খাগড়াছড়িতে আটক ইউপিডিএফের ১১ নেতাকর্মী রিমান্ডে


noapara

স্টাফ রিপোর্টার, পার্বত্যনিউজ :

গত ১১ নভেম্বর খাগড়াছড়ি স্টেডিয়ামে প্রধানমন্ত্রীর সমাবেশে যোগদানে বাধাদান, হামলা, গুলিবর্ষণ, অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুরের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা, মহালছড়ি ও দীঘিনালা উপজেলা থেকে সোমবার রাতে আটক চুক্তিবিরোধী ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট- ইউপিডিএফ সমর্থিত গণতান্ত্রিক যুব ফোরামসহ সহযোগী সংগঠন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের ১১ নেতাকর্মীকে বিভিন্ন মেয়াদের পুলিশ রিমান্ডে দিয়েছেন চিফ জ্যুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে খাগড়াছড়ির চিফ জ্যুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইখতিয়ারুল ইসলাম মল্লিকের আদালতে আসামীদেরকে হাজির করা হলে এ আদেশ দেয়া হয়। আটক ১১ জনের মধ্যে আটজনকে চার দিন করে এবং তিনজনকে দুই দিন করে পুলিশ রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়। চার দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর হওয়া আসামীরা হলো- দীঘিনালার জুয়েল চাকমা, রুপেন্দু চাকমা, মন্টু চাকমা, নীরব চাকমা, সহেল কান্তি চাকমা, মহালছড়ির দুনয়ন চাকমা ও পলাশ চাকমা ও মাটিরাঙ্গার সোহেল চাকমা, । দুই দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর হওয়া আসামীলা হলো- মহালছড়ির টকলু চাকমা, দীঘিনালার কমল চন্দ্র চাকমা ও মাটিরাঙ্গার অমর সিং চাকমা।

১১ নভেম্বর খাগড়াছড়ির স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত প্রধানমন্ত্রীর সমাবেশে জনসাধারন ও দলীয় নেতাকর্মীদের আসতে ইউপিডিএফ নেতাকর্মীদের বাধা দেয়া, গাড়িতে অগ্নিসংযোগ, গুলিবর্ষণ, সেতুর পাটাতন উপড়ে ফেলা, হুমকি, ভাঙচুর ও রাষ্ট্রীয় কাজে বাধা দেয়ার ঘটনায় দায়ের করা মামলা তাদের আটক করা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাগণ নিশ্চিত করেছেন। প্রসঙ্গত: ১৪ নভেম্বর জেলার সাতটি থানায় ১৬টি মামলা দায়ের করে পুলিশ ও ক্ষতিগ্রস্থরা। মামলা দায়েরের ২৬ দিনের মাথায় গতকাল সোমবার আসামি আটকে অভিযান শুরু করে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *