এক স্কুলকে ঘিরে ৩টি ইটভাটা, শ্বাস কষ্টে ভুগছে শতশত শিক্ষার্থী

Rowangchari pic 22.02

রোয়াংছড়ি প্রতিনিধি :

রোয়াংছড়ির তারাছা ইউপি’র ছাইঙ্গ্যা অঞ্চলে প্রভাবশালী ও সরকার দলীয় নেতাদের ছত্রছায়ায় গড়ে উঠেছে ৩টি  ইটভাটা। গত ৩/৪ বছর ধরে বন বিভাগের সংরক্ষিত বনাঞ্চল হতে মূল্যবান কাঠ কেটে জ্বালানি কাঠ পোড়ানো হচ্ছে এসব ইটভাটায়। অন্যদিকে তিনটি ইট ভাটার মাঝ খানে ৫০ গজে ছাইঙ্গ্যা সরকারি প্রাথমিক ও নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রায় সাড়ে তিনশ কোমলমতি শিক্ষার্থী অসস্থিতে আছে।

ইটভাটাগুলোর চিমনি থেকে নির্গত দূষিত ধোঁয়ার ফলে শিক্ষার্থীদের শ্বাস কষ্ট ও অজ্ঞাত রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। এতে অভিভাবকদেরও দুশ্চিন্তার শেষ নেই। অপরদিকে পার্শ্ববর্তী বন বিভাগের সংরক্ষিত বনের সেগুন, গামার, মেহগনিসহ মূল্যবান কাঠ কেটে জ্বালানো হচ্ছে ইট ভাটাগুলোতে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকার গণ্যমান্যদের সাথে কথা বলে জানা যায়, বান্দরবানে সরকার দলীয় নেতা প্রভাবশালী  আব্দুর রহিম চৌধুরী’র মেয়ের জামাই মোহাম্মদ নুরুল, পাহাড়িকা আবাসিক হোটেলের মালিক উজ্জ্বল কান্তি দাশ ও মোহাম্মদ মিলন সরকারি বিধিবিধানকে তোয়াক্কা না করে সরকারি অনুমোদন ছাড়াই অবৈধ পন্থায় ইট ভাটাগুলোতে সংরক্ষিত বনের কাঠ কেটে পোড়ানো হচ্ছে।

তিনটি ইট ভাটা মাঝ খানে ৫০ গজের মধ্যে ছাইঙ্গ্যা সরকারি প্রাথমিক ও নিম্ন মাধ্যমিক উন্নীত বিদ্যালয়। বিদ্যালয়ের ৫০ গজেরও অদূরে দক্ষিণ প্রান্তে আব্দুর রহিমের জামাতা নুরুল, ঠিক উত্তরে মোহাম্মদ মিলন এবং পূর্বে দিকে উজ্জ্বল কান্তি দাশের ইট ভাটায়  চিমনি থেকে প্রচুর ক্ষতিকারক ধোঁয়ায় নির্গত হয়ে ছাত্র-ছাত্রীরা শ্বাস কষ্টে ভুগছেন। প্রতিনিয়ত ছাত্র-ছাত্রীদের পড়াশোনা ও শিক্ষক-শিক্ষিকার মধ্যে পাঠ দানও ব্যাহত হচ্ছে।

ইটভাটায় জ্বালানি কাঠ সরবরাহকারী শ্রমিক ফোরকান বলেন, দীর্ঘদিন যাবত তিনটি ইটভাটায়  জ্বালানি কাঠ সরবরাহ করে আসছেন। উপজেলা বন বিভাগের সংরক্ষিত বাগান হতে কাঠ কেটে আনার কথা স্বীকার করে তিনি বলেন, জ্বালানি কাঠের জন্য কোন অনুমোদন লাগে বলেও তার জানা নেই। তাছাড়া পুলিশ ও প্রশাসনকে ইটভাটার মালিকরা ম্যানেজ করেন। জ্বালালি কাঠ বহনকারী গাড়ি চট্টমেট্রো-ট-১১-১৯০৭ এর ড্রাইভার মো. দুলালও একই কথা বলেন।

ওই বিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত কয়েকজন শিক্ষার্থী বলেন, আমরা সকলেই প্রায় বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত। ইটভাটায় নির্গত ধোঁয়ার কারণে প্রচুর শ্বাস কষ্টে ভুগছি। ধোঁয়া ও ধুলাবালি কাপড়-চোপড়ও নষ্ট হচ্ছে।

প্রধান শিক্ষক সুনীতি বড়ুয়া বলেন, স্কুলের পাশে ৩টি ইটভাটা থাকাতে এখানে যারা আছে সবাই শ্বাস কষ্টে ভুগছে। আমি নিজেই একজন রোগী। প্রতিদিন ৪০-৫০টি গাড়ি যাতায়াতের কারণে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। শুধু তাই নয়, ছাত্র-ছাত্রীদের স্কুলে আসাও বিপদজনক হয়ে উঠছে। কয়েক দিন পূর্বেও মর্মান্তিক দুর্ঘটনা সংগঠিত হয়েছে। পুলিশ প্রশাসন ও উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ ব্যাপারে কোন পদক্ষেপ না নেওয়ায় ছাত্র-ছাত্রীদের স্কুলের পাঠাতে অভিভাবকগণও শঙ্কিতবোধ করছেন। বিষয়টি ইতোমধ্যে বিদ্যালয় পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলার শিক্ষা কর্মকর্তাদের অবহিত করা হচ্ছে। তবে এখন পর্যন্ত কোন সুরাহা করা হয়নি।

এসএমসি সভাপতি আইয়ব আনসারি বলেন, এ বিদ্যালয়ে যথেষ্ট ছাত্র-ছাত্রী রয়েছে। কিন্তু দৈনিক ইটভাটার গাড়ি বেপরোয়া যাতায়াতের কারণে স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা আসছেন না। কদিন আগে মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় একজন ছাত্রী  মারা গেছেন। স্কুলে এলেও ছাত্ররা শ্বাস কষ্টে আক্রান্ত হয়ে পড়ছে ধুলাবালি ও ধোঁয়ার কারণে। এব্যাপারে স্কুল কমিটির পক্ষ থেকে কয়েক বার উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অবহিত করা হচ্ছে, কোন সুরাহা হয়নি।

ইট ভাটা ম্যানাজার দিনো, জামাল উদ্দীন, আবুতৈয়ব বলেন, এখানে দৈনিক প্রায় ১৫০ জন শ্রমিক কাজ করেন। তার মধ্যে ১০-১২ বছর বয়সী শিশু শ্রমিক ৮ জন আছে। সরকারি অনুমতিপত্র আছে কিনা তা তারা জানেন না।

যোগাযোগ করা হলে উজ্জ্বল কান্তি দাশ বলেন, ইটভাটার স্থাপনের জন্য আবেদন করেছি কিন্তু অনুমতি পত্র এখনো পাইনি। তাই হাইকোর্টে রিট করেছি। যতদিন ডিসি সাহেব লাইসেন্স দিতে পারবে না ততদিন পর্যন্ত হাইকোর্টের রিট নিয়ে কাজ করতে পারব।

মোহাম্মদ মিলন মুঠোফোনে বলেন, পাহাড়িকা আবাসিক মালিক উজ্জ্বল দাদার সাথে যোগাযোগ করুন তিনি আপনাদের, সাংবাদিককে ম্যানেজ করবেন। এব্যাপারে জানতে চেয়ে উপজেলার শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ কামাল হোসেনকে যোগাযোগ করে পাওয়া যায়নি। রোয়াংড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দাউদ হোসেন চৌধুরীর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন ডিসি অফিসের ট্রেনিং-এ আছি। তাই তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

 




টেকনাফে বিদেশী বিয়ার জব্দ

টেকনাফ প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের টেকনাফে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আসার পথে বিপুল পরিমান বিদেশী বিয়ার জব্দ করেছে কোস্ট গার্ড।

সোমবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে কোস্ট গার্ড পূর্ব জোনের অধিনস্থ সিজি স্টেশন টেকনাফ’র একটি টহল দল নিয়মিত টহলের সময় কেরুনতলী এলাকা থেকে বিয়ার গুলো জব্দ করা হয়।

টেকনাফ কোস্ট গার্ড সিজি স্টেশনের কমান্ডার তাসকিন নুর জানান, মিয়ানমার থেকে বিয়ার আসার গোপন সংবাদে কেরুনতলী কেওড়া বাগান এলাকা থেকে  পাচারকারীদের ফেলে যাওয়া ২২ বোতল গ্রান্ড রয়েল মদ, ২০ বোতল সাইরাম মদ, ১৮ ক্যান ডাইব্লু বিয়ার এবং ১২ ক্যান সিঙ্গা বিয়ার জব্দ করে। যার আনুমানিক মূল্য ৬০ হাজার ৬শত টাকা।

তিনি আরও জানান, জব্দকৃত বিয়ারগুলো মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরে জমা করা হয়েছে।




নির্যাতিত স্ত্রীকে উদ্ধার করতে গিয়ে আগ্নেয়াস্ত্রসহ কার্তুজ উদ্ধার

টেকনাফ প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের টেকনাফে স্বামীর নির্যাতন থেকে স্ত্রীকে উদ্ধার করতে গিয়ে একটি আগ্নেয়াস্ত্রসহ ৬ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করেছে টেকনাফ মডেল থানার পুলিশ।

মঙ্গলবার বিকালে এসআই সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে সাবরাং ইউনিয়নের নয়াপাড়ার গোলাপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে মো. আব্দুল্লাহর বাড়ি থেকে এসব আগ্নেয়াস্ত্র ও কার্তুজগুলো উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ জানায়, টেকনাফ সদর ইউনিয়নের ছোট হাবিবপাড়ার মৃত শামসুল আলমের মেয়ের সাথে সাবরাং নয়াপাড়ার গোলাপাড়ার মৃত মহব্বত আলীর ছেলে মো. আব্দুল্লাহ (৩৫)’র বিয়ে হয়।

বিয়ের পর থেকে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে শারীরিক নির্যাতন করে আসছিল স্বামী। এ নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে তার স্ত্রী রোজিনা আক্তার নির্যাতনের বিষয়টি তার ছোট বোনকে জানায়।

তার বোন বুলবুলি আক্তার (২১) বাদি হয়ে টেকনাফ মডেল থানায় বড় বোন রোজিনা আক্তারকে নির্যাতনের অভিযোগ দায়ের করেন। এ অভিযোগ থানার এসআই সাইফুল ইসলামকে তদন্তের নির্দেশ দেন।

অভিযানকারী এসআই সাইফুল ইসলাম জানান, ভূক্তভোগী স্ত্রীকে উদ্ধার করতে গিয়ে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে নির্যাতনকারী  মো. আব্দুল্লাহ (৩৫) আগ্নেয়াস্ত্র ও কার্তুজ ফেলে পালিয়ে যায়।

টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাইন উদ্দিন জানান, স্ত্রীকে নির্যাতন করার সময় উদ্ধার করতে গিয়ে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে নির্যাতনকারী একটি আগ্নেয়াস্ত্র ও ৬ কার্তুজ ফেলে পালিয়েছে।

এঘটনায় টেকনাফ সাবরাং ইউনিয়নের নয়াপাড়া গোলাপাড়ার মৃত মহব্বত আলীর ছেলে মো. আব্দুল্লাহকে  আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।




পেকুয়ায় দেলু হত্যা মামলার আসামী গ্রেফতার

পেকুয়া প্রতিনিধি:
পেকুয়া হত্যা মামলার এক আসামীকে আটক করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভিস্টিগেশন (পিবিআই) কক্সবাজারের একটি টিম। আটককৃত আসামী উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য দেলোয়ার হোসেন প্রকাশ দেলু হত্যাকান্ডের অন্যতম আসামী সিহাব উদ্দিনকে (২৫)।

সোমবার ২০ ফেব্রুয়ারি দুপুর ১ টার দিকে উপজেলার মগনামা ইউনিয়নের শরতঘোনা এলাকা থেকে পিবিআই’এর পুলিশ পরিদর্শক মেজবাহ উদ্দিন খানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। সে একই এলাকার বদি আলমের পুত্র।

আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে পিবিআই কক্সবাজারের পুলিশ পরিদর্শক মেজবাহ উদ্দিন খান এ প্রতিবেদককে জানান, গত বছরের ২ ফেব্রুয়ারী রাতে রাজাখালী ইউনিয়নের নতুনঘোনা এলাকার মৃত আশকর আলীর ছেলে দেলোয়ার হোসেন প্রকাশ দেলু মেম্বারকে মুঠোফোনে ভোজনভোজে নিমন্ত্রণ জানিয়ে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে পরিকল্পিতভাবে কুপিয়ে হত্যা

এর পরেরদিন নিহতের পুত্র সালাহ উদ্দিন বাদি হয়ে পেকুয়া থানায় ১৮ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। যার নং-০২/১৬। ইতিপূর্বে এ মামলা পিবিআই এর কাছে তদন্তভার আসলে আমরা এজাহার নামীয় ২ আসামী ও তদন্তের ভিত্তিতে সিহাব উদ্দিনকে গ্রেফতার করি।




অপহরণকারীদের হাত থেকে পালিয়ে বাঁচলো মানিকছড়িতে অপহৃত যুবক

20.02.2017_Kidnaped NEWS Pic-02jpg

প্রতিবেদক, মাটিরাঙ্গা :

অপহরণকারীদের হাত থেকে পালিয়ে বাঁচলো মানিকছড়ি থেকে তিন দিন আগে অপহৃত যুবক সুমন নন্দী (২৮)। সে মানিকছড়ির রহমান নগরের মৃত শ্যামল নন্দীর ছেলে ও মোবাইল রিচার্জ ব্যাবসায়ী। সোমবার সন্ধ্যার দিকে অপহরণকারীদের হাত থেকে পালিয়ে মাটিরাঙ্গা থানায় গিয়ে আত্মরক্ষা করে সে।

অপহৃত যুবক সুমন নন্দীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, গেল শনিবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে মানিকছড়ি বাজার থেকে রহমান নগরের বাড়িতে যাবার পথে অজ্ঞাতনামা চার উপজাতীয় যুবক তাকে অস্ত্রের মুখে তুলে নিয়ে যায়। অপহরনের পর অপহরণকারীরা তাকে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে গিয়ে কোমরে রশি দিয়ে বেঁধে রাখে। পরে সোমবার জায়গা বদলের সময় মাটিরাঙ্গা বাজারে একটি সিএনজিতে উঠানোর সময় তাদের হাত থেকে দৌড়ে পালিয়ে এক ব্যবসায়ীর সহায়তা চাইলে ঐ ব্যবসায়ী মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশকে জানালে পুলিশ তাকে থানা হেফাজতে নিয়ে যায়।

অপহরণকারীরা তার কাছে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবী করেছে জানিয়ে সে বলে চাঁদা না দিলে তাকে মেরে ফেলারও হুমকি দেয় অপহরণকারীরা। তবে কে বা কারা তাকে অপহরণ করেছে সে তাদেরকে চিনতে পারেনি। তবে অপহরণকারীদের একজনকে দেখলে চিনতে পারবে বলেও জানায় সুমন নন্দী।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সাহাদাত হোসেন টিটো বলেন, ছেলেটি স্থানীয় এক ব্যবসায়ীর মাধ্যমে পালিয়ে আত্মরক্ষা করে। অপহৃত যুবকের বিষয়ে মানিকছড়ি থানা পুলিশের সাথে কথা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, অপহরণকারীদের হাত থেকে বেঁচে যাওয়া যুবককে মানিকছড়ি থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হবে।




চকরিয়ায় ২বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

চকরিয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের চকরিয়ায় পুলিশের অভিযানে আজিম উদ্দিন (৩৫) নামের ২বছর ২মাসের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক এক আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে চকরিয়া পৌর এলাকার মগবাজার স’মিলের সামনে থেকে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত আজিম উদ্দিন উপজেলার চিরিংগা ইউনিয়নের পালাকাটা ২নম্বর ওয়ার্ডের সোলতান আহমদের ছেলে।

চকরিয়া থানার উপ-পরিদর্শক( এস আই) মাজেদুল ইসলাম ও উপ-পরিদর্শক (এস আই) কাউচার উদ্দিন চৌধুরীর গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পৌরসভার মগবাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করেন।

গ্রেফতারকৃত আসামী আজিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে আদালতে জালিয়াতি ও প্রতারণা মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত হন এবং গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেন।

চকরিয়া থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এস আই) মাজেদুল ইসলাম বলেন, গ্রেফতারকৃত আসামী আজিম উদ্দিন মামলায় সাজা হওয়ার পর থেকে তিনি দীর্ঘদিন যাবত পলাতক ছিলেন। সর্বশেষ সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

চকরিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত)কামরুল আজম বলেন, পুলিশ আজিম উদ্দিন নামের ২বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হন। আদালতের মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হবে।




ত্রিপুরা কিশোরীর ধর্ষককে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতার করা না হলে কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি

Ramgarh 20.2.17 copy

রামগড় প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ির রামগড়ে উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকা রুপাইছড়িতে ত্রিপুরা কিশোরী ধর্ষণের ঘটনার প্রতিবাদে ও আসামী গ্রেফতারের দাবিতে সোমবার সচেতন পাহাড়ি শিক্ষার্থীর ব্যানারে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ(পিসিপি) ও হিল উইমেন ফেডারেশন(এইচ ডব্লিও এফ)। ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে আসামী গ্রেফতার না হলে কঠোর কর্মসূচি নেয়ার ঘোষণা দেয়া হয়েছে মানববন্ধন থেকে।

সোমবার সকাল পৌনে ১১টা হতে সোয়া ১১টা পর্যন্ত  রামগড় পৌর শহরের উপকণ্ঠে খাগড়াছড়ি সড়কের পাশে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। মানবন্ধনে বক্তব্য রাখেন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের রামগড় উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও রামগড় উপজেলার সচেতন শিক্ষার্থীর সমন্বয়ক নরেশ ত্রিপুরা, হিল উইমেন্স ফেডারেশনের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক রেশমী মারমা, নারী ও যৌন নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার সদস্য ও মহিলা ইউপি মেম্বার জয়া চাকমা ও মেরিনা চাকমা।

বক্তারা বলেন, উপজেলার রামগড় ইউনিয়নের প্রত্যন্ত পাহাড়ি পল্লী রুপাইছড়ির স্কুল পাড়ার বাসিন্দা সম্ভা চরণ ত্রিপুরার ১৫ বছর বয়সী কিশোরীকে দুই রাত একদিন আটকে রেখে পালাক্রমে ধর্ষণ করা হয়। এ ঘটনায় থানায় মামলা হওয়ার ৩ দিন অতিবাহিত হলেও ধর্ষণকারী হাসানসহ ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করা হয়নি। মানববন্ধন থেকে ধর্ষণ মামলার আসামীকে আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতারের আল্টিমেটাম দিয়ে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়, অন্যথায় কঠোর কর্মসূচি নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত শনিবার (১৮ ফেব্রুয়ারী) উপজেলার রুপাইছড়ির স্কুল পাড়ার বাসিন্দা সম্ভা চরণ ত্রিপুরার  থানায় দায়ের করা মামলায় অভিযোগ করেন, বুধবার গভীর রাতে পার্শ্ববর্তী এলাকা খাগড়াবিলের হানিফ বাচ্চুর ছেলে মো. হাসান(২৫) জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যায়। রুপাইছড়ির জঙ্গলে নিয়ে হাত পা বেঁধে দুদিন ধরে তাকে ধর্ষণ করে হাসান। শুক্রবার ভোর বেলায় সে বাড়ি ফিরে এসে বাবা, মা ও আত্মীয়-স্বজনদের ঘটনাটি জানায়। ধর্ষণের ঘটনায় ওই কিশোরী বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। অপহরণপূর্বক ধর্ষণের সংশ্লিষ্ট ধারায় দায়ের করা মামলায় হাসানকে আসামী করা হয়।

অভিযুক্ত হাসানের সাথে সম্পর্কের তথ্য অনিকার খালু নবরায় মেম্বারের :

পার্বত্যনিউজডটকম-এ ১৮ ফেব্রুয়ারি প্রকাশিত ‘রামগড়ে কথিত ধর্ষণের শিকার ত্রিপুরা কিশোরীর আত্মহত্যার চেষ্টা’ শীর্ষক সংবাদে উল্লেখিত ধর্ষিতা কিশোরীর সাথে ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত মো. হাসানের দীর্ঘদিনের সম্পর্ক থাকার  তথ্যের নিন্দা জানিয়ে মানববন্ধন থেকে বলা হয়, উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে এটি প্রকাশ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে পার্বত্যনিউজের প্রতিনিধির বক্তব্য : ধর্ষিতার সাথে হাসানের সর্ম্পক থাকার তথ্য ধর্ষিতা অনিকা ত্রিপুরার আপন খালু  ১ নং রামগড় ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের মেম্বার নবরায় ত্রিপুরার । ১৮ ফেব্রুয়ারি  বেলা ১ টা ২৮ মিনিটে  ধর্ষণ ও বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টার ঘটনা সম্পর্কে তথ্যের জন্য ইউপি মেম্বার নবরায় ত্রিপুরার সাথে মোবাইল ফোনে কথা হয় পার্বত্যনিউজডট কম প্রতিনিধির। তার সাথে ৬ মিনিট ৫৭ সেকেন্ড কথোপকথনে (বয়েজ রেকর্ড সংরক্ষিত) ইউপি মেম্বার নবরায় ত্রিপুরা বলেছেন, ‘অনিকা ত্রিপুরা আমার আপন শালার মেয়ে। ঘটনার পর আমরা পরস্পর আলাপ আলোচনায় জানতে পেরেছি  হাসানের সাথে অনিকার দীর্ঘদিনের সম্পর্ক আছে। তিনি আরও বলেছেন, তাকে জোর করে তুলে নিয়ে গেছে বলে অনিকা বললেও আমরা তার এ কথা বিশ্বাস করি না। আমাদের সমাজও তার এ কথা মানে না।’ নবরায় ত্রিপুরার উদ্ধৃতি দিয়েই প্রকাশিত সংবাদে এ তথ্য পরিবেশন করা হয়েছে। পার্বত্যনিউজডটকম কিংবা দৈনিক ইত্তেফাকের নিজস্ব কোন বক্তব্য এটি নয়। কাজেই উদ্দেশ্য প্রণোদিত হয়ে এ সংবাদ প্রকাশ করার অভিযোগ অমূলক।

 




খাগড়াছড়িতে শিক্ষকের মোটরসাইকেল চুরির ঘটনায় ছাত্র আটক

Khagrachari Picture 02 copy

নিজস্ব প্রতিবেদক,খাগড়াছড়ি:

খাগড়াছড়িতে শিক্ষকের মোটরসাইকেল চুরির ঘটনায় ছাত্র মো. রবিউল ইসলামকে(২২) আটক করেছে পুলিশ। সেই সাথে সোমবার ভোর রাতে উদ্ধার করা হয়েছে চুরি হওয়া মোটরসাইকেল ও মোটরসাইকেল চুরির বিভিন্ন সরঞ্জাম। পুলিশের দাবি রবিউল ইসলাম সংঘবদ্ধ মোটরসাইকেল চোর চক্রের সদস্য।

খাগড়াছড়ি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জ্ঞান জ্যোতি চাকমা জানান, ৬ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৭টার দিকে তিনি মোটরসাইকেল নিয়ে খাগড়াছড়ি শহরের মিলনপুরের বাসায় ঢুকেন। রাত ১০টার দিকে দেখেন মোটরসাইকেলটি নেই। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও না পেয়ে ১৬ ফেব্রুয়ারি খাগড়াছড়ি সদর থানায় মামলা করেন।

খাগড়াছড়ি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তারেক মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান জানান, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে তার নেতৃত্বে এসআই আব্দুল আল মাসুদসহ পুলিশের একটি দল মোটরসাইকেলসহ মোটরসাইকেল চোর চক্রের সদস্য রবিউল ইসলামকে আটক করা হয়েছে।

এসআই আব্দুল আল মাসুদ জানান, প্রযুক্তি ব্যবহার ও গুপ্তচর নিয়োগের মাধ্যমে রবিবার রাত ১২টার দিকে অভিযান শুরু হয়। ভোর ৪টার দিকে খাগড়াছড়ি শহরের নয়নপুর এলাকা থেকে মোটরসাইকেলসহ রবিউল ইসলামকে আটক করতে সক্ষম হয়।

এ সময় তার কাছ থেকে মোটরসাইকেলের নাম্বার প্লেট, নকল চাবি ও মোটরসাইকেল চুরির বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে।

রবিউল ইসলাম চুরির ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ওইদিন তার স্কুল শিক্ষক বাসায় ঢুকার পরপরই সে মোটরসাইকেলটি চুরি করে নিয়ে যায়। এর পর নাম্বার পরিবর্তন করে ব্যবহারা শুরু করে। এর আগেও সে আরও বেশ কয়েকটি মোটরসাইকেল চুরির পর অন্যত্র বিক্রি করে দেয় বলেও জানায়।

খাগড়াছড়ি সরকারী সহকারী শিক্ষক জ্ঞান জ্যোতি চাকমা উদ্ধার হওয়া মোটরসাইকেলটি সনাক্ত করে বলেন, মাত্র কয়েক দিন আগে দুই লাখ টাকা দিয়ে পালসার মোটরসাইকেলটি কিনে ছিলেন। নিজের ছাত্র এভাবে মোটরসাইকেলটি চুরি করবে তা কল্পনা করতেও কষ্ট হচ্ছে।

পুলিশের একটি সূত্র জানায়, খাগড়াছড়িতে গত দুই বছরে অন্তত তিন ডজন মোটরসাইকেল চুরির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বেশ কয়েকটি হত্যাকাণ্ডও ঘটেছে। তবে উদ্ধার হয়েছে খুব কম সংখ্যক।




মহালছড়িতে মৎস উন্নয়ন কর্পোরেশন কতৃক কাপ্তাই লেকে অবৈধ জাক অপসারণ অভিযান 

16837761_749488048561414_696401799_n copy

মহালছড়ি, প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার মহালছড়ি উপজেলায় সোমবার মহালছড়ি বাংলাদেশ মৎস উন্নয়ন কর্পোরেশন কতৃক কাপ্তাই লেকে অবৈধ জাক অপসারণ অভিযান চালায়।

সোমবার বেলা ১১ টার সময় মহালছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আব্দুল মোমিন উপস্থিত থেকে অবৈধ জাক অপসারণ অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযান পরিচালনার সময়ে ১০টি ছোট বড় অবৈধ জাক অপসারণ করেন। জাক অপসারণ অভিযান শেষে মহালছড়ি বাজারে এসে জালের দোকানে অভিযান চালিয়ে বেশ কিছু কারেন্ট জাল জব্দ  করে।

এসময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে দুইটি জালের দোকানে অবৈধ জাল রাখার জন্য মোট ৫ হাজার টাকা আর্থিক জরিমানা করে। পরবর্তীতে জব্দকৃত এসব কারেন্ট জাল উপজেলা নির্বাহী অফিসারের উপস্থিতিতে পুড়িয়ে নিষ্ক্রিয় করা হয়।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন মহালছড়ি উপজেলা মৎস কর্মকতা শেখ মো. এরশাদ বিন শহীদ, মহালছড়ি মৎস উন্নয়ন কর্পোরেশনের ইনচার্জ মো. নাসরুউল্লা আহমেদ সহ স্থানীয় গণমাধ্যম ব্যক্তিবর্গ।




সাজেকে ইউপিডিএফ’র চাঁদাবাজ হাতেনাতে আটক

DSCN1020 copy

সাজেক প্রতিনিধি:

রাঙ্গামাটি সাজেকের উজোবাজারস্থ দুইপথা নামক এলাকা থেকে চাঁদা আদায়ের সময় ইউপিডিএফ’র কালেক্টর অনুপম চাকমা(৪০)কে আটক করেছে নিরাপত্তা বাহিনী।

নিরাপত্তাবাহিনী সূত্রে জানা যায়, সোমবার দিন গংগারাম মুখের উজোবাজারে হাটের দিন থাকায় খুচরা ও পাইকারী ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে চাঁদা আদায়ের জন্য দুইপথা নামক এলাকাতে অবস্থান করছে।

এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সকাল ১১টায় নিরাপত্তা বাহিনী অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে, এসময় তার কাছে চাঁদা আদায়ের ১৪টি রশিদবই, ২টি মোবাইল, যুবফোরামের ৭টি পোস্টার, ও নগদ ৬৩২৬টাকা পাওয়া যায় এবং অনুপম চাকমা নিজেকে ইউপিডিএফ’র কালেক্টর বলে স্বীকার করেছে বলেও জানায় সূত্রটি।

অনুপম চাকমা সাজেকের রেতকাবা মুখের লক্ষীধন চাকমার ছেলে বলে জানা যায়।

অনুপম চাকমার নামে বাঘাইহাট এলাকায় ব্রাশ ফায়ার করে সরকারী দায়িত্ব পালনে বাধা, প্রাণনাশের হুমকি, ক্ষয়ক্ষতির চেষ্টা, ভীতি প্রদর্শন এবং গংগারাম এলাকায় প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিভিন্ন ধরনের উষ্কানীমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে সাজেক থানায় দুইটি মামলা রয়েছে বলেও জানা গেছে।

স্থানীয় একটি সূত্র জানায়, সে দীর্ঘদিন যাবৎ গংগারাম এলাকায় ইউপিডিএফ’র চাঁদা আদায় করে আসছে। তবে এ বিষয়ে ইউপিডিএফ’র সাজেক শাখার সমন্বয়ক জুয়েল চাকমার সাথে মোবাইলে একাধিকবার কল করেও কল না ধরায় যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে সাজেক থানার অফিসার ইনচার্জ নুরুল আনোয়ার বলেন, অনুপম চাকমা ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী তার বিরুদ্ধে সাজেক থানায় দুইটি ও দীঘিনালা থানায় একটি মামলা রয়েছে, তাকে দীর্ঘদিনধরে খুঁজছিল পুলিশ। তার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি।