নাগরিক সেবার উন্নয়নে সরকার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন: নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধ:

নাগরিক সেবার উন্নয়নে বর্তমান সরকার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। আগামী ২০২১ সালের মধ্যে ভিশন টুয়েন্টি-টুয়েন্টি ওয়ান অর্জনের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নের্তৃত্বাধীন বর্তমান সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ক্ষেত্রে অনেক দূর এগিয়ে গেছে। বুধবার সকালে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রালয়ের অধীনস্থ বিভাগ সমূহের নাগরিক সেবা সহজতর করনের লক্ষ্যে উদ্ভাবনী ধারণা প্রদর্শনী মেলা রাঙ্গামাটিতে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের কর্ণফুলী মিলনায়তনে আয়োজিত সভায় পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের সচিব ও পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরাএসব কথা বলেন।

এসময় পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব রমা রানী রায়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডে ভাইস-চেয়ারম্যান তরুণ কান্তি ঘোষ, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক, মন্ত্রনালয়ের যুগ্ম সচিব এবিএম নাছিরুল আলম  প্রমূখ।

নব কিশোর ত্রিপুরা বলেন, আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে আজ নাগরিক সেবায় এসেছে বৈপ্লবিক পরিবর্তন। জনগন আজ প্রযুক্তির কল্যাণে ঘরে বসেই বিভিন্ন সরকারী দপ্তরের নাগরিক সেবা ভোগ করতে পারছেন। তিনি আরো বলেন, আপনারা জনগনের সেবক তাই জনগনের নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত কল্পে আপনার নিত্য নতুন উদ্ভাবনী ধারনাকে কাজে লাগাতে হবে। আপনাদের উদ্ভাবনী ধারনাগুলোকে কাজে লাগানোর লক্ষ্যে সরকারের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক সহায়তা করা হচ্ছে।

পরে মেলায় মন্ত্রনালয়ের অধীন পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড, তিন পার্বত্য জেলা পরিষদ, পার্বত্য চট্টগ্রাম উপজাতীয় শরনার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্স এবং কৃষি, প্রাথমিক শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও প্রাণী সম্পদ দপ্তরের নাগরিক সেবায় উদ্ভাবনী ধারণা সমূহসহ কেবিনেট বিভাগ এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রকল্পের সহায়তায়  উদ্ভাবনী প্রদর্শনী ধারনায় মোট ১৫টি উদ্ভাবনী ধারনা প্রদর্শিত হয়।

এরমধ্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের অন লাইন অভিযোগ নিষ্পত্তি, প্রাণী সম্পদ বিভাগের ফার্মার হোপ ফেইজ বুক, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের মাল্টিমিডিয়া ক্লাশ রুম, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অনলাইন বৃত্তি ব্যবস্থা, রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদের অন লাইন নিয়োগ প্রক্রিয়া বিষয়ক উদ্ভানী ধারনা সমূহ  প্রদর্শনীতে আগত সকলের দৃষ্টি আকর্ষন করেছে। উদ্ভাবনী প্রদর্শনী মেলা পরিদর্শন করেন অতিথিবৃন্দ।




কাপ্তাইয়ের সাবেক জেলা পরিষদ সদস্য গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি

কাপ্তাই প্রতিনিধি:

কাপ্তাইয়ের সাবেক জেলা পরিষদ সদস্য ও বনশ্রী পর্যটন কমপ্লেক্স এর পরিচালক প্রকৌশলী রুবায়েত আকতার পায়ে গরম পানি পড়ে গুরুতর অসুস্থ হয়ে বুধবার (১৬ আগস্ট) কাপ্তাই উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এদিকে তার স্ত্রী সমাজ কর্মী, সাবেক ইউপি সদস্য, উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সহ-সভাপতি নুর বেগম মিতা ভিমরুলের কামড়ে আহত হয়ে গত তিন দিন যাবত চট্টগ্রাম শাহানা ক্লিনিকে ভর্তি রয়েছেন।

বুধবার কাপ্তাই উপজেলা হাসপাতালে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অংসুইছাইন চৌধুরী, অধ্যক্ষ এএইচএম বেলাল চৌধুরী, ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী বেবী, খ্যাইঅং মারমা, সায়মং মারমা ও স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাসুদ আহমেদ চৌধুরী সাবেক জেলা পরিষদ সদস্যকে হাসপাতালে দেখতে যান।

স্বামী -স্ত্রীর দু’জনের অসুস্থার কারনে পরিবারের পক্ষ হতে দোয়া চাওয়া হয়।




কাপ্তাই আইনশৃঙ্ক্ষলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

কাপ্তাই প্রতিনিধি:

কাপ্তাই উপজেলা হাসপাতালে ঔষধ নেই, ডাক্তার নেই, সেবা মিলেনা, পানি সমস্যা, কোন মিটিং না করে কমিটির স্বাক্ষর নিয়ে নেওয়া, আইনশৃঙ্খলা কমিটিতে ওসি উপস্থিত না থাকায় ক্ষোভ এবং পলিটেনিকের ১৮ ছাত্রকে বিভিন্ন বইসহ মেস হতে আটক, কাপ্তাই উপজেলা মাসিক আইন শৃঙ্ক্ষলা কমিটির আগত সদস্যরা এসকল বিষয় নিয়ে আলোচনা করে।

কাপ্তাই উপজেলা মাসিক সভা বুধবার ( ১৬ আগস্ট) উপজেলা রেস্টহাউজ কক্ষে নির্বাহী কর্মকর্তা তারিকুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় বক্তব্য রাখেন আইনশৃঙ্ক্ষলা কমিটির উপদেষ্টা ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান দিলদার হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অংসুইছাইন চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শাহাদাৎ হোসেন চৌধুরী, মহিলা ভাইসচেয়ারম্যান নুর নাহার বেগম, সুব্রত বিকাশ তংচঙ্গ্যা, কাজী মাকসুদুর রহমান বাবুল, ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী বেবি, খ্যাইঅং মারমা, সায়ামং মারমা, সাংবাদিক কাজী মোশাররফ হোসেনসহ প্রমূখ।

এসময় উপজেলা আইনশৃঙ্ক্ষলা কমিটির সদস্য, বিজিবি, সংবাদ কর্মীসহ বিভিন্ন সংস্থার লোকজন উপস্থিত ছিলেন।




বাঘাইহাট টু করেঙ্গাতলী রাস্তা মেরামতের জন্য নিরাপত্তাবাহিনীর দেড় লক্ষ টাকা প্রদান

 

সাজেক প্রতিনিধি:

রাঙ্গামাটি বাঘাইছড়ি উপজেলার বঙ্গলতলী ইউনিয়নের বাঘাইহাট টু করেঙ্গাতলী পর্যন্ত ইটের তৈরি রাস্তাটি মেরামতের জন্য দেড় লক্ষ টাকা প্রদান করেছে নিরাপত্তাবাহিনীর বাঘাইহাট জোন ও খাগড়াছড়ি রিজিয়ন।

বুধবার সকাল ৯টায় বাঘাইহাট সেনা জোন সদরে ৪ ইস্ট বেঙ্গল বাঘাইহাট জোনের জোন অধিনায়ক লে.ক. ইসমাই হোসেন খাঁ (পিএসসি), বঙ্গলতলী ইউপি চেয়ারম্যান জ্ঞানোজোতি চাকমার নিকট ব্যাংক চেকের মাধ্যমে খাগড়াছড়ি রিজিয়নের পক্ষ থেকে ১লক্ষ ও বাঘাইহাট জোনের পক্ষ থেকে ৫০হাজার টাকা প্রদান করেন।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন বাঘাইহাট জোনের উপ-অধিনায়ক মেজর মঈনুল ইসলাম(পিএসসি), বঙ্গলতলী ইউপি সদস্য নিতিশ চাকমা, রুপেশ চাকমা প্রমুখ।

জানা যায়, বঙ্গলতলী ও রুপকারী ইউনিয়নের একটিমাত্র বাজার করেঙ্গাতলী বাজার। আর এই দুই ইউনিয়নের জনগণের সড়ক যোগাযোগের উল্লেখযোগ্য রাস্তা হচ্ছে বাঘাইহাট হতে ১৪ কি.মি. দুরুত্ব করেঙ্গাতলী পর্যন্ত ইটের ব্রিফ সলিং রাস্তাটি। তাই জনসাধারণের কাছে এই রাস্তার প্রয়োজনীয়তাও অনেক বেশি।

করেঙ্গাতলীর সাথে যাথায়তের মাধ্যম হচ্ছে জীপ গাড়ী বা সিএনজি। গত বছরের মাঝামাঝি সময়ে রাস্তার বিভিন্ন অংশের ইট সড়ে গিয়ে রাস্তার ভাঙ্গনের সৃস্টি হয়। ভাঙ্গনের কারনে শুষ্ক মৌসুমে কোন রকম ঝুকী নিয়ে গাড়ী চলাচল করে এবং বর্ষাকালে গাড়ী চলাচল অনুপযোগী হয়ে পরায় বন্ধ থাকে গাড়ী চলাচল। সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা অচল হওয়ায় ভোগান্তিতে পরে ত্রিশ হাজারের অধিক জনসাধরণ।

জনগণের ভোগান্তি নিরসনের লক্ষ্যে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি বঙ্গলতলী ইউপি চেয়ারম্যান জ্ঞানোজোতি চাকমা এবিষয়ে গত বছর থেকে সওজ সহ সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের সাথে যোগাযোগ করে আসছে। বিভিন্ন দপ্তর থেকে আশ্বাস পেলেও এখন পর্যন্ত কোন দপ্তর থেকে অর্থ বরাদ্দ পায়নি। তাই তিনি রাস্তাটি দ্রুত মেরামতের জন্য নিরাপত্তাবাহীনির বাঘাইহাট জোনের সাথে যোগাযোগ করেন এবং সহযোগিতা চান।

তারই প্রেক্ষিতে জোন কর্তৃপক্ষ আশ্বাস্ত করলে চেয়ারম্যান জ্ঞানোজোতি চাকমা ১৪ কি.মি ইটের ব্রিফ সলিং রাস্তার বিভিন্ন অংশের সরে যাওয়া প্রস্থ ১২ফুট ও দৈর্ঘ ৯০০ফুট রাস্তা মেরামতের জন্য ৭৫ হাজার ইট দিয়ে ১০ লক্ষাধিক টাকা ব্যয় ধরে এর কাজ শুরু করে।

এবিষয়ে বঙ্গলতলী ইউপি চেযারম্যান জ্ঞানোজোতি চাকমা বলেন, বাঘাইহাট টু করেঙ্গাতলী রাস্তা মেরামতের জন্য নিরাপত্তাবাহিনী অর্থ দিয়ে সহযোগিতা করায় আমরা এলাকাবাসী নিরাপত্তাবাহিনীর নিকট কৃতজ্ঞ। আমাদের এলাকার শিক্ষা সাস্থ্য ও যোগাযোগ ব্যস্থায়ও নিরাপত্তাবাহিনী অনেক অবদান রেখেছে যা অস্বীকার করার মত নয়।

রাস্তা মেরামতের বাকী অর্থের বিষয়ে বাঘাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রকল্প সহায়তা করবে বলে আশ্বাস্ত করেছে বলেও জানান তিনি।




কাপ্তাই সুইডেন পলিটেকনিকে বঙ্গবন্ধুর ৪২তম শাহাদত বার্ষিকী পালন

কাপ্তাই প্রতিনিধি:

বাংলাদেশ সুইডেন পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট এর আয়োজনে স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদত বার্ষিকী, আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল মঙ্গলবার শিক্ষক মাইনুল এইচ সিরাজীর সঞ্চালনায় ইনস্টিটিউট কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়।

দোয়া ও মাহফিলে সভাপতিত্বে করেন সিভিল(উড) বিভাগীয় প্রধান মো. আব্দুল লতিফ পাটওয়ারী। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন, পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট এর অধ্যক্ষ প্রকৌশলী আশুতোষ নাথ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন, ইনস্ট্রাক্টার পলাশ কান্তি বড়ুয়া।বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, উপাধ্যক্ষ প্রকৌশলী মো. মিজানুর রহমান। অন্যন্যাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, মেকানিক্যাল বিভাগীয় প্রধান মাহাবুব উল-আলম, ইলেকট্রিকেল বিভাগীয় প্রধান মো. খুরশিদ আলম, নন-টেক বিভাগীয় প্রধান মো. আবু সাইম জাহানসহ বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।

প্রধান অতিথি বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ সকলের জানা একান্ত প্রয়োজন। এ মহা মানবের আত্মজীবনী পড়া সকলের একান্ত প্রয়োজন বলে তিনি মন্তব্য করেন।

শিক্ষার্থীদের রচনা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু বিষয়ক বই পুরস্কার প্রদান করা হয়। পরে বঙ্গবন্ধুর জন্য দোয়া মাহফিল মুনাজাত করেন মাওলানা আব্দুল আজিজ সিদ্দিক।




নতুন প্রজন্মদের বঙ্গবন্ধুর আদর্শে আদর্শিত করতে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস তাদের মাঝে তুলে ধরতে হবে: বৃষকেতু

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি:

নতুন প্রজন্মদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আদর্শে আদর্শিত করতে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস তাদের মাঝে তুলে ধরতে হবে। ৭১’র দোসররা ক্ষমতায় আসার পর মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাসকে বিকৃত করে উপস্থাপন করেছে।

মঙ্গলবার সকালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে সভাপতির বক্তব্যে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা এসব কথা বলেন।

