শান্তি ও সম্প্রীতি বজায় রাখার সার্থে আনসার কাজ করে যাচ্ছে

লংগদু প্রতিনিধি:

রাঙামাটির লংগদু উপজেলায় এক আনসার ব্যাটালিয়ন এর ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে। বৃহস্পতিবার(১৮ জানুয়ারি) উপজেলার বাইট্যাপাড়া ১আনসার ব্যাটালিয়নের সদর দপ্তরে ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দুপুরে এক প্রীতিভোজ ও সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। প্রীতিভোজে এক আনসার ব্যাটালিয়নের কমান্ডার আবু বকর এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, লংগদু সেনাজোনের জোন কমান্ডার লে. কর্নেল আঃ আলীম চৌধুরী।

তিনি বলেন, ১আনসার ব্যাটালিয়নের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সকল কর্মকর্তা ও সদস্যদের আন্তরিক অভিনন্দন জানাই। এই উপজেলায় শান্তি ও সম্প্রীতি বজায় রাখার সার্থে আনসার, নিরাপত্তাবাহিনী, পুলিশ ও আরো যারা আছে আমরা সকলে কাজ করে যাচ্ছি। আমাদের সকলের দায়িত্ব অভিন্ন লক্ষ্যে পৌঁছা। তিনি বলেন, প্রত্যেক বাহিনীর প্রশিক্ষণ, নীতি, কৃষ্টি কালচার একেক রকম। বিগত আমলের আনসার আর বর্তমান আমলের আনসারের মধ্যে অনেক তফাৎ রয়েছে। সরকার আনসার বাহিনীর যথেষ্ট উন্নয়ন ও আধুনিকায়ন করেছেন। নিজেদের  মধ্যে দ্বন্দ্বে জড়াবেন না। সরকার  আনসারকে আরো শক্তিশালী করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। আমরা আনসার সদস্যদের যেকোন প্রশিক্ষণে সহযোগিতা দিয়ে যাব।

বিশেষ অতিথি হিসেবে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, লংগদু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. তোফাজ্জল হোসেন, রাঙামাটি জেলা আনসার কমান্ডিং অফিসার আব্দুল আওয়াল, লংগদু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মোসাদ্দেক মেহেদী ইমাম।

এছাড়া অন্যান্য অতিথির মধ্যে মেরুং ১৩ আনসার ব্যাটালিয়নের কমান্ডার আরেফিন, লংগদু সেনা জোনের ক্যাপ্টেন মোক্তাদির, রাঙামাটি জেলা পরিষদের সদস্য মো. জানে আলম, লংগদু আনসার-ভিডিপি কর্মকর্তা,  মাইনীমুখ ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বারেক সরকার, লংগদু প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. এখলাস মিঞা খান এসময় উপস্থিত ছিলেন।

প্রীতি ভোজের পূর্বে প্রধান অতিথি সকল অতিথিদের নিয়ে ১আনসার ব্যাটালিয়নের ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটেন। পরে সন্ধ্যায় সকলে সন্ধ্যায় এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন।




লংগদুতে নিরাপত্তাবাহিনীর উদ্যোগে ফ্রি চিকিৎসা, ঔষধ ও কম্বল বিতরণ

লংগদু প্রতিনিধি:

রাঙামাটির লংগদুতে নিরাপত্তাজোনের উদ্যোগে উপজেলার দুর্গম এলাকায় শীতার্তদের মাঝে শীত কম্বল বিতরণ ও বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা ও ঔষধ বিতরণ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার, লংগদু-দীঘিনালা সীমান্ত উত্তর রেংকায্যা এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় পাঁচ শতাধিক হতদরিদ্র পাহাড়ি, বাঙালীদের মাঝে শীতবস্ত্র কম্বল বিতরণ করা হয়।

লংগদু নিরাপত্তাজোনের জোন কমান্ডার লে. কর্ণেল আ. আলীম চৌধুরী রেংকায্যা এলাকায় উপস্থিত হয়ে দরিদ্র লোকজনদের খোঁজ খবর নেন ও শীত কম্বল বিতরণ করেন। কম্বল বিতরণ কালে এলাকার গন্যমান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, রেংবায্যা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ঊষা আলো চাকমা, স্থানীয় ইউপি সদস্য গোপা লাল চাকমা।

অপরদিকে উত্তর রেংকায্যা এলাকায় লংগদু নিরাপত্তা জোন ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের যৌথ উদ্যোগে বিনামূল্যে স্বাস্থ্য সেবা ও প্রয়োজনীয় ঔষধ বিতরণ করা হয়েছে।

দুর্গম এলাকার হতদরিদ্র জনসাধারণের কথা চিন্তা করে লংগদু জোনের পক্ষে জোন কমান্ডারের স্ত্রী ডা. সুলতানা সাফিয়া ও জোনের আরএমও ক্যাপ্টেন রুবেল আজাদ, লংগদু স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. তন্ময় বড়ুয়া বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করেন।

জোন কমান্ডার লে. কর্ণেল আ. আলীম চৌধুরী জানান, লংগদু জোন উপজেলার প্রত্যন্ত বিভিন্ন দুর্গম এলাকার পাহাড়ি বাঙালি দরিদ্র জনসাধারণের মাঝে বিনামূল্যে স্বাস্থ্য সেবা ও ঔষধ বিতরণ কার্যক্রম চালিয়ে আসছে।




প্রধানমন্ত্রী পার্বত্যাঞ্চলে শিক্ষা উন্নয়নে আন্তরিক: দীপংকর

লংগদু প্রতিনিধি:

বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী পার্বত্যাঞ্চলে শিক্ষা উন্নয়নে আন্তরিকভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। যার ফলে রাঙামাটিতে এখন মেডিকেল কলেজ, প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ও পাবলিক কলেজ স্থাপিত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য ও সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার।

তিনি বলেছেন, কিছু স্বার্থান্বেষী মহল পাহাড়ের মানুষের উন্নয়ন চায়না বলে তারা এইসবের বিরুদ্ধে তীব্র বিরোধিতা করে আন্দোলন করেছে। মেডিকেল কলেজ থেকে যখন ডাক্তাররা বের হয়ে এই এলাকার মানুষের সেবা দিবে তখন বিরোধীতাকারীরা তাদের ভুল বুঝতে পারবেন।

বৃহস্পতিবার, রাঙামাটির লংগদু উপজেলার চাইল্যাতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কৃতি ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের সম্মাননা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য ও সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার এসব কথা বলেন।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. হাবিবুর রহমান এর সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ আলী।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ মফিজুল হক, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ও রাঙামাটি জেলা পরিষদের সদস্য স্মৃতি বিকাশ ত্রিপুরা, রাঙমাটি জেলা পরিষদের সদস্য যথা মো. জানে আলম ও মনোয়ার বেগম, লংগদু উপজেলা আ’লীগের সভাপতি আব্দুল বারেক সরকার।

এছাড়া বগাচতর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রশীদ, ভাসাইন্যাদম ইউপি চেয়ারম্যান হযরত আলী, লংগদু উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. হারুনুর রশীদ ও  মো. মোশারফ হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক সুভাশ চন্দ্র দাশসহ বিভিন্ন নেতা-কর্মীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

প্রাথমিক সমাপনি ও জেএসসি পরীক্ষায় কৃতি অর্জনকারী ছাত্র ছাত্রীদের পুরস্কার তুলে দেন প্রধান অতিথি দীপংকর তালুকদার।




লংগদুতে তিন দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলা

লংগদু প্রতিনিধি:

‘উন্নয়নের গণতন্ত্র শেখ হাসিনার মূলমন্ত্র’এই শ্লোগানকে সামনে রেখে রাঙামাটির লংগদু উপজেলার প্রশাসনের উদ্যোগে তিন দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলা-২০১৮ উদ্বোধন করা হয়েছে।

১১জানুয়ারি, লংগদু উপজেলা পরিষদের মাঠে এই মেলার আয়োজন করা হয়। মেলায় উপজেলার বিভিন্ন অধিদপ্তরের উদ্যোগে ২১টি স্টল প্রদর্শণ করা হয়। প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মেলার উদ্বোধন করা হয়।

লংগদু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. তোফাজ্জল হোসেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মোসাদ্দেক মেহেদী ইমাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. নাছির উদ্দিন, নুরজাহান বেগম, লংগদু থানা অফিসার ইনচার্জ রঞ্জন কুমার সামন্ত, লংগদু প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. এখলাস মিঞা খানসহ বিভিন্ন অধিদপ্তরের কর্মকর্তাগণ, ইউপি চেয়ারম্যান, শিক্ষক, ছাত্রছাত্রী ও এলাকার জনসাধারণ উন্নয়ন মেলা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।




লংগদুতে প্রীতিফুটবল ম্যাচ

লংগদু প্রতিনিধি:

রাঙামাটির লংগদুতে নিরাপত্তাজোনের উদ্যোগে এক প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

১১জানুয়ারি, বিকালে নিরাপত্তা জোনের মাইনীমুখ আর্মীক্যাম্প মাঠে আয়োজিত প্রীতি ফুটবল ম্যাচে মাইনীমুখ ইউনিয়ন একাদশ বনাম নিরাপত্তা জোন একাদশের মধ্যে অনুষ্ঠিত খেলায় জোন একাদশ   ৩-০ গোলে জয়লাভ করে। জোনের খেলোয়াড় সৈনিক মুকুল একাই দুইটি গোল করে দলকে জিতিয়ে দেন।

খেলায় প্রধান অতিথি হিসেবে পুরস্কার বিতরণ করেন, লংগদু জোনের জোন কমান্ডার লে. কর্নেল আ. আলীম চৌধুরী।

এসময় তিনি বলেন, খেলাধুলা একটি ভালো বিনোদন। তাই, এর চর্চা থাকা প্রয়োজন। তাছাড়া খেলাধুলার  এলাকায় পারস্পরিক সৌহার্দপূর্ণ পরিবেশ তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। তিনি আরো বলেন, আমাদের সকলের মনে রাখতে হবে সৌহার্দপূর্ণ ও স্থিতিশীল পরিবেশ বজায় না থাকলে এলাকায় উন্নয়নও হয়না।

অন্যান্যদের মধ্যে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জোনের ভারপ্রাপ্ত উপ-অধিনায়ক মেজর মো. আসিফুল ইসলাম, মেজর মো. সাকিব, মেজর মো. আবু সাঈদ হোসেন, লেপ্টেন্যান্ট মো. শাহরিয়ার।

প্রীতি ফুটবল ম্যাচ দেখতে জোনের মাঠে প্রচুর দর্শক সমাগম ঘটে।




লংগদুতে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ঔষধ দিয়েছে নিরাপত্তা জোন ও উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ 

 

লংগদু প্রতিনিধি:

লংগদু উপজেলার নিরাপত্তা জোন ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের যৌথ উদ্যোগে উপজেলার দুর্গম এলাকা বারবুনিয়া এলাকায় তিনশত পঁচাশিজন পাহাড়ি বাঙ্গালী লোকজনকে বিনামূলে ঔষধ ও চিকিৎসা সেবা  প্রদান করা হয়।

বুধবার(৫জানুয়ারি) উপজেলার লংগদু সদর ইউনিয়নের বারবুনিয়া এপিবিএন সরকারি প্রাঃ বিদ্যালয়ে মেডিকেল ক্যাম্পের মাধ্যমে এই চিকিৎসা সেবার আয়োজন করা হয়। লংগদু সেনা জোনের অধিনায়ক লে. কর্ণেল আ. আলীম চৌধুরী এই চিকিৎসা সহায়তা ও ঔষধ বিতরণের ব্যবস্থা করেন।

এসময় তিনি বলেন, এলাকার পাহাড়ি বাঙ্গালী দরিদ্র জনসাধারণের চিকিৎসা সেবায় নিরাপত্তাবাহিনী কাজ করে যাচ্ছে। ভবিষ্যতেও লংগদু নিরাপত্তা জোন হতে এধরনের চিকিৎসা সেবা ও ঔষুধ বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। তাছাড়াও তাৎক্ষনিক কোন রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিলে জোন হতে জরুরী চিকিৎসা সহায়তা দেওয়া হবে।

মেডিকেল কেম্পে বিনামূল্যে ঔষধ ও  চিকিৎসা প্রদান করেন, লংগদু স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা মেডিকেল অফিসার ফখরুল ইসলাম, মেডিক্যাল সহকারী ডা. বিধান চন্দ্র দাশ, লংগদু নিরাপত্তা জোনের আরএম ও ক্যাপ্টেন রুবেল আজাদ।

জোন সূত্র জানায় লংগদু সদর ইউনিয়নের পাহাড় ও পানি বেষ্টিত এলাকার প্রায় চারশত পাহাড়ি বাঙ্গালী লোকজন নারী পুরুষ ও শিশুকে বিনামূল্যে চিকিৎসা ও প্রয়োজনীয় ঔষধ প্রদান করা হয়েছে।




লংগদুতে শীতকালীন ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট’র ফাইনাল অনুষ্ঠিত

লংগদু প্রতিনিধি:

রাঙ্গামাটির লংগদুতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ মাইনীমুখ ইউনিয়ন শাখার উদ্যোগে শীতকালীন ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট’র ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার, সন্ধ্যায় লংগদু উপজেলার মাইনীমুখ ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে আয়োজিত টুর্নামেন্টে’র ফাইনাল খেলায় যৌথভাবে হোসেন-মুছা গ্রুপ বনাম তরিকুল-মো. হোসেন গ্রুপ অংশ নেয়। এতে তরিকুল-মো. হোসেন গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মাইনীমুখ ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বারেক সরকারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে খেলোয়াড়দের হাতে পুরস্কার ও ট্রফি তুলে দেন লংগদু সেনা জোনের জোন কমান্ডার লে. কর্ণেল আ. আলীম চৌধুরী।

সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে তিনি বলেন, শান্তি, সম্প্রীতির মূলমন্ত্র এটা আমাদের মনে রাখতে হবে। এ অঞ্চলের প্রত্যেক বর্ণের, ধর্মের লোকদের মিলে মিশে সম্প্রীতিতে বসবাস করতে হবে। তবেই, শান্তি চুক্তির সার্থকতা পাবে। হিংসা, বিদ্বেষ থাকলে কখনও শান্তি আসবে না।

তিনি আরো বলেন, এখন শীতের মৌসুম। এখন খেলাধুলার সময়। এখানকার অধিবাসীরা খেলাধুলা বেশি পছন্দ করে, এটা আমার খুব ভালো লাগে। আমার জোনের পক্ষ থেকে একটি ভলিবল টুর্নামেন্ট আয়োজনের ব্যবস্থা করা চিন্তাভাবনা করছি। এবং একে ইউনিয়ন পর্যায়ে যাতে ব্যবস্থা করা হয় সে ব্যাপারে আমরা উদ্যোগ গ্রহণ করবো। যাতে এই অঞ্চল থেকে ভালোমানের খেলোয়াড় তৈরি হয়।

মাইনীমুখ ইউনিয়ন শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ইমাম হোসেন ইমনের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদের সদস্য মো. জানে আলম।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সেনা জোনের উপ-অধিনায়ক মেজর আসিফুল ইসলাম ছিদ্দিকী, ক্যাপ্টেন রুবেল আজাদ, লংগদু প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. এখলাস মিঞা খান, মাইনীমুখ ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সভাপতি কামাল পাশা, সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম ঝান্টু, মাইনীমুখ ইউপি সদস্যা ফাতেমা জিন্না।

এছাড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জিয়াউল জিয়া, সাধারণ সম্পাদক রাশেদ খান রাজুসহ বিভিন্ন নেতা-কর্মী এসময় উপস্থিত ছিলেন।

লংগদু জোনের পক্ষ থেকে টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণকারী সকল খেলোয়াড়কে বিশেষ পুরস্কার প্রদান করা হয়।




লংগদুতে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে র‌্যালি ও আলোচনা সভা

 

লংগদু প্রতিনিধি:

এশিয়ার সর্ববৃহৎ ছাত্র সংগঠনের নাম ‘বাংলাদেশ ছাত্রলীগ’। ইতিহাস, ঐতিয্যে ও গৌরবের এক সংগঠন। যে ছাত্রলীগ সংগঠনটি জন্ম দিয়েছে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর মত এক মহান পুরুষকে। যার কারণে আমরা একটি স্বাধীন বাংলাদেশ নামে রাষ্ট্র পেয়েছি।

বৃহস্পতিবার, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ এর ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন উপলক্ষে রাঙ্গামাটির লংগদু উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

আলোচনা সভা পূর্ব উপজেলার মাইনীমুখ বাজারে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি বাজারের প্রধান সড়ক ঘুরে এসে ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে আয়োজিত আলোচনা সভায় মিলিত হয়।

সভায় উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জিয়াউল জিয়া এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মাইনীমুখ ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বারেক সরকার।

উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাশেদ খান রাজুর পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদের সদস্য মো. জানে আলম, উপজেলা আ’লীগের সহসভাপতি মো. সেলিম মেম্বার, সহ সভাপতি হোসেন আলী মেম্বার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মীর সিরাজুল ইসলাম ঝান্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মোশারাফ হোসেন।

এছাড়া অন্যান্যদের বক্তব্য রাখেন, যুবলীগের সদস্য মো. কালাম, উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ছোটন কুমার দাশ, সহ-সভাপতি মো. রাকিব ফরাজি, যুগ্ম সম্পাদক মো. হানিফ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বাবলা দাশ, সদস্য মো. ইদ্রিছ হোসেন, মাইনীমুখ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি ইমাম হোসেন ইমন, রাবেতা মডেল কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি নেছার উদ্দিন হৃদয় প্রমুখ।

শেষে প্রধান অতিথি আনুষ্ঠানিকভাবে ছাত্রলীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটেন এবং সবাইকে খাইয়ে দেন।

আলোচনা সাভায় বক্তারা আরো বলেন, এই পার্বত্য এলাকায় কেবল আওয়ামী লীগ সরকাই উন্নয়ন করেছে। অন্যরা করেছে শুধু লুটপাট। বিএনপির নেত্রী এখন পদ্ধাসেতু নিয়ে মিথ্যাচার করছেন। সেই পদ্ধাসেতু বাস্তবায়ন হলে আপনারাই সুফল ভোগ করবেন আগে।

বক্তারা বলেন, পার্বত্য এলাকায় একটি সংগঠনের প্রধান আছেন যিনি সরকারের খেয়ে পড়ে, মন্ত্রির প্রটোকল নিয়ে ঘুরেন আবার সরকারের বিরুদ্ধে হুমকি দেন। আওয়ামী লীগের লোকজনকে হত্যা করেন। আমরা সেই নেতাকে হুঁশিয়ার করতে চাই আপনার সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজী, হত্যা, গুম, অপহরণ আর অস্ত্রের ঝনঝনানী বন্ধ করতে হবে। এই ধরনের কাজ আর সহ্য করা হবেনা। বক্তারা, আগামীতে দীপংকর তালুকদারকে জয়লাভ করতে একযোগ হয়ে কাজ করার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।




লংগদুতে জাসাস’র ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন 

লংগদু প্রতিনিধি:

রাঙ্গামাটির লংগদুতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী সামাজিক সংস্থা (জাসাস) এর ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন উপলক্ষে উপজেলার ভাসাইন্যাদম ইউনিয়ন বিএনপি ও অঙ্গ-সংগঠনের কার্যালয়ে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

আলোচনা সভায় রাঙ্গামাটি জেলা যুবদলের সদস্য ডা. মো. আশরাফ আলীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, লংগদু উপজেলা যুবদলের সভাপতি মো. দেলোয়ার হোসেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, ভাসাইন্যাদম ইউনিয়ন শাখা বিএনপির সভাপতি মো. আব্দুল কাদের, উপজেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু আহম্মেদ, উপজেলা কৃষকদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. বেলাল হোসেন।

দোয়া ও মুনাজাত পরিচালনা করেন, মাওলানা আবুল কালাম। শেষে জাতীয়তাবাদী সামাজিক সংস্থা (জাসাস) এর ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আনুষ্ঠানিকভাবে কেক কাটা হয়।

আলোচনা সভা শেষে ২য় পর্বের অনুষ্ঠানে ভাসাইন্যাদম ইউনিয়ন শাখা জাসাস’র নতুন কমিটি গঠন করা হয়। এতে সভাপতি পদে মো. হোসেন আলী, সাধারণ সম্পাদক পদে মো. শহীদ ও সাংগঠনিক পদে মো. মনির নির্বাচিত হন।




লংগদুতে মহিলা সমাবেশ, আলোচনা সভা ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনী

লংগদু প্রতিনিধি:

রাঙ্গামাটির লংগদুতে সরকারের সাফল্য অর্জন ও উন্নয়ন ভাবনা বিষয়ে জনগণকে অবহিতকরণ ও উদ্বুদ্ধকরণ এবং উন্নয়ন কার্যক্রমে সম্পৃক্তকরণের লক্ষ্যে বিশেষ প্রচার কার্যক্রমের আওতায় রাঙ্গামাটি জেলা তথ্য অফিসের উদ্যোগে মহিলা সমাবেশ, আলাচনা সভা, সঙ্গীতানুষ্ঠান ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৮ ডিসেম্বর) লংগদু উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মোসাদ্দেক মেহেদী ইমাম’র সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. তোফাজ্জল হোসেন।

রাঙ্গামাটি জেলা তথ্য অফিসের প্রধান সহকারী অমিয় কান্তি খীসার পরিচালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, রাঙ্গামাটি জেলা তথ্য অফিসের কর্মকর্তা উষামং চৌধুরী।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যানদ্বয় মো. নাছির উদ্দিন ও নুরজাহান বেগম, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আশরাফুর রহমান, লংগদু উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. এখলাস মিঞা খান।

সভায় বক্তারা বর্তমান সরকারের বিভিন্ন সাফল্যের কথা তুলে ধরে বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন দেখেছিলেন ‘আমার দেশের প্রতিটি মানুষ খাদ্য পাবে, আশ্রয় পাবে, শিক্ষা পাবে, উন্নত জীবনের অধিকারী হবে-এই হচ্ছে আমার স্বপ্ন’। বঙ্গবন্ধুর সেই স্বপ্ন বাস্তবে রূপ দেওয়ার লক্ষ্য নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দারিদ্রবিমোচনে দশটি বিশেষ উদ্যোগ হাতে নিয়েছেন। এই উদ্যোগসমূহের শতভাগ বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে ২০২১ সালের মধ্যে ক্ষুধামুক্ত মধ্যম আয়ের বাংলাদেশ ও ২০৪১ এর মধ্যে উন্নত বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে দৃঢ় প্রত্যয়ে এগিয়ে যাচ্ছে সরকার।

আলোচনা সভাপূর্ব মহিলা সমাবেশ ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনী করা হয়। এছাড়া বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলা সদরের কাছে বাইট্টাপাড়া আলতাফমার্কেট এলাকায় চলচ্চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়।