আ’লীগ গণতন্ত্র ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতা বিশ্বাস করে না: শওকত মাহমুদ


khagrachari Pic 01 (1) copy

নিজস্ব প্রতিবেদক, খাগড়াছড়ি:

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাংবাদিক নেতা শওকত মাহমুদ বলেছেন, আওয়ামী লীগ গণতন্ত্র ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতা বিশ্বাস করে না। শেখ মুজিবুর রহমান ক্ষমতায় এসে দেশের সকল সংবাদপত্র বন্ধ করে দিয়ে দেশে একদলীয় বাকশাল কায়েম করেছিল। জিয়াউর রহমান বন্ধ সংবাদপত্র খুলে দিয়েছে। বেগম খালেদা জিয়ার ক্ষমতায় এসে আকাশ সংস্কৃতি চালু করেছে। আর শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এসে দেশের ভিন্নমতের সংবাদপত্র টেলিভিশ ও অনলাইন পত্রিকা বন্ধ করে দেশে আবার একদলীয় শাসন কায়েম করেছে। এখন দেশে সংবাদপত্রে স্বাধীনতা নেই। নেই মানুষের বাক স্বাধীনতা।

তিনি  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ আওয়ামী লীগ নেতাদের প্রতি প্রতিদ্বন্দ্বী রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীদের সাথে সহনশীল আচারণ করার জন্য আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, আপনারা জনগণের উপর যেভাবে নিপিড়ন-নির্যাতন চালাচ্ছেন, পালানোর জন্য রাস্তা পাবেন না। পালানোর জন্য বাংলাদেশ বিমানেও জায়গা হবে না। জনতার আদালতে আপনাদের  বিচার করা হবে।

রবিবার দুপুরে খাগড়াছড়িতে বিএনপির তৃণমুল পর্যায়ের প্রতিনিধি সভায় এ হুঁশিয়ারী উচ্চারণ করেন।

khagrachari Pic 02 (1) copy

খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সভাপতি ওয়াদুদ ভূইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রতিনিধি সভায় বিএনপির চট্রগ্রাম বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক হারুনুর রশীদ ও কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক কাদের গণি চৌধুরী, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, ব্রাক্ষ্মন পাড়া উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মহসিন সরকার, বুড়িচং উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেনসহ কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

শওকত মাহমুদ আরও বলেন, সরকার দেশে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস চালাচ্ছে। দেশে গণতন্ত্র নেই, সংবাদপত্রের স্বাধীনতা নেই। সরকার জঙ্গিবাদকে রাজনৈতিক হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে।এ ফ্যাসিস্ট স্বৈরাচার আওয়ামী লীগ সরকার বিচার বিভাগ, আইন বিভাগ, প্রশাসন, পুলিশ বিভাগসহ সকল সরকারি সংস্থাকে দলীয়করণের মাধ্যমে ধ্বংস করেছে। ’‘সুষ্ঠ এবং নিরপেক্ষ পরিবেশে আগামী নির্বাচনে দেশবাসী ভোট দিতে পারলে আওয়ামী লীগ জামানত হারাবে।’ এ কারণে আওয়ামী লীগ নির্বাচনকে ভয় পায়।

18361733_1605512939490265_1399370650_n copy

খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক এডভোকেট মালেক মিন্টুর সঞ্চালনায় প্রতিনিধি সভায় বক্তব্য রাখেন, মাটিরাঙা উপজেলার ২নং তবল ছড়ি ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. ইব্রাহীম, খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা ভাই বোনছড়া ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক প্রশান্ত ত্রিপুরা, খাগড়াছড়ি জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক মো. সাহেদ সুমন, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম সবুজ, জেলা কৃষক দলের সভাপতি গফুর আহমেদ তালুকদার, জেলা মহিলা দলের সভানেত্রী শাহনাজ বেগম রোজী, রামগড় পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক নুর হোসেন নুরু, মাটিরাঙ্গা পৌর বিএনপির সহ সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, খাগড়াছড়ি পৌর বিএনপির সভাপতি আ. রব রাজা, লক্ষীছড়ি উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোবারক হোসেন, মহালছড়ি উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. জহিরুল হক, মাটিরাঙ্গা উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদিউল আলম বদি, গুইমারা উপজেলা বিএনপির সভাপতি ইউসুফ, মানিকছড়ি উপজেলা বিএনপির সভাপতি এসএ করিম, দিঘীনালা উপজেলা বিএনপির সভাপতি মোসলেম উদ্দিন চেয়ারম্যান, রামগড় উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম ফরহাদ, জেলা বিএনপির সহ সভাপতি ও খাগড়াছড়ি উপজেলা বিএনপির সভাপতি অনিমেষ দেওয়ান, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মণীন্দ্র কিশোর ত্রিপুরা ও  প্রবীন চন্দ্র চাকমা সহ নেতৃবৃন্দ।

Untitled-1 copy

এসময় উপস্থিত ছিলেন, খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি কংচাইরী মাস্টার, মংসাথোইয় চৌধুরী, এ্যড. মন্জুর মোরশেদ, ক্ষেত্র মোহন রোয়াজা, যুগ্ম সম্পাদক আয়ুব খান, অনিমেষ চাকমা রিংকু, সাংগঠনিক সম্পাদক এমএন আবছার, ক্ষনি রঞ্জন ত্রিপুরা, সহ-দপ্তর সম্পাদক আবু তালেব, সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. মফিজুর রহমান, সদর পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক (ভা:) জহির আহমেদ, জেলা সেচ্চাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুর ইসলাম, জেলা তাঁতী দলের সভাপতি আলমগীর মিয়া, জেলা বাস্তহারা দলের সভাপতি নুরুর আলম,  জেলা মৎসজীবী দলের সাধারণ সম্পাদক মো. রিয়াসদ এবং জেলার সকল অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *