নেইমারের রাজকীয় প্রত্যাবর্তন, বিস্মিত তিতে



পার্বত্যনিউজ ডেস্ক:
প্রায় মাস তিনেক খেলার বাইরে ছিলেন ইনজুরির কারণে। মাত্র ক’দিন হল অনুশীলনে ফিরেছেন। স্বাভাবিকভাবেই স্বরূপে পাওয়া যায় কিনা তা নিয়েই সংশয় ছিল। তবে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে দারুণ ছন্দেই দেখা গেল ফুটবলের রাজকুমার নেইমারকে। গোলও করেছেন তিনি। আর এতেই বিস্মিত ব্রাজিল কোচ তিতে।

বিশ্বকাপের আগে নিজেদের প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে ক্রোয়েশিয়াকে ২-০ গোলে হারিয়েছে ব্রাজিল। এই জয় পেলেও প্রথমার্ধে চেনা রূপে দেখা যায়নি পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের। বরং একের পর এক আক্রমণে তাদের নাচিয়ে ছাড়েন ক্রোটরা।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই ফার্নানদিনহোকে তুলে নেইমারকে নামান তিতে। আর ৬০ মিনিটে গাব্রিয়েল জেসুসের বদলে নামান রবার্তো ফিরমিনোকে। এতেই খেলার দৃশ্যপট পাল্টে যায়। মুহুর্মুহু আক্রমণে মেতে উঠেন ব্রাজিলিয়ানরা। ৬৯ মিনিটে গোল করে দলকে লিড এনে দেন নেইমার। আর ইনজুরি টাইমে নিশানাভেদ করে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ফিরমিনো। তাতেও ছিল নেইমারের আলতো ছোঁয়া।

প্রিয় শিষ্যের এমন পারফরম্যান্সে মুগ্ধ না হয়ে গুরুর কি উপায় আছে? তাই তো নেইমারকে প্রশংসায় ভেজালেন তিতে। তিনি বলেন, প্রত্যাশার চেয়েও তার প্রত্যাবর্তন ভালো হয়েছে। আমি এতটা আশা করিনি। কারণ তাকে একটা প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে আসতে হচ্ছে।

গেল ২৫ ফেব্রুয়ারি ফ্রেঞ্চ লিগে পিএসজি বনাম মার্শেই ম্যাচে বাঁ পায়ের পাতার মেটাটারসাল হাড় ভেঙে যায় নেইমারের। এর পর খেলার বাইরে ছিলেন তিনি। তাই বিশ্বকাপে তাকে চেনা সুরে পাওয়া যাবে কিনা তা নিয়ে শংকা ছিল। ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে এমন পারফরম্যান্সের পর তার ছন্দে ফেরা নিয়ে অনিশ্চয়তা কেটে গেছে।

তিতে বলেন, তাকে আর একটু কাজ করতে হবে। এর মধ্যে তার পারফরম্যান্স ভালোও হতে পারে, মন্দও হতে পারে। তবে বিশ্বকাপের শুরুতেই ওকে পুরো ছন্দে পাওয়া যাবে।

ফুটবল ইতিহাসে সব ধরনের শিরোপা জিতেছে ব্রাজিল। শুধু অধরা ছিল অলিম্পিকে স্বর্ণপদক। ২০১৬ সালের রিও অলিম্পিকে তা এনে দিয়ে সেই অপূর্ণতাও ঘোচান নেইমার। এবার তাকে ঘিরেই ষষ্ঠ বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্নের জাল বুনছেন ব্রাজিলিয়ানরা।

১৭ জুন সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে স্বপ্নযাত্রা শুরু করবে ব্রাজিল। ‘ই’ গ্রুপে তাদের অপর দুই প্রতিপক্ষ কোস্টারিকা ও সার্বিয়া।

সূত্র: যুগান্তর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *