নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

Sassa sebok Lig

নাইক্ষ্যংছড়ি প্রতিনিধি:

বাংলাদেশ স্বেচ্ছাসেবক লীগ নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা শাখার বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার সকাল ১১টায় উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে এ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আবদুস সাত্তারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মী সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন এমপি প্রতিনিধি ও প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা আলহাজ্ব খায়রুল বাশার।

এছাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক তসলিম ইকবাল চৌধুরী, আওয়ামী লীগ নেতা ডা. ইসমাইল হোসেন, সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি তারেক রহমান, কৃষকলীগ সাধারণ সম্পাদক সাইফুদ্দিন মামুন শিমুলসহ সভায় স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিটি ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের উদ্যোগে নবনির্বাচিত পৌর মেয়র ও কাউন্সিলরদের সংবর্ধনা

1

সিনিয়র রিপোর্টার:

মাটিরাঙ্গা উপজেলা ও পৌর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড ও সন্তান কমান্ডের উদ্যোগে মাটিরাঙ্গা পৌরসভার নবনির্বাচত মেয়র ও কাউন্সিলরদের সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকালে মাটিরাঙ্গা উপজেলা সংলগ্ন বিনোদনমূলক পার্ক জলপাহাড় অডিটোরিয়ামে অনুুষ্ঠানিক ভাবে এই সংবর্ধনা দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে মাটিরাঙ্গা পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র ও মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. শামছুল হক বলেছেন, মুক্তিযোদ্ধারা এ দেশের গর্বিত সন্তান। তাদের আত্মত্যাগের কারণেই আমরা আজ স্বাধীন দেশ পেয়েছি। মাটিরাঙ্গা পৌর প্রশাসন সব সময় মুক্তিযোদ্ধাদের পাশে থাকবে। মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে সরকারের নেয়া নানা উদ্যোগের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, সরকারের ন্যায় পৌর প্রশাসনের পক্ষ থেকেও সকল ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধাদের প্রাধান্য দেয়া হবে।

মাটিরাঙ্গা পৌর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের কমান্ডার মো. আবুল হাসেম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মো. নাছির আহাম্মেদ চৌধুরী, মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সুভাষ চাকমা, মাটিরাঙ্গা উপজেলার যুদ্ধকালীন কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আলী আশরাফ, মাটিরাঙ্গা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. মনছুর আলী ও মাটিরাঙ্গা পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আলাউদ্দিন লিটন প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে মাটিরাঙ্গা পৌরসভার নবনির্বাচিত কাউন্সিলরগণ ছাড়াও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিক, মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের সন্তানরা উপস্থিত ছিলেন।

সংবর্ধনার শুরুতেই উপজেলার সকল মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের পরিবারের সদস্যদের পক্ষ থেকে মাটিরাঙ্গা পৌরসভার মেয়র ও কাউন্সিলরদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়া হয়। এর পরপরই মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষ থেকে মাটিরাঙ্গা পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র মো. শামছুল হক‘র হাতে নৌকা খচিত ক্রেস্ট তুলে দেন মাটিরাঙ্গা উপজেলার যুদ্ধকালীন কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আলী আশরাফ।

খাগড়াছড়ির নতুন উপজেলা গুইমারা

974359_632085976885693_1402312299_n

মুজিবুর রহমান ভুইয়া :

অবশেষে খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা উপজেলার একাংশ ও রামগড় উপজেলার একাংশ নিয়ে ‘গুইমারা’ থানা-কে উপজেলায় উন্নীত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

 

সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির (নিকার) সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সভা শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব এন এম জিয়াউল আলম উপস্থিত সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, পার্বত্য খাগড়াছড়ি জেলার গুইমারা থানাকে উপজেলায় উন্নীত করা হবে। ১১৫ বর্গকিলোমিটার আয়তনের নতুন এ উপজেলা তিনটি ইউনিয়ন নিয়ে তার কার্যক্রম চালাবে। আর এ উপজেলার জনসংখ্যা ৪৪ হাজার ২০২ জন। খাগড়াছড়ির গুইমারা থানা-কে উপজেলায় উন্নীত করার সিদ্ধান্তের ফলে খাগড়াছড়িতে উপজেলার সংখ্যা দাঁড়াবে নয়-এ। এর আগে আট উপজেলা নিয়ে পরিচালিত হতো খাগড়াছড়ির প্রশাসনিক কর্মকান্ড।

PIC_0332 DSCF2780

এদিকে গুইমারা থানা-কে উপজেলায় উন্নীত করার সরকারী সিদ্ধান্তের খবরটি বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশের পর আনন্দবণ্যা বইছে নতুন উপজেলা গুইমারাজুড়ে। চলছে মিষ্টি বিতরনের ধুম। নেচে-গেয়ে আনন্দ প্রকাশ করছে নানা শ্রেনী-পেশার বিভিন্ন বয়সী মানুষ। গুইমারা সাংবাদিক ফোরামের আহবায়ক এম সাইফুর রহমান বলেন, দীর্ঘদিন পরে হলেও গুইমারাবাসীর স্বপ্ন পুরণ হলো। তার মতে উন্নয়নের দিক থেকে পিছিয়ে পড়া গুইমারা এখন উন্নয়নের আলো দেখবে।

প্রসঙ্গত, গেল বছরের ১১ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার খাগড়াছড়ি সফরকালে গুইমারা থানা-কে উপজেলা হিসেবে ঘোষনা দেবেন এমন খবরে গুইমারার হাজার হাজার নারী পুরুষ সেদিন প্রধানমন্ত্রীর খাগড়াছড়ি স্টেডিয়ামে গেলেও সে ঘোষনা না আসায় হতাশ হয়েই ফিরে আসে গুইমারাসী। সেদিন অনেকেই গুইমারা থানা-কে উপজেলায় উন্নীত না করার সরকারের অনাগ্রহে ক্ষোভও প্রকাশ করেছে। ধারনা করা হয়েছিল আর কখনোই গুইমারা থানা-কে উপজেলায় উন্নীত করার সরকারী ঘোষনা আসবেনা। এমন ধারনার মধ্য দিয়ে সরকারের এমন সিদ্ধান্তে তারা আজ উদ্বেলিত।

প্রসঙ্গত, ২০১০ সালে খাগড়াছড়ির তৎকালীন জেলা প্রশাসক ও বর্তমান চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো: আবদুল্লাহ গুইমারা থানাকে উপজেলায় উন্নীত করার প্রস্তাব পেশ করেন। তখন প্রস্তাবটি নিকার’র অনুমোদন না পাওয়ায় সে যাত্রায় প্রক্রিয়াটি থেমে যায়।