নিরাপত্তাবাহিনীর হস্থান্তরের ৬ মাসেই খাগড়াছড়ি-দীঘিনালা সড়কের বেহাল দশা

Khagrachari Road Pic 01 copy

নিজস্ব প্রতিবেদক:

দীর্ঘ দিন সংস্কার না হওয়ায় খাগড়াছড়ি-দীঘিনালা সড়কটি যানবাহন চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সড়কের  বিভিন্ন স্থান খানাখন্দে ভরে গেছে। কোথাও কোথাও বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। আবার কোথাও পিচ-ঢালাই উঠে গেছে। প্রতিদিন শত শত যানবাহন চলছে হেলে-দুলে। যাত্রীরা শিকার হচ্ছে সীমাহীন দুর্ভোগে। সব চেয়ে বিপাকে পড়ছে সাজেকমুখী পর্যটকরা।

সাজেক দেশের অন্যতম পর্যটক স্পর্ট হয়ে উঠায় খাগড়াছড়ি-দীঘিনালা সড়কটি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন শত শত পর্যটকবাসীর গাড়ী সাজেক যাচ্ছে। এছাড়া  রাঙামাটির বাঘাইছড়ি ও লংগদু উপজেলার যানবাহনগুলোও সড়কটি দিয়ে চলাচল করছে। অথচ গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটি দীর্ঘ দিন ধরে সংস্কারবিহীন অবস্থায় পড়ে রয়েছে।

Khagrachari Road Pic 2 copy

জানা গেছে, খাগড়াছড়ি-দীঘিনালা-সাজেক সড়কটি নিরাপত্তাবাহিনীর ইসিবি’র তৈরী। এতদিন তারা নিয়মিত সংস্কারের দায়িত্বে ছিলেন। ২৭ জুলাই ২০১৬ খাগড়াছড়ি থেকে বাঘাইহাট পর্যন্ত ৩২ কিলোমিটার রাস্তা সড়ক বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

বুধবার বিকালে সরেজমিন দেখা গেছে, খাগড়াছড়ি থেকে বাঘাইহাট পর্যন্ত অধিকাংশ সড়কেই গর্তের সৃষ্টি হয়ে মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। প্রায় স্থানে খানাখন্দে ভরা। তবে কোথও কোথাও ইট ফেলে গর্ত ভরাটের ব্যর্থ চেষ্টা চলছে।

খাগড়াছড়ি-দীঘিনালা সড়কের ভৈরভা এলাকার বাসিন্দা জ্ঞান চাকমা জানান, রাস্তা খারাপ হওয়ার কারণে ছাত্র-ছাত্রীরা সময় মতো বিদ্যালয়ে পৌঁছতে পারছে না।

ট্রাক চালক আবুল হোসেন জানান, ভাঙা রাস্তায় গাড়ী চালাতে গিয়ে প্রায়ই গাড়ীর যন্ত্রপাতি নষ্ট হচ্ছে। বাস চালক মন্টু মিয়া জানান, রাস্তার বেহাল অবস্থার কারণে ঢাকা থেকে খাগড়াছড়ি হয়ে বাঘাইছড়ি ও লংগদুগামী যাত্রীরা ভোর রাতে এসে প্রচণ্ড ঝাঁকুনিতে অসুস্থ হয়ে পড়ছে।

সড়ক ও জনপথ বিভাগ খাগড়াছড়ির নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মোসলেহ উদ্দিন চৌধুরী বলেন, সড়কটি সংস্কারে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে টেন্ডার আহ্বান করা হয়েছে।




দীঘিনালায় পুলিশিং কমিটি ও জঙ্গি বিরোধী সমাবেশ

নিজস্ব প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ির দীঘিনালা থানায় পুলিশিং কমিটি ও জঙ্গি বিরোধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার দীঘিনালা থানার সম্মেলন কক্ষে অফিসার ইনচার্জ মো. মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ সুপার মো. মজিদ আলী বিপিএম-সেবা।

সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব মো. জসিম, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম রাজু,  কবাখালী ইউনিয়ন কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি মো. মাহবুব আলম, মধ্যবেতছড়ির মো. আরিফ, মাহমুদা বেগম লাকী, নন্দু কুমারদে প্রমূখ।

এর আগে সভার শুরুতে আলহাজ্ব মো. জসিমকে সভাপতি এবং জাহাঙ্গীর আলম রাজুকে সাধারণ সম্পাদক করে উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটি গঠন করা হয়।




দীঘিনালায় উন্নয়ন মেলার সমাপনী দিনে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

dighinala-picture-11-01-2017
দীঘিনালা প্রতিনিধি:
দীঘিনালায় উন্নয়ন মেলা ২০১৭ মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে। বুধবার উপজেলা কমপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত তিনদিন ব্যাপী উন্নয়ন মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন স্থানীয় বিভিন্ন শিল্পীরা।

এর আগে অনুষ্ঠিত হয় আলোচনা সভা। আলোচনা সভায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিজ এলিশ শারমিন’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নব কমল চাকমা।

সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সুসময় চাকমা, দীঘিনালা প্রেসক্লাবের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম রাজু, ২ নং বোয়ালখালী ইউপি চেয়ারম্যান চয়ন বিকাশ চাকমা এবং উপজেলা ইন্সট্রাক্টর মো. মাইনুদ্দিন।

মেলায় অংশ নেয়া প্রতিটি স্টল ও বিভাগীয় দফতরকে সম্মাননা পদক দেয়া হয়। আলোচনা সভার পর মনোজ্ঞ সাংস্কৃতি অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন, বিশিষ্ঠ সঙ্গীত শিল্পী নান্টু আচার্য,শোভা এবং মুন্নি।




দীঘিনালায় বঙ্গবন্ধু স্মৃতি ক্রিকেট টুর্ণামেন্ট’র পুরস্কার বিতরণ

দীঘিনালা প্রতিনিধি:

দীঘিনালা উপজেলায় বঙ্গবন্ধু স্মৃতি ক্রিকেট টুর্ণামেন্ট’র পুরস্কার বিতরণ করা হয়েছে। মঙ্গলবার উপজেলার উত্তর মিলনপুর মাঠে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায়, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ী দলের হাতে পুরস্কার তুলে দেন, কবাখালী ইউপি চেয়ারম্যান মো. জাহাঙ্গির হোসেন।

পুরস্কার বিতরনী সভায় কবাখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মো. জামাল হোসেনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মো. মাহবুব আলম, জেলা মৎসজীবী লীগের সদস্য সচিব মো. বিল্লালহোসেন, উপজেলা মৎসজীবী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. সোহাগ মিলন বকুল, কবাখালী ইউনিয়ন যুব লীগের সভাপতি মো. আবদুল আলিম, সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মো. বাচ্চু মিঞা এবং ছাত্রলীগের সভাপতি মো. সাইফুল ইসলাম।

উল্লেখ্য, ২৫ ডিসেম্বর থেকে শুরু হওয়া টুর্ণামেন্টে সাতটি দল অংশগ্রহণ করে। পরে মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত ফাইনাল খেলায় ফ্লাওয়ার একাদশকে হারিয়ে মিলনপুর ছাত্র একাদশ বিজয় লাভ করেন।




দীঘিনালায় শুরু হয়েছে তিনদিন ব্যাপী উন্নয়ন মেলা

dihginala-news-picture-09-01-2017-copy

নিজস্ব প্রতিনিধি:

দীঘিনালায় উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলা-২০১৭। সোমবার উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে মেলা উদ্বোধন করেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বাবু নব কমল চাকমা।

এসময় মেলা উপলক্ষে আয়োজিত সভায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিজ এলিশ শরমিন এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, দীঘিনালা থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি)মো. মিজানুর রহমান, উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ড. জওহর লাল চাকমা, দীঘিনালা প্রেসক্লাব সভপতি জাহাঙ্গীর আলম রাজু, এবং উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের ইন্সট্রাক্টর মো. মাইনুদ্দিন।

মেলায় সরকারী ও বেসরকারী দপ্তর মিলে ৩২টি স্টল মেলায় অংশগ্রহণ করে। আলোচনা সভা শেষে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নব কমল চাকমা এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিজ এলিশ শরমিন মেলার বিভিন্ন স্টল পরিদর্শন করেন।

 




দীঘিনালায় শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ

dighinala-picture-02-01-2017-copy

দীঘিনালা প্রতিনিধি:

দীঘিনালায় ‘আল কারীম ফাউন্ডেশন’ নামের একটি সেচ্ছাসেবী সংগঠন এলাকার গরীব ও দুস্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেছে। সোমবার দীঘিনালা থানা কমপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে শীতবস্ত্র বিতরণ কার্যক্রম উদ্ধোধন করেন, থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মিজানুর রহমান।

সভায় ‘আল কারীম ফাউন্ডেশন’ এর সভাপতি মো. বদিউজ্জামান এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, দীঘিনালা প্রেসক্লাবের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম রাজু, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপজেলা প্রোগ্রাম অফিসার মো. সাইদুল ইসলাম, আল কারীম ফাউন্ডেশনের সহ-সভাপতি জসিম উদ্দীন, সহ-সভাপতি শহিদুল ইসলাম, সাধারণ সম্পদাক সামছুল হক পিসি, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. কামরুজ্জামান সুমন।

সভায় উপস্থিত ৪০জন গরীব ও দুস্থ শীতার্তদের মাঝে একটি করে কম্বল বিতরণ করা হয়।




দীঘিনালায় আওয়ামী লীগের সম্মেলনে বিএনপি’র অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী যোগদান

dighinala-picture-1-28-12-2016-1-copy

দীঘিনালা প্রতিনিধি:

দীঘিনালা উপজেলার বাবুছড়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের সম্মেলনে বিএনপি’র অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী আওয়ামী লীগে যোগদান করেছে। বুধবার বাবুছড়া বাজারে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে বাবুছড়া ই্উনিয়ন বিএনপি’র সিনিয়র সহসভাপতি মো. আবুললিডার ও ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি জাহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে বিএনপি’র অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোহাম্মদ কাশেমের হাতে নৌকা তুলে দিয়ে আওয়ামী লীগে যোগদান করেন।

পরে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে বাবুছড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. মুজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, দীঘিনালা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোহাম্মদ কাশেম। সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিদ্যুৎবরণ চাকমা, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও কবাখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা আমিনুল ইসলাম, এন ইসলাম বাঁচা, উপজেলা আওয়ামী যুব লীগের সভাপতি মো. মোজাফ্ফর  হোসেন এবং সাংগঠনিক সম্পাদক  মো. নওশাদ পাটোয়ারী প্রমূখ।

সম্মেলনে মো. মুজিবুর রহমানকে সভাপতি, তপন বিশ্বাসকে সাধারন সম্পাদক, আবুল মঞ্জুর ও জাহিদুল আলমকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ৬৭ সদস্য বিশিষ্ট বাবুছড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন করা হয়।




পার্বত্যাঞ্চলে শান্তি-সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠা করাই মূল লক্ষ্য

dighinala-picture-02-27-12-2016-copy

দীঘিনালা প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ি রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সম মাহবুব উল আলম বলেছেন, আমরা পার্বত্যাঞ্চলে শান্তি-সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছি। এখানকার উন্নয়ন বাধাগ্রস্থ করতে কিছু দৃষ্কৃতিকারী কাজ করছে, আমরা তাদের বিপক্ষে। তাদের বাধা-বিপত্তি উপেক্ষা করেই আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। এখানকার জীবন-মান উন্নয়নে এবং স্থানীয় উৎপাদিত পণ্য সহজে বাজারজাত করার লক্ষে নতুন নতুন বাজার সৃষ্টি করতে হবে। পাশাপাশি বন্ধ হয়ে যাওয়া কবাখালী বাজার, বাঘাইহাট বাজার, গঙ্গারাম বাজার চালু করতে হবে। এতে করে স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত পণ্যের সঠিক মূল্য পাওয়া যাবে, লাভবান হবে স্থানীয় পাহাড়ি-বাঙ্গালীরা। এসময় তিনি সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার জন্য আহ্বান জানান।

মঙ্গলবার দীঘিনালা জোনে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় জোন অধিনায়ক, লেফটেন্যান্ট কর্ণেল ফেরদৌস জিয়াউদ্দিন মাহমুদ’র সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, ৫৩ নং কবাখালী মৌজার হেডম্যান দীপংকর দেওয়ান, ২নং বোয়ালখালী ইউপি চেয়ারম্যান চয়ন বিকাশ চাকমা, দীঘিনালা বাজার চৌধুরী জেসমিন চাকমা, কবাখালী বাজার পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. মাহবুব আলম।

এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য শতরুপা চাকমা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান গোপাদেবী চাকমা, দীঘিনালা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ কাশেম, দীঘিনালা প্রেসক্লাবের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম রাজু, উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি মোসলেম উদ্দীন, ১নংমেরুং ইউপি চেয়ারম্যান মো. রহমান কবির রতন, ৩নং কবাখালী ইউপি চেয়ারম্যান মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, ৪নং দীঘিনালা ইউপি চেয়ারম্যান চন্দ্র রঞ্জণ চাকমা, উপজেলা জনসংহতি সমিতির ক্রিড়া ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক নলেজ চাকমা জ্ঞান প্রমূখ।




দীঘিনালায় নবীন সৈনিকদের মৌলিক প্রশিক্ষণ শেষে শপথ গ্রহণ

untitled-1-copy

 নিজস্ব প্রতিবেদক:

সেনাবাহিনীর নবীন সৈনিকদের মৌলিক প্রশিক্ষণ শেষে শপথ গ্রহণ ও কুচকাওয়াজ খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালায় অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার দুপুরে মাইনী এ্যাডহক ফরমেশন রিক্রুটিং ট্রেনিং সেন্টারের প্যারেড গ্রাউন্ডে শপথ গ্রহণ ও  কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়। সেনাবাহিনীর চট্টগ্রাম অঞ্চলের জিওসি মেজর জেনারেল জাহাঙ্গীর কবির তালুকদার প্রধান অতিথি হিসেবে  কুচকাওয়াজ পরিদর্শন করেন। নবীন সৈনিকরা স্ব স্ব ধর্মের গ্রন্থে হাত রেখে দেশ মাতৃকার জন্য জীবন উৎসর্গ ,শৃঙ্খলা ও দায়িত্ব পালনের শপথ গ্রহণ করেন।

এর মধ্য দিয়ে প্রথমবারের মত এ সেন্টার থেকে প্রায় ৭শ ৮২ জন সৈনিক দীর্ঘ ৬ মাসের মৌলিক ট্রেনিং শেষে পদাতিক ডিভিশনে সৈনিক হিসেবে যোগদিলেন।

প্রশিক্ষণে  সৈনিক রফিকুল হাসান সেরা নৈপুন্য প্রদর্শন করে  চৌকষ সৈনিক প্রথম, রেজাউল করিম দ্বিতীয় হয়। ১২ কন্টিজেন্সের ৬ ব্যাটালিয়নের মধ্যে আলপা ব্যাটালিয়ন  চ্যাম্পিয়ন, জেল্টা ব্যাটালিয়ন  রানাস আপ হয়ে প্রধান অতিথির কাছ থেকে পুরস্কার ও ট্রফি গ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানে খাগড়াছড়ির রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল স ম মাহবুব উল আলম, গুইমারা রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল কামরুজ্জামান, প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের প্রধান প্রশিক্ষক লে. কর্ণেল তাজুল ইসলামসহ উর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তা, সৈনিকদের আত্বীয় স্বজনসহ গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।




দীঘিনালায় ইউপিডিএফ’র প্রশিক্ষণ ক্যাম্প ধবংস করেছে নিরাপত্তাবাহিনী

khagrachari-picture02-26-12-2016-copy
নিজস্ব প্রতিবেদক:

খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট’র(ইউপিডিএফ) একটি সশস্ত্র প্রশিক্ষণ ক্যাম্প ধবংস করেছে নিরাপত্তাবাহিনী।

২৫ ডিসেম্বর ভোর রাতে দীঘিনালা জোন কমান্ডার লে.কর্ণেল ফেরদৌস জিয়াউদ্দিন মাহমুদ’র নেতৃত্বে টাস্ক ফোর্স এ প্রশিক্ষণ ক্যাম্প ধবংস করেন।

নিরাপত্তা বাহিনীর সূত্রে জানা গেছে, দীঘিনালা উপজেলার বাবুছড়া ইউনিয়নের কলেন্দ্র কার্বারী পাড়া থেকে ৫ কিলোমিটার উত্তরে গহিন অরণ্যে ইউপিডিএফ’র একটি সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের অবস্থান গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে নিশ্চিত হয়ে এ অভিযান চালানো হয়। এ ক্যাম্পে ৪০-৫০ জনের একটি দল প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেছে মর্মে নিরাপত্তা বাহিনীর কাছে তথ্য ছিল।

সূত্রটি আরো জানায়, নিরাপত্তাবাহিনী রণকৌশলগতভাবে সুসজ্জিত হয়ে সশস্ত্র ক্যাম্পে পৌঁছে দেখা যায়, প্রশিক্ষণ ক্যাম্পে সামরিক কায়দায় ৩টি এলএমজি পোষ্ট, ৪টি ব্যারাক, একটি রন্ধন শালা, একটি রশদ ভান্ডার, একটি পর্যবেক্ষণ চৌকি ও অনেকগুলো পেরিমিটার চৌকি দেখতে পায়। পরে ইউপিডিএফ’র প্রশিক্ষণ ক্যাম্পের সকল স্থাপনা ধবংস করা হয়।

অভিযোগ রয়েছে, ব্যাপক চাঁদাবাজি, মুত্তিপণের জন্য অপহরণসহ বিভিন্ন ধরনের সন্ত্রাসী কার্যকলাপ পরিচালনার জন্য ইউপিডিএফ তার ক্যাডার বাহিনী গড়ে তোলার জন্য পার্বত্য চট্টগ্রামের বিভিন্ন দুর্গম এলাকায় প্রশিক্ষণ শিবির স্থাপনের চেষ্টা করছে। পার্বত্য চট্টগ্রামে নিয়োজিত নিরাপত্তা বাহিনী বিভিন্ন সময় অভিযানের মাধ্যমে এই সমস্ত প্রশিক্ষণ ক্যাম্প ধবংস করে আসছে।