মানিকছড়িতে উপজেলা ছাত্রদলের উদ্দ্যোগে বিএনপির নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম উদ্বোধন

মানিকছড়ি প্রতিনিধি:

দেশব্যাপী কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে মানিকছড়িতে উপজেলা ছাত্রদলের উদ্দ্যোগে বিএনপির নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়েছে। উপজেলার ৪টি ইউনিয়নের ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে এবং গ্রামে গ্রামে চলবে বিএনপির সদস্য সংগ্রহ এবং নবায়ন কার্যক্রম।

বিএনপির নতুন সদস্য সংগ্রহ এবং পুরাতন সদস্য নবায়ন কার্যক্রমে নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া ও উৎসাহ উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছে।

মানিকছড়ি উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক এনাম এ কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্ধোধন করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে কয়েকশত নেতা-কর্মী সমাবেত হন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মুজিবুল হক বাহার, উপজেলা যুবদলের যুব নেতা মোশারফ হোসেন মেম্বার, যুবনেতা মো. জয়নাল মেম্বার, উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন কিশোর, সাংগঠনিক সম্পাদক মুনসুর আলীসহ কলেজ ও ইউনিয়ন ছাত্রদলের নেতৃবৃন্দ।




দেশপ্রেম এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে: লে. কর্নেল আ. আলীম চৌধুরী

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, দীঘিনালা:

লংগদু  উপজেলায় বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে মহান স্বাধীনতার স্থপতি  বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয়েছে।

এ উপলক্ষ্যে মঙ্গলবার (১৫ আগস্ট) সকালে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ হতে  স্থাপিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এসময় উপজেলা মুক্তিযুদ্ধা সংসদ, পুলিশ প্রশাসন, বিভিন্ন বেসরকারি দপ্তর এবং শ্রেণী পেশার লোকজন  পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

পরে অনুষ্ঠিত শোকসভায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.  মোসাদ্দেক মেহেদী ঈমাম এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন লংগদু জোনের জোন কমান্ডার লে. কর্নেল আ. আলীম চৌধুরী, পি এস সি। শোক সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন লংগদু উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. তোফাজ্জল হোসেন, লংগদু থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মোমিনুল ইসলাম এবং লংগদু সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রাজিব ত্রিপুরা প্রমূখ।

শোকসভায় প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন,  স্বাধীনতা অর্জনের চেয়ে রক্ষা করা আরো অনেক বেশি কঠিন। তাই আমাদের প্রত্যেককে দেশপ্রেমে এবং জাতির জনকের আদর্শে উদ্বুদ্ধ হয়ে নিজ দায়িত্ব সঠিক ভাবে পালনের মাধ্যমে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। যে কোন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে রুখে দাড়িয়ে সমন্নিতভাবে দেশকে সুখ, সমৃদ্ধি ও অগ্রগতির দিকে নিয়ে যেতে হবে।

শোকসভার পর অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি লংগদু জোনের জোন কমান্ডার লে. কর্নেল আ. আলীম চৌধুরী, পিএসসি

এদিকে শোক দিবস উপলক্ষ্যে লংগদু সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের  শিক্ষার্থীদের মধ্যে  চিত্রাঙ্কণ, রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে লংগদু জোনের জোন কমান্ডার লে. কর্নেল আ. আলীম চৌধুরী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্হিত থেকে বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মধ্যে পুরস্কার তুলে দেন। পরে বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধ এবং জাতির পিতার জিবনী সম্পর্কিত বই বিতরণ করা হয়। এছাড়া বিদ্যালয়ের ৬০জন শিক্ষার্থীদের  কম্পিউটার প্রশিক্ষণের বই দেয়া হয়।




মাটিরাঙ্গায় আ’লীগের শোকসভায় দলের ঐক্য বিরোধী অপতৎপরতা প্রতিহত করার আহ্বান

নিজস্ব প্রতিবেদক, মাটিরাঙ্গা:

শোকাবহ আয়োজনে বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে মাটিরাঙ্গায় সংগঠনের ঐক্য ও স্বার্থ বিরোধী অপতৎপরতা প্রতিহত করার আহ্বানের মধ্য দিয়ে মাটিরাঙ্গায় শোক র‌্যালি করেছে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা। মঙ্গলবার বিকালের দিকে দলীয় কার্যালয় থেকে বের হওয়া শোক র‌্যালি মাটিরাঙ্গার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে মাটিরাঙ্গা মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় হয়ে দলীয় কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের আয়োজনে নেতাকর্মীদের স্বতঃস্ফুর্ত অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত শোক ‌র‌্যালি পরিনত হয় জনস্রোতে। নিকট অতীতে সরকারি দল আওয়ামী লীগের কোন কর্মসূচিতে নেতাকর্মীদের এতো সমাগম দেখা যায়নি। তবে শোক দিবসের এ কর্মসূচিতে মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের একাধিক শীর্ষ নেতা উপস্থিত না থাকায় তৃনমুল নেতাকর্মীদের ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা গেছে।

শোক র‌্যালি শেষে দলীয় কার্যালয়ে মাটিরাঙ্গা পৌর আওয়ামী লীগের সিনি. সহ-সভাপতি মো. আবদুল সালাম’র সভাপতিত্বে মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক মো. তাজুল ইসলামের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত শোক সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. এরশাদুজ্জামান।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. ওয়ালী উল্যাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আলী হোসেন, মাটিরাঙ্গা পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি এমএম জাহাঙ্গীর আলম, মাটিরাঙ্গা উপজেলা মহিলালীগের সভাপতি হোসনে আরা বেগম, মাটিরাঙ্গা পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও প্যানের মেয়র মো. আলাউদ্দিন লিটন, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো. রফিকুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মো. জহিরুল ইসলাম খোন্দকার, মাটিরাঙ্গা পৌর যুবলীগের সভাপতি মো. মোশাররফ হোসেন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি ও ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. এমরান হোসেন, পৌর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি মো. বাবুল আহমেদ, মাটিরাঙ্গা উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক ও ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ আলী ও পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তছলিম উদ্দিন রুবেল বক্তব্য রাখেন।

শোক সভায় বক্তারা বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির জনককে স্বপরিবারে হত্যা করে খুনিচক্র বাঙ্গালি জাতীয়তাবাদকে হত্যা করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করে শোককে শক্তিতে পরিণত করে বঙ্গবন্ধুর সোনারবাংলা গড়ার আহ্বান জানান বক্তারা। মাটিরাঙ্গায় আওয়ামী লীগের রাজনীতির কবর রচনা করতে দলের ভেতর ঘাপটি মেরে থাকা একটি গোষ্ঠী অপতৎপরতা চালাচ্ছে উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, দলের বৃহত্তর ঐক্যের স্বার্থে তাদের যে কোন অপতৎপরতাকে প্রতিহত করা হবে। আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে তৃনমুল নেতাকর্মীদের ঐক্যের ডাক দিলেন বক্তারা।  ১৫ আগস্ট বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার জন্মদিন পালনেরও সমালোচনা করেন বক্তারা।

এর আগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’র আত্মার শান্তি কামনা করে দলীয় কার্যালয়ে মিলাদ মাহফিল ও বিশেষ মোনাজাত এবং কাঙালী ভোজের আয়োজন করা হয়। মিলাদ ও দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন মাটিরাঙ্গা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাও. মো. হারুন অর রশীদ




রামুতে উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালিত

রামু প্রতিনিধি:

রামু উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসনের যৌথ উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে দিনব্যাপী নানা কর্মসূচি পালন করা হয়। কর্মসূচির মধ্যে ছিলো, ভোর ৬টায় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পূষ্পমাল্য অর্পণ, ৬টা ২০মিনিটে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, সকাল সাড়ে ৯টায় পবিত্র কোরআনখানি ও মিলাদ মাহফিল।

সকাল ১০টায় রামু চৌমুহনীস্থ দলীয় কার্যালয়ে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, রামু উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও রামু উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সোহেল সরওয়ার কাজল। রামু উপজেলা আওয়ামী লীগ সহ সভাপতি মাস্টার নুরুল আমিনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম মণ্ডল।

ফতেখাঁরকুল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহিম মুন্সীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি বৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, রামু উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি নুর হোসেন মেম্বার, তপন বড়ুয়া, হানিফ বিন নজির ও নুরুল ইসলাম বকুল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুজন শর্মা ও মৃনাল বড়ুয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল হক চৌধুরী, ইউনুচ রানা চৌধুরী, শেখ জুনায়েদ বিপ্লব, অর্থ সম্পাদক সাংবাদিক নুরুল ইসলাম সেলিম, আওয়ামী লীগ নেতা ফরিদুল আলম, ফজল করিম, নাছির উদ্দিন সিকদার, সাবেক ছাত্র নেতা সাব্বির আহমদ, রাজারকুল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি তারেক সরওয়ার, সাধারণ সম্পাদক সরওয়ার কমল সোহেল, ফতেখাঁরকুল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি ফিরোজ আহমদ, সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহিম, কাউয়ারখোপ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মোহা. হোছাইন মেম্বার প্রমুখ।




জালিয়াপালং আওয়ামী লীগের জাতীয় শোক দিবস পালিত

উখিয়া প্রতিনিধি:

উখিয়ার জালিয়াপালং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে দিয়ে পালন করেছে। জালিয়াপালং ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত শোক সভায় সভাপতিত্ব করেন জালিয়াপালং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান এসএম ছৈয়দ আলম।

প্রধান অতিথি ছিলেন, উখিয়া আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট রুহুল আমিন চৌধুরী রাসেলের পরিচালনায় শোক সভায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক মেম্বার এখলাচুর রহমান, উখিয়া আওয়ামী লীগের অর্থ-সম্পাদক নাজিম উদ্দিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য রশিদ আহমদ, শহিদুল্লাহ কায়সার, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক হেলাল উদ্দিন, মোস্তাক আহমদ, মুসলেম উদ্দিন প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, স্বাধীনতার স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে এ দেশ স্বাধীন হয়েছে। তারই কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যোগ্য দেশ পরিচালনায় বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিনত হতে যাচ্ছে। আজকের এ শোকাবহ দিনে জাতির জনককে শ্রদ্ধা ভরে বাংলার মানুষ স্মরণ করছে।

এসময় ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার, আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগসহ অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। পরে প্রায় ৩ হাজার মানুষের মাঝে কাঙ্গালীভোজ পরিবেশন করা হয়। এর আগে খতমে কোরআন, মিলাদ মাহ্ফিল, কাল ব্যাচধারণ ও পতাকা উত্তোলন করা হয়।




হলদিয়াপালং আ’লীগের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালিত

উখিয়া প্রতিনিধি:

উখিয়ার হলদিয়াপালং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে দিয়ে পালন করেছে। মরিচ্যা উচ্চ বিদ্যালয় মিলাতয়নে অনুষ্ঠিত শোক সভায় সভাপতিত্ব করেন  ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেম্বার মোহাম্মদ ইসলাম।

প্রধান অতিথি ছিলেন, উখিয়া আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফজলুল করিম সিকদারের পরিচালনায় শোক সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, জেলা পরিষদের সদস্য আশরাফ জাহান কাজল, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য আবুল মনসুর চৌধুরী, বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাহিত্য প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সাংবাদিক রাশেল চৌধুরী। ওই শোক সভায় ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ডের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকগণ সহ নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় বক্তারা বলেন, স্বাধীনতার স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমান ও তার স্বপরিবারকে নৃংশস হত্যার পিছনে সাম্রাজ্যবাদী শক্তি যুক্ত ছিলেন। দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌত্বকে নসাৎ করার জন্য বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়। বক্তারা জাতির পিতার হত্যাকারীদেরকে বিদেশ থেকে ফেরত এনে রায় কার্যকর করার দাবি জানানো হয়। এসময় বক্তারা আরও বলেন, আগামী দিনেও জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় বসানোর জন্য নৌকা প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

এসময় ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার, আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগসহ অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। পরে প্রায় ৩ হাজার মানুষের মাঝে কাঙ্গালীভোজ পরিবেশন করা হয়। এর আগে খতমে কোরআন, মিলাদ মাহফিল, কালো ব্যাচধারণ ও পতাকা উত্তোলন করা হয়।




নতুন প্রজন্মদের বঙ্গবন্ধুর আদর্শে আদর্শিত করতে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস তাদের মাঝে তুলে ধরতে হবে: বৃষকেতু

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি:

নতুন প্রজন্মদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আদর্শে আদর্শিত করতে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস তাদের মাঝে তুলে ধরতে হবে। ৭১’র দোসররা ক্ষমতায় আসার পর মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাসকে বিকৃত করে উপস্থাপন করেছে।

মঙ্গলবার সকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে সভাপতির বক্তব্যে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা এসব কথা বলেন।

এসময় সভায় বক্তব্য রাখেন, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা ছাদেক আহমদ, পরিষদের সদস্য সাধন মনি চাকমা, চানমুনি তঞ্চঙ্গ্যা, মনোয়ারা আক্তার জাহান, স্মৃতি বিকাশ ত্রিপুরা, অমিত চাকমা রাজু’সহ পরিষদের বিভিন্ন হস্তান্তরিত বিভাগের কর্মকর্তাগণ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের জনসংযোগ কর্মকর্তা অরুনেন্দু ত্রিপুরা।

চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা বলেন, ৫২’র ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে ৭১’র মহান স্বাধীনতা মুক্তিযুদ্ধে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর অবদান ছিলো অপরিসীম। তিনি এদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা, জাতিকে শিক্ষিত করতে, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি, দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে সবসময় কাজ করে গেছেন।

এ আন্দোলন করতে গিয়ে অনেকবার তাকে জেল কারাবাস ভোগ করতে হয়েছে। তবুও তিনি থেমে থাকেননি। তিনি চেয়েছিলেন এদেশকে একটি সোনার বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তুলতে।

তিনি আরও বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশ পরিচালনার দায়িত্ব নেওয়ার পর হতে দেশে অর্থনৈতিক, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি, নারী উন্নয়নসহ বিভিন্ন সেক্টরে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণে এবং আগামীতে এ উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আমাদের যার যার দায়িত্ব আমাদের সঠিকভাবে পালন করতে হবে। তবেই দেশ ও জাতির উন্নয়ন আরো ত্বরান্বিত।

এর আগে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ এর উদ্যোগে শহরের ভেদভেদীতে নির্মিত বঙ্গবন্ধুর ভাষণের ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও শ্রদ্ধা নিবেদন করেন সদস্যবৃন্দ।

সভা শেষে পরিষদের হস্তান্তরিত বিভাগ রাঙ্গামাটি যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর হতে মৎস্য, কম্পিউটার, ইলেক্ট্রনিক্স ও মিশ্র ফলে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ৫জন যুবকদের মাঝে ৫০হাজার টাকা করে মোট ২লক্ষ ৫০হাজার টাকার চেক বিতরণ করা হয়।




বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতীয়তাবাদকে কেন্দ্র করে রাজনীতির নির্ধারণ করতেন: দীপংকর তালুকদার

 

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি:

আওয়ামী লীগ সরকারের বিরুদ্ধে যে ষড়যন্ত্র হচ্ছে তা কেবল মাত্র শেখ হাসিনা বা সরকারের বিরুদ্ধে নয়, এ ষড়যন্ত্র বাংলাদেশে স্বাধীনতার সার্বভৌমত্বের বিরুদ্ধে। বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতীয়তাবাদকে কেন্দ্র করে রাজনীতির নির্ধারণ করতেন। এ কারণেই তিনি বাঙালির অবিসংবাদিত নেতা হতে পেরেছিলেন।

মঙ্গলবার সকালে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে রাঙ্গামাটি শিল্পকলা একাডেমি সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও রাঙ্গামাটি আওয়ামী লীগের সভাপতি দীপংকর তালুকদার এসব কথা বলেন।

এসময় রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মানজারুল মান্নানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, রাঙ্গামাটি পুলিশ সুপার সাঈদ তারিকুল হাসান, পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী প্রমুখ।

এদিকে শোক র‌্যালি, আলোচনা সভা, রক্তদান কর্মসূচিসহ বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে রাঙ্গামাটিতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে। সকালে রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। জাতির জনকের প্রতি পুস্পমাল্য অর্পণ করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

এদিকে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড, রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ নিজস্ব ভবনে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পণের মধ্যে দিয়ে শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদন করেন।

এর আগে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শোক র‌্যালি বের করা হয়। শোক র‌্যালিটি মুরাল থেকে শুরু হয়ে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে গিয়ে শেষ হয়।

এর আগে সকালে বঙ্গবন্ধুর মুরালে পুস্পমাল্য অর্পণ করে জাতির পিতার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।




টেকনাফে আ’লীগ দু’গ্রুপে পৃথকভাবে শোক দিবস পালিত

 

টেকনাফ প্রতিনিধি:

টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগ দু’গ্রুপে পৃথকভাবে শোকদিবস পালিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ১০টায় উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সাংসদ আবদুর রহমান বদির একাংশ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক মোহাম্মদ আলীর নেতৃত্বে অপর একটি অংশ মিল্কী রিসোর্ট মিলনায়তনে শোক সভার আয়োজন করে।

টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আলম বাহাদুরের সভাপতিত্বে ও উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি সরোয়ার আলমের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন, উখিয়া-টেকনাফের সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদি। বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. শফিক মিয়া, উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আহমদ, ভাইস চেয়ারম্যান মাও. রফিক উদ্দিন, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবরাং ইউপি চেয়ারম্যান নুর হোসেন, বাহারছড়া ইউপি চেয়ারম্যান আজিজ উদ্দিন, জহির হোসেন এমএ, সদর ইউপি চেয়ারম্যান শাহজাহান মিয়া, মহিলালীগের সভাপতি কোহিনুর আক্তারসহ টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগ, শ্রমিক লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও অঙ্গসংগঠনের উদ্যোগে আয়োজিত শোক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আবদুর রহমান বদি এমপি বলেন, ৭৫’র এ দিনে ষড়যন্ত্রকারীরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে হত্যা করে। ষড়যন্ত্রকারী যেই হোক তাদের রক্ষা নেই।

দেশে চক্রান্ত চলছে, চক্রান্তকারীরা খোয়াব দেখছে ক্ষমতার মসনদে আসার জন্য। বিএনপি-জামাতের ইশারার ষোড়শ সংশোধনী বাতিল করেছে। সেখানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে অবমাননাকর আপত্তি করা হয়েছে। শ্রীঘ্র্রই তাহা বাতিল করতে হবে। অন্যথায় দেশের জনগণ মানবেনা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন দেখে চক্রান্তকারীরা দিশেহারা। তাই আগামী নির্বাচনে আবারো আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।  সভাশেষে কাঙ্গালী ভোজের আয়োজন করা হয়।

অপরদিকে মিল্কী রিসোর্ট মিলনায়তনে সাবেক সাংসদ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক মোহাম্মদ আলীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক নুরুল বশরের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এড. আমজাদ হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রাজা শাহ আলম, সদস্য আদিল চৌধুরী, টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আনোয়ার মিয়া। সভাশেষে কাঙ্গালী ভোজের আয়োজন করা হয়।

অপরদিকে যথাযোগ্য মর্যাদায় টেকনাফ উপজেলা প্রশাসন ও  বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সামাজিক সংগঠনগুলো শোক দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা ও র‌্যালির আয়োজন করে।




যথাযোগ্য মর্যাদায় রোয়াংছড়িতে জাতীয় শোক দিবস পালিত

রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি:

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম জাতীয় শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষ্যে শোক দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্যে দিয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি পালিত হয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল ১০টায় রোয়াংছড়ি উপজেলায় আওয়ামী লীগ আয়োজিত শোক দিবস উপলক্ষ্যে রোয়াংছড়ি বাজারস্থ মাল্টিপারপাস প্রাঙ্গন থেকে ২শতাদিক নেতাকর্মী অংশগ্রহণের মাধ্যমে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে এসে শেষ হয়। এরপর রোয়াংছড়ি বাজারস্থ মাল্টিপারপাস মিলনায়নে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও রোয়াংছড়ি সদর ইউপির চেয়ারম্যান চহ্লামং মারমার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হ্লাথোয়াইহ্রী মারমা।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহসভাপতি চহাইমং মারমা, আলেক্ষ্যং ইউপির চেয়াম্যান বিশ্বানাথ তঞ্চঙ্গ্যা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রামশিয়াম বম, সাংগঠনিক সম্পাদক জনমজয় তঞ্চঙ্গ্যা, সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা দৈনিক মানবকণ্ঠ সাংবাদিক মংখিংসাই মারমা, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আব্দুর রহিম সোবহান, উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি আথুইমং মারমা, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি প্রীতিময় তঞ্চঙ্গ্যা, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগ সভানেত্রী অংম্রাচিং মারমা প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন রক্তের অক্ষরে লেখা দিন আজ, ১৯৭৫ সালে ১৫আগস্ট এই দিনে বুলেটের আঘাতে ক্ষতবিক্ষত ও ঝাঝরা করা হয় বাংলার স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে।

উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে থামিয়ে রাখা চেষ্টা করছিল কিন্তু থামাতে পারেনি। স্বাধীন বাংলাদেশে ঘৃণিত একদল ঘটকরা ওই দিনে ছোট শিশু শেখ রাসেলকে পর্যন্ত রেহাই দেননি। বঙ্গ কন্যা শেখ হাসিনা’র সরকার পরিচালনাতে আজ এগিযে যাচ্ছে দেশ। উন্নয়নে বন্যা বয়ে দিয়েছে প্রধানমন্ত্রী  শেখ হাসিনা। তাই এ ঘাতকরা যেখানে পালিয়ে থাকুক দেশে ফিরিয়ে এনে ফাঁসি রায় কার্যকর করা আহ্বান জানান বক্তারা।

প্রধান অতিথি বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম হয়েছে বলেই আজ এ দেশ স্বাধীন হয়েছে। এ দেশ স্বাধীন হয়েছে বলেই বীর বাহাদুর এমপি’র (উশৈসিং) কে পেয়েছি। বঙ্গবন্ধু যদি জাতির স্বার্থে চিন্তা না থাকত তাহলে শোষিত পৈশাজীব হতে মুক্তি হত না। আজ আমরা স্বাধীন দেশে বসবাস করছি, শেখ হাসিনা সুদক্ষ ভাবে দেশ পরিচালনা করছে। তাই দেশে বিভিন্ন অলিগলিতে উন্নয়নে ছোঁয়া পাচ্ছে। এই উন্নয়নকে অব্যাহত রাখতে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়য্ক্তু করে দেশ নেত্রী শেখ হাসিনা ও সম্প্রীতি বান্দরবানে চির সবুজ নেতা বীর বাহাদুর এর হাতকে শক্তিশালী করতে এক যোগে কাজ করা আহ্বান জানান।

উপজেলা আ’লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক ধীরেন ত্রিপুরার সভা সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, ছাত্রলীগের সভাপতি সুমনজয় তঞ্চঙ্গ্যা, যুবলীগের সভাপতি পুরুকান্তি তঞ্চঙ্গ্যা প্রমুখ।

এদিকে পৃথক ভাবে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে যথাযোগ্য মর্যাদায় ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে। ইতোপূর্বে উপজেলা প্রাঙ্গন থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পরিষদের প্রাঙ্গনে এসে শেষ হয়। অতঃপর উপজেলা পরিষদ হল রুমে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মঙ্গলবার সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন নির্বাহী অফিসার রবীন্দ্র চাকমা। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মাউসাং মারমা। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী প্রতিনিধি নেইতং বইতিং বম, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের কর্মকর্তা পুলুপ্রু মারমা, নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আব্দুর শুক্কুর, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা তর্পন দেওয়ান, বিআরডিবি কর্মকর্তা পুলুমা মারমাসহ সকল দপ্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারিগণ অংশগ্রহণ করেন।