অরবিন্দু চাকমাকে হত্যার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ পিবিসিপির


প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

জুড়াছড়িতে অরবিন্দু চাকমাকে হত্যা ও বিলাইছড়িতে রাসেল মারমার উপর হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ  ও পার্বত্য নাগরিক পরিষদ রাঙামাটি জেলা শাখা।

প্রতিবাদে বলা হয় মঙ্গলবার রাঙামাটির জুড়াছড়ি উপজেলায় জেএসএস সন্ত্রাসী কর্তৃক উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অরবিন্দু চাকমাকে হত্যা ও বিলাইছড়ি আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রাসেল মারমার উপর হামলার মাধ্যমে সন্তু লারমা পাহাড়ে আগুন জ্বালানোর ঘোষণা বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছেন বলে মনে করেন।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলেন, আমরা পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ ও পার্বত্য নাগরিক পরিষদ পাহাড়ের প্রতিটি নাগরিকদের নিরাপত্তা চাই। পাহাড়ের আঞ্চলিক এসব সন্ত্রাসী সংগঠন গুলোর হাতে বর্তমানে এই এলাকার কেউই নিরাপদ নয়।

পাহাড়ে এখন পাহাড়ি বাঙালি সকল সম্প্রদায়ের লোকেরা জেএসএস ইউপিডিএফের হাতে অপহরণ গুম খুনের স্বীকার হচ্ছে। পাহাড়ে শান্তি আনতে হলে নিরাপদ পাহাড় গড়তে হলে এসব সন্ত্রাসীকে দমন করা এখন সময়ের দাবি।

আমরা অবিলম্বে প্রশাসনের প্রতি অরবিন্দু চাকমার হত্যাকারীদের ও রাসেল মারমার উপর হামলাকারীদের গ্রেফতারের দাবি জানাচ্ছি, অন্যথায় আমরা পার্বত্য বাঙালী ছাত্র পরিষদ ও পার্বত্য নাগরিক পরিষদের পক্ষ থেকে কঠিন কর্মসূচি ঘোষণা করতে বাধ্য হবো। সেই সাথে আগামী সংসদ নির্বাচনের আগে পাহাড় থেকে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের জন্য সরকারের নিকট জোর দাবি জানাচ্ছি।

পাহাড়কে আবার অশান্ত ও সহিংস করে তুলতে চাচ্ছেন সন্তু লারমা গংরা, তাই রক্তের হলি খেলায় মেতে উঠছে সন্ত্রাসীরা, আমরা হুঁশিয়ারী দিয়ে বলছি যদি  পাহাড়ে আর একটি লাশ পরে কোন নিরীহ পাহাড়ি বাঙালির তাহলে পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ ও পার্বত্য নাগরিক পরিষদ সকল সম্প্রদায়ের লোকদের নিয়ে বৃহত্তর ঐক্য গড়ে তুলে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে দুর্বার গণআন্দোলনের ডাক দিতে বাধ্য হবো ও লাগাতার কর্মসূচি ঘোষণা করবো।

image_pdfimage_print
নিউজটি সংগঠন বিভাগে প্রকাশ করা হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *