গুইমারায় ছাত্রদল নেতা রবিউল আউয়াল হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় দু’জনকে আটক করেছে ডিবি পুলিশ 


নিজস্ব প্রতিবেদক, খাগড়াছড়ি:

খাগড়াছড়ি জেলার গুইমারাই উপজেলার গুইমারা ইউনিয়ন ছাত্রদলের সহ-সভাপতি রবিউল আউয়ালের হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় দুইজন আটক হয়েছে। এরা হচ্ছে, গুইমারার তৈকর্মা পাড়ার বাসিন্দা মিশাই মারমা ওরফে নিপ্রু মারমা (৩৫) ও উশিং মারমা (১৯)। শনিবার রাতে স্থানীয় পুলিশের সহায়তায় তাদের আটক করা হয়।

গুইমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা যোবাইরুল হক জানান, মামলাটি গুরুত্তপূর্ণ হওয়ায় নিবিড় তদন্তের জন্য পুলিশ সুপার মো. আলী আহমেদ খানের নির্দেশে একদিন পরই জেলা ডিবি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। শনিবার রাত ১০ টার দিকে তাদের সহযোগিতায় ডিবি পুলিশ দু’জনকে আটক করে। জিজ্ঞাসাবাদে আটকদের একজন রবিউল আউয়ালের লাশের সাথে পাওয়া বেশ কিছু আলামত তার বলে স্বীকারও করেছে।

খাগড়াছড়ি জেলা ডিবি পুলিশের পুলিশের পরিদর্শক (ওসি) আব্দুর রকিব জানান, রবিউল আউয়াল হত্যাকাণ্ডের ক্লু পাওয়া গেছে। আটক ব্যক্তিদের রিমান্ড চাওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার দুপরে তৈকর্মা এলঅকায় পাহাড়ের নীচে ধান ক্ষেত থেকে থেকে দু’হাত পিছমোড়া বাঁধা অবস্থায় ছাত্রদল নেতা রবিউল আউয়ালের লাশ উদ্ধার হয়। সে গুইমারা উপজেলার হাজিপাড়া গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে।

এ ঘটনায় বুধবার সকালে নিহতের বড় ভাই আব্দুল রাজ্জাক অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামী করে মামলা করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *