লংগদুতে এক শিক্ষককে লাথি মেরেছেন চিকিৎসক

17440194_680534485482486_1059716698_n
লংগদু প্রতিনিধি :
চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসা শেষে মেডিকেল সনদ চাইতে গিয়ে লাথির শিকার হয়েছেন একজন শিক্ষক। বুধবার রাঙামাটির লংগদু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. নুরুল হুদার চেম্বারে ঘটনাটি ঘটেছে। ভুক্তভোগী শিক্ষক সরোয়ার হোসেন উপজেলার মাইনীমূখ ইসলামীয়া আলীম মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক (বিএসসি)। অভিযুক্ত চিকিৎসকের বিরুদ্ধে লংগদু থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই শিক্ষক।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, শিক্ষক সরোয়ার হোসেন গলায় টনসিলের ব্যাথা নিয়ে লংগদু হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. নুরুল হুদার নিকট গত ১৪ মার্চ চিকিৎসা নেন। ব্যবস্থাপত্র অনুযায়ী ঔষধ খেয়ে অনেকটা সুস্থ্যতাবোধ করছেন শিক্ষক সরোয়ার হোসেন। প্রতিষ্ঠানের ছুটি মঞ্জুর করতে তিন দিনের একটি মেডিকেল সনদের জন্য (বুধবার) হাসপাতালের চেম্বারে ডা. নুরুল হুদার সাথে দেখা করেন তিনি। এ সময় ডা. নুরুল হুদা তার কাছ থেকে পাঁচশত টাকা দাবি করেন। শিক্ষক টাকা দিতে না চাইলে তাকে অকথ্য ভাবে গালাগাল করেন ওই চিকিৎসক। এবং বলেন, তুই দশ হাজার টাকা দিলেও সার্টিফিকেট পাবি না । এ সময় শিক্ষক চিকিৎসককে সংযত হয়ে কথা বলতে বলেন। কিন্তু চিকিৎসক নিজের চেয়ার থেকে উঠে শিক্ষককে লাথি মারেন এবং রুম থেকে ধাক্কা দিয়ে বের করে দেন।

লংগদু থানার পুলিশ কর্মকর্তা এস আই মোসাদ্দেক হোসেন জানান, আমরা শিক্ষক সরোয়ার হোসেনের নিকট থেকে চিকিৎসকের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগের প্রেক্ষিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সামজের শিক্ষকরা হচ্ছে মানুষ গড়ার কারিঘর। একজন শিক্ষককে এভাবে অপদস্থ করায় এলাকার সাধারণ মানুষ ও শিক্ষক সমাজে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে । এলাকাবাসীদের মধ্যে অনেকেই ডা. নুরুল হুদা নিজেই রোগী বলে মন্তব্য করেন।

খোঁজ নিয়ে জানাযায়, ওই চিকিৎসক হাসপাতালের নার্স, কর্মচারীদের সাথে প্রায় খারাপ আচারণ করে থাকেন। যে কোন সার্টিফিকেটের জন্য টাকা দিতে হয় তাকে। তিনি নিজে রোগীদের কাছ থেকে চেয়ে নেন এসব টাকা ।

উপজেলা সদরের বাসিন্দা একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত নারী মেরি দেবনাথ মাতৃত্বজনিত ছুটির জন্য সনদ চাইতে গিয়েছিলেন চিকিৎস্যক নুরুল হুদার কাছে। নুরুল হুদা পাঁচশত টাকা দাবি করেন । পরে ওই নারী একজন স্থানীয় সংবাদকর্মীকে বিষয়টি জানালে শেষ পর্যন্ত টাকা নিতে পারেননি ডা. নুরুল হুদা। টাকা ছাড়াই সনদটি দিয়েছিলেন ।

শিক্ষককে লাথি মারার অভিযোগ সর্ম্পকে জানতে চাইলে ডা. নুরুল হুদা বলেন, লাথি মারার কথাটি সত্য নয়। ওই শিক্ষক আমাকে পাগল বলেছেন তাই আমি তাকে বকাঝকা দিয়েছি । তবে মেডিকেল সনদের বিনিময়ে টাকা চাওয়ার বিষয়ে বলেন, ওই শিক্ষক হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন না। তাই আমি তাকে সনদ দিতে না চাইলে এখন তিনি আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা বলছেন।

এব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. বিশ্বজিৎ মহাজন বলেন, আমি একটি মিটিংএ রাঙামাটি আছি। বিষয়টি শুনেছি। আমি লংগদু এসে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক রবি রঞ্জন চাকমা বলেন, আমরা এঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই। এ বিষয়ে করণীয় সম্পর্কে মিটিং চলছে। আমরা ছাত্র/ছাত্রী ও শিক্ষকসহ বৃহষ্পতিবার উপজেলা সদরে একটি মানববন্ধন করার আয়োজন করা হবে।




লংগদুর কাট্টলীতে ২০হাজার মিটার অবৈধ কারেন্টের জাল জব্দ

news pic (1) copy

রাঙামাটি প্রতিনিধি:

রাঙামাটির লংগদু উপজেলার কাট্টলীতে প্রায় ২০ হাজার মিটার অবৈধ কারেন্টের জাল উদ্ধার করেছে সিনিয়র সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. ওলিউজ্জামান।

রবিবার বিকেলে তার নেতৃত্বে পুলিশ অভিযান চালিয়ে  এ অবৈধ কারেন্টের জাল উদ্ধার করা হয়েছে।

সিনিয়র সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. ওলিউজ্জামান জানান, এ অবৈধ জাল গুলো আমরা গোপন সূত্রে খবর পেয়ে জব্দ করেছি এবং জাল গুলো পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে। এ ব্যাপারে কাউকে আটক করা হয়নি।




সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে: লে.কর্ণেল আ. আলীম

 

IMG_20170304_104756_1------------88888888888 copy

লংগদু প্রতিনিধি:

লংগদু উপজেলার সেনা জোনের জোন কমান্ডার লে. কর্ণেল আব্দুল আলীম চৌধুরী বলেছেন, উন্নয়নের পূর্বশর্ত হচ্ছে এলাকায় আইন শৃঙ্খলা স্থিতিশীল বজায় রাখা। কেননা আইন শৃঙ্খলা বিনষ্ট হলে উন্নয়ন বাঁধাগ্রস্থ হয়। তাই অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে হবে। তিনি প্রয়োজনে তাদের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন।

শনিবার লংগদু সেনা জোনের উদ্যোগে জোনের চিত্ত বিনোদন কক্ষে উপজেলার হেডম্যান ও কার্বারীদের নিয়ে আয়োজিত এক সন্মেলনে জোন কমান্ডার লে. কর্ণেল আব্দুল আলীম চৌধুরী এ আহ্বান জানান।

সম্মেলন অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন, জোনের উপ-অধিনায়ক মেজর মো. রফিকুল ইসলাম পিএসসি। সম্মেলনে সভাপতিত্ব ও স্বাগত বক্তব্যে জোন কমান্ডার লে. কর্ণেল আব্দুল আলীম চৌধুরী আরও বলেন, যেহেতু আমরা এ এলাকায় থাকি তাই, এলাকার মানুষের সুখ, দুঃখ ও উন্নয়নের সাথে আমাদের একটা সম্পর্ক রয়েছে।

তিনি বলেন, আজকের এ সম্মেলন একটি যুগপোযোগী বলে মনে করি। এলাকায় যে কোন পরিস্থিতি দেখা দিলে তখন নিজেরাই আলাপের মাধ্যমে তা সমাধানের ব্যবস্থা করা যাবে।

তিনি বলেন, লংগদুতে আইন শৃঙ্খলা ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রয়েছে। তার জন্য আমি খুবই খুশি। এটা কেবল সম্ভব হয়েছে আপনাদের সহযোগিতার জন্য। আশাকরি আগামীতেও আপনারা এভাবে জোনকে সহযোগিতা দিয়ে যাবেন ।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, লংগদু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. তোফাজ্জল হোসেন, থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মোমিনুল ইসলাম, উপজেলা হেডম্যান এসোসিয়েশনের সভাপতি ও সোনাই মৌজার হেডম্যান প্রেম লাল চাকমা, উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও হেডম্যান মো. এখলাস মিঞা খান।

এছাড়া লংগদু ইউপি চেয়ারম্যান ও হেডম্যান কুলিন মিত্র চাকমা আদু, উপজেলার কার্বারী সমিতির সভাপতি সুরুজ চান চাকমা, কার্বারী মো. আব্দুস সাত্তার বক্তব্য রাখেন।

সম্মেলনে উপজেলার সকল হেডম্যান, কার্বারী ও গণ্যমান্য ব্যক্তিগণ উপস্থিত ছিলেন।




লংগদুতে রাবেতা কলেজে মাতৃভাষা দিবসের আলোচনা সভা

IMG_20170220_105447----222222222222222 copy

লংগদু প্রতিনিধি:

লংগদু উপজেলার রাবেতা মডেল কলেজের উদ্যোগে ২১শে ফেব্রুয়ারি শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার, সকাল সাড়ে দশটায় কলেজের ক্যাম্পাসে আয়োজিত আলোচনা সভায় কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ সভাপতিত্ব করেন। কলেজের প্রভাষক মুসা তালুকদারের পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, লংগদু উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. আইবুল ইসলাম।

অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, গাঁথাছড়া বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্সের সুপার হাফেজ মাওলানা ফোরকান আহম্মেদ,  লংগদু প্রেস ক্লাবের সভাপতি মো. এখলাস মিঞা খান, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার মো. খোরশেদ আলম, কলেজ ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ডা. রশীদুজ্জামান, রাবেতা মডেল কলেজের প্রভাষক আজগর আলী, প্রভাষক হারুনুর রশীদ। এছাড়া ছাত্রদের মধ্যে মো. ইউসুফ বক্তব্য রাখেন।

আলোচনা সভায় কলেজের ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষকগণ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

সভায় বক্তারা বলেন, আমরা যে বাংলা ভাষায় কথা বলি এটি ঐতিহাসিক লড়াইয়ের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। শ্রদ্ধা জানাই সেসব ভাষা শহীদদের যাদের জীবনের বিনিময়ে এ মহান মাতৃভাষা রক্ষা করেছেন। ভাষা শহীদদের আত্মত্যাগে অর্জিত  এ ভাষা দিবসটি আজ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালন করা হচ্ছে।




লংগদুতে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ উদযাপন

IMG_20170215_103008--------999999999999999 copy

লংগদু প্রতিনিধি:

রাঙ্গামাটির লংগদুতে উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের আয়োজনে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ-২০১৭ উদযাপন উপলক্ষে র‌্যালি ও উপজেলা পর্যায়ে বিভিন্ন ইভেন্টে শ্রেষ্ঠত্ব বাছাই  প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

বুধবার, সকাল দশটায় উপজেলা সদরে লংগদু সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গন থেকে শিক্ষা সপ্তাহের উদ্বোধনী র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি উপজেলার প্রধান সড়ক ঘুরে পুনরায় বিদ্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়। উপজেলার বিভিন্ন মাধ্যমিক স্কুল, মাদ্রাসা ও কলেজের ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান, সহকারী শিক্ষক ও বিভিন্ন কর্মকর্তাগণ এসময় অংশগ্রহণ করেন।

উপজেলায় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠত্ব বাছাই প্রতিযোগিতা পরিচালনা করেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. আইবুল ইসলাম। এতে সাংস্কৃতিক পর্যায়ে ১৪টি ইভেন্ট, স্কাউটিং পর্যায়ে ১৪টি ইভেন্ট, চার জন শ্রেষ্ঠ শিক্ষক, চার জন শ্রেষ্ঠ শিক্ষার্থী, চার জন শ্রেষ্ঠ শ্রেণী প্রতিষ্ঠান প্রধান ও চারটি শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্বাচন করা হয়।

অনুষ্ঠানে রাবেতা মডেল কলেজের অধ্যক্ষ মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ, মাইনীমুখ ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা ফেরদৌস আলম, লংগদু সরকারী উচচ বিদ্যালয়ের (ভারপ্রাপ্ত) প্রধান শিক্ষক বৃষক কুমার চাকমা, গাঁথাছড়া বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্সের সুপার হাজ্বী হাফেজ মাওলানা ফোরকান আহম্মেদ, রাবেতা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুরুল করিম, মাইনীমুখ মডেল হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক রোফিকুন্নেছা রোজি, করল্যাছড়ি আরএস উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুর রহীম, লংগদু বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রবি রঞ্জন চাকমা সহ প্রতিযোগী ছাত্র ছাত্রীগণ এসময় উপস্থিত ছিলেন।




লংগদুতে জুনিয়র টাইগার্সের ৬৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

IMG_20170207_124704 copy

লংগদু প্রতিনিধি:

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস ও ঐতিহ্যের ধারক বাহক জুনিয়র টাইগার্স (২ইস্ট বেঙ্গল রেজি.) উল্লেখ করে এ ইউনিটের ৬৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে অভিনন্দন জানিয়েছেন খাগড়াছড়ি রিজিয়নের রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মীর মুশফিকুর রহমান।

তিনি আরও বলেন, আমি আশাবাদী এ ইউনিটের পূর্বসূরীদের মতই আপনারা সকলেই প্রত্যেকটা কাজে সহযোগিতা করবেন।

মঙ্গলবার, লংগদু সেনা জোনের ২ ইস্ট বেঙ্গল রেজি. (জুনিয়র টাইগার্স) এর ৬৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে খাগড়াছড়ি রিজিয়ন কমান্ডার মীর মুশফিকুর রহমান এমন মন্তব্য করেন। এরপর তিনি প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটেন এবং সকলের সাথে প্রীতিভোজে অংশ নেন।

লংগদু জোনের জোন কমান্ডার লে. কর্নেল আব্দুল আলীম চৌধুরী পিএসসি অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাজ নগর বডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) জোনের জোন কমান্ডার তারেক-বে নজীর, লংগদু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. তোফাজ্জল হোসেন। রাঙামাটি জেলা পরিষদের সদস্য মো. জানে আলম, লংগদু থানার অফিসার ইনচার্জ মোমিনুল ইসলামসহ জোনের বিভিন্ন সেনা কর্মকর্তা ও আমন্ত্রিত অতিথিগণ।

এর পূর্বে প্রধান অতিথি রিজিয়ন কমান্ডার মীর মুশফিকুর রহমান জোনের উদ্যোগে নব নির্মিত অতিথিশালা উদ্বোধন করেন।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সন্ধ্যায় জোনের অভ্যন্তরীণ মাঠে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার আয়োজন করা হয়।




লংগদুতে এক ছাত্রীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার

news_img-1

লংগদু প্রতিনিধি:

রাঙ্গামাটির লংগদুতে গলায় ফাঁস লাগানো ঝুলন্ত অবস্থায় এক ছাত্রীর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে থানার পুলিশ। সোমবার, উপজেলার আটারকছড়া ইউনিয়নের করল্যাছড়ি এলাকায় এঘটনা ঘটেছে। লংগদু থানা পুলিশ ও

এলাকাবাসী সূত্র জানায়, উপজেলার আটারকছড়া ইউনিয়নের করল্যাছড়ি এলাকার দিনমজুর মো. ইদ্রিছ মিয়ার বড় কন্যা ও করল্যাছড়ি আরএস উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী তানিয়া আক্তার(১৫)। ৬ ফেব্রুয়ারি, সোমবার সকালে বাসায় কাজকর্ম করছিলো। তানিয়ার বাবা প্রতিদিনের মতো কাজের সন্ধানে বাইরে যান। অপর ভাইবোনরা যে যার মত স্কুলে যায় এবং তাদের মা পাহাড়ে গরু ছেড়ে দিতে যায়।

সকাল সাড়ে দশটার সময় তাদের মা গরু দিয়ে ঘরে ফিরে এসে তারই শাড়ী দিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো সিলিংয়ের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় মেয়েকে দেখতে পান। এ খবর জানাজানি হলে এলাকাবাসী ছুটে আসেন। পরে লংগদু থানা পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

লংগদু থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মোমিনুল ইসলাম পার্বত্যনিউজকে জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রাথমিক তদন্ত করেছি। ময়না তদন্তের জন্য লাশ রাঙ্গামাটি জেলা মর্গে পাঠানো হবে।

তিনি আরও বলেন, মেয়েটির বাবা খুব গরিব। অভাব অনটনে তাদের দিন যাচ্ছিল বলে এলাকাবাসীর কাছ থেকে জানতে পেরেছি। হয়তো এ কারণেই মেয়েটি আত্মহত্যা করে থাকতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

করল্যাছড়ি আরএস উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহীম পার্বত্যনিউজকে জানান, তানিয়া আক্তার আমার বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী। আজ ঝুলন্ত অবস্থায় তার মৃত দেহ পাওয়া গেছে শুনে খারাপ লাগছে। মেয়েটি খুব অভাব অনটনের মধ্যদিয়ে পড়া লেখা চালিয়ে যাচ্ছিলো। আত্মহত্যার ব্যাপারটি ঠিক বুঝতে পারছি না। এদিকে তানিয়া আক্তারের মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।




উত্তর ইয়ারিংছড়ি সেনামৈত্রী উচ্চ বিদ্যালয়ের সম্প্রসারিত শ্রেণী কক্ষ উদ্বোধন

IMG_20170124_123436---11111111111111111111

লংগদু প্রতিনিধি:
আমরা হলাম রাজনীতি খেলোয়াড়, পাকা রাজনৈতিক কর্মী। আমরা জিতি বা হারি,  সরকারে থাকি আর বিরোধী দলে থাকি, আমরা সবসময় জনগণের কল্যাণে চিন্তা করি।

মঙ্গলবার লংগদু উপজেলার উত্তর ইয়ারিংছড়ি সেনামৈত্রী উচ্চ বিদ্যালয়ের সম্প্রসারিত শ্রেণী কক্ষ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাবেক পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ও রাঙামাটি জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি দীপংকর তালুকদার এমন মন্তব্য করেছেন।

তিনি আরো বলেন, আমি করল্যাছড়িতে এসেছি, কিন্তু উত্তর ইয়ারিংছড়িতে আসতে না পারলেও উন্নয়ন থেকে আপনারা বঞ্চিত হন নাই। অথচ বিগত দিনে ৯১-৯৬ সালে বিএনপি সরকারের আমলে কী উন্নয়ন দেখেছেন তা আপনারাই বলবেন। আমরা সেনাবাহিনীকে ধন্যবাদ জানাই তারা এই বিদ্যালয়টি চালু করেছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আবুল কালাম আজাদ। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মালেকের পরিচালনায় এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, রাঙামাটি জেলা পরিষদের সদস্য মো. জানে আলম, মাইনীমুখ ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল বারেক সরকার।

এছাড়া অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ইউসুফ আলী খান, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবলীগের সভাপতি মো. আব্দুর রহীম, আমিনুল ইসলাম, হাফিজুল ইসলাম।




উন্নয়নের স্বার্থে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজদের প্রতিহত করতে হবে            

 

লংগদু  প্রতিনিধি:

লংগদু উপজেলায় সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি খুবই ভালো। এ সম্প্রীতি যাতে বিনষ্ট না হয় তার জন্য সকলকে সচেষ্ট থাকতে হবে। সম্প্রীতি বিনষ্টকারী সে যেই হোক তাকে ছাড় দেওয়া হবেনা। যেখানে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড হবে, সেখানেই নিরাপত্ত বাহিনীর হস্তক্ষেপ থাকবে। সন্ত্রাসীরা উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে বাধাগ্রস্থ করে। তাই, এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজদের প্রতিহত করতে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।

শনিবার, লংগদু সেনা জোনের উদ্যোগে জোন সদরে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে খাগড়াছড়ি রিজিয়নের রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মীর মুশফিকুর রহমান (এসইউপি, পিএসসি) এসব কথা বলেন।

সভায় সভাপতিত্ব করেন, লংগদু জোনের জোন কমান্ডার লে. কর্ণেল আব্দুল আলীম চৌধুরী (পিএসসি)।

সভায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, লংগদু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. তোফাজ্জল হোসেন, রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য মো. জানে আলম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. নাছির উদ্দিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মাইনীমুখ ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বারেক সরকার।

এছাড়া জোনের বিভিন্ন সেনা কর্মকর্তা, বিভিন্ন ইউপি চেয়ারম্যানগণ, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন সংগঠনের প্রতিনিধি ও গণ্যমান্যব্যক্তিগণ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

সভায় প্রধান অতিথি রিজিয়ন কমান্ডার মীর মুশফিকুর রহমান বক্তব্যে আরও বলেন, আমি আশাকরি আপনারা সকলে মিলেমিশে কাজ করবেন এবং জোনকে সহযোগিতা দিবেন। একত্রে থাকতে গেলে সামান্য ভুল বুঝাবুঝি হতে পারে। এটাকে পুঁজি করে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট হওয়ার কোন কারণ নাই। কিন্তু এগুলো করার পিছনে কিছু লোক থাকে যারা সুযোগের অপেক্ষায় থাকে। তারা ঘোলাপানিতে মাছ শিকার করতে চায়। কিন্তু এটা কোন সুফল বয়ে আনবেনা।

তিনি বলেন, একটা বড় ধরণের ঘটনা আপনাদের দশ বছর পিছনে ফিরে নিয়ে যাবে। সেটা যেন না হয়। আপনাদের অনেক গুরু দায়িত্ব আছে সুন্দর একটা লংগদু উপজেলা উপহার দিয়ে যাওয়া।

শেষে রিজিয়ন কমান্ডার গরীব লোকজনদের মাঝে শীতকম্বল, কোমলমতি শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করেন। এরপর তিনি জোনের উদ্যোগে পরিচালিত কম্পিউটার প্রশিক্ষণ ও সেলাই প্রশিক্ষণ কেন্দ্র পরিদর্শন করেন এবং শেষে গ্রামার স্কুলের ভবন নির্মাণের জায়গা দেখেন। জোনের এ উদ্যোগের জন্য তিনি জোন কমান্ডারের প্রশংসা করেন।




উন্নয়নের জন্য স্থিতিশীল পরিবেশ প্রয়োজন

untitled-1-copy-000000000000000-1

 লংগদু প্রতিনিধি:

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও রাঙামাটি জেলা আওয়া লীগের সভাপতি দীপংকার তালুকদার বলেন, এলাকার উন্নয়নের জন্য স্কুল, কলেজ, রাস্তাঘাট, বিদ্যুৎ ব্যবস্থার উন্নয়নের জন্য আমরাও চেষ্টা করছি। কিন্তু এখানে যেটা সবচেয়ে বেশি জরুরী প্রয়োজন সেটা হলো স্থিতিশীল ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ। যদি স্থিতিশীল পরিবেশ না থাকে তাহলে উন্নয়ন করাটা কষ্টকর, উন্নয়ন বাঁধাগ্রস্ত হয়।

রোববার, লংগদু উপজেলার গুলশাখালী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে মেধাবী শিক্ষার্থীদের নিকট পুরস্কার ও বই বিতরণ উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তব্যে দীপংকর তালুকদার একথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, শান্তির পরিবেশকে  নষ্ট করতে বিভিন্ন মহল চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এখন নতুন করে বলা হচ্ছে ভূমি কমিশন কাজ শুরু করলে এখানকার বাঙালীদের চলে যেতে হবে। তবে আমি বলতে পারি ভূমি কমিশনের কাজ ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি করা। ভূমি বিরোধ বাড়ানো তাদের কাজ নয়। ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি কমিশনের কার্যক্রমে কারও কোন ক্ষতি হবার সম্ভাবনা নেই।

যদি কেউ ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে থাকে তাহলে সরকার তাদের  এ পার্বত্য চট্টগ্রামেই পূনর্বাসনের ব্যবস্থা করবে। আমাদের মধ্যে নানাবিধ বিভ্রান্তি সৃষ্টি করার জন্য অপচেষ্টা চলছে। এসকল অপচেষ্টার বিরুদ্ধে আমাদের রুখে দাঁড়াতে হবে, সতর্ক থাকতে হবে। যদি অশান্তি এবং অরাজক অবস্থা থাকে তাহলে কাঙ্ক্ষিত উন্নয়ন সম্ভব নয়।

লংগদু উপজেলার বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) রাজনগর জোনের জোন কমান্ডার লে. কর্ণেল তারেক মুহাম্মদ বে-নজির’র  সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো.জসিম উদ্দীন, লংগদু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মমিনুল ইসলাম, গুলশাখালী ইউপি চেয়ারম্যান আবু নাছির, গুলশাখালী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রহীম, বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলার জেলা শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক ও সাবেক জেলা ছাত্র লীগ সভাপতি শাহ এমরান রোকন, লংগদু উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক সুভাষ দাশ, আজগর আলী, গুলশাখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু বক্কর ছিদ্দিক, অভিভাবক সদস্য ও উপজেলা যুব লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম।

গুলশাখালী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির আয়োজনে ও সীমান্ত প্রহরী আদর্শ নিন্ম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাসুদ রানার পরিচালনায় এ অনুষ্ঠানে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী ও জেএসসি পরীক্ষায় অত্র ইউনিয়নের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে জিপিএ ৫ (এ+) পাওয়া মেধাবী শিক্ষার্থীদের হাতে পুরস্কার এবং নতুন বই তুলে দেন প্রধান অতিথিসহ আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ।