মহেশখালী উপজেলা বিএনপির সাংবাদিক সম্মেলন


 

মহেশখালী প্রতিনিধি:

বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনের সাবেক এমপি আলহাজ্ব আলমগীর মুহাম্মদ মাহফুজউল্লাহ ফরিদ বলেন, বিএনপির বিভিন্ন কর্মসূচিতে জনবিচ্ছিন্ন আওয়ামী ফ্যাসিবাদী সরকার পুলিশ বাহিনী লেলিয়ে দিয়ে চরমভাবে রাজনৈতিক ও নাগরিক অধিকার ক্ষুন্ন করছে। দেশের সার্বিক পরিস্থিতি এখন কোন পর্যায়ে চলে গেছে তা সাধারণ জনগণ জানে। সাহস থাকলে নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে একবার নির্বাচন দিয়ে তারা প্রমাণ করুক তাদের জনপ্রিয়তা এখন কোথায়?

মহেশখালী উপজেলা বিএনপির উদ্যোগে গতকাল বিকেলে মহেশকালী প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত সাংবাদিক সম্মেলনে সাবেক এমপি আলমগীর ফরিদ এসব কথা বলেন।

উপজেলা বিএনপির সভাপতি রুহুল কাদের বাবুলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করে মহেশখালী উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এড. সিরাজুল হক রানা বলেন, মহেশখালীতে বিএনপির সব রকম রাজনৈতিক কার্যকলাপে স্বৈরাচারী আওয়ামী সরকার পুলিশ বাহিনী লেলিয়ে দিয়ে নির্লজ্জভাবে হস্তক্ষেপ ও বাধা প্রদান করে চলেছে।

দেশের সর্ববৃহৎ নিবন্ধিত একটি রাজনৈতিক ও শান্তিপ্রিয় দলের নিয়মিত রুটিন ওয়ার্কে ক্রমাগত বাধার সৃষ্টি করে সরকারি দল চরম অগণতান্ত্রিক ও ফ্যাসিবাদী মানসিকতার বহিপ্রকাশ ঘটিয়েছে। যা জনগণকে হতাশ ও বিক্ষুব্ধ করে তুলেছে। বিএনপির সাংগঠনিক স্তম্ভ মহেশখালী-কুতুবদিয়ার মাটি ও মানুষের প্রিয় নেতা ও সাবেক এমপি আলমগীর ফরিদের জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে অবৈধভাবে ক্ষমতাসীন বাকশালী চক্র বারবার রাজনৈতিক ও নাগরিক অধিকার চরমভাবে ক্ষুন্ন করেছে। বিএনপির বিভিন্ন কর্মসূচিতে তারা তাদের পোষ্য পুলিশ দিয়ে বিএনপির রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড ভণ্ডুল করেছে বারবার।

লিখিত বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, গত ২৭ আগস্ট বড় মহেশখালীতে বিএনপির সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন উপলক্ষ্যে আয়োজিত শান্তিপূর্ণ সভায় আকস্মিক পুলিশ হামলা চালায়। এ সময় উত্তপ্ত পরিস্থিতির সৃষ্টি হলে জনগণের প্রিয় নেতা আলমগীর ফরিদ শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখতে নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান। পাশাপাশি পুলিশ বাহিনীর এ ধরণের অন্যায় আচরণের দৃঢ়কন্ঠে প্রতিবাদ জানান। গত ৫ সেপ্টেম্বর বড় মহেশখালী ইউনিয়ন ছাত্রদলের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন ও কাউন্সিলেও পুলিশ অহেতুক ছাড়াও নেতাকর্মীদের উপর হামলা চালায় এবং সম্মেলন ভণ্ডুল করে দেয়।

সাংবাদিক সম্মেলনে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন- মহেশখালী পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন রতন, উপজেলা বিএনপির যুগ্ম-সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম সিরাজ, ছোট মহেশখালীর সাবেক চেয়ারম্যান সিরাজুল মোস্তফা, পৌর বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম কমিশনার, শ্রমিক নেতা হাবিব উল্লাহ হাবিব, বড় মহেশখালী বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব নুরুল আলম প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *