পেকুয়ায় অপ্রতিরোধ্য চট্টগ্রাম পরিষদের উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ


পেকুয়া প্রতিনিধি:
কক্সবাজারের পেকুয়ায় অরাজনৈতিক সংগঠন “অপ্রতিরোধ্য চট্টগ্রাম পরিষদ”এর উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ ও পেকুয়া শাখার অভিষেক অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। ১৯ জানুয়ারি শুক্রবার বিকেলে পেকুয়া কবির আহমদ চৌধুরী বাজারস্থ ওয়াপদা চত্ত্বরে চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সভাপতি আদনান এলাহী তুহিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইকফাত ফয়সাল ছোটনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানের উদ্বোধক ছিলেন পেকুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাফায়েত আজিজ রাজু।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম মেরন সান স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ লায়ন ড. মোহাম্মদ সানাউল্লাহ। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ বারেক, বারবাকিয়া ইউপির চেয়ারম্যান এএইচএম বদিউল আলম, সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবি এড. মহি উদ্দিন, যুবলীগ সহ-সভাপতি জিয়াবুল হক জিকু, আ’লীগ নেতা মো. ইকবাল, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এহতেশামুল হক, ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক শহিদুল ইসলাম, চট্টগ্রামস্থ পেকুয়া উপজেলা ছাত্র যুব কল্যাণ পরিষদের সভাপতি সোহেল আজিম, সদস্য শহীদুল ইসলাম আজিজ, কক্সবাজারস্থ পেকুয়া উপজেলা ছাত্র যুব কল্যাণ পরিষদের সভাপতি ইকবাল হোছাইন।

পরে শীতার্ত অসহায় গরীবদের মাঝে শীতবস্ত্র তুলে দেন অতিথিরা।

বক্তারা বলেন, মানবতার সেবায় সবার আগে সবসময় এ শ্লোগানকে সামনে নিয়ে অপ্রতিরোধ্য চট্টগ্রাম পরিষদ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে। তবে তারা ছাত্র হয়েও প্রথম পেকুয়ায় যে মানবতার সেবায় নিজেরা এগিয়ে এসে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র তুলে দিয়ে পেকুয়ায় নজিরবিহীন দৃষ্টান্ত স্থাপন করে গেছেন। অপ্রতিরোধ্য চট্টগ্রাম পরিষদের সকল নেতৃবৃন্দকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।




চকরিয়া-পেকুয়া আসনে এমপি ইলিয়াছ ছাড়া কাউকে মনোনয়ন দেয়া হবেনা: রাঙ্গা

চকরিয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের চকরিয়া-পেকুয়া জাতীয় পার্টির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের যৌথ উদ্যোগে শুক্রবার(১৯ জানুয়ারি) বিকাল সাড়ে ৪টার সময় এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

চকরিয়া কোর্ট সেন্টারস্থ জাতীয় পার্টির প্রধান কার্যালয়ে উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দিন মেম্বারের সভাপতিত্বে ও জেলা জাতীয় পার্টির নেতা মো. নাজিম উদ্দিনের সঞ্চলানায় ওই মত মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী, জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য মসিউর রহমান রাঙ্গা।

মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি প্রতিমন্ত্রী তার বক্তব্যে বলেন, সদ্য অনুষ্ঠিতব্য রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে জাতীয় পার্টি জয়ী হবে সেটা পূর্বেই থেকেই দলীয় নেতাকর্মীকে বলেছিলাম, ইনশাআল্লাহ অনেক ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের মধ্যে আমরা জাতীয় পার্টি সরকার দলীয় প্রার্থীকে এক লক্ষ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে বিজয়ী হয়েছি।

প্রত্যেক এলাকায় ওয়ার্ড থেকে শুরু করে জেলা, উপজেলায়, ইউনয়ন শক্তিশালী কমিটি গঠনের মাধ্যমে দলের তৃণমূলের নেতাকর্মীকে দলের প্রধান হাতিয়ার হিসেবে গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছি, যার কারণে সিটির বিজয় নিশ্চিত হই।

এরশাদের শাসনামলে আজকের উপজেলা পরিষদ থেকে শুরু করে গ্রামীণ জনপদের প্রত্যেকটি বড় বড় উন্নয়ন তার হাত দিয়ে সৃষ্টি করা হয়। বর্তমানে টেলিভিশন যে আজান দেওয়া হচ্ছে তা চালু করেছিল এরশাদের আমলেই। তিনি মসজিদ, মাদ্রাসা, মন্দিরসহ ধর্মীয়ভাবে প্রতিটি কাজে ব্যাপক ভাবে এদেশের মাটিতে উন্নয়ন সাধন করেছেন। এদেশে এরশাদকে একটি কম্বল দিয়ে মাটিতে শুয়ে দেওয়া হয়েছিল। এরশাদ দেশে কোন অন্যায় কাজ করেনি। তার জন্য রংপুরে এরশাদ নিয়ে অনেক আন্দোলন সংগ্রাম করতে হয়েছে। রংপুরের মানুষ যে আন্দোলন করেছে তারপরও তাকে বিএনপির শাসনামলে ভোট দিতে দেয়নাই।

মন্ত্রী রাঙ্গা নেতাকর্মীকে উদ্দেশ্য করে আরো বলেন, দেখবেন আজকে থেকে পনের দিন পর এরশাদকে যে ভাবে মাটিতে একটা কম্বল দিয়ে শুয়ে দেয়া হয়েছিল ঠিক খালেদা জিয়াকেও মাটির বিচানার নিচে কম্বল নিয়ে শুতে হবে। মানুষের উপর অন্যায় করলে আল্লাহ তার উপর গজব নাজিল করেন এটা তার উদাহরণ।

এমপি ইলিয়াছ ও মুফিজকে জেলা জাতীয় পার্টি যে ভাবে শক্তিশালী সংগঠন করার দরকার তা করার জন্যও নির্দেশ দেন। তিনি বলেন, আমি যদি প্রেসিডিয়ামে থাকি বা রংপুরের সভাপতি হিসেবে থাকি তাহলে আল্লাহর কসম করে বলছি কক্সবাজারের চকরিয়া-পেকুয়া আসন এমপি ইলিয়াছ ছাড়া কাউকে মনোনয়ন দেয়া হবেনা। তার মনোনয়ন নিয়ে নেতাকর্মীদের বিন্দু পরিমাণ সন্দেহের অবকাশ নেই। ইলিয়াছের ভয় নেই সঙ্গে আছে রাঙ্গা ভাই।

তার এ বক্তব্য শুনে উপস্থিত তৃণমূলের জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীদের মাঝে বাঁধভাঙ্গা উচ্ছাস-আনন্দে ফেটে উঠেন। মতবিনিময়ে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন চকরিয়া-পেকুয়া সংসদীয় আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ও জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি  হাজ্বী মো. ইলিয়াছ এমপি।

এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, সহ-সভাপতি মোশারফ হোসেন দুলাল, জেলা মহিলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান(৩) নারী নেত্রী আসমাউল হোসনা, ডুলাহাজারা ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সভাপতি ও চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুরুল আমিন প্রমুখ। মতবিনিময় সভায় চকরিয়া, পেকুয়া, পৌরসভা ও মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা শাখার বিপুল পরিমাণ নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।




রাঙ্গামাটিতে পাহাড় ধসে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে স্যালভেশন আর্মী বাংলাদেশের আর্থিক সহায়তা প্রদান

রাঙামাটি প্রতিনিধি:

সাম্প্রতিক পাহাড় ধস ও প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত রাঙ্গামাটির বিলাইছড়ি উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের ৬০টি পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দিয়েছে বিদেশী দাতা সংস্থা দি স্যালভেশন আর্মী বাংলাদেশ।

শুক্রবার (১৯ জানুয়ারি) সকালে বিলাইছড়ি উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য রেমলিয়ানা পাংখোয়া প্রধান অতিথি হিসাবে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যদের মাঝে আর্থিক সহায়তা বিতরণ করেন।

বিলাইছড়ি উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান জয়সেন তংচঙ্গ্যার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে দি স্যালভেশন আর্মী বাংলাদেশ এর জেনারেল সেক্রেটারি জন রৌমিং লিয়না, বিলাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আহমেদ নাসির মোহাম্মদ, বিলাইছড়ি আওয়ামী লীগের সভাপতি সুরেশ তংচঙ্গ্যা বক্তব্য দেন।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন দি স্যালভেশন আর্মী বাংলাদেশ এর গভমেন্টস্ রিলেশনস্ অফিসার সিলভেস্টার গোমেজ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা গ্রীনহিলের প্রোগ্রাম ডিরেক্টর লাল চুয়াক লিয়ানা পাংখোয়া।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য রেমলিয়ানা পাংখোয়া বলেন, বিদেশী দাতা সংস্থা দি স্যালভেশন আর্মী বাংলাদেশ এর ন্যয় সমাজ ও দেশের সার্বিক উন্নয়নে অবহেলিত মানুষের পাশে থেকে যে কোন দূর্যোগ মুহুর্তে মানবতার কল্যাণে কাজ করতে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। রাঙ্গামাটিতে স্মরণকালের পাহাড় ধ্বসে ক্ষতিগ্রস্তদের কল্যাণে স্যালভেশন আর্মী বাংলাদেশ যেভাবে এতো দূর থেকে এগিয়ে এসেছে তা অবশ্যই প্রশংসার দাবি রাখে। তিনি বলেন, মানুষের আপদে বিপদে যারা পাশে থাকে তারাই প্রকৃত মানুষ।

তিনি আরো বলেন,  দেশের অন্যান্য সংস্থা ও সমাজের প্রতিটি সচ্ছল ও বিত্তশালী বিত্তবান মানুষ এমন উদ্যোগ গহণ করে আত্মমানবতার সেবায় এগিয়ে আসলে প্রাকৃতিক দূর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত, অসহায় ও ছিন্নমূল মানুষেরা অনেক উপকৃত হবে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয় সাম্প্রতিক পাহাড় ধস ও প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত বিলাইছড়ির ৬০টি পরিবারের প্রত্যেককে ৮৪ হাজার ১শত ৭৯ টাকা করে দেয়া হবে। ১ম পর্যায়ে ১০ হাজার এবং পর্যায়ক্রমে বাকী অর্থগুলো প্রদান করা হবে।

অনুষ্ঠানে এ অর্থের প্রথম অনুদান হিসাবে প্রত্যেক পরিবারকে নগদ ১০ হাজার টাকা করে বিতরণ করা হয়। আগামী ৩০ জানুয়ারি ক্ষতিগ্রস্তদের ২য় কিস্তির অনুদানের টাকা প্রদান করা হবে। অনুষ্ঠান শেষে অতিথিরা বিলাইছড়ি বিভিন্ন ইউনিয়নের ৬০টি পরিবারের মধ্যে নগদ অর্থ বিতরণ করেন।

অন্যদিকে দাতা সংস্থা দি স্যালভেশন আর্মী বাংলাদেশ এরপক্ষ থেকে ভূমিধসে ক্ষতিগ্রস রাঙ্গামাটি সদরের ৫০টি এবং কাউখালী উপজেলার ৪০টি পরিবারকে সমপরিমান অর্থ প্রদান করা হয়।

উল্লেখ্য, বিদেশী দাতা সংস্থা দি স্যালভেশন আর্মী বাংলাদেশ বিশ্বের ১২৮টি দেশে আত্মমানবতার সেবায় কাজ করছে। ১৯৭২ সাল থেকে এ সংস্থা বাংলাদেশে বিভিন্ন আর্থসামাজিক উন্নয়নে কাজ করছে। তবে পার্বত্য চট্টগ্রামে এ প্রথমবারের মতো তারা কাজ শুরু করেছে।




বিএনপিকে ক্ষমতায় আনতে হবে: ওয়াদুদ ভূইয়া

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

আগামী নির্বাচনে বিএনপিকে ভোট দিয়ে ক্ষমতায় আনতে হবে বলে জানিয়েছেন খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য ওয়াদুদ ভূঁইয়া।

শুক্রবার (১৯ জানুয়ারি) খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার দাতকুপ্পা একটি সামাজিক অনুষ্ঠান শেষে ফেরার সময় পথসভায় এসব কথা বলেন তিনি।

ওয়াদুদ ভূঁইয়া বলেন, বিএনপি ক্ষমতায় থাকলে পার্বত্য অঞ্চলের শান্তি সম্প্রীতি বজায় থাকে। সুষম উন্নয়ন হয়

আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলেই বেড়ে যায় অস্থিরতা। চাঁদাবাজ সন্ত্রাসীরা মাথাচাড়া দিয়ে উঠে। বিনষ্ট হয় সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি, বেড়ে যায় প্রতিহিংসা।

তাই এ অঞ্চলের সম্প্রীতি ও উন্নয়নের জন্য বিএনপিকে ক্ষমতায় আনতে আগামী নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতিকে ভোট দিতে সকলের প্রতি আহ্বান জানান ওয়াদুদ ভূঁইয়া।

এসময় জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মংসাথোই চৌধুরী, ক্ষেত্রমোহন রয়াজা, সাংগঠনিক সম্পাদক এমএন আবসার, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম সবুজ, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম খলিল উপস্থিত ছিলেন।




কুতুবদিয়ায় ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর র‌্যালি

কুতুবদিয়া প্রতিনিধি:

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে কুতুবদিয়ার উত্তর ধুরুং ও লেমশীখালী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের উদ্যোগে এবং দক্ষিণ ধূরুং ইউনিয়ন শাখার সহযোগিতায় ধূরুং বাজারে বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়।

দুপুর ২টার দিকে র‌্যালিটি বাজারের বিভিন্ন পয়েন্ট ঘুরে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় মিলিত হয়। এ সময় জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য শফিউল আলম কুতুবী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

বিশেষ অতিথির মধ্যে দক্ষিণ ধূরুং ইউনিয়ন আ’লীগ সভাপতি মোতাহের কোম্পানী, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম সিকদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় প্রধান বক্তা হিসেবে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. খোরশেদ আলম বক্তব্য রাখেন। এ ছাড়া সহ-সভাপতি এসকেএস রণি, সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন, উত্তর ধুরুং ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি সাজ্জাদুল ইসলাম সাকিব, লেমশীখালী ইউনিয়ন সভাপতি শহীদ উল্লাহ, উত্তর ধুরুং ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সেক্রেটারি সাখাওয়াত, ছাত্রলীগ নেতা নুরুল ইসলাম, সাজ্জাদ হোসেন বাপ্পী, কুতুবদিয়া সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি, সেক্রেটারিসহ ছাত্রলীগের বিভিন্ন নেতা-কমীরা উপস্থিত ছিলেন।




রাইখালী আ’লীগের মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে বিক্ষোভ

কাপ্তাই প্রতিনিধি:

আ’লীগ রাইখালী ইউনিয়ন শাখা ও অঙ্গ সংগঠনের আয়োজনে ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি সালাউদ্দিন, সম্পাদক মো. মিজান ও ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক রাশেল এর বিরুদ্ধে জেএসএসের মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) সকাল ১০টায়  বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন রাইখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি মংকিউ মারমা, সাধারণ সম্পাদক ইউসুফ কার্বারী, যুবলীগ সভাপতি বিপ্লব সেন লাতু, স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি মো. আরিফ, কাপ্তাই উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি এম. নুর উদ্দিন সুমন, সাংগঠনিক সম্পাদক ক্যাজহলা মারমা, রাইখালী ইউনিয়ন সভাপতি সালাউদ্দিন, সম্পাদক মিজান ও কাপ্তাই ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মামুন ও যুগ্ম সম্পাদক মো. ফরহাদসহ প্রমুখ।

বক্তরা বলেন, আগামী এক সাপ্তাহের মধ্যে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার না করলে জেএসএসকে এর জন্য চড়া মূল্য দিতে হবে।




মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে তরুণদের এগিয়ে আসতে হবে

মহেশখালী প্রতিনিধি:

শিক্ষাকে হা বলি, মাদক কে না বলি,  পরিবারের একজন মাদক আসক্ত ব্যক্তি পুরো পরিবারকে ধংস করে দেয়। আসুন নিজ নিজ এলাকাকে মাদক থেকে রক্ষা করি, মাদক মুক্ত সমাজ গড়ি। সমাজে সবার সুন্দর জীবনযাপন করার উপযোগী করে গড়ে তুলি।

এইসব শ্লোগান নিয়ে মহেশখালী উপজেলার কুতুবজোম ইউনিয়নের খোন্দকার পাড়া গ্রামের একঝাঁক তরুন শিক্ষিত ছেলেদের নিয়ে গঠন করা হয়েছে খন্দকার পাড়া সমাজ সেবা সংগঠন।

বুধবার (১৭ জানুয়ারি)  সংগঠনে সভাপতি নুরুছামদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মাদক বিরোধী সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সমাজের সব শ্রেণি পেশার মানুষ।

ওই সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন মহেশখালী প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক আবুল বশর পারভেজ, সাংগঠনিক সম্পাদক এম বশির উল্লাহ প্রমুখ।

৫১ সদস্য বিশিষ্ট সংগঠনে সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান বীন জহির, সহসভাপতি, আব্দুল ওহাব, রাহমত উল্রাহ, নুরুল মোস্তাফা,  এম রাসেল উদ্দিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোজাহেদুল ইসলাম মায়া, মোশেদুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আশেকুল ইসলাম সৌরভ, জিসান, মো. হেলাল, প্রচার সম্পাদক হামিদুল মোস্তফা হামিদ, দপ্তর সম্পাদক শাহিন আলম, সাংস্কৃতিক আরমান উদ্দিন ফয়সাল, শিক্ষাও পাঠক্রম বিষয়ক আব্দুল হালিম রেজভী, ক্রীড়া সম্পাদক রাসেল বীন আমীন, অর্থ সম্পাদক আবু তাহের।

ওই কমিটিতে উপদেষ্টায় রয়েছেন মাস্টার রমজান উদ্দিন, মাস্টার সহিদুল্লাহ, শাহ আলম কুতুবী, আনছারুল করিম টিটু, এরশাদ উল্লাহ কোং, রাহমত উল্লাহ কোং, আব্দুল হাকিম প্রবাসী।




খাগড়াছড়িতে ইউপিডিএফের বিক্ষোভ

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি

ইউপিডিএফ বান্দরবান জেলার সমন্বয়ক ছোটন কান্তি তঞ্চগ্যাকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে ও মুক্তির দাবিতে খাগড়াছড়িতে বিক্ষোভ করেছে ইউপিডিএফ সমর্থিত তিনটি সংগঠন। বুধবার (১৭ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৩টায় পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ, গণতান্ত্রিক যুবফোরাম ও হিল উইমেন্স ফেডারেশনের ব্যানারে স্বণির্ভর এলাকা থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়।

বিক্ষোভ মিছিল শেষে একই স্থানে গিয়ে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে হিল উইমেন্স ফেডারেশন খাগড়াছড়ি শাখার সভাপতি দ্বিতীয়া চাকমার সভাপতিত্বে  গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সদস্য মানিক চাকমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ খাগড়াছড়ি শাখার সাধারণ সম্পাদক অমল ত্রিপুরা বক্তব্য রাখেন।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) রাতে বান্দরবানের বালাঘাটা থেকে ইউপিডিএফ সংগঠক ছোটন কান্তি তঞ্চগ্যাকে আটক করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।




ভিসি অপসারণের দাবিতে পিবিসিপি’র মানববন্ধন

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি:

রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রদানেন্দু বিকাশ চাকমার অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন করেছে পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ নামে একটি আঞ্চলিক সংগঠন। মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) সকালে জেলা প্রশাসনের কার্যালয়ের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, পার্বত্য নাগরিক পরিষদের আহ্বায়ক বেগম নূর জাহান ,  সম-অধিকার নেতা এড. আবছার আলী, পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ রাঙ্গামাটি জেলার আহ্বায়ক জাহাঙ্গীর আলম, যুগ্ম আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, প্রতিষ্ঠানটি নতুন অথচ ভিসি করা হয়েছে প্রতিষ্ঠান বিরোধী মতাদর্শের ব্যক্তিকে। তাছাড়া একজন ভিসি যতটুকু দক্ষতা সম্পূর্ণ হওয়ার দরকার তার ধারে কাছে নাই এই বিতর্কিত ব্যক্তিটি। ভিসি প্রদানেন্দু বিকাশ চাকমার মেয়াদ শেষ আমরা নতুন দক্ষ ভিসি চাই, হোক সে বাংলাদেশের যে কোন প্রান্তের বাসিন্দা।

বক্তারা আরো বলেন, এই অযোগ্য ভিসির মেয়াদ যদি বৃদ্ধি করা হয় তবে আবারও রাঙ্গামাটির শিক্ষানুরাগী সর্বস্তরের জনগণ রাজপথে নামতে বাধ্য হবে বলেও হুঁমিয়ারি দেন মানববন্ধন থেকে।

মানববন্ধন শেষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।




আ’লীগ রাজনীতি করে সাধারণ মানুষের জন্য: এমপি কমল

রামু প্রতিনিধি:

কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল বলেছেন, শীত এলে গরীব মানুষের কষ্ট বেড়ে যায়, অনেকেই শীতের প্রয়োজনীয় কাপড় কিনতে না পারায় তাদের কষ্ট বাড়ে। এই অসহায় শীতার্ত মানুষের কষ্ট নিবারণে শেখ হাসিনার সরকার পাশে রয়েছে। তিনি বলেন, কক্সবাজার সদর ও রামু উপজেলার সাধারণ মানুষ যখনই কষ্টের মুখোমুখি হয় তখনই আমরা সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়াই। আমরা রাজনীতি করি সাধারণ মানুষের জন্য।

সোমবার (১৫জানুয়ারি) বিকালে কক্সবাজার সদর উপজেলার বৃহত্তর ঈদগাঁহ এলাকার চৌফলদণ্ডী, পোকখালী, জালালাবাদ, ইসলামাবাদ, ঈদগাঁও ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ ও শীতার্ত মানুষের মাঝে দুইহাজার কম্বল বিতরণ করেন সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল। এ সময় তিনি সমাজের বিত্তবান মানুষদের শীতার্তদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান।

কম্বল বিতরণ কালে উপস্থিত ছিলেন, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা জাফর আলম চৌধুরী, প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা মুক্তিযোদ্ধা ফরিদ আহমদ মাষ্টার, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ফরিদুল আলম চেয়ারম্যান, হুমায়ুন তাহের চৌধুরী হিমু, কক্সবাজার জেলা যুবলীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক হুমায়ুন কবির চৌধুরী হিমু, ঈদগাঁহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও কক্সবাজার জেলা পরিষদ সদস্য সোহেল জাহান চৌধুরী, ইসলামাবাদ আওয়ামী লীগের সভাপতি নুর ছিদ্দিক চেয়ারম্যান, ইসলামপুর আওয়ামী লীগের সভাপতি মঞ্জুর আলম চেয়ারম্যান, জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফিরোজ উদ্দিন খোকা, ঈদগাঁহ সাংগঠনিক ছাত্রলীগের সভাপতি রাশেদ উদ্দিন রাশেল, সাধারণ সম্পাদক আবু হেনা বিশাদ প্রমুখ।