বান্দরবানে চাঞ্চল্যকর পর্যটক ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি আটক

নিজস্ব প্রতিনিধি, বান্দরবান:

বান্দরবান পর্যটন মোটেলে সম্প্রতি ঘটে যাওয়া চাঞ্চল্যকর পর্যটক ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি মো. রাসেলকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার (১১মার্চ) দুপুরে চকরিয়া থেকে তাকে আটক করা হয়। আটকৃত রাসের (২৬) সাতকানিয়া থানার পশ্চিম নলুয়ার মৃত সোনা মিয়ার ছেলে।

বান্দরবান সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বান্দরবান পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) ইয়াছির আরাফাত এর সার্বিক দিক নির্দেশনায় চকরিয়া এলাকায় বিশেষ অভিযান চালানো হয়।

অভিযানে চাঞ্চল্যকর পর্যটক ধর্ষণ মামলার মূল অভিযুক্ত আসামি মো. রাসেল ড্রাইভার(২৬) কে গ্রেফতার করা হয়। সে ঘটনার আগে বান্দরবান সদরে বসবাস করতো।

প্রসঙ্গত, গত ২৬ ফেব্রুয়ারি  রাত ১টার দিকে বান্দরবান শহরের মেঘলা পর্যটন মোটেলে ঘুরতে আসা এক মহিলা পর্যটকের সাথে ঘটে যাওয়া ধর্ষণের ঘটনার মূল অভিযুক্ত আসামি করা হয় মো. রাসেলকে। ঘটনার পর থেকে সে পলাতক ছিল।

বান্দরবান সদর থানার মামলা নং- ০৯,  তাং- ২৬/০২/২০১৯ খ্রিঃ, ধারা- নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী/২০০৩) এর ৯(১)/৩০ এর এজাহার নামীয় প্রধান আসামি।

বান্দরবানে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে সেনাবাহিনীর এাণ বিতরণ

বান্দরবান প্রতিনিধি:

বান্দরবানে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে এাণ বিতরণ করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ২৬ বীর।

বান্দরবান সেনা জোন ২৬ বীর এর আওতায় বান্দরবান বাজার সংলগ্ন বোড ঘাটায় অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ৫টি পরিবারের মাঝে এই এাণ বিতরণ করা হয়।

এান বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান ২৬ বীরের সেনা জোনের ওয়ারেন্ট কর্মকর্তা মো. ফজলুর হক,  জোন এনসিও সার্জেন্ট আল আমিন, বান্দরবান পৌরসভার মহিলা কাউন্সিলর সালেহা বেগম, ও অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যবৃন্দ। পরে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ৫টি পরিবারের ৩০জন সদস্যের মাঝে খাদ্যদ্রব্য ও শীত কম্বল বিতরণ করা হয়।

প্রসঙ্গত শুক্রবার ভোররাতে বেবী আইসক্রিম ফ্র্যাকট্টির মিটার থেকে আগুনে পুড়ে যাওয়া এই সব পরিবারের মাঝে এই সহায়তা প্রদান করে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বান্দরবান ২৬ বীর জোন শাখা। দেশের সেবাই সেনাবাহিনী প্রতিটা মুহুর্ত্বে মানুষের পাশে সব সময় সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেশের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ জাগ্রত করে রেখেছে তাতে কোন সন্দেহ নেই। আর সহায়তা বিতরণকালে সকল বসতবাড়ির সকল লোকজনকে ভবিষ্যতে সতর্ক থাকার আহ্বান জানানো হয়, যাতে করে পরবর্তীতে এই রকম দুর্ঘটনা আর না ঘটে।

বান্দরবানে বৌদ্ধ বিহারের বিহারাধ্যক্ষের অন্তোষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন

‌নিজস্ব প্রতিনিধি:

বান্দরবানের কুহালং ইউনিয়নের কিবুক পাড়া বৌদ্ধ বিহারের বিহারাধ্যক্ষ প্রয়াত ভদন্ত কসারা মহাথের এর অন্তোষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হয়ে‌ছে।

শুক্রবার বিকালে অন্তোষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানে বাংলাদে‌শের সর্বোচ্চ বৌদ্ধ ধর্মীয় গুরু ও মহা সংঘনায়ক ভদন্ত উইচারিন্দা মহাথের এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসে‌বে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি।

এসময় বিশেষ অতিথি হিসে‌বে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আলী হো‌সেন, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ক্যসা প্রু, সদস্য তিং তিং ম্যা, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি একেএম জাহাঙ্গীর, প্রয়াত ভদন্ত কসারা মহাথের অন্তষ্টিক্রিয়া উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক থোয়াইনু মং মারমা, অন্তষ্টিক্রিয়া উদযাপন কমিটির সভাপতি ভদন্ত পাইন্দা ওয়াসা মহাথের ও সাধারণ সম্পাদক ভদন্ত উত্তারা মহাথেরসহ স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধি বৃন্দরা।

অন্ত‌ষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানে শুক্রবার সকালে বিভিন্ন ধর্মীয় মালা অনুষ্ঠিত হয় ও বিকাল ৩টা ১মিনিটে সইং নৃত্য, ৫টায় ডুমা বাজির মধ্য দিয়ে সৎকার করা ও সন্ধ্যায় প্রদীপ পূজার মধ্যে দিয়ে দুই দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হয়।

প্রসঙ্গত, বান্দরবানের সদর উপজেলার কুহালং ইউনিয়নের কিবুক পাড়া বৌদ্ধ বিহারের বিহারাধ্যক্ষ, আজীবন ব্রহ্মাচারী, সুরলা কন্ঠের ধর্মদেশক ও সর্বজন পূজ্য ভদন্ত কসারা মহাথের গত ১৫ই এপ্রিল ২০১৮ খ্রিঃ শনিবার ভোর ৫টায় (ভিক্ষু ৪৫ বর্ষা) ৮১ বছর বয়সে পরলোক গমন করেন।

তুমব্রু জিরো পয়েন্ট থেকে ইয়াবাসহ চার রোহিঙ্গা শরণার্থী আটক

নিজস্ব প্রতিনিধি/বাইশারী প্রতিনিধি:

বান্দরবানের তুমব্রু কোণারপাড়া জিরো পয়েন্টে আশ্রিত রোহিঙ্গা শরণার্থীর কাছ থেকে ২৪৯পিচ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। এই ঘটনায় আটক করা হয়েছে চার রোহিঙ্গা নাগরিককে।

বৃহস্পতিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১টার দিকে ওই ক্যাম্পের রোহিঙ্গা নেতারা তাদের আটক করে তুমব্রু বিওপিতে হস্তান্তর করেন। আটককৃতরা হলো- মামুনুর রশিদ (১৯), করিম (১৭), জহুর আলম (১৮) ও আলাউদ্দিন (১৬)।

তুমব্রু কোনার পাড়া শরনার্থী শিবিরের রোহিঙ্গা নেতা মো. আরিফ হোসেন ও দীল মোহাম্মদ জানান- প্লাস্টিক মোড়ানো ১৪৯টি ইয়াবাসহ চার রোহিঙ্গা নাগরিককে আটক করা হয়। তারা সবাই মিয়ানমারের ঢেকিবনিয়া এলাকার বাসিন্দা। আটকের পর তাদের তুমব্রু বিওপি কমান্ডার মো. মজিবুর রহমানের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

সমালোচনা ও পরামর্শ থেকে নিজেকে শোধরাতে চায় বান্দরবান সদর উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী

নিজস্ব প্রতিনিধি:

আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বান্দরবান সদরে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনীত প্রার্থী একেএম জাহাঙ্গীর আলম সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে একথা বলেন।

মঙ্গলবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সকালে বান্দরবান প্রেসক্লাব সম্মেলন কক্ষে জেলার ইলেক্ট্রিনিক্স ও প্রিন্ট মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকদের কাছ থেকে মতামত গ্রহণ করেন তিনি।

এসময় উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী একেএম জাহাঙ্গীর বলেন, সব দল, মত এবং সর্বমহলের আদর, স্নেহ আর ভালোবাসা নিয়ে আজ এতদূর এসেছি। আগামী দিনের বৈতরণী পার হতে আপনাদের কোন বিকল্প নেই। কারণ বুলেটের চেয়ে কলমের শক্তি বেশি। আর সেই শক্তি যদি কারো পাশে থাকে সফলতা অর্জন সম্ভব।

নেতৃত্ব দিতে গিয়ে আদর্শচ্যুত কখনো হয়নি। ১৫ আগস্টের হুলিয়া জারির সময়ও পালিয়ে যায়নি। জনগণের কাতারে ছিলাম, আগামীতেও থাকবো। জনসম্পৃক্ততা থাকার করনে পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর আমাকে বান্দরবান সদরের মতো গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় প্রার্থী করেছেন।

ইনশাল্লাহ সাংবাদিকরা পাশে থাকলে জনগণের ভালোবাসায় নৌকা প্রতিককে বিজয়ী করে প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দিতে পারবো।

দীর্ঘ পেশাজীবনের সহকর্মী সাংবাদিকদদের উদ্দেশ্যে তিনি আরো বলেন, আমি নেমেছি আপনাদের বলে। আপনাদের সমালোচনা, পরামর্শ নিয়ে আমার মন্দটুকু শোধরানোর চেষ্টা করবো।

এসময় সাংবাদিকদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি বাদশা মিয়া মাস্টার, বর্তমান সভাপতি আমিনুল ইসলাম বাচ্চু, সাধারণ সম্পাদক ফরিদুল আলম সুমন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিনারুল হক, প্রথম আলো প্রতিনিধি বুদ্ধ্যজ্যোতি চাকমা, ইত্তেফাক প্রতিনিধি মিলন চক্রবর্তী, এনটিভি প্রতিনিধি আলাদ্দিন শাহরিয়ার, বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ হাকিম, আবুল বশর ছিদ্দিকী, আবু মুছা, ইনকিলাব প্রতিনিধি শাদাত উল্লাহ, জনকন্ঠ প্রতিনিধি এস বাসু দাশ, চ্যানেল ২৪ প্রতিনিধি ইয়াছিনুল হাকিমসহ বিভিন্ন মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ।

প্রসঙ্গত, একেএম জাহাঙ্গীর ১৯৮৩ সাল থেকে প্রিন্টিং মিডিয়ায় সাংবাদিকতা ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ায় ২৮ বছর যাবৎ সাংবাদিকতায় জড়িত।

বর্তমানে তিনি জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্বপালন করছেন।

এছাড়াও তিনি বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি বান্দরবান ইউনিট, কাঠ ব্যবসায়ী সমিতির, ইসলামী শিক্ষা কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদকসহ অন্তত তিন ডজন প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত রয়েছেন। রাজনৈতকি জীবনে ১৯৮৪ সালে স্বৈরশাসক এরশাদ বিরোধী আন্দোলনে কারাবরণ করেন একেএম জাহাঙ্গীর।

পার্বত্য এলাকায় ভিন দেশি কোনও শরণার্থী অবস্থান করতে পারবে না: মন্ত্রী বীর বাহাদুর

নিজস্ব প্রতিনিধি:

তিন পার্বত্য এলাকায় কোনও ভিন দেশি শরণার্থী অবস্থান করতে পারবে না বলে জানিয়েছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি।

রবিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সকালে বান্দরবান জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে জেলা আইন শৃঙ্খলা ও মাসিক সমন্বয় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন তিনি।

এসময় তিনি আরও বলেন, ‘প্রশাসনকে রোহিঙ্গাদের পার্বত্য এলাকা বাদ দিয়ে ভিন্ন জায়গায় অবস্থা‌নের কথা ভাবতে হবে।’

তিনি বলেন, আমাদের দে‌শের নাগরিক নয় এমন কোনও ব্যক্তিকে কেউ আশ্রয়-প্রশ্রয় দিবেন না।

বান্দরবানের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ দাউদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ কামরুজ্জামান, বিজিবির ৩৮ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. সানবীর হাসান, বান্দরবান সেনা রিজিয়নের স্টাফ অফিসার (জি টু) মেজর ইফতেখার হাসান পিএসসি, পৌর মেয়র মোহাম্মদ ইসলাম বেবীসহ অনেকে।

আরও ৪০ শরর্ণাথী রুমা সীমান্তের এপারে আশ্রয় নিলো

নিজস্ব প্রতিনিধি:

দুই দিনের ব্যবধানে বান্দরবানের সীমান্ত দিয়ে মিয়ানমারের আরও ৪০ শরণার্থী বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করেছে। এর আগে গত সোমবার রাতে ১২৪ জন শরণার্থী বাংলাদেশে এসেছে। এই নিয়ে দুই দফায় মোট ২০৩জন মিয়ানমার নাগরিক বাংলাদেশে আশ্রয় নিলো।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে- বুধবার বান্দরবানের রুমা উপজেলার সীমান্তবর্তী রেমাক্রী পাংসাং এলাকা দিয়ে ৪০ পরিবার বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নেয়। স্থানীয়দের সহযোগিতায় তারা সেখানে প্লাস্টিক মুড়িয়ে তাবু তৈরি করে থাকছেন।

এদিকে রুমা সীমান্তে আশ্রিত মিয়ানমার নাগরিকদের সর্বশেষ পরিস্থিতি জানতে সেনা ও বিজিবি’র একটি দল ওই এলাকা পরিদর্শন করেছেন।

এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ বর্ডার গার্ডের কক্সবাজার রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জাহেদুর রহমান জানান- সীমান্ত এলাকায় শরণার্থীদের বর্তমান পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে নিরাপত্তা বাহিনীর একটি টিম ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে বাংলাদেশ সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, মিয়ানমারের সাথে আমরা (বাংলাদেশ) বর্ডার সিল করে দিয়েছি। এখন আর কাউকে (রোহিঙ্গা বা অন্যান্য মিয়ানমার নাগরিক) ঢুকতে দেয়া হবে না।

বুধবার (৬ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশে সফররত জাতিসংঘ শরণার্থী বিষয়ক সংস্থার (ইউএনএইচসিআর) বিশেষ দূত ও হলিউড অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলির সাথে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রসঙ্গত, গত ডিসেম্বর থেকে মিয়ানমারের রাখাইন ও চীন রাজ্যে বিচ্ছিন্নতাবাদী দল আরাকান আর্মি (এএ) এর সাথে সে দেশের বিজিপি ও সেনাবাহিনীর সাথে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। বিশেষ করে এরপর থেকে শরণার্থীরা বাংলাদেশে আসার প্রস্তুতি শুরু করে।

সুশিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে জাতির কল্যাণে এগিয়ে আসতে হবে : বান্দরবান জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা

নিজস্ব প্রতিনিধি:

বান্দরবানের রোয়াংছড়ি আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে সংবর্ধণা ও বার্ষিক ক্রিড়া প্রতিযোগিতা নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে।

রবিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে বিদ্যালয় মিলনায়তনে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি অংশৈচিং মারমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বান্দরবান জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা।

অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, শিক্ষার কোন বিকল্প নেই। আজকের প্রজম্মকে আগামীতে সুশিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে জাতির কল্যাণে এগিয়ে আসতে হবে। এসময় তিনি শিক্ষকদের আরও মনোযোগ সহকারে পাঠদানের আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদ সদস্য কাঞ্চনজয় তঞ্চঙ্গ্যা, রোয়াংছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যবামং মারমা, উপজেলা নির্বাহী অফিসার শফিকুর রিদোয়ান আরমান শাকিল, নেইতন বুইতিং, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ক্যসাইনু মারমা, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাউসাং মারমা, রোয়াংছড়ি সদর ইউপি চেয়ারম্যান চহ্লামং মারমা, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. আবু ছালে সরকার, সহকারী শিক্ষা অফিসার মো. আক্তার উদ্দিন, উপজেলা ইউআরসি ইনস্ট্রাক্টর মো. মুমিনুল ইসলাম, প্রমুখ।

স্কুলের সহকারী শিক্ষক তপন কান্তি দাশের সঞ্চালনা অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বগত বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক উচহ্লা মারমা।

বান্দরবান ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক কলেজের বার্ষিক ক্রিয়া প্রতিযোগিতা

নিজস্ব প্রতিনিধি:

বান্দরবান ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের বার্ষিক ক্রিয়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী সম্পন্ন হয়েছে।

শনিবার (২ ফেব্রুয়ারি) বেলা ২টায় কলেজ প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বার্ষিক ক্রিড়ায় বিএনসিসি’র চৌকস ক্যাডেট, গার্ল গাইডস সমূহ, ফুল দৌড়, দৃষ্টিনন্দন রিলেসহ কয়েকটি ইভেন্টের প্রতিযোগিতা, ভিভিআইপি অতিথিদের অংশগ্রহণে গলফ খেলা অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠান পরিচালনা পর্ষদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি লে. কর্ণেল এস এম আব্দুল্লাহ আল-আমিন পিএসসি। স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ লে. কর্ণেল মো. রেজাউল ইসলাম পিএসসি, পিএইচডি, এইসি।

এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুছ, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য মো. মোজাম্মেল হক বাহাদুর, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড বান্দরবান ইউনিটের প্রকল্প কর্মকর্তা এম আব্দুল আজিজ, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড বান্দরবান ইউনিটের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ইয়াছির আরাফাতসহ পদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তাবৃন্দ।

লামায় নিরাপদ খাদ্য দিবস উপলক্ষে র‌্যালি

নিজস্ব প্রতিনিধি:

সারা দেশের ন্যায় বান্দরবানের লামা উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে জাতীয় খাদ্য নিরাপদ দিবস পালিত হয়েছে। সুস্থ সবল জাতির জন্য পুষ্টিসম্মত নিরাপদ খাদ্যের উপর গুরুত্ব দিয়ে শনিবার (২ ফেব্রুয়ারি) সকালে বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় ও লামা উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে অনুষ্ঠিত খাদ্য দিবসের আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূর-এ জান্নাত রুমি, লামা জেলা সহকারী তথ্য কর্মকর্তা রুহুল আমিন চৌধুরী, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শরাবান তহুরা, লামা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক নুরুল ইসলাম ফরিদ, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো. কামরুজ্জামান প্রমূখ।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন উপজেলা পরিষদের সিএ কামরুল ইসলাম পলাশ।