এসময় সভায় বক্তব্য রাখেন, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা ছাদেক আহমদ, পরিষদের সদস্য সাধন মনি চাকমা, চানমুনি তঞ্চঙ্গ্যা, মনোয়ারা আক্তার জাহান, স্মৃতি বিকাশ ত্রিপুরা, অমিত চাকমা রাজু’সহ পরিষদের বিভিন্ন হস্তান্তরিত বিভাগের কর্মকর্তাগণ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের জনসংযোগ কর্মকর্তা অরুনেন্দু ত্রিপুরা।

চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা বলেন, ৫২’র ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে ৭১’র মহান স্বাধীনতা মুক্তিযুদ্ধে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর অবদান ছিলো অপরিসীম। তিনি এদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা, জাতিকে শিক্ষিত করতে, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি, দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে সবসময় কাজ করে গেছেন।

এ আন্দোলন করতে গিয়ে অনেকবার তাকে জেল কারাবাস ভোগ করতে হয়েছে। তবুও তিনি থেমে থাকেননি। তিনি চেয়েছিলেন এদেশকে একটি সোনার বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তুলতে।

তিনি আরও বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশ পরিচালনার দায়িত্ব নেওয়ার পর হতে দেশে অর্থনৈতিক, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি, নারী উন্নয়নসহ বিভিন্ন সেক্টরে জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণে এবং আগামীতে এ উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আমাদের যার যার দায়িত্ব আমাদের সঠিকভাবে পালন করতে হবে। তবেই দেশ ও জাতির উন্নয়ন আরো ত্বরান্বিত।

এর আগে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ এর উদ্যোগে শহরের ভেদভেদীতে নির্মিত বঙ্গবন্ধুর ভাষণের ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও শ্রদ্ধা নিবেদন করেন সদস্যবৃন্দ।

সভা শেষে পরিষদের হস্তান্তরিত বিভাগ রাঙ্গামাটি যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর হতে মৎস্য, কম্পিউটার, ইলেক্ট্রনিক্স ও মিশ্র ফলে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ৫জন যুবকদের মাঝে ৫০হাজার টাকা করে মোট ২লক্ষ ৫০হাজার টাকার চেক বিতরণ করা হয়।




বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতীয়তাবাদকে কেন্দ্র করে রাজনীতির নির্ধারণ করতেন: দীপংকর তালুকদার

 

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি:

আওয়ামী লীগ সরকারের বিরুদ্ধে যে ষড়যন্ত্র হচ্ছে তা কেবল মাত্র শেখ হাসিনা বা সরকারের বিরুদ্ধে নয়, এ ষড়যন্ত্র বাংলাদেশে স্বাধীনতার সার্বভৌমত্বের বিরুদ্ধে। বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতীয়তাবাদকে কেন্দ্র করে রাজনীতির নির্ধারণ করতেন। এ কারণেই তিনি বাঙালির অবিসংবাদিত নেতা হতে পেরেছিলেন।

মঙ্গলবার সকালে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে রাঙ্গামাটি শিল্পকলা একাডেমি সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও রাঙ্গামাটি আওয়ামী লীগের সভাপতি দীপংকর তালুকদার এসব কথা বলেন।

এসময় রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মানজারুল মান্নানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, রাঙ্গামাটি পুলিশ সুপার সাঈদ তারিকুল হাসান, পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী প্রমুখ।

এদিকে শোক র‌্যালি, আলোচনা সভা, রক্তদান কর্মসূচিসহ বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে রাঙ্গামাটিতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে। সকালে রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। জাতির জনকের প্রতি পুস্পমাল্য অর্পণ করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

এদিকে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড, রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ নিজস্ব ভবনে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পণের মধ্যে দিয়ে শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদন করেন।

এর আগে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শোক র‌্যালি বের করা হয়। শোক র‌্যালিটি মুরাল থেকে শুরু হয়ে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে গিয়ে শেষ হয়।

এর আগে সকালে বঙ্গবন্ধুর মুরালে পুস্পমাল্য অর্পণ করে জাতির পিতার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।




কাপ্তাইয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় বিভিন্ন সংগঠনের জাতীয় শোক দিবস পালন

কাপ্তাই প্রতিনিধি:

১৫ আগস্ট (মঙ্গলবার) কাপ্তাই উপজেলা  আ’লীগ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ইসলামিক ফাউন্ডেশন সহ বিভিন্ন সংগঠন জাতীয় যথাযোগ্য মর্যাদায় স্বাধীনতার স্থপতি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২তম শাহাদাত বার্ষিকী পালন করা হয়।

এদিকে রাঙ্গামাটি ইসলামিক ফাইন্ডেশন কর্তৃক কাপ্তাই উপজেলাসহ বিভিন্ন ইউনিয়নে পৃথক, পৃথক ভাবে এ দিবসটি উপলক্ষ্যে সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল করা হয়।

কাপ্তাই ৪নং ইউপি কার্যালয়ে ইফার কেয়ারটের হাফেজ জালাল উদ্দিন এর সভাপতিত্বে হাম-নাথ, কেরাত প্রতিযোগিতা ,আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিল ও পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন, ইউনিয়ন আ’লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আলহাজ্ব কবির আহমেদ। বক্তব্য রাখেন ইউপি সদস্য সজিবুর রহমান, সাংবাদিক কবির হোসেন, ইফা শিক্ষক জুয়েল আহমেদ, হাফেজ আবদুল্লা, হাফেজ মোশাররফ হোসেন প্রমুখ। পরে বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে দোয়া মুনাজাত করেন মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস।




টানা বর্ষণে ডুবে গেছে লংগদু উপজেলার নিচু এলাকা, বাড়িঘর ছেড়েছে হাজারো মানুষ

নিজস্ব প্রতিনিধি: কয়েক দিনের টানা বর্ষণে ডুবে গেছে রাঙ্গামাটির লংগদু উপজেলার নিচু এলাকা। ফলে কয়েক হাজার পরিবার বাড়িঘর ছেড়ে আশ্রয় নিয়েছে আশ্রয়কেন্দ্রে। টানা বর্ষণের পাশাপাশি ভারত থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলের কারণে কাপ্তাই হ্রদের পানির অস্বভাবিক বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে।

লংগদু উপজেলার সাতটি ইউনিয়নের নিচু এলাকাগুলো প্লাবিত হওয়ায় সেখানকার পরিবারগুলো নিকট আত্মীয়-স্বজনের উঁচু বাড়ীতে এবং বিভিন্ন স্কুল, মাদ্রাসায় আশ্রয় নিয়েছে। অনেকে পানি বন্দি হয়ে দুর্ভোগ পোহাচ্ছে।

উপজেলার হ্রদ বেষ্টিত কাট্টলী বাজারটি পানির ঢেউয়ের আঘাতে ভাঙ্গনের ঝুঁকিতে পড়েছে। ফোরেরমুখ, সাধুর টিলা, জারুলবাগান, রাঙ্গীপাড়া, বগাচতর, ভাসাইন্যাাদম, কালাপাকুজ্জা, গুলশাখালী, গাঁথাছড়া, মাইনীমুখসহ সাত ইউনিয়নে কম বেশি বন্যায় ভাসছে। ক্ষেত ফসলের ক্ষতি হয়েছে। মৎস্য বাঁধেরও ক্ষতি হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

 




কাপ্তাইয়ে শিবিরের মেস হতে পলিটেকনিকের ১৭ ছাত্র আটক

 

কাপ্তাই প্রতিনিধি:

কাপ্তাই জাকির হোসেন স-মিল এলাকার প্রিজম কোচিং নামে শিবিরের মেস হতে ইসলামী ছাত্র শিবিরের বিভিন্ন বইসহ পলিটেকনিক্যাল ইনস্টিটিউটের ১৭ ছাত্রকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার (১৪ আগস্ট) বিকাল সাড়ে ৫টায় উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি এম নুর উদ্দিন সুমন ও সম্পাদক এ আর লিমন গোপন সংবাদের ভিত্তিত্বে ওই মেসে অভিযান চালিয়ে ছাত্র শিবিরের বিভিন্ন বই, ক্যাসেট, ল্যাবটপ, চাঁদা সংগ্রহের বইসহ বিভিন্ন জিনিস পত্র উদ্ধার করে। এ সময় মেসে থাকা পলিটেকনিক্যালের নতুন ও পুরাতন বর্ষের  ১৭ ছাত্রকে পুলিশ আটক করে।

ছাত্রলীগ সভাপতি নুর উদ্দিন সুমন বলেন, আমরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এদের মেসে অভিযান চালাই। গতকাল (রবিবার) এদের মিটিং করার কথা ছিল। তবে মিটিং করা অবস্থায় পাইনি।

এদিকে কাপ্তাই পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ কামরুল ইসলাম বলেন, আমরা এদের বই ও বিভিন্ন ক্যাসেট সহ পেয়েছি। থানায় নিয়ে গিয়ে এদের প্রধান হোতা কে, জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান।

সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় আটককৃত ১৭ ছাত্রকে সংগঠনের বইসহ নিয়ে যাওয়া হয়।