মাটিরাঙ্গায় বাসের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক, মাটিরাঙ্গা:

খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় যাত্রীবাহী বাসের চাকায় পিস্ট হয়ে কালা মারমা (৪০) নামে এক মোটর সাইকেল আরোহী নিহত। এঘটনায় নিহাল ত্রিপুরা নামে অপর একজন গুরুতর আহত হয়েছে।

মঙ্গলবার রাত সোয়া ৮টার দিকে খাগড়াছড়ি-চট্টগ্রাম আঞ্চলিক সড়কের মাটিরাঙ্গার বাইল্যাছড়ি মাদ্রাসার সামনে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত কালা মারমা মাটিরাঙ্গা পৌর যুবলীগের সদস্য এবং বাইল্যাছড়ি ১নাং রাবার বাগান এলাকার মৃত: মথু মারমার ছেলে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাত সোয়া ৮টার দিকে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা খাগড়াছড়িগামী দ্রুতগতি সম্পন্ন যাত্রীবাহী বাস (চট্টমেট্টো-ঘ-১১- ০৫-০০১৫) মাটিরাঙ্গা থেকে আসা মোটর সাইকেলকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই মোটর সাইকেল চালক কালা মারমা নিহত হয়। এ ঘটনায় মোটর সাইকেল আরোহী নিহাল ত্রিপুরা গুরুতর আহত হয়।

গুরুতর আহত নিহাল ত্রিপুরার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে মাটিরাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে।

মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সৈয়দ মো. জাকির হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঘাতক বাসটিকে আটক করা গেলেও চালক-হেলপার পলাতক রয়েছে।

চকরিয়ায় বিদ্যুতের খুঁটির চাঁপায় শ্রমিক নিহত

চকরিয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের চকরিয়ায় বিদ্যুতের খুঁটির চাঁপায় মতিউর রহমান (৩২) নামে এক শ্রমিক নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) সকাল ১০টার দিকে উপজেলার পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের লাল ব্রিজ নামক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মতিউর পাবনা জেলার ভাঙ্গুরা থানার মন্ডপিস ইউনিয়নের মল্লিক চক এলাকার ছিদ্দিক আহমদের ছেলে।

নিহতের সহকর্মী শহিদুল ইসলাম বলেন, সকালে পল্লী বিদ্যুতের লাইন সম্প্রসারণের কাজ করছিল কয়েক জন শ্রমিক। পাঁচ জন শ্রমিক বিদ্যুতের একটি খুঁটি কাঁধে নিয়ে ট্রলি গাড়িতে উঠানোর সময় খুঁটির ওজন সহ্য করতে না পেরে অপর চার জন শ্রমিক সটকে পড়লেও মতিউর সরতে পারেনি।

এসময় খুঁটি চাপায় গুরুতর আহত হয় মতিউর। স্থানীয় লোকজন তাকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী চিকিৎসক মো. নাজিম উদ্দিন বলেন, গুরুতর আহত অবস্থায় মতিউরকে হাসপাতালে আনার পর সে মারা যায়।

এ ব্যাপারে চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে মতিউর নামে নিহত এক শ্রমিকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ নিয়ে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা রুজু করা হয়েছে।

মহেশখালীতে আব্বাস বাহিনীর হামলায় পান চাষি নিহত

মহেশখালী প্রতিনিধি:

মহেশখালী উপজেলার ছোট মহেশখালী দক্ষিণ কুল গ্রামে জেটাতো ভাইয়ের দায়ের কোপে আব্দুল কাদের নামে এক পান চাষি খুন হয়েছে।

মঙ্গলবার(২২ জানুয়ারি) ভোরে আব্দুল কাদের চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

ঘটনার সুত্র মতে, ছোট মহেশখালী দক্ষিণ কুল গ্রামের মৃত জোনাব আলীর পুত্র মো. ইউনুস প্রকাশ বাদশার সাথে তাঁর ভাই ইদ্রিসের পারিবারিক বিরোধ চলে আসছিল।

সোমবার (২১ জানুয়ারি)সকালে  মহিলাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এর জের ধরে বাদশাপুত্র আরিফুল প্রকাশ আব্বাস ডাকাত তাঁর অপরাপর সহযোগীদের নিয়ে নিহতের বাড়ির পাশে সন্ধ্যায় অবস্থান করে। ইদ্রিসের পুত্র  আব্দুল কাদের ও অপর ভাইপুত্র আজিজুল হক পানের বরজ থেকে পানের ভার নিয়ে পাহাড় থেকে বাড়ি পৌঁছার পূর্ব মুহুর্তে পরিকল্পিতভাবে আক্রমণ করে। ৮/১০জন দা দিয়ে কাদের ও আজিজ কে মাথায়, পিঠে, কোমরে-সহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষতবিক্ষত করে রাস্তায় ফেলে চলে যায়।

স্থানীয় লোকজন দ্রুত তাদের প্রথমে মহেশখালী পরে কক্সবাজার রেফার  করে ওখানে অবস্থার অবনতি হওয়ায়  আব্দুল কাদেরকে চমেক হাসপাতালে রেফার করে।

মঙ্গলবার ভোরে (২২জানুয়ারি)  ৫টায় আব্দুল কাদের মারা যান।

মহেশখালী থানার ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধর জানান, হামলার ঘটনায় নিহতের বিষয়টি গুরুত্বসহকারে নিয়ে অপরাধীদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে তালিকাভুক্ত মাদক কারবারী নিহত

কক্সবাজার প্রতিনিধি:

টেকনাফে বিজিবির মাদক বিরোধী অভিযানে বন্দুক যুদ্ধের ঘটনায় আহত মাদক ব্যবসায়ী মুছু(৩৫) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। এ অভিযানে ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধার করেছে বিজিবি।

টেকনাফ ২বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল আছাদুদ-জামান চৌধুরী জানান, রবিবার (২০ জানুয়ারি) ভোররাত ২টায় টেকনাফ ২বিজিবি ব্যাটালিয়নে কর্মরত নায়েক হাবিল উদ্দিনের নেতৃত্বে বিজিবি-পুলিশের পৃথক দু’টি টহল দল ইয়াবাসহ আটক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের তালিকাভূক্ত মাদক ব্যবসায়ী পৌর এলাকার উত্তর জালিয়া পাড়ার মৃত জাকির হোসেনের পুত্র মোস্তাক আহমদ মুছুকে নিয়ে তাঁর আস্তানায় অভিযানে গেলে তাঁর গ্রুপের লোকজন পুলিশ-বিজিবিকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে। এতে বিজিবির সদস্য সিপাহী আব্দুল আউয়াল (২৪), ল্যান্সনায়েক আব্দুল আলিম (২৮) ও পুলিশ সদস্য আল আমিন (২১) আহত হলে পুলিশ-বিজিবি পাল্টা গুলিবর্ষণ করে।

কিছুক্ষণ পর পরিস্থিতি শান্ত হলে ঘটনাস্থল তল্লাশি করে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মুছুসহ ১০ হাজার ইয়াবা, ১টি আগ্নেয়াস্ত্র ও খোসা উদ্ধার করে। মুছুকে টেকনাফ উপজেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে রেফার করেন। পরে তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

টেকনাফ ২বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক, এই মাদক বিরোধী অভিযান ও বন্দুকযুদ্ধ এবং চিকিৎসাধীন অবস্থায় মাদক ব্যবসায়ীর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

খাগড়াছড়িতে দুর্বৃত্তের গুলিতে ইউপিডিএফ কর্মী নিহত

 

নিজস্ব প্রতিবেদক, খাগড়াছড়ি:

খাগড়াছড়িতে দুর্বৃত্তের গুলিতে পিপলু বৈষ্ণব ত্রিপুরা ওরফে রনি (৪২) নামে ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের কর্মী নিহত হয়েছেন।

শনিবার (১৯ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ৮টার দিকে জেলা সদরের গাছবান এলাকায় দুর্বৃত্তরা তাকে গুলি করে পালিয়ে যায়। নিহত রনি খাগড়াছড়ির রামগড় উপজেলার বল্টুরাম এলাকার মৃত নিগমানন্দ বৈষ্ণব ত্রিপুরার ছেলে। এসময় রনি গাছবানমুখ এলাকায় শ্বশুর বাড়িতে অবস্থান করছিলেন।

পুলিশ জানায়, রনি পাহাড়ের আঞ্চলিক সংগঠন ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের সামরিক শাখার সাথে সম্পৃক্ত ছিল। ২০১৬ সালের ১৩ নভেম্বর যৌথ বাহিনীর এক অভিযানে অস্ত্রসহ আটক হয়েছিল। কারাগার থেকে বের হয়ে আবারও সে ইউপিডিএফ’র সাথে সম্পৃক্ত হয়ে পড়ে।

তবে নিহত রনিকে নিজেদের সাবেক কর্মী দাবি করে ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক নিরন চাকমা বলেন, একটি দুর্ঘটনায় পায়ে আঘাত পেয়ে শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধী হয়ে পড়েন। ইউপিডিএফ’র সাথে সম্পৃক্ত থাকায় জনসংহতি সমিতির সংস্কারবাদীরা তাকে হত্যা করেছে।

ইউপিডিএফ’র অভিযোগ অস্বীকার করে জনসংহতি সমিতির (এমএন লারমা) কেন্দ্রীয় ছাত্র যুব বিষয়ক সম্পাদক এবং বাঘাইছড়ি উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সুদর্শন চাকমা জানান, এটি তাদের নিজেদের অভ্যন্তরীণ বিরোধের কারণে হয়ে থাকতে পারে। জনসংহতি সমিতি ‘পার্বত্যচুক্তি’ বাস্তবায়নে নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনে বিশ্বাসী। গ্রুপের কেন্দ্রীয় প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক সুধাকর ত্রিপুরা।

খাগড়াছড়ি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাহাদাত হোসেন টিটো ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ১৩ নভেম্বর খাগড়াছড়িতে যৌথ বাহিনীর অভিযানে একটি টুটু বোরের রাইফেল ও বিপুল পরিমান সামরিক সরঞ্জামসহ ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট’র(ইউপিপিএফ) সে সময়কার সামরিক শাখার প্রধান উজ্জল স্মৃতি চাকমাসহ পিপলু বৈঞ্চব ওরফে রনি ত্রিপুরা গ্রেফতার হয়েছিলেন। পরে জামিনে বের হয়ে আত্মগোপনে চলে যায়।

বান্দরবানে ট্রাকচাপায় যুবক নিহত

বান্দরবান প্রতিনিধি:

বান্দরবানে ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনায় উজ্জল তংচঙ্গা (২২) নামে এক যুবক  নিহত হয়েছে।

রবিবার(১৩ জানুয়ারি) দুপুরে রোয়াংছড়ি উপজেলার বাঘমারা লক্ষীমোহন পাড়ায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

পুলিশ, হাসপাতাল ও আহত সূত্রে জানা যায়, সে লক্ষীমোহন পাড়ার মতি লাল তংচঙ্গার ছেলে। সকালে বাসা থেকে বের হয়ে বন্ধুর সাথে বাজারে  যাওয়ার পথে দূর থেকে প্রচণ্ড গতিতে আসা চট্টমেট্রো ১৯০৭  টিএস ট্রাক তাকে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলে উজ্জল তংচঙ্গা নিহত হণ।

নিহতের বন্ধু জানান, তারা দুই জন রাস্থার এক পাশে হেটে যাচ্ছিল, গাড়ির চালক নিয়ন্ত্রণহীন ভাবে গাড়ি চালিয়ে এসে তাকে ধাক্কা দিলে সে ঘটনাস্থলে নিহত হয়। খবর পেয়ে স্থানীয়রা তাকে বান্দরবান সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

এ বিষয়ে তদন্তরত পুলিশ কর্মকর্তা প্রিয়াল জানান, তারা ঘটনার সত্যতা যাচাই করছে এবং দুই পক্ষের মধ্যে একটা সমাধানের চেষ্টা করছে। আশা করছে তারা সত্যতা উৎঘাটন করে চালকের বিরুদ্ধে আইনগত  প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা নিবে ।

