেন পার্বত্যনিউজের ফেব্রুয়ারি ২০১৮ সংখ্যায়।

অত্রাঞ্চলের পর্যটন বিকাশে করণীয় সম্পর্কে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট ডিপার্টমেন্টের প্রফেসর এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভাইস চ্যান্সেলর ড. সৈয়দ রাশিদুল হাসান বিশেষজ্ঞ মতামত দিয়েছেন ‘পার্বত্য চট্টগ্রামে পর্যটন সমস্যা ও সম্ভাবনা’ শিরোনামের প্রবন্ধে। বাংলার দার্জিলিং সাজেক নিয়ে ‘সাজেক বাংলাদেশের পর্যটন খাতে বৈপ্লবিক সংযোজন’ শিরোনামে স্পেশাল প্রতিবেদন লিখেছেন পার্বত্যনিউজ সম্পাদক মেহেদী হাসান পলাশ। যারা দেশের বিশেষ করে পার্বত্য পর্যটন নিয়ে ভাবেন তাদের চিন্তার খোরাক যোগাবে সাংবাদিক ও পরিব্রাজক আমাইন বাবুর লেখা ‘ভুটানের ইকোট্যুরিজম হতে পারে আমাদের পার্বত্য পর্যটনের মডেল’ এবং সাংবাদিক ও গবেষক সৈয়দ ইবনে রহমতের লেখা ‘পর্যটন পরিকল্পনার লক্ষ্য হোক সাজেক থেকে সেন্টমার্টিন’; পাশাপাশি রয়েছে কালপুরুষ অপুর লেখা বান্দরবান পাহাড়ে ভ্রমণের রোমাঞ্চকর কাহিনী ‘জল-পাহাড়ের দিনরাত্রি’।

যারা বেড়াতে পছন্দ করেন তাদের জন্য এ সংখ্যায় ছাপা হওয়া কিছু প্রতিবেদনের শিরোনাম:

পর্যটকদের পদাচরণায় মুখরিত পাহাড়ি কন্যার দেশ বান্দরবান, এই শীতে ঘুরে আসতে পারেন খাগড়াছড়ি, পাহাড় আর হ্রদের শহর রাঙামাটি, কক্সবাজারে পর্যটন শিল্পে লেগেছে প্রাণের ছোঁয়া, অপরূপ শোভাম-িত কাপ্তাইয়ের পর্যটন কেন্দ্রগুলো, সর্বোচ্চ পাহাড় চূড়ার দেশ রুমা, পর্যটকদের ভিড় এখন টেকনাফে, কুতুবদিয়ায় পর্যটন বিকাশে মেগা প্রকল্প, মেঘের রাজ্যে ঘুমায় আলীকদমের ডিম পাহাড়, কাউখালীর কলাবাগান ঝর্ণা হয়ে উঠতে পারে অন্যতম পর্যটন স্পট, অপূর্ব সুন্দর দীঘিনালার তইদুছড়া, মহেশখালীর পর্যটন সম্ভাবনা।

পার্বত্য রাজনীতি নিয়ে আছে ‘গ্রামবাসীর প্রতিরোধের মুখে ইউপিডিএফ’ এবং ‘রাঙ্গামাটিতে এখনো বদলায়নি রাজাকারের নামে থাকা স্থাপনার নাম’ শিরোনামের বিশেষ প্রতিবেদনসহ আরও অনেক চমক। ফুরিয়ে যাবার আগেই আপনার কপিটি সংগ্রহ করে নিন। কোথায় পাবেন?

খাগড়াছড়ি: প্রতিভা ট্রেডার্স, আদালত সড়ক, ০১৮২২২২২৯৪৬

রাঙামাটি: বই একাডেমী, বনরূপা, ০১৮৭৮২০১৬৭২

বান্দরবান: বঙ্গ পেপার এন্ড লাইব্রেরী, ট্রাফিক মোড়, ০১৮২০৪০৩৫৩৪

কক্সবাজার: খবর বিতান, শেখ রাসেল সড়ক, ০১৭৪৩৯০৯০৭৯

চকরিয়া: মো. কামাল উদ্দিন, সংবাদপত্র এজেন্ট, চিরিঙ্গা, ০১৭১৮৫৪৬৩১৯

মহেশখালী: সঞ্জিত মহাজন, ০১৭১১৭৬০৮০৯

মাটিরাঙ্গা: প্রতিভা লাইব্রেরী, ০১৮১৯৫১২২৪২

দীঘিনালা: মুনমুন প্রকাশনী, ০১৫৫৪৩২৮৮৮১

পানছড়ি: আরতি লাইব্রেরী, ০১৮২০৫৪৯৯৭৬

মহালছড়ি: প্রতিভা লাইব্রেরী, ০১৮২৭৫১৭৮৯৫

বাঘাইছড়ি: জনাব জগৎ দাস, ০১৮১১৯১৯৮৭২

লংগদু: পপুলার লাইব্রেরী, মাইনীমুখ বাজার, ০১৫৫৬৯৯৪৯৯৩

গুইমারা: মাষ্টার লাইব্রেরী এন্ড গিফট কর্নার, স্কুল গেইট, জালিয়াপাড়া, ০১৫৫৭১০৩৪৩৫

টেকনাফ: নাফ পেপার বিতান, ০১৮১৯৮৫২৬৫২

রামু: নিউজ একাডেমী, ০১৮৪০০০৬৫৪৪

এছাড়াও পাঠকগণ যোগাযোগ করতে পারেন পার্বত্যনিউজ কাপ্তাই প্রতিনিধি কবির হোসেন (০১৫৫৩৭৪৭৪১০), কাউখালী প্রতিনিধি আরিফুল হক মাহবুব (০১৭২৭০৩৭৭৫২), কুতুবদিয়া প্রতিনিধি এম.এ মান্নান (০১৭১৪৩৭৪২৩৪), রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি সাথোয়াইঅং মরমা (০১৫৩৫৮৮১০০১), রুমা প্রতিনিধি শৈহ্লাচিং মারমা (০১৫৫৩১০৪৫৪৬),  থানচি প্রতিনিধি অনুপম মরমা (০১৫৫৫০৪৩৬৫৪), লামা প্রতিনিধি মো. কামাল হোসেন (০১৫৫০৬০৩৩৯৪) এর সঙ্গে। যেসব উপজেলার ঠিকানা এখানে উল্লেখ করা গেল না সেসব উপেজেলাতেও পাক্ষিক পার্বত্যনিউজের কপি দ্রুত পাঠানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *