বাঘাইছড়ি পৌর নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় চবি ছাত্রলীগের সাত নেতাকর্মী আটক

আটক
নিজস্ব প্রতিবেদক, রাঙামাটি :
রাঙামাটির বাঘাইছড়ি পৌরসভা নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় সাত জনকে আটক করেছে পুলিশ। নির্বাচনের পরের দিন রবিবার দুপুর আনুমানিক সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলা সদরের চৌমুহনীতে দুজন কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার জের ধরে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী আওয়ামীলীগের সাবেক নেতা আজিজুর রহমান আজিজের বাসা থেকে সাত জনকে আটক করা হয়। পুলিশ জানায়, আটক সবাই বহিরাগত। এরা চট্টগ্রামে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ কর্মী বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় আটকদের বিরুদ্ধে বাঘাইছড়ি থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে থানা সূত্রে জানা যায়।

স্থানীয় সূত্র জানায়, রবিবার ৪ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী ছাত্রলীগ নেতা সঞ্জয় ধর ও বিজয়ী কাউন্সিলর বিএনপি সমর্থিত নুর আলমের সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার জের ধরে বেশ কিছু যুবক স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী আজিজুর রহমান আজিজের বাসার সামনে ব্যারিকেট দেয়ার চেষ্টা করে। পরে পুলিশ ও বিজিবি ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের নিবৃত করার চেষ্টা চালালে তারা পুলিশের ওপর চড়াও হয়। পরে আজিজুর রহমানের বাসায় তল্লাশি চালিয়ে সাত জন বহিরাগতকে আটক করে পুলিশ। আটককৃতরা কেউই বাঘাইছড়ির বাসিন্দা নয় বলে পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান।

বাঘাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কালাম জানান, নির্ব্চন পরিবর্তী সহিংসতায় দুপক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সাত জনকে আটক করা হয়। তারা বহিরাগত। তাদের বিরুদ্ধে নির্বাচনের দিন স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে জাল ভোট দেয়ার জন্য কেন্দ্র দখলের চেষ্টার অভিযোগ আছে বলেও তিনি জানান। ওসি জানান, এদের বিরুদ্ধে আইনানুগ মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।




স্ত্রীর দেওয়া বিচারের অপমান সইতে না পেরে বিষপানে আত্মহত্যা

আত্মহত্যা

কাপ্তাই প্রতিনিধি:

কাপ্তাই উপজেলার রাইখালীর হাপছড়ি পাড়া এলাকায় রোববার পরকীয়া প্রেমের বিচারের কথা শুনে এবং অপমান সহ্য করতে না পেরে কেওচিংমং মারমা(৪৫) নামের এক ব্যক্তি বিষপানে আত্মহত্যা করেছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ওই ব্যক্তি পাশ্ববর্তী এক মহিলার সাথে পরকীয়া সম্পর্ক থাকায় তার স্ত্রী এলাকাবাসীর নিকট বিচার চায়। রোববার ছিল বিচারের দিন। স্ত্রীর দেওয়া বিচারকে অপমান মনে করেন বিষপান করে কেওচিংমং মারমা। বিকালে মিশন হাসপাতালে নেওয়া হলে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।




পরিকল্পিত উন্নয়ন করা গেলে রাঙ্গামাটিতেও পর্যটকদের ঢল নামবে

Monthly Meting Pic-19-02-17-01 copy

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি:

রাঙ্গামাটির পর্যটন সেক্টরের উন্নয়ন করা গেলে বিদেশের ন্যায় রাঙ্গামাটিতেও দেশী-বিদেশী পর্যটকদের ঢল নামবে বলে মন্তব্য করেছেন রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা।

 রবিবার রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সভাকক্ষে আয়োজিত পরিষদের মাসিক সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

এসময় পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম জাকির হোসেন’র পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় স্বাস্থ্য বিভাগের নবনিযুক্ত সিভিল সার্জন ডা. শহীদ তালুকদার, কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ-পরিচালক রমনী কান্তি চাকমা, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. জিল্লুউর রহমানসহ রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্যা এবং হস্তান্তরিত বিভাগের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

বৃষকেতু চাকমা বলেন, দেশের অন্যান্য জেলার তুলনায় এ জেলায় রয়েছে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য, রয়েছে কৃত্রিম কাপ্তাই লেক ও পাহাড় যা একত্রে অন্য কোন জেলায় নেই। এ প্রাকৃতিক সম্পদগুলোকে কাজে লাগিয়ে পর্যটন সেক্টরের মাধ্যমে আমাদের এ জেলার অর্থনৈতিক উন্নয়ন ঘটাতে হবে। এর জন্য প্রয়োজন সকলের আন্তরিকতা ও সহযোগিতা।

তিনি আরও বলেন, এ জেলায় বসবাসরত জনগণের কল্যাণ ও উন্নয়নের স্বার্থে সরকার আমাদের নিয়োগ দিয়েছেন। তাই সকল বিষয়ে আমাদের গুরুত্ব দিতে হবে।

তিনি বলেন, পরিষদের হস্তান্তরিত বিভাগ সবগুলোই গুরুত্বপূর্ণ এবং জনকল্যাণমূলক প্রতিষ্ঠান। কর্মকর্তাদেরকে পরিষদের প্রতিটি মাসিক সভায় উপস্থিত থেকে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের কাজের অগ্রগতি, সমস্যা ও সম্ভাবনার বিষয়গুলো তুলে ধরতে হবে। তবেই কাজের অগ্রগতি ও জেলার উন্নয়ন ঘটবে।

সভায় স্বাস্থ্য বিভাগের নবনিযুক্ত সিভিল সার্জন ডা. শহীদ তালুকদার বলেন, মন্ত্রণালয় কর্তৃক রাঙ্গামাটিতে ইতিমধ্যে ৩৮জন নার্স প্রদান করা হয়েছে। তাদের জেলার বিভিন্ন উপজেলায় প্রদান করা হয়েছে। তিনি বলেন, এ জেলার শূন্য চিকিৎসকের পদ পূরণে মন্ত্রণালয়ে নিয়মিত যোগাযোগ অব্যাহত আছে।

এছাড়া রাঙ্গামাটি জেনারেল হাসপাতাল, নানিয়ারচর, বিলাইছড়ি ও বাঘাইছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের সীমানার মধ্যে যে সমস্ত অবৈধ স্থাপনা গড়ে উঠেছে সেগুলো উচ্ছেদের বিষয়ে প্রশাসন কর্তৃক শীঘ্রই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে।

এছাড়াও সভায় হস্তান্তরিত বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তাগণ তাদের বিভাগের স্ব স্ব কার্যক্রম উপস্থাপন করেন এবং বিভিন্ন সমস্যা ও সম্ভাবনার কথা তুলে ধরে মতামত ও পরামর্শ প্রদান করেন।




বাঘাইছড়ি পৌরসভায় আ’লীগ প্রার্থী জাফর আলী খান বেসরকারিভাবে নির্বাচিত

16830200_661416407394294_411472976_n
নিজস্ব প্রতিদেক, রাঙামাটি :
রাঙামাটির বাঘাইছড়ি পৌরসভার নির্বাচনে ৩৭৯৮ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. জাফর আলী খান। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী আজিজুর রহমান মোবাইল প্রতীকে পেয়েছেন ২২২৭। বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রতিকের মো. ওমর আলী পেয়েছেন ১৭৯৮ ভোট। শনিবার ভোট গ্রহণ শেষে সন্ধ্যায় রিটার্নিং অফিসার মো. নাজিম উদ্দিন এ ফলাফল ঘোষণা করেন।

এর আগে শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হয় নির্বাচনের ভোট গ্রহণ। সকাল ৮টা থেকে পৌরসভার ৯টি কেন্দ্রে একযোগে ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে চলে বিকেল চারটা পর্যন্ত।

ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় ভোট দেন ভোটাররা। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট দিতে পেরে স্বস্থি প্রকাশ করেন সাধারণ ভোটাররা। নির্বাচনের সার্বিক পরিস্থিতি সন্তোষজনক ছিল বলে জানিয়েছেন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরাও। শনিবার দেশের সীমান্তবর্তী বাঘাইছড়ি পৌরসভা নির্বাচনী এলাকা ঘুরে এমন চিত্রই দেখা গেছে।

নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার ছিলো। কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। নির্বাচন নিয়ে কোন প্রার্থী কোন অভিযোগও করেননি বলে নির্বাচনী অফিস সুত্রে জানা গেছে।

দেশের সর্ব বৃহত উপজেলা রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে ২০০৪ সালে গঠন করা হয় পৌরসভা। শনিবার ১৮ ফেব্রুয়ারি বাঘাইছড়ি পৌরসভার দ্বিতীয় নির্বাচনের ভোট শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হয়েছে। এটি নব গঠিত নির্বাচন কমিশনের অধীনে প্রথম নির্বাচন। তাই এ নির্বাচনের দিকে সারা দেশের মানুষের দৃষ্টি। শেষ পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট অনুষ্ঠিত হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন বাঘাইছড়ি পৌর এলাকার মানুষ।




শান্তিপূর্ণ পরিবেশে বাঘাইছড়ি পৌরসভার নির্বাচনের ভোট গ্রহণ সম্পন্ন, চলছে গণনা

 

Election pic 18.02

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাঙামাটি:

শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হয়েছে রাঙামাটির বাঘাইছড়ি পৌরসভার নির্বাচন। শনিবার সকাল ৮টা থেকে পৌরসভার ৯টি কেন্দ্রে একযোগে ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে চলে বিকেল চারটা পর্যন্ত।

ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় ভোট দেন ভোটাররা। শান্তিপূর্ন পরিবেশে ভোট দিতে পেরে স্বস্তি প্রকাশ করেছেন সাধারণ ভোটাররা। নির্বাচনের সার্বিক পরিস্থিতি সন্তোষ জনক বলেও জানান প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরাও। শনিবার দেশের সীমান্তবর্তী বাঘাইছড়ি পৌরসভা নির্বাচনী এলাকা ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী জাফর আলী জানান, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে তিনি শতভাগ আশাবাদী বলেও জানান। তিনি বলেন, সরকারী দলের প্রার্থী এবং আমি এলাকার মানুষের কাছের জন হিসেবে জনগণ আমাকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবেন।

বিএনপির মনোনীত মেয়র প্রার্থী ওমর আলী সকালে বেশ কয়েকটি ভোট কেন্দ্রে বহিরাগতের অভিযোগ তুললেও নির্বাচনের সার্বিক পরিস্থিতি মোটামুটি ভাল ছিল বলে মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, এবারের নির্বাচন খুবই সুন্দর হয়েছে। আশাকরি জয়ের মালা আমার গলায় পড়বে।

নির্বাচনে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার ছিলো। কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। নির্বাচন নিয়ে কোন প্রার্থী  অভিযোগ করেননি বলেও নির্বাচনী অফিস সূত্রে জানা গেছে।

নির্বাচন কর্মকর্তা মো. নাজিম উদ্দিন জানান, নির্বাচনের পরিস্থিতি খুবুই ভাল ছিলো। কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। বাঘাইছড়ি পৌরসভা নির্বাচন সারাদেশের জন্য একটি দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে। আগামীতে বাংলাদেশের সব নির্বাচন শান্তিপূর্ণ ও নিরপেক্ষ হবে এমন প্রত্যাশা সাধারণ মানুষের।

দেশের সর্ব বৃহৎ উপজেলা রাঙামাটির বাঘাইছড়িতে ২০০৪ সালে গঠন করা হয় পৌরসভা। শনিবার বাঘাইছড়ি পৌরসভার দ্বিতীয় নির্বাচনের ভোট শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হয়েছে। এটি নব গঠিত নির্বাচন কমিশনের অধীনে প্রথম নির্বাচন। তাই এ নির্বাচনের দিকে সারা দেশের মানুষের দৃষ্টি। শেষ পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট অনুষ্ঠিত হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন বাঘাইছড়ি পৌর এলাকার মানুষ।




কাপ্তাই কারিগরপাড়া বালুভর্তি পিকাপ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে চালক নিহত

কাপ্তাই প্রতিনিধিঃ

বালুভর্তি পিকাপ(চট্রমেট্র-ড ১৪-০৪৯৩) বাঙালহালিয়া হতে চন্দ্রঘোনা লিচুবাগান আসার পথে কাপ্তাইয়ের কারিগরপাড়া কাঞ্চন চৌধুরী মোড় নামক এলাকায় শনিবার বেলা দু’টায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তারেক আহম্মদ(৩০)নামে চালক মারা যায়।

এলাকার লোকজন জানান, চালককে গুরুতর অবস্থায় চন্দ্রঘোনা মিশন হাসপাতালে নেওয়ার পথেই মারা যায়।ওই চালক চট্রগ্রাম রাঙ্গুনিয়ার বনগ্রামের আবদুল মালেকের পুত্র।

চন্দ্রঘোনা থানা যায়, আমরা ঘটনাটি শুনেছি বেলা আড়াইটার দিকে তবে লাশ কোথায় নিয়ে গেছে আমরা তালাশ করছি এবং বালুর মধ্যে আরও কোন লোক আছে কিনা তাও সন্ধান করছি।




শান্তিপূর্ণভাবে চলছে বাঘাইছড়ি পৌরসভার নির্বাচন

OLYMPUS DIGITAL CAMERA

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাঙামাটি:

শান্তিপূর্ণভাবে চলছে রাঙামাটির বাঘাইছড়ি পৌরসভার নির্বাচন। সকাল ৮টা থেকে পৌরসভার ৯টি কেন্দ্রে একযোগে শুরু হয় নির্বাচনের ভোট গ্রহণ। শীত উপেক্ষা করে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় ভোটাররা লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দিচ্ছেন।

এদিকে সুষ্ঠভাবে ভোট সম্পন্ন করার লক্ষে যাবতীয় প্রস্তুতি শেষ করেছে উপজেলা নির্বাচন অফিস। নির্বাচনী এলাকায় আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে পুলিশের পাশাপাশি বিজিবি ও র‌্যাব মোতায়েন রয়েছে।

এবার বাঘাইছড়ি পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে লড়ছেন তিনজন আর কাউন্সিলর ও মহিলা কাউন্সিলর পদে ৩১জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। মেয়র পদে প্রার্থী হয়েছেন নৌকা প্রতীকে আওয়ামী লীগ মনোনীত মো. জাফর আলী খান, ধানের শীষ প্রতীকে বিএনপি মনোনীত মো. ওমর আলী ও মোবাইল প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী আজিজুর রহমান। এ পৌর সভায় ভোটার রয়েছেন দশ হাজার ১১৭ জন।

এদিকে ভোট শুরুর কিছুক্ষণ পর থেকেই আওয়ামী লীগ ও বিএনপি মনোনিত প্রার্থী দুজনই অভিযোগ তুলেছেন বিভিন্ন কেন্দ্রে বহিরাগত আছে।

২০০৪ সালে বাঘাইছড়ি পৌরসভা গঠনের পর দ্বিতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত হচ্ছে নির্বাচন। এর আগে ২০১২ সালে বাঘাইছড়ি পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।




সব রাজনৈতিক দল নিয়ে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করতে চায়: নির্বাচন কমিশনার শাহাদাত হোসনে চৌধুরী

pic2 copy

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাঙামাটি:

নব নিযুক্ত নির্বাচন কমিশনার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল (অবঃ) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী বলেছেন, দেশের সব রাজনৈতিক দল নিয়ে অবাধ নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করতে চায় নব নিযুক্ত নির্বাচন কমিশন। বাঘাইছড়ি পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে বর্তমান নির্বাচন কমিশন সে দৃষ্টান্ত স্থাপন করবে।

তিনি বলেন, বাঘাইছড়ি পৌরসভা নির্বাচনের মধ্য দিয়েই আগামী পাঁচ বছরের জন্য যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে বর্তমান নির্বাচন কমিশন। তাই এ নির্বাচনকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে গ্রহণ করে নির্বাচনকে সুষ্ঠ ও সুন্দর করতে করনীয় সব রকমের পদক্ষেপ নিয়েছে উল্লেখ করে কমিশনার শাহাদাত হোসেন আরও বলেন, নির্বাচনে আইন শৃঙ্খলা বজায় রাখতে কমিশন জিরো টলারেন্স মনোভাব নিয়েছে।

তিনি বলেন, সুষ্ঠ নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশন যা যা করার তা অবশ্যই করবে। বাঘাইছড়ি পৌর নির্বাচনের মতো আগামী যে কোন নির্বাচন অনুষ্ঠানের ব্যাপারে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

শুক্রবার সকালে বাঘাইছড়ি পৌরসভার নির্বাচন উপলক্ষে উপজেলা মিলনায়তনে নির্বাচনী কর্মকর্তা ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সাথে মতবিনিময় কালে তিনি এ কথা বলেন।

সভায় রাঙামাটি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মানজারুল মান্নান, পুলিশ সুপার সাঈদ তারিকুল হাসান, রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. নাজিম উদ্দিন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাজুল ইসলামসহ অন্যান্য নির্বাচনী কর্মকর্তা ও আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় প্রশাসনের কর্মকর্তাগণ তাকে জানান, একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সকল প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। নির্বাচনী নিরাপত্তা জন্য ৪ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা রয়েছে। বিজিবি ও র‌্যাব মোতায়েনের পাশাপাশি নিরাপত্তা বাহিনীর টহল মোবাইল টহল চলবে। সাদা পোশাকে গোয়েন্দা পুলিশ মোতায়েন থাকবে প্রতি কেন্দ্রে কেন্দ্রে। নির্বাচনের পরও তিনদিন পর্যন্ত বিশেষ নিরাপত্তা টহল চলবে।

এ নিবার্র্চনে মেয়র পদে লড়ছেন- আওয়ামী লীগের জাফর আলী খান (নৌকা), বিএনপির মো. ওমর আলী (ধানের শীষ) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আজিজুর রহমান (মোবাইল ফোন)। অন্যদিকে, ৯ ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৫ এবং ৩টি সংরক্ষিত মহিলা আসনে ৬ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন।

প্রসঙ্গত,২০০৪ সালে গঠিত হয় ভারতের মিজোরাম রাজ্যের সীমান্তবর্তী দেশের সবচেয়ে বড় উপজেলা রাঙামাটির বাঘাইছড়ি। এ পৌরসভাটির এটা দ্বিতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি। একটি পৌরসভাসহ ৮টি ইউনিয়ন নিয়ে গড়ে উঠেছে এ উপজেলা। এ পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ১০ হাজার ১৭৭। নির্বাচনে ৯টি কেন্দ্রের ৩৩ বুথে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।




কাপ্তাই নতুনবাজার বণিক সমিতির ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন

NUTUN BAZAR copy

কাপ্তাই প্রতিনিধিঃ

রাঙ্গামাটি জেলার দশটি উপজেলার মধ্যে সব চেয়ে বৃহৎ বাজার হলো কাপ্তাই নতুনবাজার। ওই বাজারটি ৮৬সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। ঐতিহ্যবাহী বাজারটি বিভিন্ন দিক দিয়ে তার সুনাম বজায় রেখেছে। প্রতিবছর এ বাজার হতে রাঙ্গামাটি বাজার ফান্ড লক্ষ,লক্ষ টাকা সরকারী রাজস্ব নিচ্ছে। ২৩ ফেব্রুয়ারি কাপ্তাই নতুন বাজার বণিক কল্যাণ সমিতি লি. রেজিনং-০৩(কাঃউঃ), এর ব্যবস্থাপনা কমিটির ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচন  নিয়ে চলছে ব্যাপক-জলপনা-কল্পনা। কাপ্তাই নতুনবাজার পাঁচ শতাধিক ব্যবসায়ীর দোকান রয়েছে।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, মোট ভোটার রয়েছে ৫২৭জন। প্রতিদ্বন্দ্বীরা বাজারের ব্যাপক উন্নয়ন, মডেল বাজার, ব্যবসায়ীদের সকল সুযোগ-সুবিধা প্রদান করার আশ্বাস দিয়ে ১২টি পদের জন্য ২৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছে। এবারের নির্বাচনে সামাজিক, রাজনৈতিক, হেভিয়েট প্রার্থীরা প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছে।

বাজার কেন্দ্রিক নির্বাচনের জন্য কেউ, কেউ, রাজনৈতিক, আঞ্চলিক, টানে গোপনে কাজ করছে বলেও জানা যায়। তবে ব্যবসায়ী ভোটাররা বলছে যারা বাজারের উন্নয়ন করবে, ব্যবসায়ীদের সুখে, দুঃখে পাশে থাকবে সে সকল যোগ্যপ্রার্থীকে আমরা নির্বাচিত করবো। আমরা কোন দল বা আঞ্চলিকতা  বুঝিনা। প্রার্থীরা ভোটের জন্য দোয়া, বাজার ও বাসায় গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছে। এটি হল বাজার কেন্দ্রিক নির্বাচন বলেও মন্তব্য  প্রকাশ করেন।

নির্বাচনে সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছে তিন জন এরা হলো মো জয়নাল অবেদীন প্রতীক(ছাতা), সাগর চক্রবর্তী (চাকা), মো. খালেকুন নুর সিকদার(চেয়ার),

সহ-সভাপতি ৪জন মো. মহি উদ্দিন(হারিকেল), মো. একরামুল হক(আমা), মো. নিজাম উদ্দিন(কলস), মো. আবুল হাশেম(টেবিল), সম্পাদক পদে ২জন মো. সামশুল আলম নুর মুন্না(গোলাপ ফুল), হাজী কবির আহাম্মদ(দোয়াত কলম), সহ-সম্পাদক ২জন লিটন কুমার বড়ুয়া(হাতি), মো. বদরুদ্দোজা(মাছ), সাংগঠনিক পদে ২জন মো. জাসেদ বাহাদুর(মই) মো. নুরুল আলম মানিক(টেলিভিশন), অর্থ সম্পাদক ২জন মো. সিরাজুল ইসলাম(হাত-পাখা), মো. জয়নাল আবেদীন(মোমবাতি), সদস্যপদে পাঁচজন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছে এরা হলো মো. মোকারম( খেজুর গাছ), মো. আব্দুল মান্নান(কুড়াল), মো. ইয়াছিন আলম(আপেল),মো. ইকবাল হোসেন মাসুদ(দেওয়ার ঘড়ি), মো. সাদ্দাম হোসেন( ডাব),মো. লোকমান হোসেন(মোবাইল ফোন),মো. রফিকুল আলম(আনারস) ও মো. জামাল উদ্দিন(হরিণ)।

এদিকে নির্বাচন কমিশন আশিষ দাশ, তরুন কুমার দে, মো. ইউসুফ সূত্রে জানা যায় কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে বিরতিহীনভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।




পরিমল চন্দ্র তালুকদার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নতুন এসএমসি কমিটি গঠন

কাপ্তাই প্রতিনিধিঃ

কাপ্তাই ওয়াগ্গা পরিমল চন্দ্র তালুকদার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নব গঠিত এসএমসি ১৩ সদস্য বিশিষ্ট নতুন কমিটি ২০১৭ গঠন করা হয়।

নব কমিটির সভাপতি অরুন তালুকদার, সহসভাপতি চিরনজিত তালুকদার, সদস্য অজিত কুমার তঞ্চংগ্যা, মায়ারাম তঞ্চংগ্যা, কল্যান তঞ্চংগ্যা, দিপঙ্কার তালুকদার, রিদয় তঞ্চংগ্যা, রঞ্জন তঞ্চংগ্যা, ইমাইল হোসেন, নমিতা তঞ্চংগ্যা, সতিন মালা তঞ্চংগ্যা, মিনা তঞ্চংগ্যা ও মধু মঙ্গল তঞ্চংগ্যা।

চলতি মাসে ওই কমিটি গঠন করে বিদ্যালয় সুন্দর ভাবে পরিচালিত হচ্ছে বলে উল্লেখ করেন ।