কাপ্তাইয়ে নেপিয়ার ঘাস ও ভার্মি কম্পোস্ট প্লান্ট চাষে ব্যাপক সাফল্য অর্জন


কাপ্তাই প্রতিনিধি:

কাপ্তাইয়ের সরকারি পরিত্যাক্ত জায়গায় বিভিন্ন ফসলাদী, নেপিয়ার ঘাস প্লান্ট ও ভার্মি(কেঁচো)কম্পোস্ট প্লান্ট চাষ করে সামরিকবাহিনীর এক কর্মকর্তা দেশ উন্নয়নে ব্যাপক সাফল্য অর্জন করেছে।

কাপ্তাই ওয়াগ্গা ১৯ বিজিবির মেজর মোহাম্মদ মাহমুদুল হাসানের উদ্যোগে দেশ উন্নয়নে শপথ নিয়ে ইতিমধ্যে ২০১৬-২০১৭ অর্থ বছরে ওয়াগ্গা জোনের আওতাধীন উপজেলা কৃষি সম্পদ বিভাগের সাথে সমন্বয় পূর্বক কর্ণফুলী পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ৪ একর পরিত্যাক্ত জায়গায় উপর কৃষি খামার জন্য নেপিয়ার ঘাস প্লান্ট ও ভার্মি(কেঁচো) কম্পোস্ট প্লান্ট স্থাপন ও গবাদিপশু চাষ করে চলছে। যা  অতিদ্রুত সময়ের মধ্যে ব্যাপক সাফল্য অর্জন করেছে।

এই পতিত জায়গায় বিভিন্ন প্রজাতির সবজি চাষ করে  এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন এবং অর্থনৈতিকভাবে সাফল্য অর্জন করেছে।

এর মধ্যে পেঁপে, শিম, ফুলকপি, বাঁধাকপি, গাজর, টমেটো, বেগুন, বরবটি, চিচিংগা, লাউ, করলা, মিষ্টি কুমড়া, চাল কুমড়া, পালংশাক, লালশাক, পুঁইশাক, কলমিশাক, ঢেঁড়শ, শশা, মূলাসহ বিভিন্ন সবজি  চাষ করা হয়। এর পাশাপাশি ৪০টি গবাদিপশু লালন-পালন জন্য নেপিয়ার ঘাস প্লান্ট স্থাপন করা হয়।

এছাড়াও দুর্গম ভারতীয় সীমান্তের নিকটবর্তী বিওপি ক্যাম্পে হেলিকপ্টারযোগে রোপায়িত সবজি প্রেরণের মাধ্যমে সাফল্য অর্জন করা হয়েছে।

এছাড়া ৩০শতক জমিতে ৬শ’টি হাইব্রিড পেঁপে থেকে ৫হাজার কেজি পেঁপে পাওয়ার মাধ্যমে অনেক অর্থ উপার্জন করা হয়েছে।

মেজর মোহাম্মদ মাহমুদুল হাসান বলেন, স্বল্প খরচে প্রায় এক লক্ষ টাকা ব্যয়ে প্রায় ২ লক্ষ ২৯ হাজার পাঁচশত টাকা কাঁচা- পাকা ফল বিক্রয় করে সাফল্য অর্জন  করা হয়েছে।

তিনি  আরো বলেন, কর্ণফুলী পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের আশ-পাশ এলাকার সামরিক ও বেসামরিক কয়েক হাজার লোকের মাধ্যমে ভার্মি (কেঁচো) কম্পোস্ট প্রযুক্তি ব্যবহার করে প্রাপ্ত কীটনাশকবিহীন সবজি স্বল্প মূল্যে সরবরাহ করা হয়েছে। যা স্বল্প সময়ের মধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করে।

এছাড়াও অর্জিত সাফল্য উন্নয়নে পরিত্যাক্ত জমিতে কৃষি সম্প্রসারনের মাধ্যমে অনেক বেকার যুবক/যুবতী স্বাবলম্বী হওয়ার পথ খুঁজে পাবে এবং কৃষিতে দেশ উন্নয়নে সাফল্য অর্জন করতে সক্ষম হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *