বিলাইছড়িতে বই উৎসব

belaichari-p-ic-1-copy

নিজস্ব প্রতিবেদক:

সারাদেশের ন্যায় বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে রাঙামাটির বিলাইছড়ি উপজেলায় প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরণ করা হয়েছে। রবিবার সকালে বিলাইছড়ি মডেল হাই স্কুলে শিক্ষাথীদের মাঝে নতুন বই বিতরণের ‘বই উৎসব’ উদযাপন করা হয়।

বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি চন্দ্রলাল চাকমা রাহুল’র সভাপতিত্বে বই বিতরণ উৎসবে প্রধান অতিথি ছিলেন বিলাইছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ মো.মঞ্জুরুল আলম মোল্লা। অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন প্রধান শিক্ষক মো. নুরুল ইসলাম, পিটিএ সভাপতি মিলন কান্তি তঞ্চঙ্গ্যা প্রমূখ।

এসময় ম্যানেজিং কমিটির সদস্য চাথোয়াই মার্মা, স্বপ্না তঞ্চঙ্গ্যা, অভিভাবক ও শিক্ষকগণ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে শিক্ষার্থীদের লেখা ‘লার্নার্স রাইট’ নামক দেওয়াল পএিকা আনুষ্ঠানিকভাবে উন্মোচন করেন প্রধান অতিথি, প্রধান শিক্ষক ও অতিথিবৃন্দ।




বিলাইছড়ি থেকে অপহৃত দয়াল তঞ্চঙ্গ্যার ৮ দিন পর মুক্ত

?

?

বিলাইছড়ি প্রতিনিধি :

অবশেষে অপহরণের ৮ দিন পর যুবলীগ নেতা দয়াল তঞ্চঙ্গ্যাকে মুক্তি দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। রবিবার দুপুর ১টার সময় রাঙামাটির বালুখালি এলাকায় তাকে মুক্তি দেয়া হয়। এরপর সে ইঞ্জিন বোটে করে বিলাইছড়ি উপজেলা সদরে ফেরত আসে।

এদিকে অপহৃতের মুক্তিতে বিলাইছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-তথ্য ও প্রচার সম্পাদক স্বপন কুমার দে স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে দয়াল তঞ্চঙ্গ্যার নিঃশর্তমুক্তিতে প্রশাসন তথা বিলাইছড়ি জোনের কমান্ডারের সহযোগিতার প্রশংসা করে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করা হয়েছে।

এছাড়াও প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আগামীতে যে কোনো পরিস্থিতে ঐক্যবদ্ধ থাকার জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানানো হয়।

 




অপহৃত যুবলীগ নেতা উদ্ধারের দাবিতে বিলাইছড়িতে অবরোধ পালিত

অবরোধ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

রাঙামাটির বিলাইছড়িতে অপহৃত যুবলীগ নেতা দয়াল তংঞ্চঙ্গ্যাকে উদ্ধারের দাবিতে উপজেলায় সকাল-সন্ধ্যা অবরোধ পালন করেছে সংগঠনটি। সোমবার সকাল থেকে বিলাইছড়ি উপজেলায় অবরোধের সমর্থনে মাঠে নামে বিলাইছড়ি উপজেলা যুবলীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

অবরোধের কারণে রাঙামাটি শহরের সাথে উপজেলার সকল ধরণের নৌ চলাচল বন্ধ ছিল। সড়ক পথেও কোন ধরণের যানবাহন চলাচল করে নি। বন্ধ ছিল স্থানীয় হাট-বাজারগুলো। যে কোন নাশকতা এড়াতে উপজেলার সদরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন ছিল। অবরোধ চলাকালে কোন ধরণের সহিংসতার ঘটনা ঘটে নি।

সংশ্লিষ্ট তথ্য সূত্রে জানা গেছে, শনিবার রাতে রাঙামাটি জেলার বিলাইছড়ি উপজেলার উলুছড়ি এলাকায় নিজ বাড়ি থেকে যুবলীগ নেতা দয়াল তঞ্চঙ্গ্যাকে অস্ত্রের মুখে তুলে নিয়ে যায় দূর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। তবে অপহৃত দয়াল তংঞ্চঙ্গ্যাকে উদ্ধারে নেমেছে পুলিশ। এ ঘটানার জন্য রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতিকে দায়ী করছে বলেও জানা যায়।




বিলাইছড়িতে যুবলীগ নেতা অপহৃত: জেএসএসকে দায়ী, প্রতিবাদে অবরোধ

7070

নিজস্ব প্রতিবেদক:

রাঙামাটি জেলার বিলাইছড়ি উপজেলা যুবলীগ নেতা দয়াল তংঞ্চঙ্গ্যাকে অপহরণ করেছে দূর্বৃত্তরা। শনিবার মধ্যরাতে বিলাইছড়ি উপজেলা ফারুয়া ইউনিয়নের উলুছড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার জন্য রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মুছা মাতব্বর পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতিকে দায়ী  করেন। তবে এ ঘটনার সাথে জনসংহতি সমিতি জড়িত নয় বলে দাবি করেন সংগঠনটির বিলাইছড়ি উপজেলা সাধারণ সম্পাদক বীরোত্তম তঞ্চঙ্গ্যা। বর্তমানে এলাকায় চাপা আতঙ্ক বিরাজ করছে। অপহৃত নেতার মুক্তির দাবি সোমবার সকাল-সন্ধ্যা অবরোধ ডেকেছে  উপজেলা যুবলগী।

বিলাইছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা সুরেশ কান্তি তঞ্চঙ্গ্যা জানান, শনিবার মধ্যরাতে বিলাইছড়ি উপজেলা ফারুয়া ইউনিয়নের উলুছড়ি এলাকায় ১০-১২ জনের সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের একটি দল হানা দেয়। পরে উপজেলা যুবলীগ নেতা দয়াল তঞ্চঙ্গ্যাকে তার নিজ বাড়ি থেকে অস্ত্রের মুখে তুলে নিয়ে যায়। এরপর থেকে তার কোন খবর পাওয়া যায় নি।

এ ব্যাপারে রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মুছা মাতব্বর অভিযোগ করে বলেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির নেতাকর্মীরা দয়াল তংঞ্চঙ্গ্যাকে অপহরণ করেছে। কারণ সম্প্রতি সময় রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দীপংকর তালুকদারের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান থেকে আসার পথে জেএসএসের কিছু সশস্ত্র নেতা দয়াল তংঞ্চঙ্গ্যার বড়ভাই উজ্জ্বল তংঞ্চঙ্গ্যা (হেডম্যান)কে মারধর করে। এ ঘটনায় উজ্জল বাদি হয়ে বিলাইছড়ি থানায় তাদের বিরুদ্ধে একটি মামলাও করে। সে থেকে জেএসএসের নেতাকর্মীরা মামলা তুলে নেওয়ার জন্য  হুমকি দিয়ে আসছিল। সে ঘটনার জের ধরে উজ্জল তংঞ্চঙ্গ্যাকে না পেয়ে তার ছোট ভাইকে অন্ত্রের মুখে তুলে নিয়ে যায় জেএসএসের সন্ত্রাসীরা। এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এদিকে বিলাইছড়ি উপজেলা যুবলীগ নেতা দয়াল তঞ্চঙ্গ্যাকে অপহরণের ঘটনাকে কেন্দ্র করে ক্ষোভ দেখা দেয় স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে। প্রতিবাদে তাৎক্ষণিক মানববন্ধন করে বিলাইছড়ি উপজেলা যুবলীগের নেতাকর্মীরা। ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে বিভিন্ন ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে সংগঠনটির নেতাকর্মীসহ যোগ দেয় স্থানীয় এলাকাবাসী।

এ সময় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগ নেতা সুরেশ কান্তি তঞ্চঙ্গ্যার, আ’লীগ নেতা অরুন বিকাশ চাকমা, রাসেল মারমা অং শৈ প্রু মারমা ও অরুন কান্তি তঞ্চঙ্গ্যা প্রমূখ।

অন্যদিকে একই দাবিতে রাঙামাটি শহরে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে জেলা আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতা কর্মীরা।

সমাবেশে থেকে সংগঠনটির নেতারা অপহৃত যুবলীগ নেতা দয়াল তংঞ্চঙ্গ্যাকে ২৪ ঘন্টার মধ্যে মুক্তির দাবী জানান। অন্যথায় অবরোধের মাধ্যমে পুরো উপজেলা অচল করে দেওয়ার হুমকি দেন তারা।




বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে স্থল-মাইন বিস্ফোরণে ৩ উপজাতী আহত

bandarban1-copy

নিজস্ব প্রতিবেদক:

রাঙ্গামাটি-মায়ানমার সীমান্তবর্তী বিলাইছড়ি উপজেলার বড়থলি ইউনিয়নে স্থল-মাইন বিস্ফোরণে তিন উপজাতী আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। রবিবার সকালে ইউনিয়নের জারুলছড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন রিংরাউ ম্রো, পুইকুয়ে নাং খুমি এবং কুলে খুমি।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে বড়থলি ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান আপ্রু মং মারমা জানান, আহত তিনজন জারুলছড়ি-মিয়ানমার সীমান্তের কাছাকাছি এলাকায় গয়াল (পাহাড়ি গরু) কিনতে যান। পথিমধ্যে পুঁতে থাকা স্থলমাইন বিস্ফোরণে স্থানীয় এ তিনজন আহত হন বলে জানান তিনি। এরপর আহতদের উদ্ধার করে পাশ্ববর্তী বান্দরবানের রুমা উপজেলার সেনাবাহিনীর সুংসং পাড়া ক্যাম্পে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসা হয়। অবস্থার অবনতি হলে পরে তাদের বান্দরবানের রুমা উপজেলার সাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয় বলেও নিশ্চিত করেছেন চেয়ারম্যান আপ্রু মং মারমা ।

এদিকে সীমান্তে বিচ্ছিন্নতাবাদী ও সন্ত্রাসী তৎপরতা দমনে মায়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনী বিস্ফোরকগুলো মাটিতে পুঁতে রাখতে পারে বলে সীমান্তবর্তী স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে রুমা সেনা জোনের অধিনায়ক লে. কর্নেল আরিফুল ইসলাম জানান, তিনজনের আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তবে তারা কিভাবে আহত হয়েছেন তা সঠিকভাবে এখনও জানা যায়নি।




বিলাইছড়িতে কিশোরীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে গ্রেপ্তার-১

ধর্ষণ

নিজস্ব প্রতিনিধি:

রাঙামাটির বিলাইছড়ি উপজেলার এক কিশোরীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে এজহারভুক্ত চাকমা দুই যুবককে আটক করা হয়েছিল। গত ১৪ জুন মঙ্গলবার সকাল ১১ টার দিকে জেলার বিলাইছড়ি উপজেলার বিলাইছড়ি বাজার থেকে সুনীতিময় চাকমা (৩০) ও নয়নগোতি চাকমা (৩২) নামের এই দুই যুবককে আটক করে পুলিশ । পরে মেয়েটি বাদী হয়ে বিলাইছড়ি থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়ের করে। তবে মঙ্গলবার সকালে তাদের দু,জনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে হয় বলে জানায় পুলিশ। এ সময় মেয়েটিকে থানায় নিয়ে আসলে মেয়েটি গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে সুনীতিময় চাকমা নামের এজহারভুক্ত আসামীকে সনাক্ত করে।

বিলাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাথে কথা বলে জানা গেছে, কিশোরীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে এজহারভুক্ত চাকমা দুই যুবককে আটক করা হলেও এদের মধ্যে একজনকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে এবং এজহারভুক্ত আসামীকে কোর্টে চালান করে দিয়েছি। এখনও পর্যন্ত আর কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য, রাঙমাটি জেলার কোতয়ালী থানার ধুল্লাছড়ি গ্রামের সুনীল কান্তি চাকমার মেয়ে (১৭) এবছর এসএসসি পরীক্ষায় পাস করেছে। পরে উচ্চ মাধ্যমিকে অনলাইনে আবেদনের জন্য গত ২৯ মে বিলাইছড়ি বাজারের শিহাবের কম্পিউটারের দোকানে যায়। এ সময় স্থানীয় সুনীতিময় চাকমা (৩০), কৃষ্ণসুর চাকমা (২৫), পুলক চাকমা (২৮), সুজয় চাকমা (৩০), মানিক চাকমা (৩৫), বীর উত্তম চাকমা (২৭), নেলসন চাকমা (২৮)সহ ১৫ থেকে ২০ জন যুবক বাঙালী ছেলের সাথে মেয়েটির প্রেমের সম্পর্ক আছে দাবী করে তাকে দোকানের মধ্যেই আটকে ফেলে মারধর করে।

পরে তাকে টেনে হিঁচড়ে বের করে অপহরণ করে কেরণছড়ির অজ্ঞাত জঙ্গলে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে পুণরায় মারধর, গালিগালাজ করে করে তার চোখ বেঁধে ফেলে কাপড় চোপড় খুলে তার শরীরের বিভিন্ন অংশে হাত দিয়ে যৌন হয়রানী করে। এরপর ঘটনা কাউকে বললে তাকে মেরে ফেলা হবে হুমকি দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়।

যুবকদের নির্যাতনে অসুস্থ্য হয়ে পড়া মেয়েটি ছাড়া পেয়ে গাছকাটা ছড়া আর্মি ক্যাম্পে উপস্থিত হয়ে ঘটনার বর্ণণা দেয়। এ সময় মেয়েটির শরীরের কিছু অংশ রক্তাত্ত্ব দেখে সেনাবাহিনীর সদস্যরা পুলিশকে খবর দিয়ে পুলিশ মেয়েটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়।




পিসিপি নেতা গ্রেফতারের প্রতিবাদে রাঙামাটির বিলাইছড়িতে দুই দিনের হরতাল

নিজস্ব প্রতিনিধি :
পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ নেতাকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে রাঙামাটির বিলাইছড়ি উপজেলায় দুই দিনের হরতাল পালন করছে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি।

বুধবার সকাল থেকে হরতাল শুরু হয়। আগামীকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত হরতাল চলবে।

পুলিশ জানায়, বিলাইছড়ি উপজেলা পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের অর্থ সম্পাদক সুনীতিময় চাকমাকে (২২) নারী ও শিশু নির্যাতনের মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে।

এদিকে, পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির কেন্দ্রীয় সহ-তথ্য প্রচার সম্পাদক সজীব চাকমা দাবী করেন, গত দুই দিন জেএসএস এর অবরোধ চলাকালে মঙ্গলবার বিলাইছড়িতে পিকেটিং করছিলো পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের নেতাকর্মীরা। পুলিশ বিনা উস্কানিতে পিকেটিংরত চার নেতাকর্মীকে আটক করে নিয়ে যায়। পরে তিনজনকে ছেড়ে দিলেও সুনীতিময় চাকমাকে মিথ্যা মামলায় গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এর প্রতিবাদে বুধ ও বৃহস্পতিবার বিলাইছড়িতে হরতালের ঘোষণা করা হয়েছে।




রাঙামাটিতে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে চাকমা যুবক আটক

আটক9_113690_121433

স্টাফ রিপোর্টার:
রাঙামাটিতে কিশোরীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে এজহারভুক্ত চাকমা দুই যুবককে আটক করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ১১ টার দিকে জেলার বিলাইছড়ি উপজেলার বিলাইছড়ি বাজার থেকে সুনীতিময় চাকমা(৩০) ও নয়নগোতি চাকমা(৩২) নামের এই দুই যুবককে আটক করে পুলিশ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রাঙমাটি জেলার কতোয়ালী থানার ধুল্লাছড়ি গ্রামের সুনীল কান্তি চাকমার মেয়ে(১৭) এবছর এসএসসি পরীক্ষায় পাস করেছে। পরে উচ্চ মাধ্যমিকে অনলাইনে আবেদনের জন্য গত ২৯ মে বিলাইছড়ি বাজারের বাঙালী যুবক শিহাবের কম্পিউটারের দোকানে যায়। এসময় স্থানীয় সুনীতিময় চাকমা(৩০), কৃষ্ণসুর চাকমা(২৫), পুলক চাকমা(২৮), সুজয় চাকমা(৩০), মানিক চাকমা(৩৫), বীর উত্তম চাকমা(২৭), নেলসন চাকমা(২৮)সহ ১৫-২০ জন যুবক বাঙালী ছেলের সাথে মেয়েটির প্রেমের সম্পর্ক আছে দাবী করে তাকে দোকানের মধ্যেই আটকে ফেলে মারধোর করে। পরে তাকে টেনে হিঁচড়ে বের করে অপহরণ করে কেরণছড়ির অজ্ঞাত জঙ্গলে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে পুণরায় মারধোর, গালিগালাজ করে করে তার চোখ বেঁধে ফেলে কাপড় চোপড় খুলে তার শরীরের বিভিন্ন অংশে হাত দিয়ে যৌন হয়রানী করে। এরপর ঘটনা কাউকে বললে তাকে মেরে ফেলা হবে হুমকি দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়। যুবকদের নির্যাতনে অসুস্থ হয়ে পড়া মেয়েটি ছাড়া পেয়ে গাছকাটা ছড়া আর্মি ক্যাম্পে উপস্থিত হয়ে ঘটনার বর্ণণা দেয়। এসময় মেয়েটির শরীরের কিছু অংশ রক্তাত্ত্ব দেখে সেনাবাহিনীর সদস্যরা পুলিশকে খবর দিয়ে পুলিশ মেয়েটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়।

পরে মেয়েটি বাদী হয়ে বিলাইছড়ি থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়ের করে। মামলার পর থেকে পুলিশ আসামীদের গ্রেফতারের জন্য বিভিন্ন স্থানে তল্লাসী চালালেও গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়নি। তবে মঙ্গলবার সকালে আসামীদের একটি স্থানে দেখতে পেয়ে পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।

এসময় মেয়েটিকে থানায় নিয়ে আসলে মেয়েটি গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে সুনীতিময় চাকমা নামের এজহারভুক্ত আসামীকে সনাক্ত করে।

বিলাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে পার্বত্যনিউজকে জানান, দুইজনকে আটক করা হলেও এজহারভুক্ত আসামীকে রেখে বাকিজনকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।




রাঙামাটিতে জেএসএস নেতাদের আওয়ামী লীগে যোগদান

Bilai-1

স্টাফ রিপোর্টার:

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালযের সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দীপঙ্কর তালুকদার বলেছেন, পাহাড়ের জনগণ বুঝতে পেরেছে আওয়ামী লীগ সরকার ছাড়া এলাকা ও দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। তাই পার্বত্য আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলগুলোর সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের ভয়কে তোয়াক্কা না করে পাহাড়ের সাধারণ জনগণ আওয়ামী লীগের পতাকাতলে ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে।

বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) রাঙ্গামাটির বিলাইছড়ি উপজেলাধীন বড়থলি ইউনিয়নে পার্বত্য জনসংহতি সমিতি (জেএসএস)’র নেতা সুজন ত্রিপুরার নেতৃত্বে ১৫ জন জেএসএস নেতাকর্মীসহ ইউনিয়নের অর্ধ শতাধিক বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের আওয়ামী লীগে যোগদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

যোগদান অনুষ্ঠানে দীপংকর তালুকদার বলেন, পাহাড়ের যোগাযোগ ব্যবস্থা খারাপের কারণে প্রত্যন্ত অঞ্চলে প্রশাসন যেতে না পারায় আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলগুলো অস্ত্রের মুখে সাধারণ জনগণকে জিম্মি করে সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালাতে পারছে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় আগামী ২০১৯ সালের মধ্যে পাহাড়ের প্রত্যন্ত এলাকার যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হবে। তিনি আওয়ামী লীগের পতাকাতলে এসে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার জন্য ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার সকল নেতৃবৃন্দকে আহ্বান জানান।

বিলাইছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুরেশ কান্তি তঞ্চঙ্গ্যার সভাপতিত্বে যোগদান অনুষ্ঠানে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মাহাবুবুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মতিন, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল মওলা, প্রচার সম্পাদক মমতাজ উদ্দিন, দপ্তর সম্পাদক রফিক তালুকদারসহ আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

যোগদান অনুষ্ঠানে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়া কটু মন্তব্যের প্রতিবাদে আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি রাঙ্গামাটিতে মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করার জন্য সবাইকে আহ্বান জানান সাবেক প্রতিমন্ত্রী।




পিসিপির সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে রাঙামাটিতে যুবলীগের বিক্ষোভ মিছিল

বিক্ষোভ

স্টাফ রিপোর্টার:

রাঙামাটির বিলাইছড়িতে যুবলীগ নেতা থুইপ্রু মারমা (আকাশ) এর উপর সন্তু লারমা সমর্থীত সংগঠন পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ’র (পিসিপি) সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে রাঙামাটিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে রাঙামাটি জেলা যুবলীগের নেতা কর্মীরা।

বুধবার সকাল ১১টায় শহরের পৌরসভা চত্বর থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে জেলা যুবলীগ নেতাকর্মীরা। মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে গিয়ে সমাবেশে মিলিত হয়।

রাঙামাটি যুবলীগ সহ-সভাপতি শফিউল আজমের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মাহবুবুর রহমান, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মনসুর আলী, যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক নুর মোহাম্মদ কাজল, ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ চাকমা।

নেতৃবৃন্দ হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার দাবি জানিয়ে বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি পাহাড়ে শান্তি প্রতিষ্ঠা করার কথা বলে শান্তিচুক্তি স্বাক্ষর করে ছিল। কিন্তু তারা কথা রাখেনি। পার্বত্যাঞ্চলের শান্তি প্রতিষ্ঠা করারমত কোন ভূমিকাও রাখেনি। উল্টো তাদেরই অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে। উপজেলা যুবলীগ নেতার উপর হামলা করে তার প্রমাণ দিয়েছে জেএসএস।

অবিলম্বে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া না হলে কঠোর আন্দোলন কর্মসূচী ঘোষণা করা হবে হুমকি দেন আওয়ামী লীগ নেতারা।

উল্লেখ্য, ১৩ ফেব্রুয়ারি (শুক্রবার) রাতে ৮টায় দিকে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি সমর্থীত সংগঠন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি) একদল যুবক হঠাৎ উপজেলা আওয়ামী যুবলীগ নেতা থুই প্রু মার্মার উপর নিজ গ্রামে অতর্কিতে হামলা চালায়।