কেপিএম থেকে ৩ দুর্ধর্ষ চোর আটক, নিখোঁজ ২


কাপ্তাই প্রতিনিধি:

কর্ণফুলী পেপার মিলে (কেপিএম) চুরি করতে এসে ৩ দুর্ধর্ষ চোরকে হাতে নাতে আটক করেছে কর্তব্যরত প্রহরীরা। ওপর দুজন পালিয়ে গেছে এবং তাদের খোঁজে তল্লাশী চলছে।

আটককৃতরা হলো- আব্দুল সালম (৪০), রিয়াজ উদ্দিন (২৪), ইমন (৩০)। এরা সকলেই চন্দ্রঘোনা ফেরিঘাট এলাকায় বসবাসরত। নিখোঁজ দুজনের পরিচয় হল- জাকির হোসেন ও মো. রুবেল।

চোরদের তথ্য মতে জানা যায়, চুরি করতে তাদের সাথে আরও দুজনসহ মোট পাঁচজন আসে। এর মধ্যে কেপিএম ও ফায়ার সার্ভিসের লোকজন তিনজনকে কেপিএম সুড়ঙ্গপথ হতে আটক করে।

বাকি দুজনের সন্ধানের জন্য বুধবার (১৩ জুন) দুপুরে এ রিপোর্ট লেখা পযন্ত ফায়ার সার্ভিস ও কেপিএমের কর্তব্যরত নিরাপত্তা প্রহরীরা পুরো কেপিএম এলাকার সুরঙ্গপথ, ড্রেনসহ বিভিন্ন গোপন পথ তল্লাশি করছে।

কাপ্তাই থানা সূত্রে জানা যায়, আটক তিনজন কেপিএমসহ বিভিন্ন শিল্প কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠানে একের পর এক আধুনিক যন্ত্রপাতি দিয়ে দুর্ধর্ষভাবে চুরি করে চলছে।

এদের বিরুদ্ধে কাপ্তাই থানায় মামলা রয়েছে এবং কাপ্তাই সাবেক ইউএনও তারিকুল আলমের বাসায় সম্প্রতি চুরি করে বাসার গুরুত্বপূর্ণ মালামাল নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ রয়েছে। পরবর্তীতে কাপ্তাই থানা প্রায় দু’মাস পর গত ৪ এপ্রিল চন্দ্রঘোনা ফেরিঘাট হতে মালামালসহ আসামিদের আটক করে রাঙ্গামাটি আদালতে চালান করে।

কাপ্তাই থানা ও আটক চোরদের তথ্য মতে জানা যায়, চন্দ্রঘোনা ফেরিঘাট এলাকায় ক্ষমতাশীল দলের এক নেতার ভাই এ চোরদের পরিচালিত করছে। যার ফলে এরা বার বার বিভিন্ন স্থানে একের পর এক দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটিয়ে চলছে। আবার জেলে দেয়া হলে মোটা অংকের টাকা দিয়ে ওই নেতা ছাড়িয়েও আনছে বলে জানা যায়।

কাপ্তাই থানার ওসি সৈয়দ মোহাম্মাদ নুর জানান, দুপুর ২টা পযন্ত কাপ্তাই থানায় আসামিদের সোপর্দ করা হয়নি বা কোন মামলা হয়নি।

এদিকে বুধবার (১৩ জুন) ভোরবেলা কেপিএমে চুরির ঘটনা শুনে কাপ্তাই উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান দিলদার হোসেন, নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মাদ রুহুল আমিন, কাপ্তাই থানার ওসি সৈয়দ মোহাম্মদ নুর, আনসার অফিসার শাহাদাৎ হোসেন ও ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী বেবী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

উল্লেখ্য, কেপিএমে প্রতিনিয়ত একের পর এক চুরির ঘটনা ঘটছে। আটক আসামিরা রাঙ্গামাটি আদালত হতে দু’মাস জেল খেটে গত পাঁচ দিন পূর্বে ছাড়া পেয়ে আবার কেপিএমে চুরি করতে এসে আটক হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *