রোয়াংছড়িতে বাস্তবায়নাধীন উন্নয়ন প্রকল্প পরিদর্শন করলেন চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্ণা

Rowangchari pic 18.01

রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি:

উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে একদিনের সফরের এসে রোয়াংছড়িতে বাস্তবায়নাধীন বিভিন্ন প্রকল্পের অগ্রগতি পরিদর্শন করেছেন বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা।

বুধবার সকাল ১১টার দিকে এসে রোয়াংছড়ি আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পাগলাছড়া নির্মাণাধীন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পাগলাছড়া  নির্মাণাধীন বুদ্ধ ধাতু জাদি ও পালিটোল সহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক প্রকল্পের অগ্রগতি পরিদর্শন করেন।

এ সময় চেয়ারম্যানের সফর সঙ্গী হিসেবে ছিলেন সহধর্মিনী মিকিকিএ মারমা, বান্দরবান জেলা পরিষদের সদস্য কাঞ্চনজয় তঞ্চঙ্গ্যা, রোয়াংছড়ি উপজেলা আ’লীগের সভাপতি ও রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান চহ্লামং মারমাসহ ক্ষমতাসীন দল আ’লীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

পরিদর্শন শেষে বান্দরবান জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা মারমা বলেন, উন্নয়নে ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে। একই সঙ্গে সকল নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার পরামর্শও দেন তিনি। ইতোপূর্বে রোয়াংছড়ি কেন্দ্রীয় বৌদ্ধ বিহারে গিয়ে মহামুণি বুদ্ধকে কঠিন চীবর দান, পঞ্চশীল গ্রহণ ও দানীয় বস্তু উদ্দেশ্যে জল উৎসর্গ করেন চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা।




রোয়াংছড়িতে পরিত্যাক্ত ফরেস্ট অফিসে দুর্বৃত্তের দেওয়া অগ্নিকাণ্ডে সাতটি ছাগল পুড়ে ছাই

অগ্নিকাণ্ডরোয়াংছড়ি প্রতিনিধি:

রোয়াংছড়ি উপজেলা সদর পাইক্ষ্যং রেঞ্জের আবাসিক এলাকার পরিত্যাক্ত ফরেস্ট স্টাফ কোয়াটারে অগ্নিসংযোগ’র  ঘটনা ঘটেছে।

মঙ্গলবার রাত প্রায় দেড় (১.৩০)টার দিকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। দুর্বৃত্তদের দেওয়া অগ্নিকাণ্ডে ৭টি ছাগল পুড়ে ভস্ম হয়ে যায়।

ফরেস্ট গার্ড গুরাঙ্গ গুপ্ত জানায়, দীর্ঘ দিন যাবৎ ফরেস্ট স্টাফ কোয়াটার  পরিত্যক্ত ছিল কে বা কারা অগ্নিকাণ্ড ঘটিয়েছে তিনি জানেন না।

ছাগলের মালিক মো. বশির বলেন, ফরেস্ট অফিসের পাশাপাশি দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছি। তবে এভাবে কোন ঘটনা ঘটেনি, কে বা কারা অগ্নিকাণ্ড ঘটিয়েছে তিনিও জানেন না। পরিত্যাক্ত ঘরে রাতে  মোহম্মদ বশির ছাগল রাখতেন। দুর্বৃত্তের দেওয়া অগ্নিকাণ্ডে ৮টি ছাগলের মধ্যে ৭টি ছাগল আগুনে পুড়ে মারা গেছে ১টি ছাগল বেঁচে আছে।

খবর পেয়ে বুধবার সকালে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ক্যসাইনু মারমা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাইসাং মারমা, রোয়াংছড়ি সদর ইউপির চেয়ারম্যান চহ্লামং মারমা, রোয়াংছড়ি থানা অফিসার ইনচার্জ ওসি মো. ওমর আলীর পৃথক পৃথক ভাবে ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেন।




রোয়াংছড়িতে তিন দিনব্যাপি উন্নয়ন মেলা

rowangchari-pic-10-01

রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি:

আগের চেয়ে বান্দরবানে সারা দেশের ন্যায় বিভিন্ন রকম অবকাঠামোগত উন্নয়ন কার্যক্রম অনেক এগিয়েছে। তবে এলাকায় শিক্ষার মান এখনো অনেক পিঁছিয়ে রয়েছে। শিক্ষার মান উন্নয়ন করতে হলে শিক্ষকদের আন্তরিকতা নিয়ে দায়িত্ব পালন করা দরকার। মঙ্গলাবার উপজেলা শিশু পার্ক প্রাঙ্গনে ‘উন্নয়ন মেলা-২০১৭’ উপলক্ষে আয়োজিত এক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন দিলি কুমার বণিক।

সকাল সাড়ে ১১টায় লাল ফিতা কেটে উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক দিলি কুমার বণিক। তিন দিনব্যাপী এ উন্নয়ন মেলা চলবে। সাসটেইনেবল ডেভলাপমেন্ট গোল্ড (এসডিজি)  ১৭টি টেকসই উন্নয়নের মধ্যে দিয়ে শিক্ষার গুনগতমানের ওপর দক্ষতা অর্জন বাস্তবায়নে সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে উৎসাহিত করাসহ সরকারের সাফল্য ও উদ্যোগ গুলো উপস্থাপনসহ উন্নয়নমূলক কার্যক্রমে জনগণকে সম্পৃক্তকরণের লক্ষ্যে উপজেলা প্রশাসন এ মেলার আয়োজন করেছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোহাম্মদ দাউদ হোসেন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ও অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা দেন ভাইস চয়ারম্যান ক্যসাইনু মারমা, রোয়াংছড়ি সদর ইউপির চেয়ারম্যান চহ্লামং মারমা, বিশ্বনাথ তঞ্চঙ্গ্যা, উপজেলা (ভারপ্রাপ্ত) শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ কামাল হোসেন, রোয়াংছড়ি থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ ওমর আলীর, নোয়াপতং ইউপির চেয়ারম্যান উবাপ্রু মারমা, তারাছা ইউপির চেয়ারম্যান উথোয়াইচিং মারমা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা পুলুপ্রু মারমার উপস্থাপনায় মেলার তাৎপর্য তুলে ধরে স্বাগত ও সভাপতির বক্তব্য দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোহাম্মদ দাউদ হোসেন চৌধুরী।

তিনি বলেন, ব্যক্তি স্বার্থ চিন্তা না করে উন্নয়নের কার্যক্রমকে সামনে এগিয়ে নিতে হবে। বান্দরবানের সবচেয়ে অপরূপ সৌন্দর্য জেলা হিসেবে রূপান্তরিত হয়েছে। তাই আরও দৃষ্টি নন্দন ও উন্নয়নের সমষ্টি চিন্তা করতে এক সাথে কাজ করার জন্য উপস্থিত সকলের প্রতি আহ্বান জানান। মেলাতে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাপ স্টলসহ ৩০টি স্টল বরাদ্দ করা হয়েছে। ব্যাপক অংশগ্রহণের মাধ্যমে উন্নয়নের চিত্রটি প্রজেক্টরে প্রদর্শন করেছেন।




ব্যাংককে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর পক্ষে প্রতিনিধিত্ব করবেন রোয়াংছড়ির উসাইম্যা মারমা

u-saing-maya-marma1-copy

রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি :

বান্দরবান পার্বত্য জেলার রোয়াংছড়ি উপজেলার কৃতী সন্তান উসাইম্যা মারমা থাইল্যান্ডের ব্যাংককে অনুষ্ঠিতব্য আন্তর্জাতিক কর্মশালায় ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর পক্ষে প্রতিনিধিত্ব করবেন।কর্মশালাটি ১০ জানুয়ারি শুরু হয়ে শেষ হবে ২১ জানুয়ারি।

জানা যায়, রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়নে পাহাড়ের পাদদেশের নতুন পাড়ায় উসাইম্যা মারমার জন্ম। বর্তমানে চট্টগ্রাম এশিয়ান ইউনির্ভাসিটি ফর উইমেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শেষ বর্ষের ছাত্রী। তার বাবা অংসাজাই মারমা (আচিং) রোয়াংছড়ি উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিপ্তরের একজন সহকারি উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা। মা ম্যাম্যাচিং মারমা (আচিংমা) রোয়াংছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের স্বাস্থ্য সহকারী হিসেবে কর্মরত আছেন। এশিয়ান প্যাসিফিক ইয়ুথ এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামের ডাক পেয়ে সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট গোল্ড (এসডিজি)’র ওপর দক্ষতা অর্জনের লক্ষ্যে থ্যাল্যান্ডের ব্যাংককে যাচ্ছেন তিনি। ১০ দিনব্যাপী কর্মশালায় তিনি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর পক্ষে প্রতিনিধিত্ব করবেন উসাইম্যা মারমা।

জানা গেছে, ২১টি দেশের জনগোষ্ঠীর প্রতিনিধিরা এ কর্মশালায় অংশগ্রহণ  করতে যাচ্ছেন। আমেরিকা, বাংলাদেশ, ব্রাজিল, হংকং, কম্বোডিয়, চীন, ইন্দোনেশিয়া, কোরিয়া, ভারত, মঙ্গোলিয়া, নেপাল, মায়ানমার, পেরু, পাপুয়ানিউ গিনি, রুমানিয়া, সিঙ্গাপুর, তাইওয়ান, ফিলিপাইন, তাঞ্জানিয়া, থাইল্যান্ড ও ভিয়েতনামের সহ ২৫০ জন প্রতিনিধিরা যোগ দেবেন এ কর্মশালয়।

উসাইম্যা মারমা জানান, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর একজন সদস্য হয়ে আন্তর্জাতিক এ কর্মশালায় প্রতিনিধিত্ব করতে পেরে আমি ভীষণ আনন্দিত। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়,  ১০ থেকে ২১ জানুয়ারি পর্যন্ত ব্যাংককের কর্মশালায় এসডিজি অর্জনের ১৭টি টেকসই উন্নয়নের মধ্যে দিয়ে শিক্ষার গুণগতমানের ওপর দক্ষতা অর্জন করে ২২ জানুয়ারি দেশের ফিরবেন উসাইম্যা।




রোয়াংছড়িতে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি উন্নয়নের লক্ষে আলোচনা সভা

unnamed-copy

রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি:

রোয়াংছড়ি উপজেলা তারাছা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ কর্তৃক আয়োজিত শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি বিষয়ক ও উন্নয়ন কর্মকাণ্ড গতিলীল করার লক্ষে ৮নং ওয়ার্ড মাংসমুই পাড়ায় আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় পাড়া (প্রধান) কারবারীর মংচথোয়াই মারমার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হ্লাথোয়াইহ্রী মারমা।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রোয়াংছড়ি উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান পুহ্লাঅং মারমা, তারাছা ইউপির চেয়ারম্যান উথোয়াইচিং মারমা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জনম জয় তঞ্চঙ্গ্যা, তারাছা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি মংমংথোয়াই মারমা প্রমূখ।

প্রধান অতিথি বক্তৃতায় বলেন, গ্রামে গঞ্জের অলিতে গলিতে বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়নের মধ্যে দিয়ে জোয়ার ভাসছে। ধর্মীয়, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, সংস্কৃতি থেকে শুরু করে ধীরে ধীরে উন্নয়ন বৃদ্ধি পাচ্ছে। শিক্ষা ক্ষেত্রে বিদ্যালয় বিহীন এলাকাগুলো বিদ্যালয় স্থাপন করেছে। প্রত্যকটি স্কুলে পর্যাপ্ত শিক্ষক নিয়োগ করে দিচ্ছে সরকার। স্বাস্থ্য ক্ষেত্রেও জনগণের ডোরগোড়ায় পৌঁছে দিচ্ছে। এরূপ উন্নয়নের ধারা আগামীতেও অব্যাহত থাকবে। জনগণ একতা বদ্ধ হয়ে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকার প্রতিক তথা বীর বাহাদুরের হাতকে গতিশীল করার লক্ষে প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানান।

এছাড়াও আলোচনা সভায় আওয়ামী লীগের অঙ্গসহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।




রোয়াংছড়িতে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মারমা তরুণ গ্রেফতার

rowangchari-pic-06-01

রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি:

রোয়াংছড়িতে মারমা তরুণীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে উচ নু মারমা (৩০) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রোয়াংছড়ি নতুন পাড়ার মৃত মং চাই প্রু মারমার ছেলে উচ নু বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা প্রায় সাড়ে ৭টায় দিকে এ ঘটনা ঘটায়।

এসময় মেয়েটিকে একা পেয়ে যুবকটি ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় চিৎকার শুনে মেয়েটির মা,বাবা ও আত্মীয় স্বজনরা উদ্ধার করতে গেলে লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে আঘাত করেন উচনু মারমা। এতে ভিক্টিমের বয়স্ক মাতামহ, মা ও বাবার হাতে মারাত্মকভাবে ইনজুরি হয়েছে। তারা বর্তমানে রোয়াংছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছে বলে জানা গেছে।

রোয়াংছড়ি থানার কর্তব্যরত কর্মকর্তা আই এস আই এসএম আরিফুল রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে পার্বত্যনিউজকে বলেন, ধর্ষণ করা হয়নি, মেয়েটিকে যৌন নিপীড়ন ও শ্লীলতাহানি করা হয়েছে। ভিক্টিমের অভিভাবকের অভিযোগ পত্র পেয়ে ধর্ষণ চেষ্টাকারিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

রোয়াংছড়ি থানায় ধর্ষণের চেষ্টাকারির নামে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে।




জাতিকে উন্নতি করতে হলে সুশিক্ষিত হতে হবে

rowangchari-pic-06-01

রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি:

রোয়াংছড়িতে ২৪তম ত্রিপুরা ছাত্র ফোরাম বাংলাদেশ সংগঠন রোয়াংছড়ি উপজেলা শাখায় প্রথম বর্ষের পূর্তি উপলক্ষে কেক কাটার মধ্যে দিয়ে শুভ উদ্বোধন কালে প্রধান অতিথি কাঞ্চন জয় তঞ্চঙ্গ্যা বলেন, জাতিকে উন্নতি করতে হলে উচ্চশিক্ষা লাভ করে সুশিক্ষিত হতে হবে। শিক্ষা ছাড়া কোন বিকল্প নেই, শিক্ষা জতির মেরুদণ্ড, জাতি ও ছাত্র সমাজকে টিকিয়ে রাখতে হলে শিক্ষার আলো থাকার প্রয়োজন।

তিনি আরও বলেন, সরকার উচ্চ শ্রেণী পড়ুয়া ছাত্র-ছাত্রীদেরকে জ্ঞানার্জনে সুযোগ পেতে জেলা পরিষদ ও উন্নয়ন বোর্ড থেকে উপবৃত্তি প্রদান করে থাকেন। আজকের ছাত্র আগামী দিনে নেতৃত্ব দিবেন। জাতির ভেদাভেদ না রেখে পরস্পরের ঐক্য হয়ে সহায়তা প্রদানের পরামর্শ দেন।

অনুষ্ঠানে যাকোব ত্রিপুরার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রোয়াংছড়ি উপজেলার আওয়ামী লীগ সাবেক সভাপতি ও বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য কাঞ্চন জয় তঞ্চঙ্গ্যা। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদের সভাপতি ধীরেন ত্রিপুরা, রোয়াংছড়ি কলেজের (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যক্ষ আনন্দ সেন তঞ্চঙ্গ্যা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জনম জয় তঞ্চঙ্গ্যা, সাংগঠনিক সম্পাদক মংখিংসাই মারমা, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সুমন জয় তঞ্চঙ্গ্যা প্রমূখ। এছাড়া জেলা, উপজেলা ও কেন্দ্রীয় মারমা ও তঞ্চঙ্গ্যা ছাত্র সংগঠনে নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।




রোয়াংছড়িতে ৬৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ছাত্রলীগের সমাবেশ

unnamed-copy

রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি:

রোয়াংছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগ কর্তৃক আয়োজিত ৬৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে কেক কেটে রোয়াংছড়ি বাজার মাল্টিপার্পাস হল রুমে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও রোয়াংছড়ি সদর ইউপির চেয়ারম্যান চহ্লামং মারমা। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ধীরেন ত্রিপুরা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রামশিয়াম বম, সাংগঠনিক সম্পাদক জনম জয় তঞ্চঙ্গ্যা, সাংগঠনিক সম্পাদক মংখিংসাই মারমা, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি পুরুকান্তি তঞ্চঙ্গ্যা, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি প্রীতিময় তঞ্চঙ্গ্যাসহ আওয়ামী লীগ অঙ্গসহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকে ছাত্রলীগ অপরিসীম ভূমিকা পালন করে আসছে, ভবিষ্যতেও করবে। পূর্বে ইতিহাস’র দিকে তাকালে দেখা যায় ১৯৫২ সাল থেকে অধ্যাবধি পর্যন্ত ছাত্রলীগের ভূমিকা আছে এবং থাকবে। আজকের ছাত্র সংগঠন নেতৃবৃন্দরা আগামী দিনে নেতৃত্ব দিবেন। এ ছাত্র সংগঠন বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান’র হাতে গড়া সংগঠন। সেই ছাত্র নেতারা আজকের দিনে দেশ পরিচালনা করে যাচ্ছে। জগণের সেবা করে যাচ্ছে, প্রতিটি জায়গায় শিক্ষা, স্বাস্থ্য, অবকাঠমোর উন্নয়নের জোয়ারে ভাসছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার আসার পর থেকে জনগণের সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি পাচ্ছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন আজ পূর্ণ হতে চলেছে। ছাত্র সংগঠনকে আগামী দিনেও পিছপা না হয়ে ভূমিকা পালনে পরামর্শ দেন।

এ সময় আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সুমন জয় তঞ্চঙ্গ্যা।




রোয়াংছড়িতে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা সম্পন্ন

rowangchari-pic-04-01-2017
রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি:
রোয়াংছড়ি উপজেলা ইসলামিক ফাউন্ডাশনের প্রাক শিক্ষা কর্মসুচী শিক্ষক নিয়োগের ভাইভা পরীক্ষা প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। বুধবার সকাল সাড়ে ১১টায় দিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালায়ে অনুষ্ঠিত হয়।

ভাইভা পরীক্ষা বোর্ডে উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান জেলা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. মফিদুল আলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. দাউদ হোসেন চৌধুরী, ইসলামিক ফাউন্ডাশনে বান্দরবান জেলা দায়িত্ব প্রাপ্ত কার্মকর্তা ডিডি, উপজেলা (ভারপ্রাপ্ত) শিক্ষা কর্মকর্তা মো. কামাল হোসেন ও রোয়াংছড়ি থানা প্রতিনিধি এএসআই মো. মোস্তফা প্রমুখ।

ভাইভা ইন্টারভিইউ শেষে জেলা উপ-পরিচালক বলেন সরকার শিক্ষা বঞ্চিতদের নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। ধর্মীয় মধ্যে দিয়ে বেশির ভাগে পার্বত্য প্রত্যন্ত এলাকার শিশুদেরকে অগ্রধিকার দিচ্ছে সরকার। তম্মমধ্যে বাছাই করে রোয়াংছড়ি উপজেলাকে গুরুত্ব দিয়ে প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে। দুর্গম পাহাড়ের শিক্ষা প্রসারের লক্ষে অত্যান্ত জরুরি বলে মনে করেন। তার পাশাপাশি আপন আপন ধর্মীয় শিক্ষা লাভ করা সুযোগ আছে, ধর্মীয় শিক্ষাকে গুরুত্ব দেয়া হবে বলে জানান।




রোয়াংছড়িতে দিনব্যাপী ই-সেবা বিষয়ক প্রশিক্ষণ

rowangchari-pic-04-01

রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি:

রোয়াংছড়ি উপজেলায় প্রশাসনের উদ্যোগে উপজেলায় প্রত্যেক ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান, সচিব ও উদ্যোক্তাদের নিয়ে দিনব্যাপী ই-সেবা প্রশিক্ষণ কর্মসুচি উপজেলার মিলনাতয়নে অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার সকাল ১০টায় এডিসি জেনারেল মো. মফিদুল আলম বান্দরবান অনুষ্ঠিতব্য প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে শুভ উদ্বোধন করেন। এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, বর্তমানে বিশ্বের সাথে তাল মিলে চলতে হবে। বিশ্বের দিকে তাকালে দেখতে প্রায় আমরা এখনো পিছিয়ে আছি। প্রত্যেক জন সেবাদানকারীরা ডিজিটাল যুগে সুবিধা পেতে গেলে ই-সেবা ও ইন্টারনেট ব্যবহার করা জানা প্রয়োজন। এ সমস্ত ইন্টারনেট’র বিষয়গুলো জানা থাকলে বিশ্ব হাতের মুঠোই বলেও জানান মফিদুল আলম।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রোয়াংছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্তকর্তা মো. দাউদ হোসেন চৌধুরী। এছাড়া প্রশিক্ষণার্থী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রোয়াংছড়ি সদর ইউপির চেয়ারম্যান চহ্লামং মারমা, তারাছা ইউপির চেয়ারম্যান উথোয়াইচিং মারমা, আরেক্ষ্যং ইউপির চেয়ারম্যান বিশ্বনাথ তঞ্চঙ্গ্যা, নোয়াপতং ইউপির চেয়ারম্যান উবাপ্রু মারমাসহ প্রত্যক ইউনিয়নে উদ্যোক্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।