বাঘাইছড়িতে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি’র উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ

বাঘাইছড়ি প্রতিনিধি:

বাঘাইছড়ি উপজেলা পরিষদের প্রাঙ্গণে রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়।

রবিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ১১ টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নাদিম সারোয়ার এর উপস্থিতিতে দুস্থ পাহাড়ি ও বাঙালীদের মধ্যে ৫০টি শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাঘাইছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মাদ আবুল মনজুর, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আলী হোসেন, সহ-সভাপতি হাজি আবদুর শুক্কুর মিয়া, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন মামুন, প্রেসক্লাবের সভাপতি দিলীপ কুমার দাশ, পৌর মেয়র জাফর আলী খান, মো. শাহাআলমসহ উপজেলা পরিষদের কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং কাচালং সরকারি কলেজের রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ছাত্র-ছাত্রী বৃন্দ।

বাঘাইছড়িতে পুলিশ সেবা সপ্তাহ পালিত

বাঘাইছড়ি প্রতিনিধি:

বাঘাইছড়িতে পুলিশ সেবা সপ্তাত পালিত হয়েছে। শনিবার (২ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৪ টায় র‌্যালি ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

র‌্যালিটি উপজেলার লঞ্চঘাট থেকে চৌমুহনী শাপলা চত্বর প্রদক্ষিণ করে উপজেলা কাঠ ব্যবসায়ী সমিতির কার্যালয়ের সামনে গিয়ে আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে শেষ হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বাঘাইছড়ি পৌর সভার মেয়র মো. জাফর আলী খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোহাম্মদ শুকুর মিয়া, পৌর বিএনপি’র সভাপতি মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন বাবু, উপজেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জাবেদুল আলম প্রমুখ।

বাঘাইছড়িতে বাজার বর্জন কমসূচি আপাতত স্থগিত

নিজস্ব প্রতিনিধি, রাঙামাটি:

রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলায় বাজার বর্জন কর্মসূচি আপাতত স্থগিত করেছে স্থানীয় পিসিজেএসএস’র নেতৃবৃন্দ। শুক্রবার ( ১ফেব্রুয়ারি) বিকেলে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সংগঠনটি জানায়- ইউপিডিএফ নেতা বসু চাকমা হত্যা মামলায় পিসিজেএসএস নেতাদের হযরাণী করা হবে না প্রশাসনের এমন আশ্বাস্বের ভিত্তিতে এবং এসএসসি পরিক্ষার্থীদের বিষয়টা মাথায় রেখে আগামী ১৫দিনের জন্য বাজার বর্জন কর্মসূচি স্থগিত করার ঘোষণা করেছে সংগঠনটি।

সংগঠনটি  আরও জানায়- মামলার তদন্ত রিপোর্টের কোন অগ্রগতি না হলে পরবর্তী আরও কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

গত ৪ জানুযারি সন্ধ্যা ৭টায় উপজেলার বাবু পাড়াতে দুবৃর্ত্তদের গুলিতে জেএসএস সংস্কার এমএনলারমা দলের যুব সমিতির নেতা বসু চাকমা নিহত হয়। নিহতের ঘটনায় বসুর স্বজন প্রভাত কুসুম চাকমা বাদী হয়ে জেএসএস (সন্তু) দলের উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বড় ঋষী চাকমাকে প্রধান আসামি করে ২৭ জন এবং অজ্ঞাত ৭-৮জনকে  অজ্ঞাত দেখিয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে থানায়।

স্থানীয় সন্তু গ্রুফের জেএসএস মামলা দায়েরের পর জেএসএস সংস্কার নেতা বসু চাকমা হত্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে গত ১৬ জানুয়ারি ৪৮ঘন্টা হরতালের ডাক দেয়। অবরোধ কর্মসূচি পালনের পর তাদের ধারাবাহিক কর্মসূচির অংশ হিসেবে অনির্দিষ্টকালের জন্য বাজার বর্জন কর্মসূচির ডাক দেয়। এরপর থেকে দীর্ঘ ১৬দিন ধরে উপজেলার ৪টি হাটবাজার বন্ধ ছিলো এতদিন।

বাঘাইছড়িতে ইউপিডিএফ-জেএসএস গোলাগুলি

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাঙামাটি:

রাঙামাটির দুর্গম বাঘাইছড়ি উপজেলায় ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি সংস্কার (পিসিজেএসএস) এমএর লারমা গ্রপের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে।

রবিবার (২৭ জানুয়ারি) সকালে সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার বঙ্গলতলী ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে,  উপজেলার বঙ্গলতলী ইউনিয়নের সাধনা চোখ বন বিহারের পাশে ইউপিডিএফ এবং জেএসএস সংস্কার তাদের আধিপত্য বিস্তার এবং এলাকা নিয়ন্ত্রণ নিতে উভয় পক্ষ গুলিবিনিময় করে। তবে গোলাগুলির ঘটনায় কোনো পক্ষের  মধ্যে হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। দুপুর পর্যন্ত উভয় পক্ষের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা স্থায়ী ছিলো।

এ ঘটনার পর পুরো এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। বর্তমানে  ওই এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

বাঘাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম এ মনজুরুল আলম জানান- লোক মুখে শুনেছি সাধনা চোখ বন বিহারের পাশে পাহাড়ের দু’টি সশস্ত্র আঞ্চলিক দল এলাকা নিয়ন্ত্রণ নিতে গুলাগুলি করেছে।

বাঘাইছড়িতে মামালা প্রত্যাহারের দাবিতে ১১ দিনের মত চলছে বাজার বর্জন

 

বাঘাইছড়ি প্রতিনিধি:

বাঘাইছড়ি উপজেলায় বসু হত্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে জেএসএস (সন্তু)’র পূর্ব ঘোষিত উপজেলার ৮টি  হাট বাজারে ১১ দিনের মত চলছে বাজার বর্জন।

জানা গেছে, বাঘাইছড়ি উপজেলার আওতাধীন শনিবার দুটি হাট বসে। করেঙ্গতলী বাজার ও দুরছড়ি বাজার। শনিবার বাজারে দোকান খোলা থাকার পরও কোন লোকের সমাগম নেই।

গত বুধবার (২৩ জানুয়ারি) বাঘাইছড়ি মারিশ্যা বাজারও দৃশ্য ছিল একই রকম বাঙালিরা বাজারে আসলেও পাহাড়ীরা হাতে গোনা ছিল কয়েক জন। বিভিন্ন জায়গা, পথে-ঘাটে বসছে বাজার।

উল্লেখ্য, গত ৪ জানুযারি সন্ধ্যা ৭টায় বাবু পাড়াতে দুবৃর্ত্তদের গুলিতে এমএনলারমা দলের যুব সমিতির নেতা বসু চাকামা নিহত হয়। নিহতের ঘটনায় প্রভাত কুসুম চাকমা বাদী হয়ে জেএসএস (সন্ত) দলের উপজেলার সভাপতিসহ ২৭ জনের ও অজ্ঞাত ৭/৮ জনের নামে মামলা দায়ের করেন। একই ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে বিষ্ফোরক আইনে মামলা দায়ের করেন।

বাঘাইছড়িতে জেএসএস এর অবরোধ শেষ : চলছে অনির্দিষ্টকালের বাজার বয়কট

বাঘাইছড়ি প্রতিনিধি:

রাঙামাটি জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলায় জেএসএস এর ডাকে টানা ৪৮ ঘন্টার অবরোধ শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হয়েছে।

বৃহস্পতিবার(১৭ জানুয়ারি) সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত অবরোধের দ্বিতীয় দিনে কোথাও কোনো প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। তবে অনির্দিষ্টকালের জন্য বাজার বয়কট চলছে।

অবরোধে দূর পাল্লার যানবাহন ও বাঘাইছড়ি টু রাঙামাটি নৌ পথে লঞ্চ ছেড়ে যায়নি।

এর আগে অবরোধের প্রথম দিনে সাজেক ইউনিয়নে বাঘাইহাট বাজার থেকে দীঘিনালা যাওয়ার পথে হাজাছড়া নামক স্থানে মো. নাছির উদ্দিন এর মোটর সাইকেল গতিরোধ করে তাকে মারধর করে পিকেটাররা। পরে মোটর সাইকেলে আগুন লাগিয়ে দেয়। এ ঘটনায় মোটর সাইকেল পুড়িয়ে দেওয়ার অপরাধে সাজেক থানায় একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান সাজেক থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আনোয়ার। তবে এ ঘটনার পর থেকে এই পর্যন্ত কোনো প্রীতিকর ঘটনা চোখে পড়েনি।

এদিকে সাধারণ মানুষের চলাচলে যাতে বিঘ্ন না ঘটে তাই প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২৭ বিজিবি মারিশ্যা জোন, ৫৪ বিজিবি  বাঘাইহাট, সেনা বাহিনী ১২ বীর বাঘাইহাট জোন ও বাঘাইছড়ি থানা এবং সাজেক থানার পুলিশের পক্ষ থেকে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। অবরোধকে কেন্দ্র করে কেউ কোনো বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করলে তাকে ছাড় দেওয়া হবে না এবং তাকে আইনের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন বাঘাইছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ এম. এ মনজুর।

উল্লেখ্য, গত ৪ জানুযারি বাঘাইছড়ি বাবু পাড়ায়  জেএসএস এমএনলারমা যুব সমিতির সদস্য বসু চাকমাকে হত্যার ঘটনা ঘটে। এর পর ৫ জানুযারি জেএসএস সন্ত লারমার দলের উপজেলা চেয়ারম্যান রড়ঋষি চাকমা সহ ২৭ জনের বিরুদ্ধে আরও অজ্ঞাত ৭/৮ জনের নামে মামলা দায়ের করেন প্রভাত কুসুম তালুক দার। এ মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে অবরোধ কর্মসূচি ঘোষণ করে জেএসএস।

বাঘাইছড়িতে আনসার ব্যাটালিয়ন সদস্য স্ট্রোকে মৃত্যু

বাঘাইছড়ি প্রতিনিধি:

রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার ১১ আনসার ব্যাটালিয়ানের সদস্য নং২৭৬৮৪ পিসি মো.আব্দুল কুদ্দুস স্ট্রোকে মৃত্যুবরণ করেছেন।

মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫৮ বছর। তাঁর পিতার নাম মৃত মোকসেদ আলী। তাঁর বাড়ি সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর উপজেলার কৈজুরীহাট গ্রামের।

জানাযায়, বুধবার(১৭ ডিসেম্বর) দুপুর ২টা ৪৫ মিনিটে হঠাৎ করে বুকে ব্যথা অনুভব করলে আব্দুল কুদ্দুসকে দ্রুত বাঘাইছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালে নিয়ে গেলে হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার বিষ্ণপদ দেবনাথ তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

মৃত আব্দুল কুদ্দুস বাঘাইছড়ি উপজেলায় ১১ আনসার ব্যাটালিয়নের পিসি হিসাবে কর্তব্যরত ছিলেন। তাঁর চাকরির বয়স ৩৮ বছর। বর্তমানে তার লাশ হাসপাতাল থেকে নিয়ে ব্যাটালিয়ানের মারিশ্যা সি আই ও ক্যাম্পে রাখা হয়েছে। আগামী কাল তার মরদেহ নিজ বাড়িতে পৌঁছানো হবে বলে আনসার ব্যাটলিয়ন সূত্রে জানাগেছে।

বাঘাইছড়িতে ৪৮ ঘন্টার সড়ক ও নৌপথ অবরোধের প্রথম দিন

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি:

জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলায় সড়ক ও নৌপথে অবরোধের আজ ছিল প্রথম দিন। বুধবার ( ১৬ জানুয়ারি) সকাল থেকে অবরোধের কারণে উপজেলায় সড়ক ও নৌ পথে সকল যানবাহন ও লঞ্চ চলাচল বন্ধ রয়েছে। দোকানপাট খুললেও বাজার বর্জনের কারণে কোন পাহাড়ি বিক্রেতারা আসেনি। উপজেলার বিভিন্ন পয়েন্টে অতিরিক্ত পুলিশ ও বিজিবি সদস্যরা টহল দিচ্ছে।

এ বিষয়ে বাঘাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) এম এ মঞ্জুর হক জানান, উপজেলায় সব কার্যক্রম স্বাভাবিক রয়েছে। দোকানপাট খোলা, কিছু গাড়ি চলাচল করছে, যাত্রী কম থাকায় উপজেলা থেকে রাঙ্গামাটির জেলা সদরের উদ্দেশে কোন লঞ্চ ছেড়ে যায়নি। বিজিবি টহল ও পুলিশ টহল রয়েছে যাতে জনসাধারণ নিরাপদে চলাচল করতে পারে।

এদিকে অবরোধের প্রথম দিনে বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেকে বাঘাইহাট হাজাছড়া নামক এলাকায় মোটরসাইকেল আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয় অবরোধ সমর্থনে পিকেটাররা।

স্থানীয় সূত্রে জানাযায় , মোটর সাইকেল চালক মো. নাছির (৪৩) বাঘাইহাট থেকে খাগড়াছড়ির উদ্দেশে রওনা হলে ঘটনাস্থলে গতিরোধ করে মারধর করে এবং মোটর সাইকেলটি আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেয়। এ ঘটনার খবর পেয়ে বাঘাইহাট জোন থেকে নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে যায়।

উল্লেখ্য, গত ৪ জানুয়ারি বাঘাইছড়ির বাবুপাড়ায় প্রভাত কুসুম চাকমার বাড়িতে জনসংহতিসমিতি (এমএনলারমা) দলের সদস্য বসু চাকমা নিহত হন। সেই ঘটনায় গত ৫ জানুয়ারি বাড়ির মালিক প্রভাত কুসুম চাকমা বাঘাইছড়ি থানায় উপজেলা চেয়ারম্যান বড় ঋষি চাকমাসহ জনসংহতি সমিতি ও সমিতির সহযোগী সংগঠনের বাঘাইছড়ি উপজেলা শাখার সদস্যসহ ২৭ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন। এতে আরও ৭-৮ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছিল। এরই প্রতিবাদে  মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে গত ৮ জানুয়ারি একটি সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি ও তাদের সহযোগী সংগঠনের নেতারা, বাজার বর্জনসহ ৪৮ ঘন্টা সড়ক ও নৌপথ অবরোধের ডাক দেন।

বাঘাইছড়িতে জেএসএস এর মামলা প্রত্যহারের দাবীতে ৪৮ ঘন্টার অবরোধ ও বাজার বয়কট চলছে

বাঘাইছড়ি প্রতিনিধি:

রাঙামাটি  জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলায় মামলা প্রত্যহারের দাবীতে বুধবার (১৬ জানুয়ারি) সকাল ৬টা থেকে টানা ৪৮ ঘন্টার অবরোধ ও বাজার বয়কট প্রথম দিনের মত শান্তিপূর্ণ ভাবে পালিত হচ্ছে।

দূর পাল্লার ও বাঘাইছড়ি থেকে খাগড়াছড়ি কোনো যানবাহন ও বাঘাইছড়ি থেকে রাঙামাটি নৌ পথে কোনো লঞ্চ ছেড়ে যায়নি।

বুধবার হাটের দিন হলেও সদর এলাকায় যান চলাচল দিল আগের চাইতে একটু কম। বাঙালিরা ছাড়া কোনো পাহাড়ি বাজারে আসেনি। এছাড়া বাঘাইছড়ি ৯ কিলো এলাকাসহ কয়েকটি স্থানে রাস্তায় আগুন জালিয়ে পিকের্টিং এর খবর পাওয়া গিয়েছে। তবে এখনো পর্যন্ত কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

অপর দিকে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২৭ বিজিবি মারিশ্যা জোন ও বাঘাইছড়ি থানার পুলিশ সাধারণ মানুষের চলাচলে যাতে বিঘ্ন না ঘটে তাই নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য,  গত ৪ জানুযারি বাঘাইছড়ি বাবু পাড়ায়  জেএসএস এমএনলারমা যুব সমিতির সদস্য বসু চাকমাকে হত্যার ঘটনা ঘটে। এর পর ৫ জানুযারি জেএসএস সন্তলারমার দলের উপজেলা চেয়ারম্যান রড়ঋষি চাকমাসহ ২৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে প্রভাত কুসুম তালুকদার।

বাঘাইছড়িতে তিন আগ্নেয়াস্ত্রসহ ইউপিডিএফের পরিচালক আটক

সাজেক প্রতিনিধি:

রাাঙ্গামাটি জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলার বঙ্গলতলী ও রুপকারী শাখার ইউপিডিএফের পরিচালক এবং ইউপিডিএফ’র বিচার বিভাগীয় পরিচালক অটল চাকমা(৫৫) ও তার সহকারী শুদ্ধজয় চাকমা(৪২) কে আটক করেছে নিরাপত্তা বাহিনী।

সোমবার ভোর পাঁচটার দিকে মধ্য বঙ্গলতলীর সতিরঞ্জন চাকমার বাড়ী থেকে তাদের আটক করা হয়।
এ সময় তাদের কাছ থেকে ২টি এলজি, ১টি দেশীয় বন্দুক, ১০ রাউন্ড কার্তুজ, ১৫টি চাঁদার রশিদ বই, ১ সেট সামরিক পোশাক, ৪টি মোবাইল, ১টি নোট বুক, ১টি রেডি সহ গুরুত্বপূর্ণ নথি উদ্ধার করা হয়।

নিরাপত্তা বাহিনী সুত্রে জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ৪ইস্ট বেঙ্গল বাঘাইহাট সেনা জোন থেকে নিরাপত্তা বাহিনীর একটি টিম অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, আটক অটল চাকমা একজন চিহ্নিত সন্ত্রাসী। গত ৩ এপ্রিল একই এলাকা থেকে পরিচালক সুগত চাকমাকে আটকের পর ঐ দায়িত্বে আসে অটল চাকমা।

আর আসার পর থেকেই এলাকার ছোট বড় সকল ব্যবসায়ীর কাছ থেকে সে লাগামহীন চাঁদাবাজী করতে থাকে আর অস্ত্র দিয়ে প্রতিনিয়ত লোকজনের মাঝে ভয়ভীতি দেখিয়ে আসছিল তারা। তাদেরকে আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। এবং তাদের দেওয়া তথ্যমতে, এলাকায় অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে নিরাপত্তা বাহিনী সুত্রটি।

আটক ইউপিডিএফ নেতা অটল চাকমা বাঘাইছড়ি উপজেলার কাট্রলী গ্রামের মৃত মনিন্দ্র চাকমার ছেলে এবং তার সহকারী শুদ্ধজয় চাকমা দীঘিনালা উপজেলার সংগলা গ্রামের চিত্তরঞ্জন চাকমার ছেলে বলে জানা যায়।

এবিষয়ে বাঘাইছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ আমির হোসেন বলেন, আটককৃতরা উপজেলার শীর্ষ চাঁদাবাজ সন্ত্রাসী। তাদের বিরুদ্ধে এলাকায় ব্যাপক চাঁদাবাজীসহ বিভিন্ন অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

এ বিষয়ে ইউপিডিএফ’র বাঘাইছড়ি উপজেলা পরিচালক জুয়েল চাকমা বলেন, ইউপিডিএফ তো কোন নিষিদ্ধ দল নয়। গণতান্ত্রিক একটি দলের সদস্যদের অন্যায় ভাবে আটক করা ঠিক নয়। তাদেরকে সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে আটক করা হয়েছে। আমার জানা মতে, তাদের কাছে আটকের সময় কিছুই ছিলনা। আটকের বিষয়ে ইউপিডিএফ’র পক্ষ থেকে এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি ।