থানচিতে দুই চাঁদাবাজ আটক

থানচি প্রতিনিধি:

থানচিতে দুই চাঁদাবাজকে সোমবার দুপুর ২টায় থানচি বাজার থেকে বিজিবি সদস্যরা আটক করেছে।

আটককৃতরা হলেন, পিলত ত্রিপুরা (৩৫) সিমন ত্রিপুরা (৪৫)। তাদের দুইজনের বিরুদ্ধে রুমা থানায় ২টি খুনের মামলা রয়েছে। আটকের সময় তাদের কাছ থেকে টিএলবিটি ও এএলপি সদস্যদের চাঁদার রশিদ ও বিভিন্ন ডকুমেন্ট পাওয়া গেছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বিজিবি হেডকোয়াটারে পাঠানো হয়েছে।

গোয়েন্দা ও বিজিবি সূত্রে জানা যায়, আটককৃতরা   ত্রিপুরা ন্যাশনাল পার্টি ( টিএলবিটি)  ও আরকান লিবারেশান পার্টি ( এ এল পি)’র স্বক্রিয় সদস্য। বিভিন্ন সময়  চাঁদা বাজি, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত  অভিযোগ রয়েছে।  তারা থানচির রেমাক্রী, তিন্দু, নাফাখুম, পর্যটণ স্পট গুলিতে চাঁদা সংগ্রহ করে আসছিল।




থানচিতে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের নগদ অর্থ প্রদান

Untitled-1 copy

থানচি প্রতিনিধি:

থানচির বলিপাড়া বাজারের অগ্নিকাণ্ড ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে থেকে ঢেউটিন, নগদ অর্থ, খাদ্য শস্য ও অনুসাংঙ্গিক বিতরণ করলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর (উশেসিং)এমপি।

প্রতিমন্ত্রী উপস্থিত থেকে শনিবার সকাল ১০টায় বলিপাড়া বাজার প্রাঙ্গনে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন সভা আয়োজন করেন। ভার প্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হারুন অর রশিদ’র সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন ৩৩ ব্যাটালিয়ানের কমান্ডিং অফিসার লে. কর্ণেল হাবিবুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অনির্বাণ চাকমা, জেলা পরিষদের সদস্য লক্ষী পদ দাশ, থোয়াইহ্লামং মারমা, উপজেলা চেয়ারম্যান ক্যহ্লাচিং মারমা, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. জাহাঙ্গীর আলম, বলিবাজার চৌধুরী শৈহ্লাচিং মারমা, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্পাদক নিহার বিন্দু চাকমা প্রমুখ।

সভা শেষে ৩১ ক্ষতিগ্রস্ত ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীকে এক বান করে ঢেউটিন, ৩৮ পরিবারকে ৫ হাজার টাকা করে এক লক্ষ নব্বই হাজার টাকা, ১৭ পরিবারকে ক্ষতি পরিমান উপর দুই হাজার ৫ শত টাকা করে ৪২ হাজার ৫ শত টাকা, ক্ষতিগ্রস্থ সকল পরিবারকে ২৫ কেজি করে চাল ও অানুসাংঙ্গিক সামগ্রী বিতরণ করেন ।

উল্লেখ্য ২৬ মার্চ রোববার মধ্য রাতে বলিপাড়া বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ৩৪ দোকানসহ ৩টি বসত ঘরবাড়ি  পুড়ে ছাই হয়ে যায়। ওইদিন রাত সাড়ে ১১টার দিকে বাজারের একটি কামারের দোকানের চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হলে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। এসময় একে একে দোকানগুলো পুড়ে যায়। উপজেলাটিতে ফায়ার সার্ভিসের কোন স্টেশন না থাকার কারণে প্রায় দুই ঘন্টা চেষ্টা চালানোর পর বিজিবি সদস্য ও স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। এর আগে ১৯৯৫ সালে একই বাজারের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে শতাধিক দোকান পুড়ে গিয়েছিল।




 থানচিতে পাহাড় থেকে পড়ে দুই শ্রমিক নিহত  

Untitled-1 copy

থানচি প্রতিনিধি:

থানচিতে গহীণ জঙ্গলে কাঠ ভর্তি মালবাহী গাড়ি উচু পাহাড়ে উঠার সময় কাঠের টুকরাসহ ট্রাকে থাকা দুই শ্রমিক নিচে পড়ে গিয়ে ঘটনাস্থলে  নিহত হয়। ঘাতক ট্রাক ড্রাইভার পলাতক রয়েছে। এদিকে কাঠ ব্যবসায়ীরা অসাবধানতার কারণে উচু পাহাড় থেকে পড়ে যাওয়ার ঘটনাকে ধামাচাপা দিতে নিছক সড়ক দুর্ঘটনা বলে চালিয়ে যাচ্ছে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সকালে থানচি সদর সাংগু ব্রিজ থেকে  ট্রাকটি( চট্টমেট্রো- ট ১১৭) কাইতং ম্রো পাড়া থেকে ব্যবসায়ীদের সংগৃহীত মূল্যবান কাঠ পরিবহনের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। ফেরার পথে দুপুর ২টায় থানচি রুমা অভ্যন্তরীণ কাঁচা সড়কের থাওয়াই ম্রো পাড়া নামক স্থানে পৌঁছলে উচু পাহাড় থেকে ট্রাকের থাক্কায় কাঠগুলি নিচে পড়ে যায় সেই সাথে কাঠের চাপায় পড়ে ঘটনাস্থলে দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়। ঘটনাস্থল থেকে কাঁধে বহন করে দীর্ঘ পথ পেরিয়ে অজ্ঞাতনামা কয়েকজন শ্রমিক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রধান ফটকে রেখে যায় নিহত দুই শ্রমিককে।

খবর পেয়ে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মো. মনোয়ার সাদাত নিহত দুই শ্রমিককে পর্যবেক্ষণ করে মৃত ঘোষণা করেন।

যোগাযোগ করা হলে মিবক্যা রেঞ্জের রেঞ্জ অফিসার মোখলেসুর রহমান বলেন, কাইতং পাড়া ৩৭০নং পর্দ্দা মৌজায় আমাদের কোন প্রকার জোত পারমিট ২০১৬-১৭ অর্থসালে অনুমোদন হয়নি। এবং কাঠ পরিবহন হচ্ছে সেটি আমার জানা নেই।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, কিছু লোকজন থানচি রুমা অভ্যন্তরীণ সড়কে তাদের নিজস্ব অর্থায়নের স্টেভ্যাটর’র সাহায্যে কাঁচা রাস্তা নির্মাণ করে অবৈধ পন্থা ৩৭০নং পর্দ্দা মৌজায় এলাকায় মূল্যবান চম্পাফুল, গর্জণ গাছ কেটে সাবার করে আসছে।

পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থা প্রতিনিধি দীর্ঘ তদন্তের পর মৃত ব্যক্তিদের মধ্যে একজনের পরিচয় পাওয়া গেছে, পটুয়াখালী জেলা, বাউফুল, চর আলগী গ্রামে আমির হোসেন মৃধার পুত্র মো. মজিবুর (৩৮), অপরজন অজ্ঞাতনামা।

থানচি থানা অফিসার ইনচার্জ মো. মনির হোসেন বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করে লাশ ময়না তদন্তের জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। থানচি থানা একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।




অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের দেখতে থানচি যাচ্ছেন প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর

IMG_9131-copy-300x200

থানচি প্রতিনিধি :

থানচি’র বলিপাড়া বাজারের অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের দেখতে যাচ্ছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের  প্রতিমন্ত্রী  বীর বাহাদুর (উশেসিং)এমপি । প্রতিমন্ত্রী উপস্থিত থেকে শনিবার সকাল ৯টায় ক্ষতিগ্রস্থদের ঢেউটিন, খাদ্যসশ্য ও নগদ টাকাসহ অন্যান্য ত্রাণ সমাগ্রী বিতরণ করবেন। ইতিমধ্যে প্রশাসনিকভাবে সাংবাদিক, প্রশাসনিক কর্মকর্তা, নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের পার্বত্য মন্ত্রীর আগমনের সময়সূচী প্রেরণ করা হয়েছে ।

এই উপলক্ষ্যে থানচি উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ব্যাপক নিরাপত্তাসহ ইতিমধ্যে সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। এর আগেই বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক থোয়াইহ্লামং মারমা ক্ষতিগ্রস্ত ৩৭ পরিবারের নগদ দেড় হাজার টাকা করে ৫৫ হাজার ৫শত টাকা নগদ প্রতিমন্ত্রীর পক্ষে বিতরণ করা হয়েছে ।

উপজেলা প্রশাসনিক কর্মকর্তা ইউএনও মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম জনান, শনিবার সকালে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি বলিপাড়া অগ্নিকান্ড ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সাথে কথা বলবেন এবং ক্ষতির পরিমাণ নিজেই দেখবেন। জেলা প্রশাসক ত্রাণ তহবিল থেকে ক্ষতিগ্রস্ত ৭২ পরিবারের জন্য ৩ হাজার টাকা করে দুই লক্ষ ১৬ হাজার টাকা নগদ, ৩৪ পরিবারকে একবান করে ৩৪ বান ঢেউটিন বিতরণের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে ।

এছাড়াও বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের উদ্যোগে আরো ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হবে।

গত ২৬ মে মার্চ রোববার মধ্য রাতে বলিপাড়া বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ৩৪ দোকানসহ ৩টি বসত বাড়ী পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ঔদিন রাত সাড়ে ১১টার দিকে বাজারের একটি কামারের দোকানের চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হলে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। এসময় একে একে দোকানগুলো পুড়ে যায়। উপজেলাটিতে ফায়ার সার্ভিসের কোন ষ্টেশন না থাকার কারণে প্রায় দুই ঘন্টা চেষ্টা চালানোর পর বিজিবি সদস্য ও স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এর আগে ১৯৯৫ সালে একই বাজারের ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে শতাধিক দোকান পুড়ে গিয়েছিল।




গণতান্ত্রিক মূল্যবোধে  থানচিতে `স্টুডেন্ট ক্যাবিনেট’ নির্বাচন সম্পন্ন

IMG_9172 copy

থানচি প্রতিনিধি:

শিশুকাল থেকে গণতন্ত্র চর্চা, গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ প্রত্যয়ের সারা দেশের ন্যায় থানচিতে সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ও বলিবাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের স্বতষ্ফুর্ত অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে  `স্টুডেন্ট ক্যাবিনেট’ নির্বাচন ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় বৃহস্পতিবার দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এ উপলক্ষে ক্ষুদে শিক্ষার্থী, শিক্ষক, শিক্ষিকাসহ স্বতষ্ফুর্ত উপস্থিতির মূখরিত দুই বিদ্যালয় মাঠ। সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলে। ৬ষ্ট শ্রেণীর থেকে দশম শ্রেণীর মোট ১৫জন প্রার্থীর মধ্যে নির্বাচনের ৮জন নির্বাচিত হয়। নির্বাচিত ৮জন থেকে ক্যাবিনেট সভাপতি নির্বচিত করা হবে। কেন্দ্রের  থানা অফিসার ইনচার্জ মো. আবদুর সাক্তার, পরিদর্শণ করেন।

ভোট গনণা শেষে ৮জন সদস্য নির্বাচিত ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের উদ্যেশে প্রধান শিক্ষক নূর মোহাম্মদ বলেন, শিশুকাল থেকে শিক্ষার্থীদের গতান্ত্রিক মূল্যবোধের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, অন্যের মতামতের প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শণ, বিদ্যালয়ের শিখন কার্যক্রমে শিক্ষকমণ্ডলীকে সহায়তা, শতভাগ শিক্ষার্থী ভর্তি ও ঝরে পড়া রোধে সহযোগিতা, শিক্ষার্থী, শিক্ষক, অভিবাবকদের মধ্যে সম্পৃক্ততা, বিদ্যালয়ের পরিবেশ উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ লক্ষ্যে এ নির্বাচন।




থানচিতে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে নগদ টাকা বিতরণ

B G B--
থানচি প্রতিনিধি :
বান্দরবানের থানচিতে অগ্নিকান্ড ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক থোয়াইহ্লামং মারমা পরিদর্শন করেছেন । পরিদর্শনের সময় ক্ষতিগ্রস্ত ৩৭ পরিবারের মধ্যে নগদ দেড় হাজার টাকা করে ৫৫ হাজার ৫শত টাকা অনুদান বিতরণ করা হয়েছে । বিতরণের সময় ৩৩ বিজিবি ব্যটালিয়ানে জোনাল কমাল্ডিং অফিসার লে. কর্ণেল হাবিবুর রহমান, বাজার চৌধুরী শৈহ্লাচিং হেডম্যান (বাশৈচিং), স্থানীয় আ’লীগ নেতা নিহার রঞ্জন চাকমা উপস্থিত ছিলেন ।

thow hla mong--

অনুদান বিতরণের পর সাংবাদিকদের থোয়াইহ্লামং মারমা জানান, এটি অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনা, যা কোনভাবেই কাম্য ময় । বন্যা হলে কিছুটা হলেও মালামাল পাওয়া যায় কিন্তু আগুনে পুড়ে গেলে কিছুই অবশিষ্ট থাকে না । ক্ষতিগ্রস্তদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে নিয়ে আসতে সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগ ও জেলা পরিষদ কাজ করে যাচ্ছে । শীঘ্রই দোকান ঘর উঠানোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও  তিনি জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য গত রোববার মধ্য রাতে বলিপাড়া বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ৩৪টি দোকান এবং ৩টি বসত বাড়ী পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

২৬ মার্চ রোববার মধ্য রাত সাড়ে ১১টার দিকে বাজারের একটি কামারের দোকানের চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হওয়ার পর তা দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। এসময় একে একে দোকানগুলো পুড়ে যায়।

থানচি উপজেলায় ফায়ার সার্ভিসের কোন ষ্টেশন না থাকার কারণে প্রায় দুই ঘণ্টা চেষ্টা চালানোর পর বিজিবি সদস্য ও স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। এর আগে ১৯৯৫ সালে একই বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে শতাধিক দোকান পুড়ে গিয়েছিল।

 




থানচিতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ৩৪ দোকান পুড়ে ছাই

IMG_9131 copy

থানচি প্রতিনিধি:

থানচিতে বিজিবি হেড কোয়ার্টার সংলগ্ন বলিপাড়া বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ৩৪ দোকান পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। রোববার রাত সাড়ে ১১টার দিকে বাজারের একটি কামারের দোকানের চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হলে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। এসময় একে একে দোকানগুলো পুড়ে যায়।

উপজেলাটিতে ফায়ার সার্ভিসের কোন স্টেশন না থাকার কারণে প্রায় দুই ঘন্টা চেষ্টা চালানোর পর বিজিবি সদস্য ও স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। অগ্নিকাণ্ডে প্রায় সাড়ে চার কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলেও জানিয়েছে স্থানীয়রা। এর আগে ১৯৯৫ সালে একই বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে শতাধিক দোকান পুড়ে গিয়েছিল।

স্থানীয়রা জানান , বিজিবি ৩৩ ব্যাটালিয়ান জোনে আয়োজনে রাত ১০টায় স্বাধীনতা দিবসের এক মনোজ্ঞ্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান চলছিল। তখন কেউ কেউ দোকানের চুলা বন্ধ না করে রেখে যাওয়ার ফলে চুলার আগুনে এ অগ্নিকাণ্ড ঘটে।

Untitled-2 copy

নিজ নিজ যা ছিল তা দিয়ে অনেক চেষ্টার পরও আগুন নেভানো সম্ভব হয়নি। ৩৩টি দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যাওয়ার পর মংম্যাসিং মারমার আধাপাকা দোকান পর্যন্ত গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণ আনা সম্ভব হয়েছে।

স্থানীয়রা আরও জানান, মোট ৩৪টি দোকানের মধ্যে  ৩টি দোকানে আদা, হলুদ, মরিচ, চাল ছিল প্রায় ৫০ হতে ৬০ লক্ষ টাকার, ৩টি দোকান ছিল রড, সিমেন্ট, ঢেউটিনসহ প্রায় ৭০ থেকে ৮০ লক্ষ টাকার, ২টি দোকান ছিল মোবাইল, ইলেক্ট্রনিক্স যন্ত্রাংশ সব মিলে সাড়ে চার কোটি টাকা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে দাবি করেন।

স্থানীয়রা থানচি উপজেলায় একটি ফাইয়ার সার্ভিস স্টেশন স্থাপনের জন্য সরকারের সংশ্লিষ্টদের কাছে আবেদন জানান।

এদিকে ঘটনার পর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হারুন অর রশিদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলমসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের বলেন, অনাকাঙ্খিত অগ্নিকাণ্ড ক্ষতিগ্রস্ত সকলকে প্রাথমিকভাবে ৩০ কেজি করে জিআর চাল দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাদের পূর্ণবাসনসহ সকল ধরনের সহযোগিতা করা হবে বলেও জানান অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হারুন অর রশিদ।




থানচিতে সরকারের অর্জিত উন্নয়নকে জনসম্পৃক্তকরণ সভা

IMG_6062 copy

থানচি প্রতিনিধি:

থানচিতে বর্তমান সরকারের ধারাবাহিক উন্নয়ন সাফল্য ও অর্জিত সফলতাকে জনগণকে অবহিতকরণ ও জনসম্পৃক্তকরণ লক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জেলা তথ্য অধিদপ্তরের আয়োজনে থানচির জনসেবা কেন্দ্রে (গোল ঘর) মঙ্গলবার সকাল ১১টায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ক্যহ্লাচিং মারমা।

বিশেষ অতিথি ছিলেন, ভাইস চেয়ারম্যান চসাথোয়াই মারমা, বান্দরবান জেলা তথ্য অফিসার উষামং চৌধুরী প্রমুখ।

জেলা তথ্য অফিসার উষামং চৌধুরী জানান, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উদ্যোগে বিভিন্ন সেক্টরে সরকারের অর্জিত সফলতা ও উন্নয়ন ভাবনা এবং ভিশণ ২০২১ লক্ষ্য ও অর্জন সমূহ জনগণকে অবহিতকরণ ও সম্পৃক্তকরণের লক্ষ্যে  এ সভা। এতে ২৫ জন তরুণ অংশগ্রহণ করেন।




থানচি বিএনপি’র নেতৃবৃন্দ জেলা কমিটিকে অনাস্থা প্রস্তাব

IMG_5971 copy

থানচি প্রতিনিধি:

দলের ত্যাগি, জনবান্ধব, সংগ্রামী নেতাদের বাদ দিয়ে জেলার সমালোচিত দুর্নিতিবাজ, আতাঁতকারী ও অশুভ ব্যক্তি দিয়ে সদ্য ঘোষিত অগণতান্ত্রিকভাবে বিএনপি’র বান্দরবান জেলা কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে দাবি করে কেন্দ্রীয় নেতাদের বিএনপি’র সদ্য বান্দরবান জেলা বিএনপি কমিটি ঘোষিত কমিটির প্রতি অনাস্থা প্রকাশ করে শনিবার সকাল ১১টায় থানচি বাজারে বিক্ষোভ মিছিল করে পরে বিএনপি অস্থায়ী কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি’র উপজেলা শাখা সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান খামলাই ম্রো সদ্য ঘোষিত জেলা কমিটিকে অনাস্থা প্রস্তাবটি  লিখিত পাঠ করে বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, বিএনপি একটি গণতান্ত্রিক দল, তৃণমূলের মতামতকে উপেক্ষা করে, কাউন্সিল না দিয়ে বান্দরবান জেলা বিএনপি’র আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে, যা গঠনতন্ত্র বিরোধী ও অগণতান্ত্রিক। জেলা কমিটি অবৈধ দাবি করে অবিলম্বে সম্মেলনের মাধ্যমে কমিটি পূর্ণগঠন প্রক্রিয়া করার দাবি জানিয়ে সদ্য ঘোষিত কমিটিকে অনাস্থা প্রস্তাব করেন।

বিক্ষোভ মিছিল ও সংবাদ সম্মেলনের উপজেলা বিএনপি’র সহযোগী সংগঠন ছাত্র দল, যুব দল, স্বেচ্ছা সেবক দল, তাঁতী দল ও কৃষক দলের দুইশতাধিক নেতা কর্মী স্বতঃস্ফুর্ত অংশগ্রহণ করেন। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, বিএনপি নেতা লালপিয়ামখুব বম, মংএনু মারমা, আবু নোমান, মো. জসিম উদ্দিন, আবদুল কুদ্দুছ, মংসাগ্য মারমা, উচমং মারমা, অংসাথুই হেডম্যান, উসাইঅং মেম্বার, মালা বম প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, গত ২মার্চ বৃহস্পতিবার বান্দরবান জেলা বিএনপি সভাপতি হিসেবে সাবেক এমপি ম্যামাচিং, সাধারণ সম্পাদক হিসেবে সাবেক পৌর মেয়র মো. জাবেদ রেজাকে মনোনিত করে বিএনপি’র আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় বিএনপি সহ-সম্পাদক মো. তাইফুল ইসলাম টিপু স্বাক্ষরিত এক বার্তার এ তথ্য জানা যায়।




থানচিতে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত

DSC04478 copy

থানচি প্রতিনিধি:

‘নারী-পুরুষ সমতায় উন্নয়নে যাত্রা, বদলে যাবে বিশ্ব,কর্মে নতুন মাত্রা’ প্রতিপাদ্যে উপজেলা নারী উন্নয়ন ফোরামে নারী সদস্যদের  অংশগ্রহণ ছাড়ায় এনজিও সংস্থা কর্মরত নারীদের নিয়ে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত হয় থানচিতে। এ উপলক্ষে উপজেলা পরিষদ ও মহিলা ও শিশু বিষয়ক কর্মকর্তাদের যৌথভাবে নানা আয়োজন করেন।

এতে  জাতীয় এনজিও সংস্থা হেলেন কেয়ার’র কর্মরত নারীদের অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে বুধবার সকাল ১১টায় থানচি উপজেলা পরিষদ জনসেবা কেন্দ্রে ( গোল ঘর) র‌্যালি  ঘুরে  একই গোল ঘরে আলোচনা সভার সভাপতিত্ব করেন, থানচি থানা অফিসার ইনচার্জ প্রতিনিধি  এসআই  হরি গোপাল শিংহ, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ক্যহ্লাচিং মারমা, বিশেষ অতিথি হিসেবে প্রাথমিক সহকারী শিক্ষা অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন, এএসআই  মোহাম্মদ ইউছুপ, জাতীয় এনজিও সংস্থা হেলেন কেয়ার  প্রকল্প কো-অর্ডিনেটর উমেচিং মারমা, মনিটরিং অফিসার নিবারণ চাকমা, আ’লীগের ইউপি সাধারণ সম্পাদক জয়না আবেদীন প্রমুখ।

সভা শেষে জাতীয় এনজিও সংস্থা হেলেন কেয়ার অর্থায়নে থানচি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ে নারী শিক্ষার্থীদের পুরষ্কার হিসেবে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করেন।