পানছড়ির শিক্ষক রিটন কান্তির দুটো কিডনিই নষ্ট: সাহায্যের আবেদন


নিজস্ব প্রতিবেদক, পানছড়ি:

খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ি উপজেলার লোগাং বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের কৃষি বিজ্ঞানের শিক্ষক রিটন কান্তি শীলের দু’টি কিডনিই অকেজো হয়ে পড়েছে। একটি কিডনি মাত্র ৪০% সচল রয়েছে তাও প্রতিদিন রিফ্রেসের মাধ্যমে।

নতুন কিডনি প্রতিস্থাপন করলেই তাকে বাঁচানো সম্ভব বলে জানিয়ে দিয়েছে চিকিৎসক। যার ব্যয়বহুল চিকিৎসা করতে প্রায় বিশ লক্ষাধিক টাকার প্রয়োজন।

বিদ্যালয় শিক্ষক রিটন শীলের পরিবারের পক্ষ থেকে জানায়, তার চিকিৎসার এতো টাকা যোগাড় করা সম্ভব নয়। সবাই যদি একটু সহযোগিতার হাত বাড়ায় তাহলেই বাঁচানো সম্ভব।

জানা যায়, পানছড়ি টিএন্ডটি টিলার মৃত নিরঞ্জন শীলের সন্তান রিটন চন্দ্র শীল সুঠাম দেহী, মিষ্টি ভাষী ও বিদ্যালয়ের একজন প্রিয় শিক্ষক ছিলেন। সেই প্রাণপ্রিয় শিক্ষকের কংকালসার দেহ আর বাঁচার আকুতি দেখে শিক্ষার্থীরাও ভেঙ্গে পড়েছে কান্নায়। প্রিয় স্যারকে সহযোগিতা দিতে টিফিনের টাকা জমিয়ে তহবিল গঠন করছে তারা।

শিক্ষার্থীদের দাবি, একজন ভালো শিক্ষককে বাঁচিয়ে রাখতে সবার সহযোগিতা দরকার। সবাই মিলে সহযোগিতার হাত বাড়ালেই প্রিয় স্যারকে আবার বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে বিচরণ করতে দেখা যাবে।

তার স্ত্রী তিন সন্তানের জননী জোৎস্না শীল জানায়, প্রতিদিন হাজার হাজার টাকা খরচ হচ্ছে। এর মধ্যে তিন ব্যাগ রক্ত দিতে হবে। অর্থনৈতিক সমস্যায় আমরা দিশেহারা হয়ে পড়েছি। আমার স্বামীকে বাঁচাতে সবাই এগিয়ে আসুন। মোবাইল ও বিকাশ নং ০১৭০৪৪৬২৬০৬।

এদিকে প্রিয় সহকর্মীকে চট্টগ্রামে দেখতে গিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন উল্টাছড়ি উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান রফিকুল ইসলাম বাবুল। তার চিকিৎসার খরচ যোগাতে সবাইকে সহযোগিতার হাত বাড়াতে অনুরোধ জানান তিনি।

নিউজটি পানছড়ি বিভাগে প্রকাশ করা হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *