বাঘাইছড়ি পৌর নিবার্চনে একক প্রার্থীতে নির্ভার আ’লীগ বিদ্রোহী নিয়ে দুশ্চিন্তায় বিএনপি

1484665350

নিজস্ব প্রতিনিধি : মঙ্গলবার ১৭ জানুয়ারি ছিল রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি পৌরসভা নির্বাচনের মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিন। দিন শেষে জানা গেছে, দ্বিতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিতব্য বাঘাইছড়ি পৌর নিবার্চনে মেয়র পদে ৫ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। আওয়ামী লীগ একক প্রার্থী দিতে পেরে অনেকটা নির্ভার থাকলেও বিদ্রোহী প্রার্থী নিয়ে শঙ্কায় আছে বিএনপি।

মঙ্গলবার ১৭ জানুয়ারি কাল সাড়ে ১১টায় আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী জাফর আলী খানের পক্ষে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন পার্বত্য বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সাবেক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার। অন্যান্য মেয়র প্রার্থীদের মধ্যে বিএনপি প্রার্থী ওমর আলী, বিএনপির সতন্ত্র প্রার্থী সেলিম উদ্দিন বাহার, আজিজুর রহমান, সুজিত চাকমা মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।

এছাড়াও সাধারণ কাউন্সিলার পদে ২৭ জন ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলার পদে ৬ জন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

আগামী ১৯ জানুয়ারি মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন।

নিবার্চনী কর্মকর্তা নাজিম উদ্দিন জানিয়েছেন, কোনো প্রকার সহিংসতা ছাড়াই প্রার্থীরা মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। মেয়র পদে ৫ জন, সাধারণ কাউন্সিলার পদে ২৭ জন, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলার পদে ৬ জনসহ মোট ৩৮ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি নির্বাচনকে ঘিরে উৎসাহের কমতি নেই ভোটারদের মাঝে। দলীয় প্রতীকে নির্বাচন হওয়ায় নির্বাচনকে ঘিরে আরো বেশি উৎসবর মুখর হয়ে উঠেছে বাঘাইছড়ি উপজেলা।




বাঘাইছড়ি পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে মনোনয়নপত্র দাখিল

পৌরসভা নির্বাচন

নিজস্ব প্রতিবেদক:

রাঙামাটি পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে পাঁচ জন প্রার্থী মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছে। মঙ্গলবার মনোনয়ন পত্র জমাদানের শেষ দিনে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জমির উদ্দিনের কাছে মেয়র, কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীরা তাদের মনোনয়ন পত্র জমা দেন।

মেয়র পদে মনোনয়ন জমাদানকারীরা হলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জাফর আলী, বিএনপি মনোনিত ধানের শীষ প্রতীকের ওমর আলী, বিএনপির বিদ্রোহী হিসেবে স্বতন্ত্র প্রার্থী সেলিম উদ্দিন বাহার, স্বতন্ত্র প্রার্থী আজিজুর রহমান ও সুজিত চাকমা।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দীপংকর তালুকদারসহ দলের সিনিয়র নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে মনোনয়ন পত্র জমাদেন আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী জাফর আলী, সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে মনোনয়পত্র জমাদেন বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী ওমর আলী। স্বতন্ত্র প্রর্থীরা তাদের সমর্থকদের সাথে নিয়ে মনোনয়ন পত্র জমাদেন।

এ ছাড়াও ৯টি সাধারণ ওয়ার্ডে ২৭ জন কাউন্সিলর প্রার্থী ও সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডে ৬ জন মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী মনোনয়ন পত্র জমা দেন।

১৯ জানুয়ারি মনোনয়ন পত্র বাছাই ও ২৭ জানুয়ারি মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন। ১৮ ফ্রেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে বাঘাইছড়ি পৌরসভা দ্বিতীয় নির্বাচনের ভোট।




বাঘাইছড়ি পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি’র মনোনয়ন পেল ওমর আলী

OMOR ALI (2) copy

নিজস্ব প্রতিবেদক:

রাঙামাটি বাঘাইছড়ি পৌরসভা নির্বাচনে বাঘাইছড়ি উপজেলা বিএনপি সভাপতি ওমর আলীকে দলীয় মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপি। জেলা বিএনপির সভাপতি মো. শাহ আলম পার্বত্যনিউজকে এ খবর নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, জেলা বিএনপির সুপারিশসহ কেন্দ্রে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের তালিকা পাঠানোর পর কেন্দ্রীয় মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ওমর আলীকে মনোনয়ন দেন।

দলীয় সুত্র জানায়, বাঘাইছড়ি পৌর নির্বাচনে বিএনপির দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলেন, উপজেলা বিএনপির সভাপতি ওমর আলী, বর্তমান মেয়র আলমগীর কবির ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক সেলিম উদ্দিন বাহার। জেলা বিএনপির একটি প্রতিনিধি দল বাঘাইছড়ি উপজেলায় সফর করে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের স্বাক্ষাতকার গ্রহণ ও মাঠ জরিপ শেষে মনোনয়ন প্রক্রিয়া শেষ করেন বলে জানান জেলা বিএনপির সভাপতি মো. শাহ আলম।

এর আগে শনিবার আওয়ামী লীগ থেকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয় জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য জাফর আলীকে।

১৮ ফেব্রুয়ারী বাঘাইছড়ি পৌরসভার দ্বিতীয় নির্বাচনের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।




বাঘাইছড়ি পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত

Jafor Ali copy

নিজস্ব প্রতিবেদক:

রাঙামাটির বাঘাইছড়ি পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে আওয়ামী লীগ। জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মো. জাফর আলীকে মেয়র প্রার্থী হিসেবে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। শনিবার পার্বত্য নিউজকে এ বিষয়টি নিশ্চিত করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজি মো. মুছা মাতাব্বর।

বৃহস্পতিবার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দীপংকর তালুকদারের বাসভবনে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের স্বাক্ষাতকার শেষে শীর্ষ নেতাদের বৈঠকের পর নির্বাচনী কমিটির সুপারিশে কেন্দ্র থেকে মনোনয়ন নিশ্চিত করা হয়।

বাঘাইছড়ি পৌর সভা নির্বাচনে মেয়র পদে যারা আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলেন তারা হলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি হাজি আব্দুশ শুক্কুর, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য জাফর আলী খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলী হোসেন, বাঘাইছড়ি পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও গতবারের দলীয় প্রার্থী মো. জমির উদ্দিন ও উপজেলা যুবলীগ সভাপতি শাহরিয়ার হোসেন ।

এদিকে জাফর আলী দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার খবরে উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মাঝে ব্যবপক উৎসাহ উদ্দীপনা দেখা দিয়েছে। রাঙামাটি শহর থেকে বাঘাইছড়ি যাওয়ার পথে জাফর আলীকে উপজেলার ৯কিলোমিটার এলাকা থেকে মোটর সাইকেল র‌্যালি করে নিয়ে যায় নেতা কর্মীরা। সন্ধ্যায় উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয় চত্বরে তাৎক্ষনিক সংবর্ধণার আয়োজন করা হয়।

তবে দলীয় মনোনয়নকে কেন্দ্র করে উপজেলা আওয়ামী লীগের একটি অংশে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে। মনোনয়ন’র পূর্বাভাস পাওয়ার পর শুক্রবার ভোর রাতে উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয় ভাংচুর করা হয়। এ ঘটনার জন্য মনোনয়ন বঞ্চিত একটি গ্রুপকে দায়ি করছে আওয়ামী লীগের সাধারণ নেতা কর্মীরা। এ ঘটনায় বাঘাইছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মো. গিয়াস উদ্দিন অজ্ঞাতনামা ১০ব্যক্তিকে আসামি করে শুক্রবার বিকেলে বাঘাইছড়ি থানায় মামলা দায়ের করেন।

১৮ ফেব্রুয়ারি বাঘাইছড়ি পৌরসভার নির্বাচনের ভোট গ্রহণ করা হবে।




পৌর নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বাঘাইছড়ি আওয়ামী লীগের কোন্দল চাঙ্গা, দলীয় কার্যালয় ভাংচুর

 

Baghaichari Pic copy

নিজস্ব প্রতিবেদক:

১৮ফেব্রুয়ারী অনুষ্ঠিতব্য বাঘাইছড়ি পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আবারও চাঙ্গা হয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দলীয় কোন্দল। দলীয় মনোনয়নকে কেন্দ্র করে উত্তাপ ছড়িয়ে পড়েছে কর্মী সমর্থকদের মাঝে। দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাথে জেলা কমিটির বৈঠকের পরের দিন উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয় ভাংচুর করা হয়েছে।

দলীয় সূত্র জানায় শুক্রবার ভোর রাত সাড়ে তিনটার দিকে একদল মোটরসাইকেল আরহী উপজেলার বাঘাইছড়ির চৌমুহনীর কলেজ রোডে উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয় ভাংচুর করে পালিয়ে যায়। এতে কার্যালয়ে জানালা ও থাই গ্লাস ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ ঘটনায় উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন আল মামুন বাদি হয়ে বাঘাইছড়ি থানায় মামলা দায়ের করে। ঘটনার খবর পেয়ে সকাল হতেই নেতাকর্মীরা ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর লোকজনও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

এদিকে এ ঘটনার পর থেকে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। উপজেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা মনে করছে আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটতে পারে। উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আব্দুর শুক্কুর জানান, এ ব্যাপারে আমরা আমাদের দলের নীতি নির্ধারক জেলা সভাপতি দীপংকর তালুকদারকে জানিয়েছি। তিনি আইনানুগ ব্যাবস্থা নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।

এদিকে বৃহষ্পতিবার রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে বাঘাইছড়ি পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাথে বৈঠক করে তাদের স্বাক্ষাতকার নেয়া হয়েছে। সূত্র জানায়, ওই বৈঠকের সুপারিশ সহকারে কেন্দ্রে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের নাম পাঠানো হবে। এর প্রেক্ষিতে কেন্দ্র থেকে শিঘ্রই দলীয় প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হবে।

বৈঠকে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি হাজি আব্দুশ শুক্কুর, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য জাফর আলী খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলী হোসেন, বাঘাইছড়ি পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও গতবারের দলীয় প্রার্থী মো. জমির উদ্দিন ও উপজেলা যুবলীগ সভাপতি শাহরিয়ার হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, জেলা আওয়ামী লীগের এ বৈঠকের পর থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী সমর্থকদের মধ্যে বিভিন্ন প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। আবারও চাঙ্গা হতে শুরু করে দলীয় কোন্দল। নির্বাচন যত ঘনিয়ে আসবে আওয়ামী লীগের এ কোন্দল আরও চরম আকার ধারণ করবে বলেও আশঙ্কা করছে সাধারণ কর্মীরা। এতে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে উৎসাহের পাশাপাশি আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ছে।

উল্লেখ্য, নব গঠিত বাঘাইছড়ি পৌরসভায় দ্বিতীয়বারের মতো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ১৮ফেব্রুয়ারী। বর্তমানে এ পৌরসভায় মেয়রের দায়িত্ব পালন করছে স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচিত পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি আলমগীর কবির। বাঘাইছড়ি পৌর সভায় বর্তমান ভোটারের সংখ্যা ১০১১৭।




চাঁদা না দেয়ায় বাসের সুপারভাইজার ও হেলপারকে মারধর করেছে উপজাতীয় সন্ত্রীরা

diginala

পার্বত্যনিউজ রিপোর্ট: চাঁদা না দেয়ায় উপজাতীয় সন্ত্রাসীরা গাড়িরর হেলপার এবং সুপারভাইজারকে পিটিয়েছে। শনিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে খাগড়াছড়ির জীপ সমিতির যাত্রীবাহী বাসটির সুপারভাইজার নয়ন ও হেলপার আবুবক্করকে পিটিয়ে আহত করে উপজাতীয় সন্ত্রাসীরা।

ঘটনাটি ঘটেছে মারিশ্যা টু দীঘিনালা পথে নয় কিলো নামক স্থানে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, শনিবার খাগড়াছড়ি জীপ সমিতির যাত্রীবাহী গাড়িটি ছাদে করে রডসহ কিছু মালামাল নিয়ে খাগড়াছড়ি থেকে বাঘাইছড়ি (মারিশ্যা) যাচ্ছিল।গাড়িটির নাম্বার চট্টমেট্রো-জ-১১-০২৭৯। সন্ধ্যা ৬টার দিকে নয় কিলো নামক স্থানে পৌঁছালে উপজাতীয় সন্ত্রাসীরা গাড়িটি থামিয়ে চাঁদা দাবি করে।

রডের মালিক গাড়িতে না থাকায় হেলপার চাঁদা দিতে অপারগতা জানায়। এ সময় সন্ত্রাসীরা মালিককে ফোন দিয়ে ৭ হাজার টাকা চাঁদা দেয়ার দাবি করে। মালিক ৫শ’ টাকা দিতে বলায় সন্ত্রাসীরা গাড়ির হেলপার এবং সুপারভাইজারকে বেদম মারপিট করে।

জানা গেছে, নয় কিলো জায়গাটি উপজাতীয় সন্ত্রাসীদের চাঁদাবাজির একটি অন্যতম স্পট।এখান দিয়ে যেকোনো পণ্য বাঘাইছড়ি নেয়ার পথেও চাঁদা দিতে হয়, আবার বাঘাইছড়ি থেকে খাগড়াছড়ি যেতেও সন্ত্রাসীদের চাঁদা দিতে হয়।ইতিপূর্বে নিরাপত্তাবাহিনী কয়েকবার অভিযান চালিয়ে নয় কিলো এলাকা থেকে কয়েক চাঁদাবাজকে গ্রেফতার করেছে। কিন্তু তারপরও এখানে সন্ত্রাসীদের দৌড়াত্ম্য কমছে না বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।




রাঙামাটিতে ইউপিডিএফ কর্তৃক জেএসএস সংস্কারের দুই কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা

%e0%a6%be%e0%a6%be%e0%a6%be%e0%a6%be

নিজস্ব প্রতিবেদক:

(আপডেইট)

বাঘাইছড়ি উপজেলার বঙ্গলতলি ইউনিয়নের হাগলাছড়া গ্রামে জেএসএস সংস্কারের দুই কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে ইউপিডিএফ সন্ত্রাসীরা। মঙ্গলবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে বলে বিশ্বস্ত সূত্র নিশ্চিত করেছে।

জেএসএস সংস্কার দলের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি সূত্র পার্বত্যনিউজকে জানান, বাঘাইছড়ি উপজেলার বঙ্গলতলী ইউনিয়ন যুব সমিতির একটি দল মঙ্গলবার পূর্ব হাগলছড়ার একটি বিয়ে বাড়িতে বিয়ের কাজ করতে শ্রমিক হিসাবে গিয়েছিল। সেখান থেকে ইউপিডিএফের সশস্ত্র দল তাদের অপহরণ করে নিয়ে যায়। এবং উত্তর হাগলছড়া ঝিরির পাশে জবাই করে হত্যা করে লাশ পুঁতে গোপন করার চেষ্টা করে।

পূর্বের খবরে তাদের গুলি করে হত্যার কথা বলা হলেও লাশের শরীরে বিভিন্ন ধারালো অস্ত্রের কোপের দাগ ও জবাই করে হত্যার সুস্পষ্ট চিহ্ন দেখার পর নিশ্চিত হওয়া গেছে তাদের গুলি করা হয়নি। নিহত দুই জানের নাম জানা গেছে। তারা হচ্ছে,  যুদ্ধ চন্দ্র চাকমা(৩৫) ও নয়ন জ্যোতি চাকমা (৩২)। তারা জেএসএস সংস্কার দলের যুব সংগঠনের স্থানীয় কর্মী।

সকা্লে খবর শোনার পর নিরাপত্তা বাহিনী ঘটনাস্থলে তল্লাসি চালিয়ে লাশ উদ্ধার করে। রাঙামাটি পুলিশ সুপার সাঈদ তারিকুল হাসান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,  এ ঘটনায় সাথে কারা জড়িত তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এবিষয়ে বাঘাইছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল কালাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,  এ ঘটনাটি শুনার পর আমরা নিরাপত্তা বাহিনী ঘটনাস্থলে যায় ঘটনাস্থলটি গহীন জঙ্গলে হওয়ায় আমাদের পৌছাতে অনেক সময় লাগছে এবং লাশ ২টি উদ্ধার করে নদী পথে আনা হচ্ছে, আনতে সন্ধ্যা নাগাত লাগতে পারে এবং লাশগুলো এনে ময়না তদন্তের জন্য খাগড়াছড়ি জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে আর ঘটনার সাথে কারা জড়িত তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে তবে এখন পর্যন্ত কেউ কোন অভিযোগ করেনি।

তবে ইউপিডিএফ নেতা জুয়েল চাকমা এ ঘটনায় তাদের সংশ্লিষ্টতা অস্বীকার করেছেন। ঘটনাস্থলের আশে পাশে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

 

 




বাঘাইছড়িতে ইউপিডিএফের গুলিতে জেএসএস সংস্কারের ২ কর্মী নিহত

খুন

বাঘাইছড়ি প্রতিনিধি:

বাঘাইছড়ি উপজেলার বঙ্গলতলি ইউনিয়নের হাগলাছড়া এলাকায় ইউপিডিএফের গুলিতে জেএসএস সংস্কারের দুই কর্মী নিহত। মঙ্গলবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে বলে বিশ্বস্ত সূত্র নিশ্চিত করেছে।

জেএসএস সংস্কার দলের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি সূত্র পার্বত্যনিউজকে জানান, বাঘাইছড়ি উপজেলার বঙ্গলতলী ইউনিয়ন যুব সমিতির একটি দল মঙ্গলবার রাত আড়াইটার দিকে সাংগঠনিক কাজ শেষে ফিরছিল। এসময় উক্ত এলাকায় ইউপিডিএফের সশস্ত্র কর্মীদের সাথে তাদের মুখোমুখি হয়ে গেলে ইউপিডিএফ কর্মীরা তাদের উপর গুলি চালালে ঘটনাস্থলেই যুদ্ধ চন্দ্র চাকমা(৩৫), ও নয়ন চাকমা (৩২) নামে তাদের দুই কর্মী নিহত হয়েছে।

তবে স্থানীয় ইউপিডিএফ সূত্র এ ঘটনায় তাদের সংশ্লিষ্টতা অস্বীকার করেছে।

স্থানীয় নিরাপত্তা বাহিনীর সূত্রগুলো এ ঘটনা শুনেছেন বলে পার্বত্যনিউজকে জানিয়েছেন। তারা জানিয়েছেন, লাশ উদ্ধারের উদ্দেশ্যে ঘটনাস্থলে নিরাপত্তা বাহিনী পাঠানো হয়েছে।

বিস্তারিত আসছে….

 




‘শান্তিচুক্তির মাধ্যমেই পাহাড়ে দুই যুগের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের অবসান হয়েছে’

2-12

বাঘাইছড়ি প্রতিনিধি/সাজেক প্রতিনিধি:

ঐতিহাসিক শান্তিচুক্তির ১৯তম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে রাঙ্গামাটি বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেকে ‘দি বেবি টাইগাসর’ বাঘাইহাট জোনের আয়োজনে শুক্রবার সকাল ০৯ টায় বণার্ঢ্য র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময়  বণার্ঢ্য র‌্যালিতে অংশ গ্রহন করেন বাঘাইহাট জোনের উপ অধিনায়ক মঈনুল ইসলাম,সাজেক থানার অফিসার ইনচার্জ নুরুল আনোয়ার, সাজেক ইউপি চেয়ারম্যান নেলশন চাকমা, বঙ্গলতলী ইউপি চেয়ারম্যান জ্ঞানরঞ্জন চাকমা ও রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ, শিক্ষক পেশাজীবি এবং বিভিন্ন বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীসহ সাজেক এলাকার হাজারের অধিক লোকজন র‌্যালিতে অংশ নেয়। র‌্যালিটি বাঘাইহাট জোন সদর থেকে শুরু করে বাঘাইহাট বাজার ও নার্সরী পাড়া প্রদক্ষিণ করে এবং আবার র‌্যালিটি বাঘাইহাট জোন সদরে এসে আলোচনা সভায় মিলিত হয়।

আলোচনা সভার শুরুতেই শান্তিচুক্তির পূর্ববর্তী ও পরবর্তী অবস্থা এবং পার্বত্য এলাকার উন্নয়ন সম্পর্কে একটি প্রামান্য চিত্র দেখানো হয়।

এ সময় আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন বাঘাইহাট জোনের জোন অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার সিদ্দীকী(পিএসসি) এবং বক্তব্য রাখেন বাঘাইহাট জোনের উপ-অধিনায় মঈনুল ইসলাম(পিএসসি), সাজেক ইউপি চেয়ারম্যান নেলশন চাকমা, বঙ্গলতলী ইউপি চেয়ারম্যান জ্ঞানরঞ্জন চাকমা, বাঘাইহাট বাজার কমিটির সভাপতি ডা.নাজিম, এলাকার প্রবীন মুরুব্বী বিমল কান্তি চাকমা প্রমূখ।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, শান্তিচুক্তির মাধ্যমেই পাহাড়ে দুই যুগের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের অবসান হয়েছে। শান্তিচুক্তির পরে পাহাড়ের জনগণের জীবন যাত্রার ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে এবং শান্তি বিরাজ করছে। এ উন্নয়ন ও শান্তিচুক্তির ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখার আহ্বানও জানান।

শান্তিচুক্তির ১৯তম বর্ষপূতি উপলক্ষে বিকাল ৩টায় বাঘাইহাট জোন সদর মাঠে  প্রীতি ফুটবল টুর্ণামেন্ট’র আয়োজন  করা হয়। টুর্নামেন্টে ‘বাঘাইহাট ফুটবল একাদশ’ বনাম ‘বাঘাহাট জোন ফুটবল একাদশ’ প্রীতি ফুটবল টুর্ণামেন্টে অংশগ্রহন করে। উক্ত খেলায় ‘বাঘাইহাট ফুটবল একাদশ’র অধিনায়কের নেতিৃত্বদেন বাঘাইহাট জোন অধিনায়ক  এবং ‘বাঘাহাট জোন ফুটবল একাদশ’র নেতিৃত্ব দেন জোন উপ-অধিনায়ক।

খেলায় হাড্ডা হাড্ডি লড়াইয়ে ২-২ গোল হয় এবং সন্ধ্যা হয়ে যাওয়ায় খেলাটি ড্র করে শেষ করা হয় পরে খেলোয়ারদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করা হয়।

অপরদিকে শুক্রবার সকাল ৯টায় বিজিবি মারিশ্যা জোনের উদ্যোগে কাচালং কলেজ প্রাঙ্গন হতে এক বর্ণাঢ্য র‍্যালী শুরু হয়ে বাঘাইছড়ি উপজেলা গিয়ে শেষ হয়। পরে র‍্যালি শেষে উপজেলা মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় ।অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিজিবি মারিশ্যা জোনের উপ অধিনায়ক মেজর এসএম শাহিনুল ইসলাম, বিশেষ অতিথি হিসেবে বাঘাইছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়াম্যান বড়ঋষি চাকমা, বাঘাইছড়ি পৌর মেয়র আলমগীর কবির, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সুমিতা চাকমা, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক গিয়াস উদ্দীন আল মামুন, কাচালং কলেজের অধ্যক্ষ দেব প্রসাদ দেওয়ান, কাচালং উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক সিরাজুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে স্হানীয় প্রশাসনের বিভিন্ন কর্মকর্তা কর্মচারীসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তি ও ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ উপস্হিত ছিলেন। পরে বিকাল তিন ঘটিকায় এক প্রীতি ফুটবল প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।




বাঘাইছড়িতে জেএসএস ও ইউপিডিএফ’র বন্দুকযুদ্ধ

বন্দুকযুদ্ধ

বাঘাইছড়ি প্রতিনিধি:

রাঙ্গামাটি জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলার বালুঘাট নামক স্থানে উপজাতি সংগঠন জেএসএস (সংস্কার) ও ইউপিডিএফ এর সাথে এক বন্দুকযুদ্ধের খবর পাওয়া গেছে। রবিবার আনুমানিক সকাল ১১ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, বন্দুকযুদ্ধে রূপন চাকমা নামের সংস্কারের একজন কর্মী গুলীবিদ্ধ হন। খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক বাঘাইহাট সেনা জোনের  সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছলে সেনাবাহিনীর অবস্থান টের পেয়ে বন্দুকধারিরা পালিযে যায়।

মারিশ্যা বিজিবি জোনের জোনএন্ডসিও আনিস’র বরাতে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করা হয়।