টেকনাফে পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২

কক্সবাজার প্রতিনিধি:

টেকনাফে পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুইজন নিহত হয়েছে। এসময় ঘটনাস্থল থেকে পাঁচটি দেশীয় বন্দুক ও ২২ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার(১০ ডিসেম্বর) দিবাগত রাত ২টায় টেকনাফের সাবরাং খুরের মুখ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, সাবরাং কচুবনিয়ার এলাকার মৃত এনাম শরীফের পুত্র আবদুর রশিদ প্রকাশ ধলাইয়া (৪৭) ও কাটাবনিয়ার আবদুর রহমানের পুত্র আবুল কালাম (৩৫)। নিহত দুজনই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ী বলে পুলিশের দাবি।

পুলিশ বলছে, বন্দুকযুদ্ধে দুই ইয়াবা ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। এসময় টেকনাফ থানার এসআই বোরহান উদ্দীন, এএসআই ফরহাদ ও কনস্টেবল হৃদয় আহত হয়েছেন। তাদেরকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ জানান, নিহত দু’জন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ী। নিহত আবুল কালামের বিরুদ্ধে মাদক ও মানবপাচারসহ ১০টি এবং আবদুর রশিদের বিরুদ্ধে ছয়টি মামলা রয়েছে। নিহতদের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ২ মাদক ব্যবসায়ী নিহত

বিশেষ প্রতিনিধি, কক্সবাজার:

টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে  ২ মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। সোমবার (৭ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ৩টার দিকে দমদমিয়া চেকপোস্টের সামনে র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

এতে দুইজনের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তারা মাদক কারবারী বলে জানিয়েছে র‌্যাব। ঘটনাস্থল থেকে ৪০হাজার পিস ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহতরা বাগের হাট চিতলমারী উপজেলার বড় বাড়িয়া গ্রামের মো. ইব্রাহীম শেখের ছেলে সাব্বির হোসেন (২৫) ও ঢাকা সাভার উপজেলার নগর কুন্ডা গ্রামের আবদুল মতিনের ছেলে হাফিজুর রহমান(৩৫)।

সংবাদটি নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ র‌্যাব কোম্পানি কমান্ডার এএসপি শাহ আলম।তিনি জানান, টেকনাফ দমদমিয়া চেকপোস্টে একটি কাভার্ড ভ্যানকে তল্লাশীর জন্য গতিরোধ করার চেষ্টা করা হলে গাড়ির ভিতর থেকে র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়ে মাদক কারবারীরা। র‌্যাবও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুঁড়ে। পরে ঘটনাস্থল থেকে দুইজন মাদক কারবারীর গুলিবিদ্ধ লাশ, ৪০ হাজার পিস ইয়াবা, একটি বিদেশি পিস্তল একটি ওয়ান সুটারগান ও ১১ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

মাদক পাচারে ব্যবহৃত কাভার্ড ভ্যানটিও জব্দ করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

চকরিয়ায় বাস চাপায় বীমা কর্মকর্তা নিহত

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত

নিজস্ব প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের চকরিয়ায় দ্রুতগামী যাত্রীবাহী বাসের চাপায় এসএম ফিরোজ মিয়া (৫০) নামে একজন বীমা কোম্পানির কর্মকর্তার মৃত্যু হয়েছে। রোববার সকাল ১০টার দিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চকরিয়া উপজেলার নলবিলা বিট কাম ফরেস্ট চেক স্টেশনের কাছে এই দুর্ঘটনাটি ঘটে।

নিহত এসএম ফিরোজ চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলার ফকিরহাট এলাকার মৃত নুরুল ইসলামের পুত্র। তিনি চকরিয়া আবাসিক মহিলা কলেজের প্রভাষক জারিয়া সুলতানার স্বামী এবং একটি বীমা কোম্পানির বাঁশখালী শাখার জোনাল ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

নিহতের স্ত্রী প্রভাষক জারিয়া সুলতানা জানান, প্রতিদিন পৌর শহর চিরিঙ্গার সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় রোডের ভাড়াবাসা থেকে মোটর সাইকেল যোগে কর্মস্থল বাঁশখালীতে আসা-যাওয়া করতেন। রোববার মোটরসাইকেল নিয়ে বাঁশখালী যাওয়ার পথে উপজেলার মহাসড়কের নলবিলা এলাকা অতিক্রম করার সময় যাত্রীবাহী সৌদিয়া পরিবহরে একটি বাস তাকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান তিনি।

মহাসড়কের চিরিংগা হাইওয়ে পুলিশের (আইসি) আবুল হাসেম বলেন, বীমা কোম্পানিতে কর্মরত ফিরোজ মিয়া নামের এক ব্যক্তি মোটর সাইকেল যোগে কর্মস্থলে যাওয়ার সময় পেছন থেকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান তিনি। দুর্ঘটনা পতিত গাড়ি দুটি আমরা জব্দ করেছি। আইনগত প্রক্রিয়া শেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

জুড়াছড়িতে ডায়রিয়ায় ৪০শিশু আক্রান্ত, নিহত- ১

স্টাফ রিপোর্টার:

রাঙামাটি জুরাছড়ি উপজেলায় হঠাৎ ডায়রিয়ায় অন্তত ৪০ শিশু আক্রান্ত ও এক জনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতের শিশুর নাম প্রমিতা চাকমা (১)। সে দুমদুম্যা ইউনিয়নের বরকলক গ্রামের মধুরঞ্জন চাকমার কন্যা সন্তান। শনিবার রাঙামাটি জুরাছড়ি উপজেলার দুমদুম্যা ইউনিয়নের বরকলক গ্রামে এঘটনা ঘটে।

স্থানীয় এলাকাবাসী ও ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার সূত্রে জানা গেছে, রাঙামাটি জুরাছড়ি উপজেলার দুমদুম্যা ইউনিয়নের বরকলক গ্রামে হঠাৎ ডায়রিয়ার প্রকোপ দেখা দিয়েছে। এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার রাত থেকে শনিবার পর্যন্ত ৩০ পরিবারের অন্তত ৪০ জন শিশু আক্রান্ত হয়েছে। এ সময় ডায়রিয়া রোগে আক্রান্ত হয়ে মধুরঞ্জন চাকমার কন্যা সন্তান প্রমিতা চাকমার মৃতু হয়। এ ঘটনায় পুরো এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এছাড়া জুরাছড়ি উপজেলার বরকলক, স্কুল পাড়া, কান্দিরা, বাপছড়া, গাছতলী পাড়াসহ বেশ কয়েকটি গ্রামে ডায়রিয়া আক্রন্ত রোগির খবর পাওয়া যায়।

জুরাছড়ি উপজেলার দুমদুমিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান তরুন কান্তি চাকমা জানান, গত তিনদিন ধরেই উপজেলার বেশ কয়েকটি গ্রামে ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। এ রোগে এক শিশু মৃত্যুও হয়েছে। দুর্গম এলাকা হওয়ায় সহজে সেসব গ্রামে চিকিৎসা সেবা পৌছানো যাচ্ছেনা। তবে পাশ্ববর্তী উপজেলা বিলাইছড়ি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানোর হয়েছে বেশ কয়েজন রোগিকে।

রাঙামাটি জেলা সিভিল সার্জেন ডা. স্নেহ কান্তি চাকমা এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার জানান, শুনেছি দুর্গম জুরাছড়ি উপজেলার দুমদুমিয়া ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রামে ডায়রিয়া রোগের প্রকোপ দেখা দিয়েছে। গ্রামগুলো দুর্গম তাই সহজে সব তথ্য পাওয়া যাচ্ছে না। তবে মেডিকেল টিমের মাধ্যমে ওই সবগ্রামে আক্রান্তদের চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে।

এ বিষয়ে বিলাইছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান উদয় জয় চাকমা জানান, ডায়রিয়া রোগে আক্রান্ত হয়ে একটি শিশুর মৃতু হয়েছে। বর্তমানে আক্রান্তদের চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে। এ ঘটনায় আর কোন রোগির মৃত্যু হয়নি।