অন্ধকার ভেদ করে দেশ আলোর পথে এগিয়ে চলছে: এইচ,টি ইমাম


রামু প্রতিনিধি:

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক উপদেষ্টা ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো-চেয়ারম্যান এইচ. টি ইমাম বলেছেন, বাংলাদেশ এখন অন্ধকার ভেদ করে আলোর পথে এগিয়ে চলছে। বঙ্গবন্ধু ৩৪ হাজার বিদ্যালয় সরকারিকরণ এবং দেড় লাখ শিক্ষককে চাকরি দিয়ে শিক্ষাক্ষেত্রে বিপ্লব সৃষ্টি করেছিলন। তারই সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও এখন প্রতিটি উপজেলায় মাধ্যমিক প্রতিষ্ঠান এবং বিশ্ববিদ্যালয় সরকারিকরণ করে শিক্ষাক্ষেত্রে বঙ্গবন্ধুর সৃষ্ট বিপ্লব অব্যাহত রেখেছেন। এর সুফল হিসেবে রামুর ১০৪ বছরের প্রাচীন খিজারী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়কে সরকারিকরণ হয়েছে।

কেবল শিক্ষা নয়, দেশের প্রতিটি ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবদান এখন বিশ্বজুড়ে প্রসংশিত। যে কারণে আন্তর্জাতিকভাবে অনেক পুরস্কার ও সম্মাননা তিনি অর্জন করে যাচ্ছেন। আগামীতে উন্নয়ন-অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে হলে আওয়ামী লীগকে আবারও বিপুল ভোটে নির্বাচিত করতে হবে।

কক্সবাজার জেলার ঐতিহ্যবাহি ও প্রাচীন বিদ্যাপীঠ রামু খিজারী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় সরকারিকরণ হওয়ায় আয়োজিত বর্ণাঢ্য খিজারী উৎসবে তিনি এসব কথা বলেন।

শনিবার (২৮ এপ্রিল) বিকাল ৩ টায় রামু স্টেডিয়ামে এ উৎসব উদ্বোধন করেন, বন ও পরিবেশ মন্ত্রনালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি, সাবেক মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি।

সাবেক মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিটি উপজেলায় মাধ্যমিক বিদ্যালয় সরকারিকরণের আশ্বাস দিয়েছিলেন। এখন তা বাস্তবায়ন হচ্ছে। তিনি মানুষকে স্বপ্ন দেখান, আবার তা বাস্তবে রূপও দেন। কারণ তিনি মেধা, মূল্যবোধ ও দেশাত্বাবোধে বিশ্বাসী।  শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন উন্নয়নশীল দেশে রুপ নিয়েছে। দেশকে আরও এগিয়ে নিতে হলে বর্তমান প্রজন্মকেও মেধা, মূল্যবোধ ও দেশাত্ববোধের সমন্বয় ঘটাতে হবে। স্বপ্ন দেখার পাশাপাশি স্বপ্ন বাস্তবায়নের দৃঢ় মনোবল তৈরি করতে হবে। তাহলেই ডিজিটাল বাংলাদেশ ও দিনবদলের স্বপ্ন আরও সফলতা পাবে।

রামু খিজারী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি, কক্সবাজার-৩ আসনের সংসদ সদস্য খিজারীয়ান আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ ডাক বিভাগের সাবেক মহাপরিচালক খিজারীয়ান আবদুল মোমিন চৌধরী, কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তপক্ষের চেয়ারম্যান লে. কর্নেল ফোরকান আহমদ, দৈনিক আমাদের সময় এর ব্যবস্থাপনা সম্পাদক খিজারীয়ান সন্তোষ শর্মা, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী খিজারীয়ান রবীন্দ্র শ্রী বড়ুয়া, কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি খিজারীয়ান এডভোকেট নুরুল ইসলাম, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি খিজারীয়ান জাফর আলম চৌধুরী, রামু উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আলী হোসেন।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, রামু খিজারী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মফিজুল ইসলাম। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, খিজারী উৎসব উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক খিজারীয়ান রাজু বড়ুয়া।

উৎসব মঞ্চে বিশেষ অতিথি ছিলেন, রামু কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ খিজারীয়ান মোশতাক আহমদ, বিশিষ্ট আলেমেদ্বীন মাওলানা হাফেজ আবদুল হক, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব খিজারীয়ান নাজিম উদ্দিন ফরহাদ, রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. লুৎফুর রহমান, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) চাই থোয়াইলা চৌধুরী, ওসি একেএম লিয়াকত আলী, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের যুগ্ম সম্পাদক ও চট্টগ্রাম ওয়াসার বোর্ড সদস্য খিজারীয়ান তপন চক্রবর্তী, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মুসরাত জাহান মুন্নী, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা, বাংলাদেশ ফেডারেশ সাংবাদিক ইউনিয়নের সদস্য খিজারীয়ান এডভোকেট আয়াছুর রহমান, যুবলীগ নেতা খিজারীয়ান পলক বড়ুয়া আপ্পু প্রমূখ।

দিনব্যাপী অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন, রামু উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক খিজারীয়ান নীতিশ বড়ুয়া, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক খিজারীয়ান খিজারীয়ান তপন মল্লিব, সাংবাদিক খিজারীয়ান সুনীল বড়ুয়া ও আওয়ামী লীগ নেতা খিজারীয়ান সৈয়দ মোহাম্মদ আবদু শুক্কুর।

অনুষ্ঠানে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন, আওয়ামী লীগ নেতা খিজারীয়ান নুরুল হক। গীতা পাঠ করেন খিজারীয়ান সুবীর ব্রাক্ষণ চৌধুরী ও ত্রিপিটক পাঠ করেন খিজারীয়ান সুবীর বড়ুয়া বুলু।

রামু খিজারী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি, কক্সবাজার-৩ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল জানিয়েছেন, এ বিদ্যালয় সরকারিকরণ ছিলো রামুবাসীর প্রাণের দাবি। বঙ্গবন্ধু কন্যা এ দাবি পূরন করেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতির সফল বাস্তবায়নের এ আনন্দ সবার মাঝে ছড়িয়ে দেয়ার লক্ষ্যেই এ উৎসব আয়োজন করা হয়েছে।

উৎসব মঞ্চে গান পরিবেশন করেন, দেশসেরা শিল্পী কোনাল ও তৃষা সহ স্থানীয় শিল্পীরা। এছাড়া বিদ্যালয়ের বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও নাটক মঞ্চস্থ হয়। উৎসবে আনন্দ র‌্যালি ছাড়াও বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের পরিবেশনায় ডিসপ্লে, ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান খিজারীর আলো পরিবেশিত হয়েছে। উৎসব উপলক্ষে ‘খিজারী উৎসব’ নামে একটি বিশেষ স্মরণিকা প্রকাশিত হয়েছে। ছড়াকার দর্পন বড়ুয়া এটি সম্পাদনা করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *