বাঘাইছড়ি পৌর নির্বাচনে সব প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ

Bagichari-purosava-660x330 copy

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বাঘাইছড়ি পৌরসভার নির্বাচনে মেয়র ও কাউন্সিলর পদে সব প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করেছে উপজেলা নির্বাচন অফিসার।

বৃহস্পতিবার মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের দিনে যাচাই বাছাই শেষে মেয়র পদে ৫ জন প্রার্থী, সাধারণ কাউন্সিলার পদে ২৭ জন ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলার ৬ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ বলে ঘোষণা করা হয়।

২৭ জানুয়ারি মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন। এর পর প্রতীক বরাদ্ধ নিয়ে আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু করবেন প্রার্থীরা।

১৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে বাঘাইছড়ি পৌরসভার দ্বিতীয় নির্বাচনের ভোট।

 




রাঙামাটি শহরে নারায়ণগঞ্জ কাচপুরের এক যুবকের লাশ উদ্ধার

Rangamati Pic-20-01
নিজস্ব প্রতিবেদক :
রাঙামাটি শহরের ষ্টেডিয়াম এলাকা থেকে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত যুবকের নাম  জাাকির হোসেন। সে নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনার গা থানার কাচপুর এলাকার বাসিন্দা মৃত রজব আলীর ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, শুক্রবার সকালে রাঙামাটি ষ্টেডিয়ামের উত্তর পাশের গ্যালারিতে সকালে ব্যায়াম করতে আসা মানুষজন একটি মরদেহ দেখতে পান। বিষয়টি নিরাপত্তা বাহিনীকে জানানো হলে তারা ঘটনাস্থলে এসে মরদেহটিকে বাঙ্গালী যুবকের বলে চিহ্নিত করেন।

স্থানীয়রা কেউই নিহত যুবকের পরিচয় নিশ্চিত করতে পারেননি। পরে পুলিশ নিহতের কাছে থাকা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তার পরিচয় নিশ্চিত করেন।

কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আব্দুর রশিদ পার্বত্যনিউজকে জানান, আমরা নিহতের লাশ উদ্ধার করে তার পরিচয় নিশ্চিত হয়েছি। তার পরিবারকে খবর দেওয়া হয়েছে। আপাতত নিহতের লাশ রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। তার পরিবারের সদস্যরা এলে ময়নাতদন্তের ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সেই রিপোর্ট হাতে পেলেই যুবকের মৃত্যুর আসল কারণ জানা যাবে।

পুলিশের অপর একটি সূত্র জানায়, লাশের শরীরে তেমন কোনো আঘাতের চিহ্ন নেই।




ভালোবেসে বাঙালী ছেলেকে বিয়ে করায় এক উপজাতীয় নারীকে অমানবিক নির্যাতন করেছে ইউপিডিএফ

upojati nari
নিজস্ব প্রতিবেদক :
ভালোবেসে বিয়ে করার অপরাধে রাঙামাটির নানিয়ারচরের এক উপজাতী নারীকে দুইমাস আটকে রেখে নির্যাতন করেছে পাহাড়িদের আঞ্চলিক সংগঠন ইউপিডিএফ। হাতে পায়ে শিকল বেধে অন্ধকার ঘরে আটকে রেখে নিজের জাতির মেয়েকে যে অমানবিক নির্যাতন চালানো হয়েছে তাতে হতবাক হয়েছেন পুরো সমাজ। বৃহষ্পতিবার রাঙামাটি প্রেস ক্লাবে হাজির হয়ে এ অমানবিক নির্যতনের বর্ণনা দেন নির্যাতিত জোসনা চাকমা। এ সময় তিনি কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

গত ১৬ জানুয়ারি রাত ১২টায় বন্দিদশা থেকে পালিয়ে এসে কুতুকছড়ি সেনা ক্যাম্পে আশ্রয় নিলে সেনা সদস্যরা তাকে নিরাপদে পুলিশ হেফাজতে পৌঁছে দেয়। নির্যাতিত জোসনা চাকমা তাকে অপহরণের জন্য আঞ্চলিক সংগঠন ইউপিডিএফকে দায়ী করেন।

সংবাদ সম্মেলনে জোসনা চাকমা বলেন, তার অপরাধ সে বৌদ্ধ হয়ে বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের অপর এক জনকে ভালোবেসে বিয়ে করেছেন। বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী হলেও বাঙ্গালী বড়ুয়া ছেলেকে বিয়ে করার অপরাধে জোসনা চাকমাকে এ নির্মম পরিস্থিতির শিকার হতে হয়েছে।


এ সংক্রান্ত আরো খবর 

  1. ♦ নির্বিচারে চলছে পাহাড়ী নারীদের উপর আঞ্চলিক উপজাতীয় সংগঠনগুলো যৌন হয়রানি(ভিডিও)
  2. ♦ পাহাড়ী তরুণীদের বাঙালি ছেলের সঙ্গে সম্পর্কের শাস্তি গণধর্ষণ
  3. ♦ রেটিনা চাকমাকে ভালবেসে বিয়ে করায় চাকরী হারালেন : মৃত্যুর হুমকি তবু স্ত্রীকে ফেরত চান প্রথম আলোর সাবেক ফটো সাংবাদিক সৈকত ভদ্র
  4. ♦ পাহাড়ে চলছে ভয়াবহ নারী নির্যাতন: বাঙালি ছেলের সাথে বিয়ের শাস্তি গণধর্ষণ
  5. ♦ পাহাড়ের উপজাতীয় তরুণীদের কাছে তবুও প্রিয় বাঙালি যুবকরা
  6. ♦ স্ত্রীর প্রতি দায়িত্বশীলতার কারণে বাঙালি ছেলেদের প্রতি পাহাড়ি মেয়েদের ঝোঁক

রাঙামাটি সদর উপজেলার কুতুকছড়ি এলাকার জহলাল চাকমার মেয়ে জোসনা চাকমা (৩০) চট্টগ্রামে একটি পোশাক কারখানায় চাকুরি করার সময় অপু চন্দ্র নামক এক বড়ুয়া সস্প্রদায়ের যুবককে ভালবেসে বিয়ে করেন। এই বিয়ে পরিবার মেনে নিলেও স্থানীয় পাহাড়ী সংগঠন ইউপিডিএফ তা মেনে নেয়নি। এ অপরাধে গত ১৮ নভেম্বর ২০১৬ জোসনা চাকমা কুতুকছড়ি বাবার বাড়িতে এলে তাকে অপহরণ করে নিয়ে যায় ইউপিডিএফের সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা। ঘটনার বর্ণনায় জোসনা চাকমা বলেন, অপহরণ হওয়ার পর তাকে গলায় শিকল পড়িয়ে বন্দী করে রাখা হয়।

এর পর তিনি গত ১৬ জানুয়ারি রাত আনুমানিক ১২টায় বন্দী অবস্থা থেকে পালিয়ে আনুমানিক ২টায় কুতুকছড়ি সেনাবাহিনীর ক্যাম্পে এসে এই ঘটনার কথা জানান। এর পর নানিয়ারচর জোন তাকে নানিয়ারচর থানা পুলিশি হেফাজতে দেন।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে জবানবন্দিতে জোসনা চাকমা জানান, তার বিয়েকে কেন্দ্র করে তাকে অপহরণ করা হয়। সন্ত্রাসীরা তার ভাই, বোন, মা, বাবাকেও মারধর করে, হুমকি দেয় এমনকি অর্থ জরিমানা করে। এক পর্যায়ে জোসনা চাকমা পরিবার ও স্থানীয় এক ইউপিডিএফ নেতা বিদ্যাময় চাকমা নামক ব্যক্তির সাথে কথা বলে এলাকায় সামাজিক অনুষ্ঠান করতে চাইলে ঐ পাহাড়ী নেতা তাকে মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়ে এলাকায় নিয়ে আসে এবং অপহরণ করে নিয়ে যায়। অপহরণের পর কুতুকছড়ি এলাকার চারটি জায়গায় তাকে বিভিন্ন সময় বন্দী করে রাখা হয়।

এই বিষয়ে নানিয়ারচর থানার ওসি মো. আবদুল লতিফ পার্বত্যনিউজকে জানান, নিরাপত্তা জনিত কারণে তাকে রাঙামাটি পুলিশি হেফাজতে রাখা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলে তাকে তার পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেওয়া হবে। ঘটনাটি নানিয়ারচর থানা ও নানিয়ারচর জোন খতিয়ে দেখছেন বলে জানা গেছে।




পার্বত্য চট্টগ্রামের পর্যটন সম্ভাবনাকে বিশ্বের কাছে তুলে ধরতে হবে- চিনু

sa tv
নিজস্ব প্রতিনিধি :
পার্বত্য চট্টগ্রামে পর্যটন শিল্পের অপার সম্ভাবনাকে বিশ্বের কাছে তুলে ধরতে বেসরকারি টেলিভিশন এসএ টিভি’র প্রতি আহবান জানিয়েছেন সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু। বৃহস্পতিবার রাঙামাটিতে এসএ টিভি’র ৪র্থ বর্ষপূতি’র কেক কাটার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহবান জানান।

দেশের প্রথম এইচডি চ্যানেল এসএ টিভি’র বর্ষপূতি উপলক্ষে রাঙামাটিতে বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভা শেষে জন্ম দিনের কেক কাটা হয়। বিকেল ৩টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয় প্রাঙ্গণ থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালিটি বের হয়ে শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে বনরূপায় এসে শেষ হয়।

বনরূপাস্থ রেইনবো রেস্টুরেন্টে অনুষ্ঠিত বর্ষপূর্তির আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন মহিলা সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু। এসএ টিভি’র রাঙামাটি প্রতিনিধি মোহাম্মদ সোলায়মান এর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী, রাঙামাটি প্রেস ক্লাব সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন রুবেল, রাঙামাটি বেতারের বার্তা প্রধান জাকির হোসেন, রাঙামাটি সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি নন্দন দেব নাথ, রাঙামাটি সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক এম নাজিম উদ্দিন, মুজাদ্দেদ-ই আল ফেসানী একাডেমির শিক্ষক আব্দুল্লাহ আল মামুনসহ সাংবাদিক ও সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথি ফিরোজা বেগম চিনু বলেন, স্বল্প সময়ে এসএ টিভি মানুষের মনে স্থান করে নিয়েছে। এসএ টিভি সংবাদ ও অনুষ্ঠানে বিশেষ করে সঙ্গিতানুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের ঐতিহ্য বিশ্ব দরবাওে তুলে ধরছে। সারাদেশের পাশাপাশি পার্বত্য চট্টগ্রামকে গুরুত্ব দিয়ে এসএ টিভির সংবাদ পরিবেশনের প্রশংসা করে চিনু বলেন, এসএ টিভির মাধ্যমে পার্বত্য চট্টগ্রামের সম্ভাবনা ও উন্নয়নের খবর তুলে ধরার পাশপাশি এ অঞ্চলে সন্ত্রাস ও অবৈধ অস্ত্রের বিরুদ্ধে সোচ্চার হবে বলে পার্বত্য চট্টগ্রামের মানুষ এসএ টিভির কাছে প্রত্যাশা করে।

পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী বলেন, সাংবাদিকতার উন্নয়নের মাধ্যমে দেশের গণতন্ত্র শক্তিশালী হয়। সাংবাদিকরাই পারেন সমাজ পরিবর্তন করতে। দেশের উন্নয়নে সাংবাদিকদের ভূমিকা অপরিসীম। এসএ টিভির নিরপেক্ষ সংবাদের প্রশংসা করে তিনি পার্বত্য চট্টগ্রামকে আরো গুরুত্ব দিয়ে সংবাদ প্রচারের আহবান জানান।




খাগড়াছড়ির শ্রেষ্ঠ ইনোভেশন টিম ও ই-সেবা প্রদানকারী দপ্তর ‘মাটিরাঙ্গা’

19.01.2017_Dizital Mela News Pic

নিজস্ব প্রতিবেদক:

খাগড়াছড়িতে অনুষ্ঠিত তিন দিনব্যাপী ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলায় খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা উপজেলা ‘ইনোভেশন টিম’ ও ‘ই-সেবা প্রদানকারী দপ্তর’ হিসেবে পুরস্কার জিতেছে জেলার মধ্যে তথ্য-প্রযুক্তিতে এগিয়ে থাকা ‘মাটিরাঙ্গা’। পাশাপাশি জেলার শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের পুরস্কার পেয়েছে ‘বড়নাল ইউনিয়ন পরিষদ ডিজিটাল সেন্টার’।

বৃহস্পতিবার বিকালে খাগড়াছড়ি টাউনহল প্রাঙ্গণে মেলা মঞ্চে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিএম মশিউর রহমানের হাতে শ্রেষ্ঠত্বের স্বীকৃতি সরূপ সনদ ও পুরস্কার তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি খাগড়াছড়ির সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, খাগড়াছড়ির জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাপনী অনুষ্ঠানে খাগড়াছড়ির পুলিশ সুপার মো. মজিদ আলী, বিপিএম-সেবা, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রোগ্রামের হেড অব রেজাল্ট বেজড ম্যানেজমেন্ট ড. রমিজ উদ্দিন এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম আভ্যন্তরীণ উদ্বাস্তু ও ভারত প্রত্যাগত শরনার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্সের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কৃষ্ণ চন্দ্র চাকমা প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের লক্ষ্যে বর্তমান সরকারের গৃহিত কর্মসূচীর অংশ হিসেবে তথ্য ও প্রযুক্তিতে মাইলফলক অবদান রাখায় চট্টগ্রাম বিভাগের শ্রেষ্ঠ ই-সেবা প্রদানকারী দপ্তরের পুরস্কার লাভ করে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়। বিভাগীয় ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার সমাপনী দিনে চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার মো. রুহুল আমীনের হাত থেকে শ্রেষ্ঠ ই-সেবা প্রদানকারী দপ্তরের সম্মাননা ক্রেস্ট, সার্টিফিকেট ও পুরস্কার গ্রহণ করেন প্রযুক্তি প্রেমী মাটিরাঙ্গার উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিএম, মশিউর রহমান।




রাজস্থলীতে ভূমি জোনিং প্রকল্পের উদ্যোগে কর্মশালা

20170119_112125 copy

রাজস্থলী প্রতিনিধি:

কৃষি জমি নষ্ট করে আবাসন গৃহ নির্মাণ সহ কৃষি জমিতে যে কোন ধরনের স্থাপনা তৈরী সম্পর্কে সর্বসাধারণকে নিরুৎসাহিত করার লক্ষ্যে এবং জমির সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করতে রাঙ্গামাটি জেলাধীন রাজস্থলী উপজেলায় বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার সময় এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জাতীয় ভূমি জোনিং প্রকল্পের আওতায় ওই কর্মশালায় ভূমি জোনিং ম্যাপ বিষয়ে মৌলিক ধারনা প্রদান করা হয়। উপজেলা শিল্পকলা একাডেমি ভবনে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান উথিনসিন মারমা।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার লীজা খাজার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান অংনুচিং মারমা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ক্রয়সুইউ মারমা, রাজস্থলী থানা পুলিশ উপ-পরিদর্শক মো. ইউছুপ আলীসহ বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তা, সাংবাদিক ও রাজস্থলী হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক-শিক্ষিকা ও সহকারী শিক্ষিকা বৃন্দ।

কর্মশালার শুরুতে মুল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন, প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা মিজানুর রহমান। কর্মশালায় বলা হয়, ভূ-সম্পদ আজ নানাভাবে মারাত্মক অবক্ষয়ের সম্মুখিন। জনসংখ্যা বৃদ্ধি, একই সাথে বৃদ্ধি পাচ্ছে তাদের জীবন জীবিকার মৌলিক চাহিদা। আর তাদের চাহিদা ও প্রয়োজনীয়তা মেটাতে গিয়ে মানুষের ভূমির অপরিকল্পিত ও অপরিমিত ব্যবহার বাড়ছে।

আবাদী জমি অপরিকল্পিতভাবে ঘরবাড়ি, কলকারখানা, রাস্তাঘাট ও বিভিন্ন শিল্প স্থাপনা নতুনত্বর নির্মাণ ইত্যাদি কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে। ফলে আবাদি জমি দিন দিন হ্রাস পাচ্ছে এবং প্রকৃতিক পরিবেশের ভারসাম্য নষ্ট হচ্ছে।

উপজেলা চেয়ারম্যান বলেন, জাতীয় ভূমি জোনিং প্রকল্পের আওতায় উপজেলা খসরা ভূমি জোনিং প্রকল্পের আওতায় ভূমি জোনিং ম্যাপ যাচাইকরণ বিষয়ক এ কর্মশালা ইতিমধ্যে বিভিন্ন উপজেলায় করা হয়েছে। কর্মশালার মুল উদ্দেশ্য হলো জমির সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করতে মানুষকে সচেতন করে তোলা। রাস্তার আশপাশে অপরিকল্পিতভাবে কেউ যাতে বাড়ি ঘর নির্মাণ না করে, সে বিষয়ে সবাইকে সচেতন করা।

 অনুষ্ঠানটি উপস্থাপন করেন উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সঞ্জয় দেবনাথ।




পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান পদে তরুণ কান্তি ঘোষের পুনঃনিয়োগ

torun kanti gush
নিজস্ব প্রতিবেদক :
পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অবসরপ্রাপ্ত ভাইস চেয়ারম্যান ও সরকারের অতিরিক্ত সচিব তরুণ কান্তি ঘোষকে পুনরায় পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তাঁর এ নিয়োগ চুক্তি ভিত্তিক দুই বছরের জন্য বর্ধিত করা হয়েছে।

রাষ্ট্রপতির আদেশে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদশে সরকারের জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এ নিয়োগ দেয়া হয়। গত ১৫ জানুয়ারি মন্ত্রণালয়ের চুক্তি ও বৈদেশিক নিয়োগ অধিশাখার উপ সচিব আফসারী খানম স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে বলা হয় অবসর উত্তর ছুটি ভোগরত সরকারের অতিরিক্ত সচিব তরুণ কান্তি ঘোষ (৫০৩৭) কে তার অবসর উত্তর ছুটি বাতিলের শর্তে যোগদানের তারিখ হতে পরবর্তী দুই বছর মেয়াদে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান পদে চুক্তি ভিত্তিক নিয়োগ প্রদান করা হলো।




রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের মাসিক সভা অনুষ্ঠিত

Monthly Meeting Pic 18 -01- 17-02 copy

নিজস্ব প্রতিবেদক:

রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান অংসুই প্রু চৌধুরী বলেছেন, বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন দেশকে ডিজিটাল ও উন্নত মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে গড়তে। তার এ স্বপ্ন বাস্তবায়নে আমাদের সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে। বিশেষ করে পরিষদের হস্থান্তরিত বিভাগের কার্যক্রমের গতিশীলতা বাড়িয়ে প্রধানমন্ত্রীর সে লক্ষ্যকে নিয়ে আমাদের সামনের দিকে অগ্রসর হতে হবে।

তিনি বলেন, অন্যান্য জেলা পরিষদের তুলনায় এ ৩পার্বত্য জেলা পরিষদ কর্তৃক আমাদের অনেক কিছু করার সুযোগ রয়েছে। পরিষদের হস্থান্তরিত বিভাগের কোন সমস্যা হলে তা জেলা পরিষদ কর্তৃক অনেকাংশে সমাধান করার সুযোগ রয়েছে। কিন্তু সমতলে সরাসরি মন্ত্রনালয়ে যোগাযোগ করতে হয়। পরিষদের এ সুযোগ গুলোকে কাজে লাগিয়ে আন্তরিকতার সাথে আমরা যদি একসাথে দেশের উন্নয়নে কাজ করি প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন বাস্তবায়ন হতে বেশী দেরী হবে না। আর এর সুফল এদেশের জনগণই ভোগ করবে। উন্নত ও সমৃদ্ধশালী দেশ গড়তে ও সরকারের এ স্বপ্ন বাস্তবায়নে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

বুধবার সকালে জেলা পরিষদের সভাকক্ষে আয়োজিত পরিষদের মাসিক সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ছাদেক আহমদ এর পরিচালনায় সভায় জেলা পরিষদের সদস্য ও হস্থান্তরিত বিভাগের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় স্বাস্থ্য বিভাগের সিভিল সার্জন (ভাঃ) বলেন, রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে কেবিন নির্মাণের কাজে অগ্রগতি হচ্ছে। নানিয়ারচর, বিলাইছড়ি ও বাঘাইছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের সীমানার মধ্যে যে সমস্ত অবৈধ স্থাপনা গড়ে উঠেছে সেগুলো উচ্ছেদের বিষয়ে প্রশাসন কর্তৃক যোগাযোগ অব্যাহৃত রয়েছে। তিনি বলেন, এবারের ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলায় অংশ গ্রহণ করে স্বাস্থ্য বিভাগ শ্রেষ্ঠ সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে সম্মাননা লাভ করেছে।

স্বাস্থ্য প্রকৌশল কর্মকর্তা বলেন, জেলার স্বাস্থ্য বিভাগের বিভিন্ন স্থাপনা ও কমিউনিটি ক্লিনিক নির্মাণের কাজ চলছে।

কৃষি সম্প্রসারন বিভাগের উপ-পরিচালক বলেন, বর্তমানে বোরো মৌসুম চলছে। জেলায় এবারে ৭৭৩৬ হেক্টর জমিতে চাষাবাদের টার্গেট থাকলেও এ পর্যন্ত ৮১৭ হেক্টর পর্যন্ত চাষাবাদ হয়েছে হৃদের পানি কমলে টার্গেট পূরণ করতে অনেকাংশে সক্ষম হবো। এছাড়া জেলা পরিষদের অর্থায়নে কফি চাষ ও একটি পাহাড় একটি খামার প্রকল্প যথারীতি চলছে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বলেন, বছরের প্রথম দিনে জেলা ও উপজেলার বিদ্যালয়গুলোতে চাকমা, মারমা ও ত্রিপুরা শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি সাধারণ বই শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া চেলাছড়া ও আটারকছড়া আবাসিক বিদ্যালয়গুলো নির্মাণের পরও খাই-খরচের জন্য একটি বরাদ্ধ তৈরি করে মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া ২৯জানুয়ারি সারাদেশের ন্যয় রাঙ্গামাটিতেও শিক্ষা সপ্তাহ পালন করা হবে।

জেলা মৎস্য র্কমকর্তা জানান, রাজস্ব খাত থেকে প্রতি উপজেলার মৎস্য চাষীদের ২টি করে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। এছাড়া এনআইটিবি প্রকল্পের আওতায় সদর ও কাউখালী উপজেলায় ইউনিয়ন ভিত্তিক মৎস্য চাষীদের প্রশিক্ষণ ও পুকুরে প্রদশর্নী কার্যক্রম চলছে।

জেলা সমাজ সেবা বিভাগের কর্মকর্তা বলেন, সামাজিক নিরাপত্তা অনুযায়ী সমাজসেবা কর্তৃক তালিকাভুক্তদের মাঝে বয়স্ক ভাতা  ৪শত টাকার পরিবর্তে ৫শত এবং প্রতিবন্ধী ৫শত টাকার পরিবর্তে ৬শত নির্ধারণ করা হয়েছে অন্যন্য  মুক্তিযোদ্ধা ভাতা, শিক্ষা ভাতা, সঠিকভাবে প্রদান করা হচ্ছে। মন্ত্রণালয় হতে এবারে ১৬-১৭অর্থ বছরে ২কোটি ৬০লক্ষ ১৯হাজার টাকা বরাদ্ধ পাওয়া গেছে।

জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের কর্মকর্তা বলেন, ১ফেব্রুয়ারি ২০১৭হতে ৩মাসব্যাপী বেকার যুবকদের বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে আবেদনের শেষ তারিখ ২৯জানুয়ারি ২০১৭ পর্যন্ত। হর্টিকালচার সেন্টার বালুখালী, লংগদু ও বনরুপা, নানিয়ারচর, আসামবস্তী এবং কাপ্তাই হর্টিকালচার সেন্টারে বিভাগীয় লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী চারা কলম উৎপাদন ও বিক্রয় কার্যক্রম চলছে বলে জানায় সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

জেলা শিল্পকলা একাডেমি কালচারাল অফিসার জানান, জেলার প্রতিটি উপজেলার ন্যয় ১জানুয়ারি কাপ্তাই উপজেলাও এক্রোবেটিক শো প্রদর্শন করা হয়েছে এছাড়া উন্নয়ন ও ডিজিটাল মেলায় জেলা শিল্পকলা একাডেমি অংশগ্রহণ করেছে।

রাঙামাটি পর্যটন হলিডে কমপ্লেক্স’র ব্যবস্থাপক জানান, বর্তমানে পর্যটক মৌসুম চললেও খাগড়াছড়ি ও বান্দরবানের ন্যয় রাঙ্গামাটি পর্যটন হলিডে কমপ্লেক্স’র এ বিনোদন ব্যবস্থা কম থাকায় পর্যটক কম হচ্ছে। পরিষদ কর্তৃক আধুনিক মানের বিনোদনের ব্যাবস্থা করা গেলে পর্যটক আকৃষ্ট হতো।

সভায় হস্থান্তরিত বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তাগণ তাদের বিভাগের স্ব স্ব কার্যক্রম উপস্থাপন করেন এবং বিভিন্ন সমস্য ও সম্ভবনার কথা তুলে ধরে মতামত ও সু পরামর্শ প্রদান করেন।

সভায় উত্থাপিত যেসব সমস্যা ও বিষয়গুলো নিয়ে বিশদভাবে আলোচনা হয়েছে সেগুলো বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে পরিষদের সর্বাত্বক সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস প্রদান করেন চেয়ারম্যান ও সদস্যগণ।




কাপ্তাইয়ে উপজেলা খসড়া ভূমি জোনিং ম্যাপ যাচাইকরণ কর্মশালা

Land 18-01 copy

কাপ্তাই প্রতিনিধিঃ

জাতীয় ভূমি জোনিং প্রকল্প’র উদ্যোগে বুধবার কাপ্তাই  উপজেলা খসড়া ভূমি জোনিং ম্যাপ যাচাইকরণ কর্মশালা নির্বাহী কর্মকর্তা তারিকুল আলমের সভাপতিত্বে উপজেলা রেস্ট হাউজে অনুষ্ঠিত হয়।

কাপ্তাই উপজেলা জোনিং প্রকল্পের বিভিন্ন ইতিহাস ঐতিহ্য ভূমি, বন, কৃষি, মৎস্য, ইকোট্যুরিজম, শিল্প কলকাখানা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন জিনিস যাচাইকরণ নিয়ে এলাকার ইউপি চেয়ারম্যান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান, হেডম্যান, কার্বারী, রেঞ্জ কর্মকর্তা, মিডিয়াসহ বিভিন্ন কর্মকর্তাদের নিয়ে উপজেলা ভূমি ম্যাপ যাচাইকরণ কর্মশালা সকাল ১০টা হতে দুপুর ১টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়।

কর্মশালায়  প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় ভূমি জরিপ প্রকল্প পরিচালক ও যুগ্মসচিব শওকত আকবর। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন রাঙ্গামাটি জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সাইফুল ইসলাম, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান দিলদার হোসেন, উপজেলা আ’লীগ সভাপতি অংসুইচাইন চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান নুরনাহার বেগম।

কর্মশালায় ভূমি জরিপ নিয়ে মূলপ্রবন্ধক পাঠ করেন স্যোসাল এন্ড ইনস্টিটিউশনাল মিজানুর রহমান। কাপ্তাই জোনিং নিয়ে আলোচনা করেন ইউপি চেয়ারম্যান প্রকৌশলী আব্দুল লতিফ, খ্যাইসা অং মারমা, বিপ্লব মারমা, চিরনজিত তংচঙ্গ্যা, কাপ্তাই থানা কর্মকর্তা রঞ্জন কুমার সামন্ত, কর্ণফুলী কলেজ অধ্যক্ষ এইচএম বেলাল চৌধুরী, মুক্তিযোদ্বা কমান্ডার শাহাদাৎ হোসেন চৌধুরী, বন কর্মকর্তা শরিফুল আলম, শাহাজাহান আলী, দেবদাশ মুখার্জী, সাংবাদিক কবির হোসেন, মোশাররফ হোসেনসহ বিভিন্ন অফিসারগণ তাদের নিজস্ব মতামত প্রকাশ করেন।

এদিকে প্রধান অতিথি প্রকল্প পরিচালক বলেন, আমরা কাপ্তাই এসে অনেক অজানা তথ্য পেয়েছি। যা আমাদের ভূমি জরিপে কাজে আসবে। তিনি আরও বলেন, আপনেরা নিজ উদ্যোগে তামাক চাষ বন্ধ করে নিজ ভূমিতে অন্যকিছু চাষ করুন তাতে সফল হওয়া যাবে। তামাক চাষে ভূমি ক্ষতি সকলের ক্ষতি আপনেরা এ হতে বিরত থাকুন।




রাঙামাটিতে দিনভর পিঠা উৎসব পালিত

Pita udshob pic copy

রাঙামাটি প্রতিনিধি:

রাঙামাটিতে জেলা প্রশাসন ও জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থার যৌথ উদ্যোগে দিনভর পিঠা উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে জেলা প্রশাসনের কার্যালয় প্রাঙ্গনে এ পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়।

পিঠা উৎসবে বিভিন্ন সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্ঠান নানা রকমের দেশীয় পিঠা নিয়ে প্রদর্শন করেন। পিঠা উৎসব উদ্ধোধন করেন জেলার মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি হাসিনা মতমতাজ।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক মো. মানজারুল মান্নান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক প্রকাশ কান্তি, পুলিশ সুপার সাঈদ তারিকুল হাসান, জেলা সদর ইউ এনও মোছাৎ সুমনী আক্তার প্রমুখ।