চকরিয়ায় গায়ে আগুন লাগিয়ে কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা


চকরিয়ায় প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের চকরিয়ায় গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে ডুলাহাজারা কলেজের এইচ এস সি পরীক্ষার্থী সাদিয়া সোলতানা (২০) নামের এক কলেজ ছাত্রী।

শনিবার (৯ জুন) সকাল ৬টার দিকে উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের উচিতার বিল নামক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আত্মহত্যাকারী ছাত্রী উপজেলার ফাঁসিয়াখালীস্থ উচিতার বিল এলাকার ডা. নুরুল ইসলাম চৌধুরীর কন্যা। আগুনে ছাত্রীর শরীরের ৮০ ভাগ অংশ ঝলসে গেছে বলে সূত্র জানায়।

থানা পুলিশ ঘটনার খবর পেয়ে শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ওই আত্মহত্যাকারী ছাত্রীর লাশ উদ্ধার করে।

স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের উচিতার বিল এলাকায় বাসিন্দা ডা. নুরুল ইসলাম চৌধুরীর দ্বিতীয় স্ত্রী রেজিয়া বেগম প্রথম স্ত্রীর ছেলে-মেয়েকে বিভিন্ন সময় নির্যাতন করে আসছিল। তার নির্যাতনের শিকার হয়ে প্রথম স্ত্রীর চার ছেলে-মেয়ের মধ্যে দুই ছেলে-মেয়ে চট্রগ্রাম শহরে পড়ালেখা করছিল বাসা ভাড়া নিয়ে। অপর দুই ছেলে-মেয়ে তাদের বাবা ও সৎ মা রেজিয়ার সঙ্গে থাকতো।

আগুনে পুড়ে নিহত হওয়া সাদিয়া বাবা ও সৎ মায়ের সঙ্গে থেকে পড়ালেখা করছিল। প্রায় সময় সাদিয়ার সঙ্গে বাড়ির বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তার সৎ’মা তর্কে জড়িয়ে যেত বলে সূত্রে জানায়।

হঠাৎ করে শনিবার সকাল ৬টার দিকে ডুলাহাজারা কলেজে পড়ুয়া এইচএসসি’র ছাত্রী সাদিয়া সোলতানা তার রুমের ভেতরে দরজা-জানালা বন্ধ করে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। আগুনের প্রকোপে এক সময় ওই ছাত্রী বাঁচার জন্য চিৎকার শুরু করে।

খবর পেয়ে তার বাবা ও স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাকে ঘরের দরজা ভেঙ্গে উদ্ধার করে। এরপর তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ছাত্রী সাদিয়াকে মৃত ঘোষণা করেন।

স্থানীয়রা ধারণা করছেন, পরিবারের সঙ্গে অভিমান করেই হয়ত আত্মহত্যা করেছে ওই ছাত্রী।

সন্ধ্যা ৭টার দিকে আগুনে পুড়ে আত্মহত্যার করার ঘটনা বিষয়টি জানতে পেরে চকরিয়া থানার (ওসি) মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরীর নির্দেশে থানার এসআই আবদুল খালেকের নেতৃত্বে সঙ্গীয় পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থল থেকে আগুনে পুড়ে যাওয়া নিহত ছাত্রী সাদিয়া সোলতানার লাশ উদ্ধার করেছে। লাশ উদ্ধার করে প্রাথমিক সুরুতহাল রিপোর্ট তৈরি করেছে পুলিশ।

আগুনে পুড়ে যাওয়া সাদিয়ার বড় বোন জেরিন ও ভাই সাকিব দাবী করেছে, কলেজ ছাত্রী সাদিয়াকে বিভিন্ন সময় নির্যাতন করতো। শনিবার সকালে তার সৎ মা ও বাবা মিলে পরিকল্পিতভাবে তাকে কেরোসিন দিয়ে আগুনে জ্বালিয়ে হত্যা করেছে।

এ ব্যাপারে চকরিয়া থানার ওসি মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, আগুনে পুড়ে যাওয়া এক ছাত্রীর লাশ পুলিশ উদ্ধার করেছে। প্রাথমিকভাবে সুরুতহাল রিপোর্ট তৈরি করে লাশ ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে বলে তিনি জানান। তবে কি কারণে হয়েছে তা ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে না পর্যন্ত বলে যাবেনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *