রামুর চাকমারকুলে অলিম্পিক বার ফুটবলে প্রভাতি একাদশ চ্যাম্পিয়ন

ramu pic football 23.3

রামু প্রতিনিধি:

কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল বলেছেন, দেশের ক্রীড়াক্ষেত্রে কক্সবাজার-রামু এখন পরিচিত নাম। এখানকার খেলোয়াড়রা এখন জাতীয় ক্রিকেট দল এবং জাতীয় ফুটবল দলে খেলছে। এটা আমাদের জন্য গৌরবের। অচিরেই রামুতে এক লাখ দর্শক ধারন ক্ষমতার স্টেডিয়াম, বিকেএসপি ভবন নির্মাণ শুরু হবে। আগামীতে ক্রীড়া চর্চার উর্বর ভূমিতে পরিনত হবে রামু। তখন এখানকার খেলোয়াড়রা দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিদেশের মাটিতেও খেলতে যাবে। আর বিদেশে যদি কোন খেলোয়াড় খেলার জন্য গেলে তাদের আসা যাওয়ার খরচও আমি বহন করবো।

রামুতে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় অলিম্পিক বার ফুটবল টূর্ণামেন্টের সমাপনী খেলায় বিজয়ীদের পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাংসদ কমল এসব কথা বলেন

বৃহষ্পতিবার (২৩ মার্চ) বিকালের চাকমারকুল ইউনিয়নের কলঘর বাজার সংলগ্ন মাঠে তেচ্ছিপুল উন্নয়ন পরিষদ আয়োজিত এ টূর্ণামেন্টের ফাইনাল খেলায় স্বাগতিক টি সেভেন ভাইকিংস ফুটবল একাদশকে ২-১ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন শিরোপা লাভ করে প্রভাতি ফুটবল একাদশ।

বিজয়ীদলের পক্ষে খেলার প্রথমার্ধে মতিউর ও কমল জয়সূচক গোল দুটি করেন। পরে দ্বিতীয়ার্ধে স্বাগতিক টি সেভেন ভাইকিংস ফুটবল একাদশের পক্ষে ছৈয়দ করিম একটি গোল করে ব্যবধান কমায়। খেলায় চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় প্রভাতি একাদশের পক্ষে দুজন জাতীয় দলের খেলোয়াড় এবং রানার আপ হওয়া টি সেভেন ভাইকিংস ফুটবল একাদশের পক্ষে ঘানার একজন খেলোয়াড় অংশ নেন। বিজয়ী দলের খেলোয়াড় কমল বড়ুয়া সেরা খেলোয়াড় এবং স্বাগতিক টি সেভেন ভাইকিংস ফুটবল একাদশের গোলরক্ষক মিনহাজ ম্যান অব দ্য সিরিজ এর পুরষ্কার পান।

টূর্ণামেন্ট আয়োজক তেচ্ছিপুল উন্নয়ন পরিষদ এর সভাপতি মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসাইন’র পরিচালনায় পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এডভোকেট আবুল কালাম ছিদ্দিকী।

এতে বিশেষে অতিথি ছিলেন, রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. শাজাহান আলি, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলী হোসেন, কক্সবাজার জেলা পরিষদের সদস্য নুরুল হক, ফতেখাঁরকুল ইউপি চেয়ারম্যান ফরিদুল আলম, চাকমারকুল ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম সিকদার, সাবেক চেয়ারম্যান মুফিদুল আলম, মাস্টার ফরিদ আহমদ, ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব ও রেফারি সুবীর বড়ুয়া বুলু, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও ক্রীড়া সংগঠক শফিকুর রহমান, রামু ব্রাদার্স ইউনিয়নের সভাপতি নবু আলম, ইউপি সদস্য মোস্তাক আহমদ, মাস্টার নজিবুল আলম, মোহাম্মদ আলী। অনুষ্ঠানে সার্বিক সহযোগিতায় ছিলো স্থানীয় সংগঠন বিডিএমএস। সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন, টূর্ণামেন্ট আয়োজক তেচ্ছিপুল উন্নয়ন পরিষদের সদস্য জাহেদ, মনজুরসহ সকল সদস্যবৃন্দ।

অনুষ্ঠানে সাংসদ কমল আরও বলেন, রামুতে এত বিশাল আনুষ্ঠানিকতায় ফুটবল এ ধরনের টূর্ণামেন্ট আয়োজন সত্যিই প্রশংসনীয়। তিনি খেলার আয়োজক সংগঠনকে ১ লাখ টাকা অনুদান প্রদান করা হবে বলেও জানান। তিনি বলেন, কেবল ক্রীড়া ক্ষেত্রে নয়, শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধিন বর্তমান সরকার বেকারত্ব দূর করে মধ্যম আয়ের উন্নয়নশীল দেশে পরিনত করার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। মানুষের কল্যাণে প্রয়োজনীয় সকল উন্নয়নমূলক কাজ এখন দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলছে।

টূর্ণামেন্ট আয়োজক তেচ্ছিপুল উন্নয়ন পরিষদ এর সভাপতি মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসাইন জানিয়েছেন, টূর্ণামেন্টে চ্যাম্পিয়ন দলকে নগদ ৫০ হাজার টাকা ও ট্রপি এবং রানার আপ দলকে ১৫ হাজার নগদ টাকা ও ট্রপি তুলে দেন অতিথিবৃন্দ। ফাইনাল খেলায় হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতি ছিলো চোখে পড়ার মতো।

এরআগে সকালে সাংসদ কমল কক্সবাজার সদর উপজেলার ইসলামাবাদ ইসলামিয়া আদর্শ দাখিল মাদ্রাসার বার্ষিক পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন। দুপুরে তিনি পর্যটন স্পট ইনানীতে রামু খিজারী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক পিকনিক এ অংশ নেন।




জোন কাপ ফুটবলে ট্রফি জিতল পানছড়ি ফুটবল একাডেমি

FINAL PLAY PIC copy

নিজস্ব প্রতিবেদক, পানছড়ি:

খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ি উপজেলায় বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে শেষ হয়েছে ৩ বিজিবি কর্তৃক আয়োজিত জোন কাপ ফুটবল টূর্ণামেন্ট১৭। এ টূর্ণামেন্টে নান্দনিক ও ছন্দময় ফুটবল খেলে ট্রফি জিতে নিল পানছড়ি ফুটবল একাডেমি।

বৃহষ্পতিবার বিকাল সাড়ে ৩টা থেকে ৩ বিজিবি মাঠে অনুষ্ঠিতব্য ফাইনালে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স আপ ট্রফি বিতরণ করে খাগড়াছড়ি বিজিবির সেক্টর কমান্ডার কর্ণেল মতিউর রহমান, বিজিবিএম, পিবিজিএম, পিএসসি।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন ৩ বিজিবি লোগাং জোন কমান্ডার লে. কর্ণেল মো. রফিকুল হাসান পিএসসি, খাগড়াছড়ি জোন কমান্ডার জিএম সোহাগ পিএসসি, পানছড়ি সাব জোন কমান্ডার মেজর মো. রফিকুল ইসলাম।

জানা যায়, গত ১২মার্চ থেকে ৮টি দলকে দুই গ্রুপে ভাগ করে লীগ পদ্ধতির এ খেলায় ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে পানছড়ি ফুটবল একাডেমি ও পূজগাং স্বপ্নসিড়ি ক্লাব। বৃহষ্পতিবার বেলা ২টা থেকে বর্ণিল সাজে সাজানো ৩ বিজিবি মাঠে উপস্থিত হয় হাজার হাজার দর্শক।

তীব্র উত্তেজনাকর ফাইনালে ফুটবল একাডেমি ১-০ গোলে পূজগাং স্বপ্নসিড়ি ক্লাবকে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হয়। চ্যাম্পিয়ন দলকে ট্রফি ও নগদ ২০ হাজার টাকা এবং রানার্স আপ দলকে ট্রফি ও নগদ ১০ হাজার টাকা প্রদান করে ৩ বিজিবি। টূর্ণামেন্টের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয় ফুটবল একাডেমির জ্ঞান আলো চাকমা (দোকলা)।

ফাইনাল খেলাসহ টূর্ণামেন্টের সবকটি খেলা পরিচালনা করে নিখিল কুমার দে, সুমন ত্রিপুরা ও জ্যোতিষ ত্রিপুরা। ফাইনালে অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে আরও খেলা উপভোগ করে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সর্বোত্তম চাকমা, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি  মো. বাহার মিয়া, বিএনপি সভাপতি মো. বেলাল হোসেন, পানছড়ি থানার সাব-ইন্সপেক্টর মো. ইয়াছিন, ১নং লোগাং ইউপি চেয়ারম্যান প্রত্যুত্তর চাকমা, ২নং চেংগী ইউপি চেয়ারম্যান কালাচাঁদ চাকমা, ৩নং পানছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মো. নাজির হোসেন, ৪নং লতিবান ইউপি চেয়ারম্যান কিরণ ত্রিপুরা ও ৫নং উল্টাছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান বিজয় চাকমা।




আলীকদমে মাসব্যাপী ক্রিকেট প্রশিক্ষণ সমাপ্ত

1464963514

আলীকদম প্রতিনিধি:

আলীকদমে মাসব্যাপী ক্রিকেট প্রশিক্ষণের সমাপ্তি হয়েছে। ক্রীড়া পরিদপ্তরের আওতায় এ প্রশিক্ষণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল।

চৈক্ষ্যং আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের ক্রীড়া শিক্ষক মো. সেলিমুল ইসলাম জানান, ক্রীড়া পরিদপ্তরের উদ্যোগে ৯ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৩ মার্চ পর্যন্ত উপজেলা প্রত্যেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৬জন করে সর্বমোট ৩০জন ছাত্র-ছাত্রীকে নিয়ে এ প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়।

এ প্রশিক্ষণের সার্বিক তত্বাবধানে ছিলেন আলীকদম উপজলো নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ নায়িরুজ্জামান ও জেলা ক্রীড়া অফিসার মো. নাজিম উদ্দিন ভূইয়া।




কক্সবাজারে অনুর্ধ্ব ২৩ ইমার্জিং কাপ নিয়ে প্রশাসনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার

12 copy

কক্সবাজার প্রতিনিধি:

কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তজার্তিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আগামী ২৭ মার্চ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে অনুর্ধ্ব ২৩ ইমার্জিং কাপ। যেখানে স্বাগতিক বাংলাদেশ ছাড়াও খেলবে নেপাল, পাকিস্তান ও হংকং।

এ ইমার্জিং কাপে ৬টি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ চলবে। আর এ খেলা সফলভাবে আয়োজনের লক্ষ্যে ইতিমধ্যে সবধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। বাড়তি নিরাপত্তা প্রদানে প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেওয়া হয়েছে ৪ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

এ লক্ষ্যে সোমবার সকালে শেখ কামাল আন্তজার্তিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম পরিদর্শন করেন জেলা পুলিশ সুপার ড. ইকবাল হোসেন। তিনি ৪ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা প্রদানের কথা জানান।




কাপ্তাই প্রিমিয়ার লীগের ফাইনাল খেলায় নিউ মিনি আইল্যান্ড চ্যাম্পিয়ান

BBB copy

কাপ্তাই প্রতিনিধি:

কাপ্তাই বাঁশকেন্দ্র গ্রাইন্ড প্রিমিয়ার লীগের ফাইনাল খেলা সোমবার বিকাল ৩টায় বাঁশকেন্দ্র যুব সংঘের আয়োজনে মনসুর আহমেদ’র সভাপতিত্বে বাঁশকেন্দ্র মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। ওই খেলায় ১২টি দল অংশ গ্রহণ করে এর মধ্যে ফাইনাল খেলায় চিৎমর মুসলিমপাড়া বনাম নিউ মিনি আইল্যান্ডের মধ্যে অনুষ্ঠিত হয়।

ফাইনাল খেলায় নিউ মিনি আইল্যান্ড বিজয়ী হয়। সমাপনী খেলায় প্রধান অতিথি ছিলেন রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ সদস্য প্রকৌশলী থোয়াইচিং মং মারমা। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কাপ্তাই ইউপি চেয়ারম্যান প্রকৌঃ আব্দুল লতিফ, ইউনিয়ন আ’লীগ সভাপতি সাগর চক্রবর্তী, সম্পাদক মহি উদ্দিন পাটোয়ারী বাদল, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি মো. নাছির উদ্দিন, ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি মো. সাইফুল ইসলাম, সম্পাদক ফরিদ আহমেদ, ইউনিয়ন যুবলীগ সদস্য নুর মোহাম্মদ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন টুর্ণামেন্ট আহ্বায়ক জয়নাল আবেদীন রাজধন। বক্তব্য রাখেন ছাত্রলীগ সাবেক ছাত্র নেতা আক্তার আলম। এ সময় টুর্ণামেন্টের সদস্য সচিব রিপন, সেলিম, মহাব্বতসহ সকল সদস্য উপস্থিত ছিলেন। পরে বিজয়ী নিউ মিনি আইল্যান্ড খেলোয়ার ক্যাপ্টেন ওমর ফারুকের হাতে চ্যাম্পিয়ান ট্রফি তুলেদেন। এবং চিৎমরম রানাস আপ কে ট্রফি তুলে দেন। বাঁশকেন্দ্র এলাকাবাসী দ্বীপের মধ্যে বসবাস করায় প্রধান অতিথি তাদের চলাচলের জন্য বোট, কবরস্থান সংস্কার এবং ক্রিকেট সরঞ্জাম দেওয়া আশ্বাস প্রদান করে।




শততম টেস্টে ঐতিহাসিক জয়

Bangladesh cricketer Mustafizur Rahman (2L) celebrates with teammates after he dismissed Sri Lankan cricketer Dhananjaya de Silva during the fourth day of the second and final Test cricket match between Sri Lanka and Bangladesh at the P. Sara Oval Cricket Stadium in Colombo on March 18, 2017. / AFP PHOTO / Ishara S. KODIKARA        (Photo credit should read ISHARA S. KODIKARA/AFP/Getty Images)

ক্রীড়া ডেস্ক:

ঐতিহাসিক শততম টেস্ট ম্যাচ জিতলো বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কাকে কলম্বো টেস্ট হারালো ৪ উইকেটে। ক্রিকেট ইতিহাসে চতুর্থ দল হিসেবে নিজেদের শততম টেস্ট জিতলো বাংলাদেশ। এর আগে মাইলফলক স্পর্শ করা এ ম্যাচ জেতে অস্ট্রেলিয়া, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তান। ১০০ টেস্টে এটি বাংলাদেশের নবম জয়।

এর আগে সর্বশেষ তারা গত বছরের শেষ দিকে ঢাকার মাঠে ইংল্যান্ডকে হারায়। সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশ অলআউট হয় যথাক্রমে ৩৩৮ ও ৪৬৭ রানে। ১২৯ রানে পিছিয়ে থেকে শ্রীলঙ্কা দ্বিতীয় ইনিংসে আজ পঞ্চম দিন ৩১৯ রানে অলআউট হয়। এতে জয়ের জন্য বাংলাদেশের সামনে টার্গেট ১৯১ রানের। বাংলাদেশ এই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় ৬ উইকেট হারিয়ে।

এদিন শুরুতেই বিপদে পড়ে বাংলাদেশ। ২২ রানে হারায় দুই উইকেট। উদ্বোধনীতে তামিমের সঙ্গে ২২ রান যোগ করে সৌম্য ফেরেন ব্যক্তিগত ১০ রানে। আর ইমরুল প্রথম বলের মোকাবিলায় আউট হন। এরপর তামিম ইকবাল ৮২ ও সাব্বির রহমান ৪১ রানে ফেরেন। তৃতীয় উইকেটে তারা যোগ করেন ১০৯ রান। এরপর সাব্বির রহমান ৪১, সাকিব করেন ১৫ রান। আর অথিনায়ক মুশফিক ২২ রানে জয় নিয়ে ফেরেন।

গতকাল ৮ উইকেটে ২৬৮ রানে চতুর্থ দিন শেষ করে লঙ্কানরা। দিলরুয়ান পেরেরা ২৬ ও সুরঙ্গা লাকমল ১৬ রানে অপরাজিত ছিলেন। আজ তারা দু’জন আরো ৫০ রান যোগ করেন। নবম উইকেটে মোট যোগ করেন ৮০ রান। ব্যক্তিগত ৫০ রানে দিলরুয়ানকে রানআউট করে ফেরান মেহেদি হাসান মিরাজ। দলীয় রান তখন ৩১৮। এরপর এক রান যোগ করে সাকিবের বলে ফেরেন লাকমল। মোস্তাফিজ ৩ ও সাকিব আল হাসান নিয়েছেন ৪ উইকেট।




বান্দরবানে স্বাধীনতা ক্রিকেট লীগে জেলা পুলিশ দল চ্যাম্পিয়ান

Bandarban cricat pic-16.3

নিজস্ব প্রতিবেদক,বান্দরবান:

বান্দরবানে স্বাধীনতা দিবস ক্রিকেট লীগে সমাপনী খেলায় জেলা পুলিশ দল চ্যাম্পিয়ান হয়েছে। বৃহস্পতিবার বান্দরবান জেলা স্টেডিয়ামে বান্দরবান জেলা পুলিশ দল বনাম বাংলা বয়েজ ক্লাবের মধ্যে ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়।

টসে জিতে জেলা পুলিশ দল ব্যাট করতে নেমে সব ক’টি উইকেট হারিয়ে ৪৪ ওভার ৩বলে ১৩১ রান সংগ্রহ করে পুলিশ দল। জবাবে  বাংলা বয়েজ ক্লাব মাত্র ২২ ওভার ২বলে ৯৯ রান করে অলআউট হয়। খেলায় ৩২রানে জয়লাভ বান্দরবান জেলা পুলিশ দল।

সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন পুলিশ দলের মো. শাহাদাৎ। সেরা বলার নির্বাচিত হন একই দলের মো. অনিক।

খেলায় আম্পেয়ারের দায়িত্ব পালন করেন বাংলদেশ ক্রিকেট বোর্ডের বান্দরবান জেলা ক্রিকেট কোচ রাহুল বিশ্বাস ও মো. হেলালুর রশিদ, মো. নজরুল ইসলাম, মো. তাহের টিপু। খেলায় সঞ্চালনা করেন মাহাফুজুর রশিদ বাচ্চু।

পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক চ্যাম্পিয়ান ও রানার আপ দলের মধ্যে পুরষ্কার প্রদান করেন। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অনির্বান চাকমা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক দিদারে আলম মোহাম্মদ মাকসুদ চৌধুরী, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার ইয়াছির আরাফাত, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি মো.আব্দুল রহিম চৌধুরী, দিপ্তী কুমার বড়ুয়া, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইসলাম বেবী, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রশিদ, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিক উল্লাহসহ বিভিন্ন ক্রীড়া সংগঠনের নেতৃবিন্দ ও খেলোয়াড়রা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, গত ২রা মার্চ থেকে শুরু হওয়া এই স্বাধীনতা দিবস ক্রিকেট লীগে জেলার মোট ১০টি দল অংশ গ্রহণ করেন।




ফাসিয়াখালীতে শর্ট বাউন্ডারি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট উদ্বোধন

chakaria fasiakhali (litu) 10-3-2017
চকরিয়া প্রতিনিধি:
চকরিয়া উপজেলার ফাঁসিয়াখালীতে হাসনাত মোহাম্মদ ইউসুফ প্রদত্ত সততা স্পোর্টিং ক্লাব কর্তৃক আয়োজিত শর্ট বাউন্ডারী ক্রিকেট টুর্নামেন্ট উদ্বোধনী খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার বিকাল ৪টায় ফাঁসিয়াখালী রশিদ আহমদ চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে যুবলীগ নেতা হাসনাত মোহাম্মদ ইউসুফের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী খেলায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, কক্সবাজার জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক ছাত্রনেতা জাহেদুল ইসলাম লিটু। উদ্বোধকের বক্তব্য দেন, চকরিয়া উপজেলা যুবলীগের প্রভাবশালী সদস্য সাবেক ছাত্রনেতা হেলাল উদ্দিন হেলালী। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, কক্সবাজার জেলা পরিষদের নবনির্বাচিত সদস্য অধ্যাপক সোলতান আহমদ, চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-দপ্তর সম্পাদক সাইফুদ্দিন মোহাম্মদ মামুন, রশিদ আহমদ চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক শাহাদাত হোসেন রাসেল, সাবেক শিক্ষক শহিদুল আলম, সহকারী শিক্ষক মনছুর উদ্দিন আহমেদ, ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ও ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মহি উদ্দিন মহি, উপজেলা যুবলীগের সদস্য নাঈমুল হক সিকদার, সাহারবিল ইউনিয়ন পরিষদের সচিব সাইফুল করিম শিমুল, ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জমির উদ্দিন, স্বাধীন মঞ্চের আদনান রামিম, সোহেল, রিফাতসহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধনী খেলায় টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে সিকদার পাড়া ক্রিকেট একাদশ। নির্ধারিত ১২ ওভারে খেলায় ১ওভার বাকী ৯৫ রানে অল আউট হয়ে যায় সিকদার পাড়া একাদশ ক্লাব। ৯৬ রানের টার্গেট নিয়ে ব্যাট করতে নেমে ১০ম ওভারে ২ উইকেট বাকি থাকতেই লক্ষ্যে পৌঁছে যায়, চকরিয়ার স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন স্বাধীন মঞ্চ। খেলায় সর্বোচ্চ রান গ্রহণকারী বিজয়ী দলের স্বাধীন মঞ্চ দলের খেলোয়াড় মোবিনকে ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ পান।




শেষ দিনে ভাল কিছুর আশা করছে বাংলাদেশ

সৌম্য সরকার

ক্রীড়া ডেস্ক:

দিলুরুয়ান পেরেরার উইকেট যেতেই ২৭৪ রানে দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করেন শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক রঙ্গনা হেরাথ। তখন স্বাগতিকদের লিড ৪৫৬ রানের। বাংলাদেশের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় রেকর্ড ৪৫৭ রানের। তবে সেই লক্ষ্যে ভালো কিছুর ইঙ্গিত দিয়েই চতুর্থ দিন শেষ করেছে সফরকারীরা।

শ্রীলঙ্কান বোলারদের ভালো জবাব দিচ্ছেন দুই ওপেনারদের একজন- সৌম্য সরকার। তামিম ইকবাল দেখেশুনে খেললেও সৌম্য গলে টানা দ্বিতীয় ইনিংস ফিফটি করেছেন ৪৪ বলে; ৬ চার ও ১টি ছয়ে। প্রথম ইনিংসে ৭১ রান করেছিলেন এ ওপেনার।

৬ ম্যাচের টেস্ট ক্যারিয়ারে সৌম্যর তৃতীয় হাফসেঞ্চুরির পর খেলা হয়েছে আর এক ওভারের মতো। আলোকস্বল্পতার কারণে দিনের শেষ ঘোষণা করেন আম্পায়াররা। ১৫ ওভারে বিনা উইকেটে ৬৭ রান করেছে বাংলাদেশ। লক্ষ্য থেকে এখনও ৩৯০ রান দূরে তারা। ৫৩ রানে সৌম্য ও ১৩ রানে তামিম শেষদিন খেলতে নামবেন।

দ্বিতীয় ইনিংসে স্বাগতিকরা সংগ্রহ করে ৬ উইকেটে ২৭৪ রান। গলে বিরতির পর দাপটের সঙ্গেই শ্রীলঙ্কাকে এগিয়ে নিচ্ছিলেন ওপেনার উপুল থারাঙ্গা। হাফসেঞ্চুরির পর সেঞ্চুরিও করেছিলেন। কিন্তু মেহেদী হাসান মিরাজের ৫৪.৪ ওভারে মনোযোগ আর রাখতে পারেননি। বলের সঙ্গে সংযোগ না হওয়াতে বোল্ড হয়ে ফেরেন ১১৫ রানে। পরের ওভারেও উইকেট হারায় লঙ্কানরা। সাকিবের বলে বোল্ড হন নতুন নামা আসেলা গুনারত্নে। এরপর কিছুক্ষণ থিতু হওয়ার চেষ্টায় ছিলেন নিরোশান ডিকবিলা। ১৫ রানে তাকে লিটন দাসের গ্লাভসবন্দি করেন মিরাজ।

এরপর লিড বাড়ানোর গুরু দায়িত্ব নেন দিনেশ চান্দিমাল ও দিলুরুয়ান পেরেরা। তাদের দ্রুত রান নেওয়ার দিকে যে ঝোঁক ছিল তার প্রমাণ ঠিকই দেন এই দুই ক্রিকেটার। এই জুটিতে আসে ৫২ রান। অবশ্য মুস্তাফিজের বলে পেরেরা পেছনে থাকা লিটনের হাতে উইকেট তুলে দিলে সঙ্গে সঙ্গেই ড্রেসিং রুম থেকে ইনিংস ঘোষণা করেন হেরাথ। ৬৯ ওভারে ততক্ষণে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৬ উইকেটে ২৭৪ রান।

প্রথম সেশনে ৮৭ রান তুললেও দ্বিতীয় সেশনে রানের গতি বাড়িয়ে দেয় শ্রীলঙ্কা। ৫.১৬ গড়ে এই সেশনে আসে ১৬০ রান। যদিও সকালে দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুটা দুর্দান্তই করেছিল শ্রীলঙ্কা। অর্ধশত রানের ওপেনিং জুটি গড়েন দুই ওপেনার দিমুথ করুনারত্নে ও থারাঙ্গা। এই জুটিতেই এসেছে ৬৯ রান।

কিন্তু ২২.২ ওভারে তাসকিনের বল উঠিয়ে মারতে গিয়ে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন ওপেনার দিমুথ করুনারত্নে। স্কয়ার লেগে তার ক্যাচটি নেন মাহমুদউল্লাহ। করুনারত্নে বিদায় নেন ৩২ রানে। প্রথম সেশনে আসে ৮৭ রান।

বিরতির পর দ্বিতীয় উইকেটে জুটি গড়েন আগের ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান মেন্ডিস। দ্বিতীয় সেশনে ভালোই এগিয়ে নিচ্ছিল এই ‍জুটি। যেখানে আসে ৬৫ রান। কিন্তু হঠাৎই সাকিবকে উঠিয়ে মারতে তাসকিনের হাতে ক্যাচ তুলে দেন মেন্ডিস। বিদায় নেওয়ার আগে করেন ১৯ রান।

আগের দিন বৃষ্টির কারণে শেষ সেশনের খেলা পরিত্যক্ত করা হয়েছিল। তাই শুক্রবার চতুর্থ দিনে আগে ভাগেই খেলা শুরু হয়েছে। এদিন বাড়তি খেলা হওয়ার কথা ছিল ৮ ওভারের। শেষ সেশনেও বাড়ানো হয় সময়। কিন্তু আলো স্বল্পতায় সেটা হলো না। আগামীকাল সকাল সোয়া ১০টায় খেলা শুরু হবে।




খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ

17198221_671128059756462_69852844_n
নিজস্ব প্রতিবেদক, খাগড়াছড়ি:

খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ২০১৭’র পুরস্কার বিতরণী ও সমাপনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার দুপুরে কলেজ প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে পুরস্কার তুলে দেন খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়নের কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মীর মুশফিকুর রহমান।

খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের অধ্যাপক আব্দুর সবুর খান’র সভাপতিত্বে অন্যন্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপাধ্যক্ষ মো. ইলিয়াছ, সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মো. শাহ আলমগীর, সদর জোন কামান্ডার লে. কর্নেল মো. সোহাগ প্রমুখ।

পুরস্কার বিতরণের আগে খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের মানবিক বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী নিহত ইতি চাকমার স্মরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। পরে কলেজে শিক্ষার্থীদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন অতিথিরা।