এখনো সক্রিয় ইয়াবা নেটওয়ার্ক


কক্সবাজার প্রতিনিধি:

কক্সবাজার শহরে ইয়াবা পাচারের শক্তিশালী নেটওয়ার্ক এখনো সক্রিয় আছে। টেকনাফে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ইয়াবা পাচারকারীদের নির্মূলে সর্বাত্মক অভিযান শুরু করলেও কক্সবাজার শহরে ইয়াবা পাচারকারীরা এখনো সক্রিয় আছে। র‌্যাব-পুলিশের সাথে কথিত বন্ধুকযুদ্ধে অনেক মাদক ব্যবসায়ী প্রাণ হারালেও মরণনেশা ইয়াবা ব্যবসা তবুও কমছে।

জানা গেছে, বর্তমানে শহরের বেশ কয়েকটি জায়গায় অনেকটা প্রকাশ্যে মাদকের জমজমাট ব্যবসা চলছে। অনুসন্ধানে জানা যায় ছোট বড় মিলিয়ে যে সব স্পটে ইয়াবাসহ মাদকের রমরমা বেচাকিনা চলে, তন্মধ্যে শহরের কক্সবাজার খুরুশকুল সড়ক, দঃ রুমালিয়ারছড়ার টেকনাইফ্যা পাহাড়, কক্স টুডে সড়ক, ঝাউবিথি রোহিঙ্গা পল্লী, আলীর জাহালের গরুর হালদা, রুমালিয়ারছড়ার সমিতি বাজার, বিডিআর ক্যাম্প বড়ুয়া পাড়া ও মল্লিক পাড়া, বার্মিজ মার্কেট এলাকা, টেকপাড়ার হাঙ্গরপাড়া, বৈদ্যঘোনা, ঘোনারপাড়া, গোলদিঘীর পাড়, মোহাজের পাড়া, পূর্ব ও পশ্চিম মাছ বাজার, চাউল বাজার, সমিতি পাড়া, ফদনার ডেইল, গাড়ির মাঠ, বড় বাজার রাখাইন পাড়া এলাকা।

শহরের চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশকে টাকা দিয়ে এই মাদক ব্যবসা পরিচালনা করে বলে অনেকেই জানান। প্রশাসনের সাথে আঁতাত না করে শহরে কেউই মাদক ব্যবসা করতে পারেনা বলে জানান নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মাদক ব্যবসায়ী।

শহরজুড়ে মাদক ব্যবসায়ীর দৌরাত্ম, নিয়ন্ত্রণহীন। এইসব মাদক ব্যবসায়ীর অনেকে বর্তমানে কোটিপতি। আবার অনেকে ইয়াবার টাকায় বাড়ি করেছেন চোখ ধাধানো। এরা বেশীর ভাগ মোটর সাইকেল ব্যবহার করে। ইন্ডিয়া থেকে চোরাই পথে আসা এফজেড, ফেজার, টু টুয়েন্টি, ইয়ামাহা আর এক্সসহ নানা মডেলের মোটর সাইকেলে এদের চলাফেরা করতে দেখা যায়।

এইসব মোটর সাইকেল এরা ইয়াবার বিনিময়ে কুমিল্লা থেকে নিয়ে আসে। একটি মোটর সাইকেলের জন্য ১হাজার পিস ইয়াবা দিতে হয় বলে সূত্রে জানা গেছে। মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে প্রশাসনের লোকজনকে ম্যানেজ করে ইয়াবা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে বলে শহর বাসীর অভিযোগ। চলমান মাদক বিরুদ্ধে অভিযানে কক্সবাজার জেলার সকল চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ীকে আইনের আওতায় আনতে সচেতন এলাকাবাসীর জোর দাবি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *