image_pdfimage_print

খাগড়াছড়িতে পুলিশের বাধায় যুবদলের বিক্ষোভ সমাবেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক, খাগড়াছড়ি:

খাগড়াছড়িতে পুলিশের বাধায় যুবদলের বিক্ষোভ সমাবেশ হয়েছে। কেন্দ্রীয় যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকুর বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টায় দলীয় কার্যালয় থেকে খাগড়াছড়ি জেলা যুবদলের উদ্যোগে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিল মূল সড়কের উপর উঠার আগে পুলিশ বাধা দিলে তারা সেখানে সমাবেশ করে।

খাগড়াছড়ি জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম সবুজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি প্রবীন চন্দ্র চাকমা ও জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম খলিল।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি কংচাইরী মাস্টার, যুগ্ম সম্পাদক এডভোকেট আব্দুল মালেক মিন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক এমএন আবছার ও আব্দুর রব রাজাসহ বিএনপি ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

আলীকদমে গয়ামঝিরি বিদ্যালয় ভাঙনের কবলে

আলীকদম প্রতিনিধি:

আলীকদম উপজেলায় ২০১৩ সালে নির্মিত গয়ামঝিরি পঞ্চবিহারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ভাঙনের কবলে পড়ে বিলীন হওয়ার উপক্রম হয়েছে। ১৫০০ বিদ্যালয়বিহীন এলাকায় স্কুল নির্মাণ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) বিদ্যালয়টি নির্মাণ করে। বর্তমানে সেখানে শ্রেণি কার্যক্রম চলছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার নয়াপাড়া ইউনিয়নের গয়ামঝিরির পাশ ঘেঁষে অপরিকল্পিতভাবে স্থান নির্ধারণ করে বিদ্যালয়টি নির্মিত হয়। নির্মাণ ব্যয় ছিল প্রায় ৬১ লাখ টাকা। বিদ্যালয় নির্মাণকালে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে উঠে নানা অভিযোগ। গতবছর এবং চলতি বর্ষায় প্রবল বর্ষণে গয়ামঝিরির স্রোত বেড়ে যাওয়ায় বিদ্যালয়ের পাশে ভাঙন দেখা দেয়। বর্তমানে ভাঙন বিদ্যালয়ের পূর্ব পাশের ৪/৫ ফুটের মধ্যেই চলে এসেছে।

নয়াপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান ফোগ্য মারমা জানান, পার্বত্য প্রতিমন্ত্রীর নির্দেশে তিনি এবং এলজিইডির একজন প্রকৌশলী বুধবার বিদ্যালয়ের ভাঙন এলাকা পরিদর্শন করেন। তবে জরুরী ভিত্তিতে ভাঙন রোধের জন্য কোন অর্থ বরাদ্দ হাতে নেই।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আলমগীর জানান, ভাঙন নিয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষক, অভিভাবক ও ছাত্র-ছাত্রী শঙ্কিত হয়ে পড়েছে। তিনি কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

উপজেলা প্রকৌশলী হেলাল রহমান জানান, বুধবার উপজেলা মাসিক উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভায় এ বিদ্যালয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। অর্থবছর শেষ হওয়ায় কোন বরাদ্দ হাতে নেই। তারপরও ভাঙন রোধে চেষ্টা করা হচ্ছে।

পেকুয়ায় পল্লী বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে এক যুবকের মর্মান্তিক মৃত্যু

পেকুয়া প্রতিনিধি:

পেকুয়ায় পল্লী বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে এক যুবকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। ২৬ জুলাই রাত সাড়ে ৯ টায় উপজেলার বারবাকিয়া ইউনিয়নের ভারুয়াখালী এলাকায় এঘটনা ঘটে। মৃত ব্যক্তি ওই এলাকার আব্দুল কাদেরের পুত্র আজিম উদ্দিন (৩২)।

বারবাকিয়া ইউপির সদস্য এনাম ঘটনার সত্যতা জানিয়ে বলেন, আজিম বারবাকিয়া বাজার থেকে বাশঁ কিনে পানি দিয়ে বাড়ি ফিরছিল। পথে নাজিরমোরা এলাকায় পল্লী বিদ্যুতের একটি তার পানিতে পড়ে ছিল, ওই পল্লী বিদ্যুতের তারে স্পর্শ লাগলে ঘটনাস্থলে সে প্রাণ হারায়।

এব্যাপারে পেকুয়া পল্লী বিদ্যুতের অফিস ইনচার্জ খোরশেদ আলমের সাথে কথা হলে তিনি বিষয়টি জানেন না বলে জানান।

রামুতে কমছে পানি বেড়েছে দূর্ভোগ: সড়ক ভেঙ্গে তছনচ


রামু প্রতিনিধি :
রামু উপজেলার বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হলেও বেড়েছে জনদূর্ভোগ। পানিতে একাকার হওয়া শতশত বসত ঘরে এখনো জ্বলছে না চুলা। এসব এলাকায় খাবার সংকটও বিরাজ করছে। অন্যদিকে বন্যায় প্রধান সড়ক সহ গ্রামীন সড়কগুলো ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। পানি কমার সাথে সাথে ভেসে উঠছে সড়কের বিশাল ক্ষত।

বুধবার (২৬ জুলাই) সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে, রাজারকুল ইউনিয়নের শর্মা পাড়ায় দুদিনে বাঁকখালী নদীগর্ভে তলিয়ে গেছে অন্তত ১৫টি বসত বাড়ি। বসতি হারিয়ে ওইসব পরিবারের সদস্যরা বর্তমান চরম মানবেতর সময় পার করছে। এমন দূর্দিনে তাদের পাশে কেউ সহযোগিতার হাত বাড়ায়নি বলেও অভিযোগ করে ক্ষতিগ্রস্ত এসব পরিবারের সদস্যরা।

রামুর অফিসেরচর এলাকায় আলহাজ্ব ফজল আম্বিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে ফের বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে তলিয়ে গেছে রামু-মরিচ্যা সড়কের একাংশ। সড়কের ওই অংশে বড় বড় গর্ত হওয়ায় সেখানে পানি জমি গিয়ে যান চলাচল ঝূঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। রাজারকুল-চেইন্দা সড়কের সিকদার পাড়া অংশে সড়কে বিশাল ভাঙ্গনের ফলে ওই সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। একারনে হাজার হাজার মানুষ চরম দূর্ভোগে পড়েছে।

কয়েকদিনের টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে সৃষ্ট বন্যায় রামু উপজেলার ১১ ইউনিয়নে অসংখ্য গ্রামীন সড়ক তছনছ হয়ে গেছে।

এসব ইউনিয়নে গতকাল বুধবারও হাজার হাজার পরিবার পানিবন্দি ছিলো। বাঁকখালী নদীতে পানি কমলেও নিচু এলাকায় এখনো পানি নামেনি। ফলে এসব এলাকায় জলাবদ্ধতার কারনে মানুষের চলাচল ও স্বাভাবিক কর্মকান্ড বিঘিœত হচ্ছে।

এছাড়া রামুর দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউনিয়নের আবু বকর বাপের পাড়া, পূর্ব রাজারকুল, ফতেখাঁরকুল ও কাউয়ারখোপ ইউনিয়নে নদী ভাঙ্গন তীব্র আকার ধারন করেছে।

কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল জানিয়েছেন, ১৫দিনের ব্যবধানে আবারো বন্যায় রামু-কক্সবাজারের অধিকাংশ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। অসংখ্য বসতবাড়ি ও সড়ক এখনো পানির নিচে। দরিদ্র মানুষের দূর্ভোগ লাঘবে তাৎক্ষনিকভাবে ব্যক্তিগত উদ্যোগে ত্রান ও নগদ অর্থ সহায়তা দেয়া হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে সরকারিভাবে ক্ষতিগ্রস্তদের পর্যাপ্ত ত্রাণ দেয়া হবে। ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক ও অন্যান্য স্থাপনা সংস্কারের উদ্যোগ নেয়া হবে। তিনি বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে সহায়তার হাত বাড়ানোর জন্য বিত্তবান ব্যক্তিসহ সকলের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।

পেকুয়ায় মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য বিক্রয় করার দায়ে অর্থ দন্ড

পেকুয়া প্রতিবিধি:
পেকুয়া উপজেলার সদরের চৌমুহুনী এলাকায় মেয়াদ উত্তীর্ণ খাবার ও ভেজাল পণ্য বিক্রয় করার দায়ে দু দোকানে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ ছাড়াও চৌমুহনী স্টশনে রাস্তার উপর গাড়ী পার্কিং করে যানযট সৃষ্টি করার দায়ে তিনটি সি এন জি অটোট্রেক্সীকে ৯ শত টাকা করে জরিমানা করা হয়।

২৬ জুলাই দুপুর দেড়টায় উপজেলার কলেজ গেইট চৌমুহনী এলাকায় এ অভিযান পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) সালমা ফেরদৌস। এ সময় অভিযানে উপস্থিত ছিলেন পেকুয়া থানার এস আই বিপুল, এস আই ফরহাদ, উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর প্রধান সহকারী সামশুল হুদা ছিদ্দিকী।

অভিযানে মধুবন পেকুয়া শাখা কে মেয়াদ উত্তীর্ণ পন্য বিক্রয় করার দায়ে ৫ হাজার টাকা, নিম্নমানের সয়াবিন তৈল বিক্রয় করার দায়ে ভাই ভাই স্টোর নামে এক মুদির দোকানকে ১০ হাজার টাকা। এসময় দোকানের ৩০ লিটার নিম্নমানের সয়াবিন তৈল এবং মধুবনের মেয়াদ উত্তীর্ণ দই, কেকসহ নানা ধরণের খাদ্যপন্য ধবংস করা হয়।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) সালমা ফেরদৌস এ প্রতিবেদককে জানান ভেজালরোধে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান অব্যাহত থাকবে একই সাথে যানযট নিরসনের উদ্যোগ ও নেওয়া হয়েছে।

আইনজীবী ইমতিয়াজ মাহমুদ হাইকোর্ট থেকে ৫৭ ধারার মামলায় আগাম জামিন নিয়েছেন

নিজস্ব প্রতিবেদক:

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারায়  দায়ের করা এক মামলায় সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ইমতিয়াজ মাহমুদকে জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। পুলিশ প্রতিবেদন দেওয়ার আগ পর্যন্ত তার আগাম জামিন মঞ্জুর করেন আদালত। মঙ্গলবার (২৫ জুলাই) বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি কৃষ্ণা দেবনাথের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ, ফিদা এম কামাল, এ এম আমিন উদ্দিন, ব্যারিস্টার তানজিব উল আলম ও ব্যারিস্টার মোস্তাফিজুর রহমান খান।

গত শুক্রবার বিকালে শফিকুল ইসলাম নামে খাগড়াছড়ির এক বাসিন্দা ইমতিয়াজের বিরুদ্ধে বিতর্কিত ৫৭ ধারায় মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার এজহারে উল্লেখ করা হয়েছে, “সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ইমতিয়াজ মাহমুদ সম্প্রতি তার ফেইসবুক আইডিতে পাহাড়ের ইস্যুতে নানা মন্তব্য করেছেন। এর মাধ্যমে পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাসকারী মধ্যে সাম্প্রদায়িক উস্কানি ছড়ানো হয়েছে। বাঙালি জাতিকে হেয় করে সেটলার আখ্যায়িত করা হয়েছে।।”

আইনজীবী ইমতিয়াজের পোস্টগুলো ‘পাহাড়ে দাঙ্গা’ লাগানোর জন্য পরিকল্পিত বলেও অভিযোগ করেন বাদী শফিকুল।

কুতুবদিয়ায় উচ্চ মাধ্যমিকে সেরা সাবরিনা

কুতুবদিয়া প্রতিনিধি:

সদ্য প্রকাশিত এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় কেউ জিপিএ-৫ পায়নি কুতুবদিয়া উপজেলায়। ফলাফল বিপর্যায়েও  সেরা ফলাফল করেছে সাবরিনা সুলতানা ডলি।

একটি সরকারি কলেজ, দু’টি মাদ্রাসা ও একটি টেকনিক্যাল কলেজ থেকে মোট ৪৮৫জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়ে পাশ করেছে ২০৫জন। এর মধ্যে সর্বোচ্চ জিপিএ পয়েন্ট ৪.৮৩ পেয়েছে কুতুবদিয়া টেকনিক্যাল ও বিএম কলেজের ছাত্রী সাবরিনা সুলতানা ডলি। সে উপজেলার ধুরুং বাজারের হোটেল ব্যবসায়ী মানিক সওদাগরের মেয়ে। ৭ বোনের মধ্যে ডলি ৩য়। পরীক্ষার মাত্র এক মাস আগেই তার বিয়ে হয়।

কলেজের শিক্ষকরা মনে করেন পরীক্ষার আগে তার বিয়ে না হলে জিপিএ-৫ অর্জন করতে পারতো সে।

 

খাগড়াছড়িতে ইয়াবা সহ একজন আটক 

 

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ি সদরের গোলাবাড়ির টিটিসি মোর এলাকা থেকে ২৪ পিস ইয়াবা সহ ইয়াবা ব্যবসায়ী একজনকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার সন্ধা সাড়ে ৬টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ইয়াবা সহ একজনকে আটক করে।

আটককৃত মাদক ব্যবসায়ী হলেন গোলাবাড়ি এলাকার থৈয়ংগ্য মারমার ছেলে থইলা মারমা প্রকাশ ( জসিম)। জানা গেছে থইলা মারমা স্থানীয় মারমা ঐক্যপরিষদ ক্লাবে জুয়া বোর্ড পরিচালনা করেন।

খাগড়াছড়ি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তারেক মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান জানান, সংবাদ পেয়ে এসআই আব্দুল্লাহ আল মাসুদের নেতৃত্বে কয়েকজন পুলিশ অভিযান চালিয়ে ইয়াবা সহ থইলাকে টিটিসির মোর থেকে আটক করে। সে দীর্ঘদিন থেকে মাদক ব্যবসার সাথে জরিত বলেও জানিয়েছেন তিনি।

কুতুবদিয়া হাসপাতালে ৪ ধাত্রী নার্সের যোগদান

 

কুতুবদিয়া প্রতিনিধি:

কুতুবদিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আরো ৪ সিনিয়র নার্স যোগদান করেছেন। তারা ডেলিভারিতে বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত হয়ে একটি প্রকল্পের অধিনে কাজ করবেন।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, আগে যোগদানকৃত ১২ নার্স রয়েছে। সম্প্রতি ঘুর্ণিঝড় মোরা’য় আঘাতের পর একটি প্রকল্পের বিশেষ টিম হিসেবে ডেলিভারিতে  ধাত্রী নার্স দেয়া হয়েছে। তারা প্রাথমিক পর্যায়ে ৪ মাস থাকবেন। নিয়মিত সাধারণ ডেলিভারির দায়িত্বের পাশা পাশি অন্য সেবাও দেবেন। এর আগে হাসপাতালে ডেলিভারি রোগীদের সেবা দেয়া হলেও ঝুঁকিপূর্ণ নরমাল ডেলিভারি করানো সম্ভব হতো না। এখন সে সেবাটাও নিয়মিত পাবে রোগীরা।

এ জন্যে লেবার রুম সহ আনুসাঙ্গিক যন্ত্রপাতিও প্রস্তুত। যোগাযোগ-যাতায়াত ব্যবস্থার অপ্রতুল দ্বীপে সাধারণ রোগীর পাশাপাশি গর্ভবর্তী রোগীদের ডেলিভারির পূর্ণ নিশ্চয়তা দেওয়া যেতনা অনেক সময়। এ ৪ নার্স যোগদানের পর সে ভোগান্তি দূর হবে বলে মনে করেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। পালাক্রমে দিবা-রাত্রি সেবা দিবেন তারা।

হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মো. জয়নুল আবেদীন বলেন, ধাত্রী বিদ্যায় বিশেষ প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত ৪জন নার্স যোগদান করায় প্রত্যন্ত অঞ্চলের গর্ভবর্তী মহিলাগণ চিকিৎসকের পরামর্শে এখন কুতুবদিয়া হাসপাতালে ২৪ ঘন্টা নিরাপদ ডেলিভারি করানোর সুযোগ পাবে সম্পূর্ণ বিনা পয়সায়। এ ছাড়া আনুসাঙ্গিক অতি প্রয়োজনীয় ঔষধ সেবাও পাবেন তারা। প্রাথমিক পর্যায়ে ধাত্রী নার্সগণ ৪ মাসের জন্য এলেও প্রয়োজনে এসময় বাড়ানো হতে পারে বলে তিনি জানান।

বর্ণাঢ্য আয়োজনে মানিকছড়িতে উদ্বোধন হলো মাসব্যাপী ‘বঙ্গবন্ধু’ ফুটবল টুর্নামেন্ট

 

মানিকছড়ি প্রতিনিধি:

বর্ণাঢ্য আয়োজনে মানিকছড়িতে মাসব্যাপী ‘বঙ্গবন্ধু’ ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০১৭ বুধবার বিকাল সাড়ে ৩টায় উদ্বোধন করা হয়েছে।

১নং মানিকছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে এবং উপজেলার ঐতিহ্যবাহী ক্রীড়া সংগঠন ‘একতা যুব সংঘে’ সার্বিক ব্যবস্থাপনায় অনুষ্ঠিত ‘বঙ্গবন্ধু’ ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০১৭ এর উদ্বোধন উপলক্ষে বুধবার বিকালে সরকারি হাই স্কুল মাঠে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয় উদ্বোধন।

ওই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী। অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদ সদস্য এমএ. জব্বার, জেলা পরিষদ সদস্য ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক জুয়েল চাকমা, উপজেলা চেয়ারম্যান ম্রাগ্য মারমা, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগ নেতা এমএ. রাজ্জাক, অফিসার ইনচার্জ মো. মাইন উদ্দীন খান, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. সফিউল আলম চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও যোগ্যাছোলা ইউপি চেয়ারম্যান মো. জয়নাল আবেদীন,  উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি ও তিনটহরী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আতিউল ইসলাম, জেলা সনাতন সমাজ কল্যাণ পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সজল বরণ সেন, খেলা পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক ও ইউপি চেয়ারম্যান মো. শফিকুর রহমান ফারুক, সদস্য সচিব ও প্রেসক্লাব সেক্রেটারী মো. মাঈন উদ্দীন ও বাটনাতলী ইউপি চেয়ারম্যান মো. শহীদুল ইসলাম মোহন প্রমুখ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অশ্বরোহী ও ব্যান্ডদলের মাঠ প্রদর্শনীর সাথে সাথে ছোট ছোট শিশুরা বিশাল জাতীয় পতাকা নিয়ে মাঠে উপস্থিতি ছিল লক্ষনীয়। প্রধান অতিথিকে স্বাগত জানানোর মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনীতে প্রধান অতিথি কংজরী চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ সৃষ্টির পর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান প্রথমে ক্রীড়ার মান উন্নয়নে নানামুখী উদ্যোগ গ্রহণ করেন। যা আজো জাতি শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছে। সে থেকেই ধীরে ধীরে খেলাধূলা তৃণমূলে ছড়িয়ে পড়ছে। আজ আমরা ক্রিকেটে বিশ্ব নন্দিত দেশ হিসেবে স্কীকৃতি অর্জন করতে সক্ষম হয়েছি। তাই খেলাধূলার উন্নয়নে জেলা পরিষদ সব সময় ক্রীড়ামুখি মানুষের পাশে থাকছে এবং থাকবে।

পরে অতিথির উপস্থিতিতে জাতীয় সংগীত পরিবেশন শেষে শান্তির প্রতিক পায়রা উড়িয়ে তিনি খেলা উদ্বোধন করেন। খেলায় দূড়ন্ত মুসলিম পাড়া একাদশকে ১-০ গোলে হারিয়ে ২য় রাউন্ডে উঠেছে গচ্ছাবিল একাদশ। খেলা পরিচালনায় ছিলেন প্রধান রেফারি মো. মোশারফ হোসেন মজনু. সহকারী ছিলেন, মো. আশরাফুল ইসলাম ও মো. আবদুল আউয়াল এবং ৪র্থ রেফারি ছিলেন মো. হোসেন।

উল্লেখ্য যে এবারের আসরে ২২টি দল অংশ গ্রহণ করছে।