নানিয়ারচরে ৬ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় দু’টি পৃথক অভিযোগ দায়ের


নিজস্ব প্রতিনিধি:

রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলায় চলতি বছরের ৩মে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেএসএস সংস্কার’র সহ-সভাপতি এডভোকেট শক্তিমান চাকমা হত্যাকাণ্ড এবং ৪মে ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক প্রধান নেতা তপন জ্যোতি চাকমাসহ ৫জন হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নানিয়ারচর থানায় দু’টি পৃথক অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

বুধবার বিকেলে পৃথক পৃথকভাবে অভিযোগ দু’টি দায়ের করা হয়। তবে পুলিশ এখনো অভিযোগগুলো মামলা আকারে নথিভুক্ত করেনি বলে স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে।

এদিকে অভিযোগের সূত্রে জানা গেছে, নানিয়ারচর উপজেলা পরষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট শক্তিমান চাকমা হত্যাকাণ্ডের জন্য প্রতিপক্ষের ৪৬জনকে আসামী করে সংশ্লিষ্ট থানায় অভিযোগ দায়ের করে সেদিনের ঘটনায় আহত রূপম চাকমা। ওই অভিযোগে ইউপিডিএফ প্রধান প্রসীত বিকাশ খীসা, দলটির সাধারণ সম্পাদক রবি শংকর চাকমা, সচিব চাকমা এবং শান্তি দেব চাকমাকে প্রধান আসামী করা হয়।

একইদিন গণতান্ত্রিক ইউ.পি.ডি.এফ প্রধান তপন জ্যোতি চাকমা হত্যায় প্রতিপক্ষের ৭২জনকে আসামী করে পৃথক মামলাটি করেন অর্চিন চাকমা। এই মামলায়ও ইউপিডিএফ প্রধান প্রসীত বিকাশ খীসা ও দলটির সাধারণ সম্পাদক রবি শংকর চাকমাকে প্রধান আসামী করা হয়।

রাঙামাটি পুলিশ সুপার মো: আলমগীর বলেন, ৬ জনকে হত্যার ঘটনায় দুইটি অভিযোগ থানায় জমা দেয়া হয়েছে, তবে এখনো নথিভুক্ত হয়নি।

প্রসঙ্গত: চলতি বছরের ৩মে নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদের সামনে একদল দুর্বৃত্ত ব্রাশ ফায়ার করে চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমাকে হত্যা করে পালিয়ে যায়। অপরদিকে পরের দিন ২৪ঘন্টা পার হওয়ার আগে তার অন্ত্যোষ্টিক্রিয়ায় অংশ নিতে আসা ইউপিএিফ গণতান্ত্রিক প্রধান তপন জ্যোতি চাকমা বর্মাকে এবং তার সহযোগি অপর তিন নেতা এবং এক বাঙালী ড্রাইভারসহ পাঁচজনকে পথিমধ্যে ব্রাশ ফায়ার করে হত্যা করে একদল দুর্বৃত্ত। এ ঘটনায় নয়জন আহত হন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *