রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়নে প্রস্তাবিত প্রকল্প বাস্তবায়নে ওয়ার্ড সভা অনুষ্ঠিত

রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি:

রোয়াংছড়ি উপজেলায় লোকাল গভর্ন্যান্স সাপোর্ট প্রজেক্ট (এলজিএসপি) এর আওতায় রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের উন্মোক্ত ওয়ার্ড সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।  রবিবার(৩ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টায় বড়শিলা হেডম্যান পাড়ার কমিউনিটি সেন্টারে ৭নং ওয়ার্ড সদস্য প্রুসানু মারমার সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রোয়াংছড়ি সদর ইউপি চেয়ারম্যান চহ্লামং মারমা।

বিশেষ অতিথি ছিলেন ৩৪৯নং ঘেরাও মৌজা হেডম্যান শৈসাঅং মারমা, ৭,৮ ও ৯নং সংরক্ষিত মহিলা সদস্য নাইসাংউ মারমা, ১নং ওয়ার্ড সদস্য উহ্লচিং মারমা, ৮নং ওয়ার্ড সদস্য শৈক্যউ মারমা, বড়শিলা হেডম্যান পাড়া কারবারী সাচিং অং মারমা প্রমুখ।

এতে উন্মোক্ত সভায় উপস্থিতিদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রস্তাবিত ৫টি প্রকল্প গ্রহণ করা উদ্যোগ নিয়া হয়েছে। প্রকল্প সমূহের মধ্যে রয়েছে- (১) খিয়ংদং রং ঝিড়িতে বাঁধ নির্মাণ (২) বড়শিলা হেডম্যান পাড়ার অলি গলিতে ইটসলিং রাস্তা নির্মাণ (৩) বড়শিলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ সম্প্রসারণ (৪) বাগান পাড়া গোদাম্রং রং ঝিড়িতে বাঁধ নির্মাণ (৫) চিঞামুখ পাড়া জনস্বার্থে সিড়ি নির্মাণ ইত্যাদি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।

এসময় সভায় উপস্থিতদের সর্বসম্মতিক্রমে স্কিম সুপারভিশন কমিটি (তদারকি কমিটি) ও ওয়ার্ড কমিটি (ডব্লিউসি) নামে ৭সদস্য বিশিষ্ট ২টি কমিটি গঠন করা হয়।




রোয়াংছড়ি ব্যাংছড়িতে বাঁশ কাটতে গিয়ে যুবক মৃত্যু

রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি:

রোয়াংছড়ি উপজেলায় রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়ন ব্যাংছড়ি পাড়া মংছোঅং মারমা (28) নামে বাঁশ কাটতে গিয়ে এক যুবক মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গতকাল শনিবার সকাল পাইক্ষ্যং পাহাড় নামের একটি পাহাড় থেকে বাঁশ কাটতে গেলে পাহাড়ি ঝর্ণা পাশে পা পিছলে নিচের দিকে পড়ে যায়।

সেখান মৃত্যু কুপের মতোই পাইক্ষ্যং তাইংহ্রং বা পাহাড়ি ঝর্ণার উঁচু চুড়া থেকে পড়ে তিনি ঘটনাস্থলে মারা যান বলে ধারণা করেন।

রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড মেম্বার ক্যনুমং মারমা জানান, সকাল থেকে মুষলধারে বৃষ্টির মধ্যে দিয়ে বাঁশ কাটতে গিয়ে তিনি আর ফিরে আসেনি।

তারপর গ্রামবাসিরা রাত ৯ টায় দিকে খোঁজাখুঁজি করে পাইক্ষ্যং তাইংহ্রং পাহাড়ি ঝর্ণা নিচে পাথর আঘাত পেয়ে মৃত অবস্থায় তার লাশ দেখতে পায়। এতে রোয়াংছড়ি থানায় খবর দেয়া হয়েছে।

রোয়াংছড়ি থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ওমর আলী সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মৃত্যুর খবর পেয়েছি। রোববার সকাল থানার থেকে এক দল পুলিশকে লাশ উদ্ধার করতে পাঠানো হয়েছে।




মহিলা আওয়ামীলীগের ওয়ার্ড পর্যায়ে নতুন সদস্য সংগ্রহের অভিযান শুরু

রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি:

রোয়াংছড়ি উপজেলায় মহিলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে ওয়ার্ড পর্যায়ে নতুন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। আজ শুক্রবার দুপুরে রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়নের ১নংওয়ার্ডের সোয়ানলু পাড়ায় এই কার্যক্রম উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি চহ্লামং মারমা।

মহিলা আওয়ামীলীগের সোয়ানলু পাড়া কমিটির সভাপতি জিংহইকিম বম সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা প্যানেল চেয়ারম্যান-১ মাউসাং মারমা, উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অংম্রাচিং মারমা, সহ-সভাপতি মাচপ্রু মারমা, রোয়াংছড়ি ইউনিয়ন মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শৈমা মারমা, ওয়ার্ড মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হ্রীঞোমা মারমা, সাঃ সম্পাদক ক্যাইয়ি মারমা।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মহিলা আওয়ামীলীগের নেত্রী লালমুনকিম বম,দননেম বম ও উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন সা: সম্পাদক রামময় প্রমুখ।




রোয়াংছড়িতে বিএনপি’র পৃথকভাবে প্রতিষ্ঠার বার্ষিকী পালন

রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি :

রোয়াংছড়ি উপজেলায় জাতীয়তাবাদি দল (বিএনপি) সাচিংপ্রু (জেরী) গ্রুপ এবং অন্যদিকে বর্তমানের বিতর্কিত বান্দরবান জেলা বিএনপির সভানেত্রী ও বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মাম্যাচিং মারমা সমর্থিত গ্রুপের মধ্যে পৃথকভাবে ৩৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত হয়েছে।

শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে সাচিংপ্রু (জেরী) সমর্থীত গ্রুপের উপজেলায় বিএনপি সাধারণ সম্পাদক মাওসেতুং তঞ্চঙ্গ্যা বাড়িতে উপজেলায় বিএনপি সভাপতি অবসরপ্রাপ্ত মাষ্টার মংচাথোয়াই মারমা সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান জেলা তাঁতী দলে সভাপতি ও জেলা বিএনপি কমিটি অন্যতম সদস্য শ্যামল তঞ্চঙ্গ্যা (নাইজ্যাপু)।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক চিত্তরঞ্জন তঞ্চঙ্গ্যা,সাংগঠনিক সম্পাদক ও রোয়াংছড়ি সদর ইউপি মেম্বার গান্ধিলাল তঞ্চঙ্গ্যা প্রমুখ।

সভা সঞ্চালনা করেন উপজেলায় বিএনপি সাধাণ সম্পাদক মাওসেতুং তঞ্চঙ্গ্যা।

অন্যদিকে মাম্যাচিং মারমা সমর্থীত গ্রুপের একই দিনে বিকাল সাড়ে ৫টায় সময় উপজেলা বিএনপি কার্যালয়ের কেক কাটা মধ্যে দিয়ে ৩৯তম প্রতিষ্ঠার বার্ষিকী পালিত হয়েছে। উপজেলা বিএনপি যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ক্যসাইনু মারমা সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সিনিয়র সভাপতি হেডম্যান শৈসাঅং মারমা।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক মেম্বার চিংসামং মারমা,মহিলা বিএনপি সভানেত্রী অং ম্রাউ মারমা, আলেক্ষ্যং ইউনিয়নে ৭নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার ও ডা: সাচিংথুই মারমা, কারবারী মংজোহ্রী মারমা প্রমুখ।

এসময় পাল্টা পাল্টি বক্তব্যের প্রদানে সাচিংপ্রু (জেরী) সমর্থীত বক্তারা বলেন মাম্যাচিং মারমা পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান থাকা কালীন নামে বেনামে ভুয়া প্রকল্প দেখিয়ে প্রায় দেড় কোটি টাকা আত্মসাৎ করা হয়েছে।

শুধু তাই নয় বান্দরবান জেলা বিএনপি কার্যালয়কে নিজ নামে করে নিয়া হচ্ছে এমন অভিযোগও করেন। দলের নামে বিভিন্ন সুবিধা ভোগ করে চলেছে,দুর্নীতি বাজ বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেন বক্তারা। দুর্দিনে বন্ধু হয়ে বিএনপি দলকে টিকিয়ে রেখেছে, দলকে সাচিংপ্রু জেরী চালাচ্ছে বলে দাবি করেন জেরী সমর্থকরা।

বক্তারা আরো বলেন, দলের চেয়ার পারসন খালেদা জিয়া লন্ডন থেকে ফিরলে কেন্দ্রীয় কমিটি সিদ্ধান্ত মোতাবেক ঘুষ দিয়ে গঠন করা বান্দরবানের বির্তকীত নতুন কমিটি সভানেত্রী মাম্যাচিং ও সাধারণ সম্পাদক জাবেদ রেজাকে বহিস্কার করা হবে বলে জানান বক্তারা।




রোয়াংছড়িতে উসারা মহাথের স্মৃতি ফুটবল টুর্ণামেন্ট প্রস্তুতিমূলক সভা

রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি:

রোয়াংছড়ি উপজেলায় রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে রোয়াংছড়ি কেন্দ্রীয় বৌদ্ধ বিহারের প্রয়াত ভিক্ষু ভদন্ত শ্রীমৎ উ. উসারা মহাথের স্মৃতি ফুটবল টুর্ণামেন্ট’২০১৭ আয়োজনের লক্ষে এক প্রস্তুতিমূলক সভা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার(৩১আগস্ট) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় অনুষ্ঠিত সভা রোয়াংছড়ি সদর ইউপি চেয়ারম্যান চহ্লামং মারমার সভাপতিত্বে ইউপি সদস্য ও স্থানীয় সাবেক ফুটবলারগণ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় ইউপি চেয়ারম্যান চহ্লামং মারমাকে আহ্বায়ক ও উমংসিং মারমাকে সদস্য সচিব করে ১১সদস্য বিশিষ্ট একটি টুর্ণামেন্ট পরিচালনা কমিটি গঠন করা হয়।

এতে আগামী ১লা সেপ্টেম্বর থেকে খেলায় অংশগ্রহণে ইচ্ছুক দলদের এ্যান্ট্রি কার্যক্রম ৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে। ৫ সেপ্টেম্বর বাছাইয়ের পর আগামী ৭ সেপ্টেম্বর টুর্ণামেন্ট শুভ উদ্বোধন করা হবে বলে আয়োজন কমিটি সূত্র জানিয়েছে।




রোয়াংছড়িতে ভিজিডি চাল বিতরণ

রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি:

রোয়াংছড়ি উপজেলায় ১নং রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়ন পরিষদের ভিজিডি চাল বিতরণী কাজ শুরু হয়েছে। বুধবার(আগস্ট) সকালে এই কার্যক্রম আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার রবীন্দ্র চাকমা।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে ইউপি চেয়ারম্যান চহ্লামং মারমা, ইউপির সচিব মিলন কান্তি দাশ সকল ইউপি সদস্য ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্যারা উপস্থিত ছিলেন।

এ কর্মসূচির আওতায় রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়নের ৪ শত ৫০জন দুঃস্থ মহিলাকে জুলাই ও আগস্ট ২ মাসের ৬০ কেজি চাল বিতরণ করা হয়েছে।

সূত্রে জানা গেছে, আরো ৩নং আলেক্ষ্যং ইউনিয়নেরও দুঃস্থ মহিলাদের জন্য ভিজিডি চাল গোডাউন থেকে ইউপি পরিষদের পৌঁছানো হচ্ছে। ক’দিনের মধ্যে বিতরণ করা হবে বলেও জানান ইউপির চেয়ারম্যান বিশ্বনাথ তঞ্চঙ্গ্যা।




রোয়াংছড়িতে বিনামূল্যে মাছের পোনা বিতরণ

রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি:

রোয়াংছড়ি উপজেলার মৎস্য অধিদপ্তরের উদ্যোগে মাছের পোনা প্রকল্পের দেড় লক্ষ টাকা ব্যয়ে ৩শ কেজি মাছের পোনা ৪টি ইউনিয়নের মাঝে বিনামূল্যে বিতরণ করা হয়েছে । ইতোপূর্বে উপজেলা পরিষদের প্রাতিষ্ঠানিক পুকুরে মাছের পোনা অবমুক্ত করেন বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ও জেলা মৎস্য অধিদপ্তরের আহ্বায়ক প্রধান অতিথি লক্ষীপদ দাশ।

রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে জেলার মৎস্য কর্মকর্তা মো. এনায়েত চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ও জেলা মৎস্য অধিদপ্তরের আহবায়ক লক্ষীপদ দাশ।

অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রতিমন্ত্রী প্রতিনিধি নেইতংবইতিং বম, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ক্যসাইনু মারমা, রোয়াংছড়ি ১নং সদর ইউপির চেয়ারম্যান চহ্লামং মারমা, ৩নং আলেক্ষ্যং ইউপির চেয়ারম্যান বিশ্বনাথ তঞ্চঙ্গ্যা, উপজেলা মৎস্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম, রোয়াংছড়ি বাজার কমিটি সভাপতি দীপক ভট্টাচার্য, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জনমজয় তঞ্চঙ্গ্যা, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সুমনজয় তঞ্চঙ্গ্যা প্রমুখ।

এসময় প্রধান অতিথি লক্ষীপদ দাশ উপজেলায় বিভিন্ন বাস্তবায়িত উন্নয়ন কর্মসূচিগুলো খোঁজ খবর নেন। রোয়াংছড়ি উপজেলাতে মৎস্য চাষিদের সংখ্যা উৎপাদনের বৃদ্ধি পাওয়ার কথা শুনে প্রশংসার করেন তিনি। আগামীতে আরো মাছ চাষের মাধ্যমে স্বাবলম্বী ও উন্নতমানে মাছে চাষে উৎপাদনের বৃদ্ধি করা উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তাকে সার্বিক সহযোগীতা প্রদানের পরামর্শ দেন।




রোয়াংছড়িতে ইমপ্ল্যান্ট ক্যাম্প অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক, বান্দরবান:

বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলায় পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের উদ্যোগে সদর ক্লিনিকে সোমবার ইমপ্ল্যান্ট ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মং হ্লা প্রু ইমপ্ল্যান্ট প্রয়োগ করার মাধ্যমে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন।

সূত্র জানায়, ক্যাম্পে ১নং রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়নে ৭জন এবং ৩নং আলেক্ষ্যং ইউনিয়নে ৯জনসহ মোট ১৬ জন ক্লায়েন্টকে ইমপ্ল্যান্ট প্রয়োগ করা হয়েছে।

এ সময় সকল এফডব্লিউভি, এফপিআই ও রোয়াংছড়ি ও আলেক্ষ্যং ইউনিয়নের পরিবার কল্যাণ সহকারিগণ (এফডব্লিউএ) উপস্থিত ছিলেন।




রোয়াংছড়িতে এডিপি’র প্রকল্পে ব্যাপক দুর্নীতি ও অর্থ হরিলুট, প্রকল্পের অর্থ আত্মসাত, নির্বাহী কর্মকর্তাকে অভিযোগপ্রত্র প্রদান 

 

রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি:

রোয়াংছড়িতে সুপেয় পানি সরবরাহের প্রকল্পের কাজে ব্যাপক অনিয়ম, দুর্নীতি ও  অর্থ লুটপাটের অভিযোগে নির্বাহী অফিসারের বরাবর অভিযোগপত্র প্রদান করা হয়েছে। ২০১৬-১৭ অর্থ সালে এডিপির প্রকল্পের আওতায় রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়নের জনস্বার্থে জনগণের জন্য সুপেয় পানি সরবরাহের ও অনুমোদনকৃত ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা (এডিপি) প্রকল্প বাস্তবায়নে লক্ষ্যে রোয়াংছড়ি স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ (এলজিইডি) অফিসের অসাধু উপায়ে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা ঠিকাদারের সাথে যোগসাজশে মনগড়া কোটাশনের মাধ্যমে রোয়াংছড়ি মেসার্স অথুইমং মারমা নামে লাইসেন্স দিয়ে কাজ নেন।

ঠিকাদার রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সাহ্লামং মারমা। এলজিইডি অফিসের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা সরকারি কোন নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে দীর্ঘ দিন ধরে অনিয়ম ও দুর্নীতি করে আসছে।

এলজিইডি অফিসের সূত্রে জানা গেছে,  এসও সহকারি প্রকৌশলী মো. সাজেদুল ইসলাম সরাসরি জড়িত  এমন অভিযোগ উঠেছে। ওই কাজে তিনি দেখভাল করার দায়িত্বে ছিলেন।

নাম না বলার শর্তে স্থানীয়রা বলেন,  এলজিইডি অফিসের অসাধু কর্মকর্তাদের কারণে আমরা সাধারণ জনগণ বিভিন্ন সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয়েছি। সুপেয় ও বিশুদ্ধ পানির অভাবে ঝিড়ির পানি পান করে ডায়রিয়া, আমাশয়, ম্যালরিয়াসহ নানা রোগে আক্রান্ত  হয়ে কষ্ট ভোগ করতে হচ্ছে।

তাই রোয়াংছড়ি সদর ইউপির চেয়ারম্যান চহ্লামং মারমার সহায়তায় সুপেয় পানি সরবরাহের লক্ষ্যে ২০১৬-১৭ অর্থ সালে এডিপি প্রকল্পে আওয়াতায় বরাদ্দ পেয়েছি।

এদিকে এলাকার লোকজনের পানি সংকটের এমন অবস্থা দেখে ইতোমধ্যে ঝিরি-ঝর্ণা পানি সরবরাহকৃত পুরানো পাইপ লাইনকে সামন্য মেরামত করে নতুন ভাবে দেখিয়ে ওই প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজে দেখভালের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তা সাজেদুল ইসলাম ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা প্রকল্পের কাজে বাস্তবায়ন ছাড়াই ঠিকাদার সাহ্লামং মারমার সাথে মিলে ভুয়া বিল ভাউচা তৈরি করে দিচ্ছে।

সংশ্লিষ্টরা প্রকল্পের ২লক্ষ ৫০ হাজার টাকা উঠিয়ে নিয়ে বরাদ্দ টাকাগুলো ভাগ বাটোয়ারা করে নিয়ে গেছেন। শুধু তাই নয় পূর্বেও ইউপির চেয়ারম্যান থাকাকালে ২০১৫-১৬ অর্থ বছরে শেষে দিকে এলজিএসপি প্রকল্প বরাদ্দ থেকে প্রায় ১৭ লক্ষাধিক টাকা কোন কাজ না করে আত্মসাত করা হয়েছে।

এখন এলাকার জনগণকে সুপেয় পানি সরবরাহ করার লক্ষ্যে এডিপি প্রকল্পর বরাদ্দ অর্থ আত্মসাতের ঘটনাটি জানাজানি হলে জনগণ আন্দোলনমুখী হয়ে পড়েছে। এতে রোয়াংছড়ি নির্বাহী অফিসারের বরাবরে অভিযোগ পত্র প্রদান করা হয়।

সূত্রে জানা গেছে , উল্লেখ্য ২০১১ সালে ইউপির নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত ও বিএনপি দল থেকে ইউপির চেযারম্যান প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পান সাহ্লামং মারমা। তিনি উপজেলায় বিএনপি কমিটিতে আইন বিষয়ক সম্পাদক পদে ছিলেন। রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব নেওয়ার পর হতে তার আমলে বিভিন্ন প্রকল্প বরাদ্দগুলোর অর্থ লুটপাট ছাড়া তিনি কোন কাজ করেননি।  তিনি বিভিন্ন খাতে প্রকল্পর ব্যাপক অনিয়ম, দুর্নীতি ও অর্থ লুটপাট করেন। ওই পরিষদের অডিট এসে তদন্তে অনিয়ম, দুর্নীতি প্রমাণ পেলেও টাকা দিয়ে ম্যানেজ করে নেন।

তিনি ভিজিডি, ভিজিএফ, বিধবা ভাতা, বয়স্ক ভাতা ও প্রতিবন্ধী ভাতাসহ তালিকা করার সময় ঘুষ ব্যতীত কোন নাম তালিকায় অর্ন্তভুক্ত করা হয় না। এছাড়া কাজের বিনিময়ে খাদ্য কাবিখা ৪০ দিনের কর্মসূচির কাজে ব্যাপক অনিয়ম হওয়ায় দৈনিক প্রথম আলো এবং বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশ করার পরে পুনরায় কাজ করতে বাধ্য হন এ সাহ্লামং মারমা।

ওই সব অপকর্ম করে গা ঢাকা দিতে বিএনপি থেকে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ দলে যোগদান করেছে। আওয়ামী লীগে যোগদানের পর থেকে দলে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি ও ঝাঁমেলা পাকিয়ে চলেছে। চলতি বছরে ক’মাস পূর্বে দলের এক সিনিয়র নেতার সাথে কাজে অনিয়মের ব্যাপারে বাগবিতণ্ডা হয়ে এক পর্যায়ে সাহ্লামং মারমার ছুরিকাঘাতে গুরুত্বর আহত হন থোয়াইচপ্রু মারমা। তিনি এখন খুনের মামলার আসামি, হাইকোর্ট থেকে ৬ সপ্তাহের জামিন নিয়ে বাড়িতে অবস্থান করছেন। তিনি দুস্কৃতিকারী বলে অভিযোগ করেন স্থানীয়রা।

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অফিসের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা সূত্রে জানা গেছে ওই সুপেয় পানি সরবরাহের ব্যাপারে জানেন না। আমাদের কাছে কোন অবহিত করা হয়নি। বরং আমাদের অফিসের মাধ্যমে ১০ বছর পূর্বে বাঘামারা ঝিরি থেকে সরবরাহকৃত পাইপ লাইনকে দেখিয়ে ভুয়া বিল ভাউচা তৈরি করে পেমেন্ট করা হয়েছে। তবে এধরণের কাজ ছাড়াই বিল পেমেন্ট করা বোধগম্য নয়।

লাইসেন্স মালিক আথুইমং মারমা বলেন  অর্থ লুটপাটে ব্যাপারটি জানেন না। সাহ্লামং মারমাকে লাইসেন্স দেওয়া হয়নি। লাইসেন্সের মালিক হিসেবে আমার স্বাক্ষর নকল করে তুলে নিতে পারেন ধারণা করছে আথুইমং মারমা। ঠিকাদার সাহ্লামং মারমার সাথে যোগাযোগ করা হলে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হয়ে তিনি রিসিভ করেননি।

উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ক্যসাইনু মারমা ও রোয়াংছড়ি সদর ইউপির চেয়ারম্যান চহ্লামং মারমা বলেন, এ প্রকল্প অনিয়ম ব্যাপারে নির্বাহী অফিসারকে অবহিত করা হয়েছে। এলাকার জনগণের জন্যের অনেক দিনের আশা পূরণ করতে চেয়েছিলাম। কিন্ত এভাবে ঠকাবে জানতামই না। দীর্ঘ দিন ধরে বিশুদ্ধ পানির জন্য সাধারণ জনগণের দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। সকলে মিলে ২০১৬-১৭ অর্থ সালে এডিপি প্রকল্পে আওয়াতায় বরাদ্দ দাবি করে অনুমোদন পেয়েছি তার মধ্যে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার কোন কাজ না করে সমস্ত বরাদ্দ টাকাগুলো উত্তোলন করে নিয়ে গেছেন। এমন হতে পারেন না, এলাকার জনগণের প্রাপ্য, জনস্বার্থে কাজটি বাস্তবায়নের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এসও সাজেদুল ইসলাম দাবি করে বলেন, প্রকল্পর কাজ ৮০ ভাগ কাজ হয়েছে। কিন্তু তার দাবি আনুযায়ী কোন  কাজ না করে মোটা অঙ্কের টাকা নিয়ে বিল করে দেওয়া হয়েছে। নির্বাহী অফিসার রবীন্দ্র চাকমা বলেন, কাজটি যেই করুক বস্তবায়ন হতে হবে। জনগণের চাওয়া পূরণ করে দিতে হবে।




রোয়াংছড়িতে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা দিবস পালিত

রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি :

আওয়ামী লীগের ২৪ জন নেতাকর্মীর তাজা প্রাণ কেরে নেওয়া ২১ আগস্ট। ২০০৪ সনের এ দিনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার সন্ত্রাস বিরোধী সমাবেশে গ্রেনেড হামলার হয়েছিলো।

রোয়াংছড়িতে এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত সভায় বক্তারা বলেন, ১৫ আগস্টে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে হত্যা করে বাঙালি জাতিকে ধ্বংস করার চেষ্টা করা হয়েছিলো। কিন্তু সেদিন ভাগ্যক্রমে আজকের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেঁচে যান। এই ঘাতকরাই ২১ আগস্টে গ্রেনেড হামলা করে শেখ হাসিনাকে আবারও হত্যা চেষ্টা করেছে। শুধু তাই নয় স্বাধীন দেশটাকে ধ্বংস করতে চেয়েছিলো। বক্তারা অবিলম্বে ঘাতকদের শাস্তির দাবি জানান।

রোয়াংছড়ি উপজেলায় এই গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদে আওয়ামী লীগের উদ্যোগে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় রোয়াংছড়ি বাজারে দোয়া, মানবন্ধন ও এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে উপজেলায় আওয়ামী লীগের সভাপতি ও রোয়াংছড়ি সদর ইউপির চেয়ারম্যান চহ্লামং মারমার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন রোয়াংছড়ি উপজেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মাউসাং মারমা।

এসময় উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ধীরেন ত্রিপুরার সভা সঞ্চালনায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন সহ সভাপতি ও আলেক্ষ্যং ইউপির চেয়ারম্যান বিশ্বনাথ তঞ্চঙ্গ্যা, সাংগঠনিক সম্পাদক মংখিংসাই মারমা, স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি প্রীতিময় তঞ্চঙ্গ্যা প্রমুখ।