পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ১৭তম কাউন্সিল সম্পন্ন

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

“পূর্ণস্বায়ত্তশাসনই পার্বত্য চট্টগ্রামের একমাত্র সমাধান” এই স্লোগানকে সামনে রেখে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ১৭তম কাউন্সিল ও দ্বিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) প্রেসক্লাবের ইঞ্জিনিয়ার আবদুল খালেক মিলনায়তনে দিনব্যাপী ১ম ও ২য় অধিবেশনের মধ্য দিয়ে এ কাউন্সিল সম্পন্ন হয়।

অনুষ্ঠানের শুরুতে পিসিপি দলীয় সঙ্গীত বাজিয়ে যথাক্রমে জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করেন জাতীয় মুক্তি কাউন্সিল চট্টগ্রাম পূর্ব-৩ এর সভাপতি এডভোকেট ভূলন লাল ভৌমিক ও বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সুনয়ন চাকমা।

কাউন্সিল প্রস্তুতি কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক রিংকু চাকমার সভাপতিত্বে ও বিদায়ী কমিটির তথ্য প্রচার সম্পাদক প্রসেনজিৎ ত্রিপুরার সঞ্চালনায় কাউন্সিলের ১ম অধিবেশনে শোক প্রস্তাব পাঠ করেন স্বপন খীসা।

কাউন্সিলের ১ম অধিবেশনে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনটির বিদায়ী কমিটির সদস্য সোহেল চাকমা। এরপর বক্তব্য রাখেন পার্বত্য নারী সংঘ চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সভাপতি রেশমী মারমা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মন্টি চাকমা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামে চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সহ-সভাপতি শুভ চাক, জাতীয় মুক্তি কাউন্সিল চট্টগ্রাম পূর্ব-৩ অঞ্চলের সভাপতি এ্যাডভোকেট ভূলন লাল ভৌমিক।

এছাড়া কাউন্সিল সম্মেলনে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন মহানগর শাখার সভাপতি লোকেন দে ও বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন (জোনায়েদ সাকি) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক শুভ মারমা।

বান্দরবানে ত্রিপুরা স্টুডেন্ট ফোরামের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত

Bandarban mp pic-29.1

স্টাফ রিপোর্টার:

ত্রিপুরা ফোরাম বান্দরবান জেলা শাখার ৫ম কাউন্সিল ও সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার ক্ষুদ্র নৃ-গাষ্ঠী সাংস্কৃতিক ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত কাউন্সিলে সুকেন্দু ত্রিপুরা সভাপতি, শান্তি ত্রিপুরা সাধারণ সম্পাদক ও সমীরণ ত্রিপুরাকে সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি।

বান্দরবানে ত্রিপুরা স্টুডেন্ট ফোরামের সভাপতি মাচং উইলিয়াম ত্রিপুরার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন, জেলা প্রশাসক দীলিপ কুমার বণিক, অতিরিক্ত জেলা পুলিশ সুপার রেজাউল মাসুদ, জেলা পরিষদ সদস্য সাদুরাম ত্রিপুরা মিল্টন, খুশি রায় ত্রিপুরা, রাফায়েল ত্রিপুরা প্রমূখ। কাউন্সিলে জেলার ৭টি উপজেলার ত্রিপুরা সম্প্রদায়ের শত শত শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, কাউন্সিলরের মাধ্যমে ৩৫ সদস্য বিশিষ্ট জেলা কমিটি ছাড়াও উপজেলা কমিটি এবং লামা, নাইক্ষংছড়ি ও বান্দরবান কলেজ শাখা কমিটি গঠন করা হবে।