একুশে পদকের ২ লাখ টাকা দান করে দিলেন মংছেনচীং মংছিন রাখাইন


মংছাচীন

স্টাফ রিপোর্টার:

একুশে পদকের সাথে প্রাপ্ত দুই লাখ টাকাও গবেষণা এবং খুদে লেখকদের সহযোগিতার জন্য দুইটি দৈনিক পত্রিকাকে দান করেছেন ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর লেখক ও গবেষক মংছেনছিং মংছিন রাখাইন।

মংছিন এই টাকার মধ্যে বাংলাদেশ জাদুঘরে এক লাখ এবং রাঙামাটির দৈনিক পত্রিকা গিরিদর্পণ ও কক্সবাজারের দৈনিক পত্রিকা সাগর বার্তাকে ৫০ হাজার টাকা করে এক লাখ টাকা প্রদানের ঘোষণা দেন। পত্রিকা দুটিকে স্থানীয় খুদে লেখক ও গবেষকদের পৃষ্ঠপোষকতা দেওয়ার জন্যই এই দান করা হচ্ছে।

শনিবার কক্সবাজারে লেখক ও গবেষক মংছেনছিং মংছিনকে দেওয়া এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে একুশে পদকের সাথে প্রাপ্ত রাষ্ট্রীয় দুই লাখ টাকাও দানের কথা ঘোষণা করেন।

বাংলাদেশের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর মধ্যে এই প্রথম একুশে পদকপ্রাপ্ত গবেষক মংছিনের জন্মস্থান কক্সবাজার শহরে। ১৮৮২ সালে স্থাপিত কক্সবাজার শহরের বার্মিজ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়েই তাঁর প্রাথমিক লেখাপড়া। এই বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরাই তাঁকে আজ সংবর্ধিত করেন।

প্রসঙ্গত, সরকার গত ২১ ফেব্রুয়ারি দেশের ১৬ জন বরেণ্য ব্যক্তিকে একুশে পদকে ভূষিত করেন। বিদ্যালয়টির প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন প্রাক্তন ছাত্র ও বর্তমানে কক্সবাজার সিটি কলেজের উপাধ্যক্ষ এ এম জাফর ছাদেক। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় এমপি সাইমুম সরওয়ার কমল এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন সাবেক এমপি অধ্যাপিকা এথিন রাখাইন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে কক্সবাজার সিটি কলেজের অধ্যক্ষ ক্যথিন অং রাখাইন, মুক্তিযোদ্ধা মংয়াইন রাখাইন, স্থানীয় জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক তোফায়েল আহমদ ও মুহাম্মদ আলী জিন্নাত, বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র এস্তেফাজুর রহমান, কামরুল হাসান, কবি অমিত চৌধুরী, ইঞ্জিনিয়ার বদিউল আলম, অসিফুল মওলা চৌধুরী ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা ইসমত আরা।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কক্সবাজার সদর-রামু আসনের এমপি সাইমুম সরওয়ার কমল তাঁর বক্তব্যে গর্ব করে বলেন, কক্সবাজারের তিনজন বাসিন্দা এ পর্যন্ত একুশে পদকের মতো রাষ্ট্রীয় পদকে ভূষিত হয়েছেন। তাঁরা যথাক্রমে জাতিসত্বার কবি মুহম্মদ নুরুল হুদা, বৌদ্ধ ভিক্ষু সত্যজিৎ মহাথের এবং সর্বশেষ মংছেনছিং মংছিন রাখাইন। তিনি আরো বলেন, কক্সবাজারের এই তিনজন গর্বিত সন্তানকে অচিরেই এক মঞ্চে তুলে সংবর্ধিত করা হবে।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *